Friday, November 4th, 2016
কারা ‘মালাউন’?
November 4th, 2016 at 12:07 pm
কারা ‘মালাউন’?

সোহানা রহমান মুন: আরবী ‘মালাউন’ শব্দটির বাংলা অর্থ ‘অভিশপ্ত’। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে সাম্প্রদায়িক আক্রমণে আক্রান্ত কেউ মালাউন নন। তারা ভিকটিম। তারা ক্ষতিগ্রস্ত। তারা মানুষ। তারা বাংলাদেশের নাগরিক। তারা আমার বোন, ভাই। তারা কেউ মালাউন নন।

তাদের যারা পশুর মতো আক্রমণ করেছে তারা অভিশপ্ত, তারা মালাউন।

তাদের আক্রমণ করার উস্কানি যারা দিয়েছে, তারা অভিশপ্ত, তারা মালাউন।

তাদের আক্রমণ করার মাস্টারপ্ল্যান যেই গোষ্ঠী চালাচ্ছে, তারা অভিশপ্তের গোষ্ঠী, তারা মালাউনের গোষ্ঠী।

যাদের অবহেলার কারণে এই পাশবিক ঘটনাটি ঘটতে পেরেছে, তারা অভিশপ্ত, তারা মালাউন।

দায়িত্বশীলদের মধ্যে যদি কেউ ইচ্ছাকৃত অবহেলার মাধ্যমে এই ঘটনা ঘটতে সাহায্য করে থাকে, অর্থাৎ আক্রমণে জড়িত থেকে থাকে তাহলে সে বা তারা অভিশপ্ত, সে বা তারা মালাউন।

নাসিরনগরের আক্রমণে ক্ষতিগ্রস্ত সনাতন ধর্মাবলম্বীদের যারা মালাউন ডেকেছে, ডাকছে, বা ডাকবে-তারা সবাই অভিশপ্ত, তারা সবাই মালাউন।

আমি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সন্তান। প্রাণের ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অসাম্প্রদায়িকতার, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির, প্রগতিশীলতার সুদীর্ঘকালের ঐতিহ্যের যেই গর্ব আমার আর আমাদের, সেই গর্বে যারা কালিমা লেপন করলো নাসিরনগরের এই ন্যাক্কারজনক ঘটনা ও তার পরবর্তী প্রতিক্রিয়া দিয়ে, তারা সবাই অভিশপ্ত, তারা সবাই মালাউন।

নাসিরনগরে সেদিনের আক্রমণের সময়ে যে কয়েকজন ‘মুসলিম’ প্রতিবেশী আক্রান্তদের রক্ষায় এগিয়ে এসেছিলেন, আক্রমণ প্রতিহত করার চেষ্টা করেছিলেন, নিজেরা আহত হয়েছেন- তারা মানুষ, তারা বাংলাদেশের নাগরিক, তারা আমার ভাই, তারাই আমাদের ব্রাহ্মণবাড়িয়ার গৌরব, তারাই আমাদের ভবিষ্যতের অবলম্বন।’

লেখক: টিচিং অ্যাসিসট্যান্ট, আরডব্লিউটিএইচ অ্যাকেন ইউনিভার্সিটি 


সর্বশেষ

আরও খবর

হয়ত শাকিব অপুও থাকবে না

হয়ত শাকিব অপুও থাকবে না


পাঠ প্রতিক্রিয়া: ফরিদপুরে বিতর্ক চর্চা

পাঠ প্রতিক্রিয়া: ফরিদপুরে বিতর্ক চর্চা


একটি আত্মহত্যা ও কিছু প্রশ্ন

একটি আত্মহত্যা ও কিছু প্রশ্ন


অপরাজিতা মেয়ের পরাজয়ের গল্প

অপরাজিতা মেয়ের পরাজয়ের গল্প


বাঙালির দ্বি-মুখী লড়াই: হিন্দুত্বের সাথে এবং মুসলমানিত্বের সাথে

বাঙালির দ্বি-মুখী লড়াই: হিন্দুত্বের সাথে এবং মুসলমানিত্বের সাথে


দ্রোহের গুঞ্জন: সংস্কৃতি ও রাজনীতি

দ্রোহের গুঞ্জন: সংস্কৃতি ও রাজনীতি


কেউ কষ্টের কথাগুলি বলতে চায় না

কেউ কষ্টের কথাগুলি বলতে চায় না


আমগো যা কওয়ার ছিলো; তাই কইতাছে বাংলাদেশ: সাঈদী

আমগো যা কওয়ার ছিলো; তাই কইতাছে বাংলাদেশ: সাঈদী


শ্রমিক আর সংবাদকর্মী: সবাই আজ শোষিত

শ্রমিক আর সংবাদকর্মী: সবাই আজ শোষিত


বাজিলো কাহারো বীণা

বাজিলো কাহারো বীণা