Thursday, December 8th, 2016
আপনার পছন্দের খাবারগুলো নেই তো এই তালিকায়!
December 8th, 2016 at 1:18 pm
আপনার পছন্দের খাবারগুলো নেই তো এই তালিকায়!

লাইফস্টাইল ডেস্ক: খাবার নিয়ে অনেকের পছন্দ-অপছন্দ রয়েছে। কিন্তু কিছু কিছু দেশে ভ্রমণে গেলে অনেকেই খেতে পারেন না তাদের পছন্দের খাবার। হয়তো স্ন্যাকস জাতীয় কিছু খেতে বসেছেন কিন্তু পারছেন না টমেটো সস দিয়ে খেতে, আবার রাস্তা দিয়ে হাঁটছেন পারছেন না চুইংগাম চিবুতে। কারণ এই জাতীয় খাবার নিষিদ্ধি করেছে কিছু কিছু দেশ। এক নজরে দেখে নিন কোন দেশে কী খেতে বারণ আর কেনোই বা খাবারটি খেতে বারণ করা হয়েছে।

1

সোমালিয়ায় সমুচা খেতে বারণ

বাংলাদেশসহ এশিয়ার অনেক দেশেই স্ন্যাকস জাতীয় খাবার হিসেবে সমুচা অনেক জনপ্রিয়। নানা রকম সবজি এবং মসলার সমন্বয়ে ময়দা দিয়ে তৈরি ত্রিকোনা আকৃতির এই স্ন্যাকসটি তেলে ভেজে তৈরি করা হয়। কিন্তু মজাদার এই সমুচাই নিষিদ্ধ করা হয়েছে আফ্রিকার দেশ সোমালিয়াতে। স্বাভাবিকভাবে প্রশ্ন আসতে পারে কেনো নিষিদ্ধ করা হলো মজাদার এ খাবারটি?

উত্তর- দেশটির জঙ্গি গোষ্ঠী আল শাবাবের কাছে মনে হয়েছে খাবারটি দেখতে খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের একটি প্রতীকের মতো। তাই তারা এই খাবারটি ২০১১ সালে নিষিদ্ধ ঘোষণা করে।

2

ফ্রান্সের লোকেরা খেতে পারে না টমেটো সস

আপনি হয়তো বার্গার নিয়ে বসেছেন নয়তো একটি গরম গরম স্যান্ডউইচ। এ সময় প্রথমেই আপনার ইচ্ছে করবে এর সঙ্গে একটু টমেটো সস নিয়ে খেতে। আর না পেলে হয়তো খাবারের তৃপ্তিটি অসম্পূর্ণই থেকে যাবে। কিন্তু যদি এই টমেটো সসই নিষিদ্ধ করা হয় তাহলে কেমন অনুভূতি হবে আপনার! এমনটি ঘটেছে ফ্রান্সে। দেশটিতে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে টমেটো সস খেতে বারণ ২০১১ সাল থেকে। তবে টমেটো সস খেতে কেনো বারণ করা হয়েছে তা জানা যায়নি। আরো পড়ুন-কী উপকার মধু-লেবু-পানির সংমিশ্রণে 

3

সিঙ্গাপুরে নিষিদ্ধ চুইংগাম

বাইরে হাঁটছেন মুখে কিছু নেই ভাবতেই কেমন ফাঁকা ফাঁকা লাগে। কিন্তু এই হাঁটার ফাঁকে মুখে একটি চুইংগাম মুখের মাংসপেশীর ব্যায়ামের পাশাপাশি দূর করে দুর্গন্ধও। কিন্তু পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার শহর হিসেবে খ্যাত সিঙ্গাপুরে গেলে আপনি পারবেন না চুইংগাম চিবুতে। ১৯৯২ সালে দেশটির সংবিধানের ৫৭ ধারায় চুইংগাম বহনে নিষেধাজ্ঞা জারি করে দেশটির প্রশাসন। তবে ২০০৪ সালে আন্তর্জাতিক চাপের মুখে শুধু মাত্র থেরাপিউটিক ডেন্টাল চুইংগাম বহনের উপর থেকে নিষেধাজ্ঞা শিথিল করে দেশটির আদালত।

4
ইউরোপে বন্ধ জেলি মিনি কাপ

ইউরোপের দেশগুলোতে মুখরোচক জেলি মিনি কাপ খাওয়া নিষিদ্ধ।

5

যুক্তরাজ্য-যুক্তরাষ্ট্রে ঘোড়ার মাংসে নিষেধাজ্ঞা

দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোতে সাধারণত ঘোড়ার মাংস খাওয়া হয় না। এসবের চল রয়েছে ইতালি এবং ইউরোপের কিছু কিছু দেশে। কিন্তু যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্রের রাজ্যগুলোতে ঘোড়াকে মেরে ফেলা কিংবা এর মাংস খাওয়া রীতিমতো গুরুতর অপরাধের শামিল। আর এর জন্য শাস্তি পেতে হয় অপরাধীকে। আরও পড়ুন- আপেলের পাঁচ ব্যবহার

6

যুক্তরাষ্ট্রে হ্যাগিস নিষিদ্ধ

হ্যাগিস হলো ভেড়ার কলিজা, ফুসফুস ও যকৃত এবং বিভিন্ন প্রকার মসলা দিয়ে তৈরি এক ধরনের খাদ্য। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্রে এই খাবারটি ৪০ বছরের বেশি সময় ধরে নিষিদ্ধ। তবে স্কচ জাতীয় মদ পানের পর এই খাবারটি ছাড়া চলেই না স্কটল্যান্ডের নাগরিকদের।

7

ভারতে নিষিদ্ধ গরুর মাংস

আমাদের প্রতিবেশী দেশ ভারতে নিষিদ্ধ করা হয়েছে গরুর মাংস। দেশটিতে গরুর মাংস খেলে তাকে ভোগ করতে হয় কঠিন শাস্তি। কারণ ধর্মীয় দৃষ্টিকোণ থেকে গরু তাদের কাছে একটি পবিত্র প্রাণী।

গ্রন্থনা: রাকিব


সর্বশেষ

আরও খবর

সিরিয়ায় আইএসের বিরুদ্ধে ইরাকের হামলা

সিরিয়ায় আইএসের বিরুদ্ধে ইরাকের হামলা


কিউবার নতুন প্রেসিডেন্ট মিগুয়েল ডিয়াজ ক্যানেল

কিউবার নতুন প্রেসিডেন্ট মিগুয়েল ডিয়াজ ক্যানেল


প্রবাসীদের ভোটাধিকার: দ্বৈত নাগরিকত্ব প্রধান সমস্যা

প্রবাসীদের ভোটাধিকার: দ্বৈত নাগরিকত্ব প্রধান সমস্যা


করের আওতায় আসছে সিএনজি-থ্রি হুইলার্স

করের আওতায় আসছে সিএনজি-থ্রি হুইলার্স


লন্ডনে গুরুত্বপূর্ণ ১৩ ফাইলে প্রধানমন্ত্রীর সই

লন্ডনে গুরুত্বপূর্ণ ১৩ ফাইলে প্রধানমন্ত্রীর সই


বিনামূল্যে চিকিৎসা পাবেন মুক্তিযোদ্ধারা

বিনামূল্যে চিকিৎসা পাবেন মুক্তিযোদ্ধারা


খালেদার সঙ্গে সাক্ষাতের অনুমতি পাননি ফখরুলরা

খালেদার সঙ্গে সাক্ষাতের অনুমতি পাননি ফখরুলরা


তুরস্কে আগাম নির্বাচনের ঘোষণা  

তুরস্কে আগাম নির্বাচনের ঘোষণা  


কিমের সঙ্গে সিআইএ প্রধানের  সাক্ষাত

কিমের সঙ্গে সিআইএ প্রধানের সাক্ষাত


মিয়ানমারের সেনাবাহিনীকে কালো তালিকাভুক্ত করল জাতিসংঘ

মিয়ানমারের সেনাবাহিনীকে কালো তালিকাভুক্ত করল জাতিসংঘ