Thursday, August 11th, 2016
আমার সঙ্গীতের গতিপথ ঠিক করেছে মেঘদল
August 11th, 2016 at 9:17 pm
আমার সঙ্গীতের গতিপথ ঠিক করেছে মেঘদল

নীলিমা দোলা, ঢাকা: রাশিদ শরীফ শোয়েব। দীর্ঘ সময় ধরে যারা বাংলা গান নিয়েযুদ্ধ করছেন এমন কিছু মানুষের মধ্যে, তিনিও একজন। তিনি বিশ্বাস করেন যা কিছু শুভ তাই হলো গান। জনপ্রিয় বাংলা ব্যান্ড ‘মেঘদল’ এর গিটারিস্ট তিনি। গান বাঁধছেন, সুর ভাজছেন, টুকটাক গানও গাইছেন, এমনভাবেই কাটছে দিন। আগে থেকেই জানিয়ে, ঠিক সন্ধ্যা ৭ টায় আমরা তার নিজের স্টুডিও, ‘স্টুডিও কাউবেল’ এর দরজায় হাজির হলাম। কলিং বেল বাজাতেই, দরজা খুলে এক রাশ হাসি মাখা মুখে বললেন, হ্যালো! তারপর বসলাম এই সঙ্গীতযোদ্ধার গল্প শুনতে।

IMG_8007

কেমন আছেন? 

এইতো দোলা, ভালো আছি। ব্যক্তিগতভাবে প্রথম বারের মতো কাউকে ইন্টার্ভিউ দিচ্ছি। কেমন তারকাখচিত বিষয় বলুন তো! ‘স্টার’ বলতে ছোট বেলায় বুঝতাম আকাশের তারার মতোন কিছু একটা। এখন কতো সহজ সব কিছু না? আপনি চাইলেই আপনার প্রিয় শিল্পী কে ফেসবুক বা অন্য মাধ্যমে ফলো করতে পারছেন। কথাও বলতে পারছেন। প্রিয়র মাপকাঠি লাইকে বা শেয়ারে। একটা লাইক সমান একটা ভালোবাসা, একটা শেয়ার সমান একটা ভালোলাগা।হা হা।

আপনার গান নিয়ে বলুন, শুরুটা বা ভালোলাগা গুলো?

আমি খুবই লাকি যে মিউজিক শুরু করবার সময় থেকেই ‘মেঘদল’ এর মতো একটা ব্যান্ডের সদস্য হতে পেরেছি। শিবু কুমার শীল একজন কবি, মেজবাউর রহমান সুমন ও তাই। কিবরিয়া ভাই, রনি ভাই , আমজাদ, এদের সাথে বাজাতে পারছি, কম্পোজ করতে পারছি শুরু থেকেই। সেটাই অনেক কিছু ছিলো আমার জন্য। মেঘদলই আসলে আমার সঙ্গীতের রুচি, গতিপথ ঠিক করে দিয়েছে।

হাতেখড়ি কার কাছে?

আসলে হাতেখড়ি বলতে ওইভাবে কিছু ছিলো না। ট্র্যাডিশনাল লাইফস্টাইলে যাবার একটা চাপ আসলে সবসময়ই ছিলো। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশুনার সুবাদে সেটা আরো বেশিই ছিলো। ইনফ্যাক্ট আমার গিটার বাজানোর শুরুটাও অনেক পরে ছিলো। ইন্টারমিডিয়েট পরীক্ষার পরে যে ফাঁকা সময় থাকে ওই সময়ে। গিটার কিনে এনে যেদিন বাজাতে শুরু করি, ওইদিন মনে হয়েছে যে, আমি তো এটাই ভালোবাসি। আই বিলং টু মিউজিক।

গানের অনুপ্রেরণা বলতে চান কাকে?

ওইভাবে বলতে গেলে, রবীন্দ্রনাথ একটা বড় অনুপ্রেরণা। তারপরে হেমন্ত।  আর আমার ছোট বেলাটা কেটেছে মান্না দে, কিশোর কুমারদের গান শুনে।  ইদানীং দেখেছেন বোধহয় আমি ফেসবুকে হেমন্তের গান, রবীঠাকুর এর গান গেয়ে শেয়ারও করছি, শ্রদ্ধাঞ্জলি হিসেবে। মহীনের ঘোড়াগুলি, পিংক ফ্লয়েড প্রিয়দের তালিকায়। আর ওভাবে বলতে গেলে অনেক নাম।

মেঘদল নিয়ে বলুন, আপনার সাথে মেঘদল অথবা মেঘদলের সাথে আপনি?

প্রায়ই একটা অভিযোগ শুনি মেঘদল সবার জন্য গান গায় না, আসলে সবার জন্য গান গাওয়াটা ভীষণ কঠিন! তাহলে তো মেঘদল বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় ব্যান্ডই হতো। যারা মেঘদলকে ভালোবেসে শোনে, আগ্রহ নিয়ে শোনে সেই সংখ্যাটা বাড়ুক এটা মেঘদলের প্রত্যাশা। অ্যালবাম নিয়ে যা শুনেছি সেগুলো অধিকাংশই পজেটিভ ছিলো। তবে প্রথম অ্যালবামে একটা কথা অনেক শ্রোতাই বলেছে। সেটা ঠিক কমপ্লেইন নয় ভালোবেসেই বলেছেন আমি জানি। সেটা হচ্ছে, মেঘদলের লিরিক গুলো কিছুটা দুর্বোধ্য লেগেছে তাদের কাছে।

একজন মিউজিশিয়ান হিসেবে আপনি এক্সিস্টেনশিয়ালিস্ট, সারিয়ালিস্ট অথবা এক্সপ্রেশনিস্ট? 

আমি আসলে এতো কিছু ভেবে মিউজিক করিনাই কখনো। নিজের ভালো লাগাকেই প্রাধান্য দেই সবসময়। কোনো সুর এলো সেটাকে নিয়ে গান বাঁধলাম। এমনটাই আমার পয়েন্ট আসলে। এতো জটিল করে ভাবিনাই তো। 

কার কবিতা ভালোলাগে? 

আমি কবিতা খুবই কম পড়ি। আর ভালো লাগা বলতে জীবনানন্দ দাশ। 

তাহলে আগের প্রশ্নের উত্তর ধরে নিচ্ছি সাররিয়ালিস্টিক? 

উমম, না তেমনটা নয়। আবার হতেও পারে। ভাবতে সকলেরই তো ভালো লাগে। 

বাংলার গান নিয়ে বলুন? 

বাংলা গান, বাংলার গান এগুলো নিয়ে বলতে গেলে আসলে লালন, হাসন, রবীন্দ্রনাথ, নজরুল, শচীন কর্তা, কবির সুমন, মহীনের ঘোড়াগুলি, শাহ আব্দুল করিম, খান আতা, সঞ্জীব চৌধুরীদের  কথাই বলবো। আর এই সময়ের বাংলা গানের কথা বলতে গেলে বলবো ‘কফিল আহমেদ’ এর  কথা। আমি যদি ভাবি যে একজন বাঙালি দার্শনিক গান গাইছেন, তাহলে আমার কাছে সেটা কফিল আহমেদ। 

IMG_7945 (1)

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম নিয়ে আপনার মতামত কি?

আমার ছোট বেলার নয় বছর কেটেছে মাগুরাতে। বাবা সরকারি চাকরিজীবী ছিলেন। ওই সুবাদে আমি কলোনীতে থেকেছি অনেক সময়। আর আমার জন্ম আশির দশকে। যার কারণে আমি পুরো অ্যানালগ সময়টাকে চোখের সামনে বদলে যেতে দেখেছি। আমার কাছে মনে হয়, সব মিলিয়ে প্রভাবটা খারাপ না। তবে, নিজের সামনে অনেক অপশন থাকার কারণে মানুষের স্থিরতা কিছুটা কমেছে। আমরা ছোটবেলায় লোডশেডিং হলে একসাথে গাইতাম, ওই সময় গুলো অদ্ভুত ভালোলাগার ছিলো। আর সময়টা এখন খুব অস্থির। মানুষের মাথায় এতোকিছু সাসটেইন  করে না।

কোন জনরার মিউজিক এর চর্চা বাড়ানো উচিৎ বলে মনে করেন?

জনরা ধরে আসলে আমি বলতেই চাই না। আমি এইভাবে দেখিও না। দেড়যুগের মিউজিক্যাল জার্নির পরে আমার উপলব্ধি হচ্ছে, সেই গানটাই আসলে মনে থাকে যেই গানের অনুভূতি আপনাকে রিলেট করে। যে গান আপনার অনুভূতির কথা বলে সেটাই আপনার গান। তাই ওইভাবে বলবার কিছু নেই। গোটা বিষয়টাই আসলে অনুভূতি রিলেটেড। আর আমি একজন প্রফেশনাল কম্পোজার, বিজ্ঞাপনের মিউজিক করে আমার পেট চলে…

আচ্ছা, কর্পোরেট কাজ নিয়ে বলুন? একজন মিউজিশিয়ান হিসেবে আপনি যেই কথা আপনার গানে বলেছেন বা কাজের যে ধরন ছিলো সেটার সাথে এই কর্পোরেট কাজ করা কতোটা সাংঘর্ষিক? আপনার কাজের ওপর কোনো প্রভাব ফেলছে কি? এটা নিয়ে বিভিন্ন প্রশ্ন উঠছে। কিছু বলুন? 

আচ্ছা, প্রথম কথা, আজকাল যে গান হচ্ছে তাতে গানের সারভাইভাল এর বিষয়টা কিন্তু দিনের পর দিন কর্পোরেটদের হাতেই চলে যাচ্ছে। মানে, ফোন কোম্পানি বা অন্য কোনো প্রতিষ্ঠানকেই তুলে দিতে হচ্ছে আপনার গানটা। দিনশেষে আমি ফোন কোম্পানির জন্যই হয়তো মিউজিক করছি। 

দ্বিতীয় কথা, শুধু গানের কম্পোজার হওয়ার থেকেও বেশি ফ্যাসিনেশন আমার ভিজুয়াল মাধ্যমে কাজ করা নিয়ে, এখানে আমার এক দশকের শ্রম, একাগ্রতা।  এককথায়, সিনেমার মিউজিক ডিরেক্টর হিসেবে আমি আমার ক্যারিয়ারটাকে দাঁড় করাতে চাই। সেটাই আমার স্বপ্ন।

যার জন্য আমি গত দশ বছরে প্রায় দুই থেকে আড়াইশো নাটকের মিউজিকে কাজ করছি। আর এখন বিজ্ঞাপনের মিউজিক করছি। শুধু মিউজিকই না সাউন্ড ডিজাইনের কাজও করছি। আমার ইচ্ছা একটা ফিল্মের যাবতীয় শব্দের ওপরে কাজ করার। সেই জায়গাটা থেকে আমার কাছে বিষয়টা হচ্ছে, আমার স্বপ্ন যেহেতু সিনেমার স্কোরিং এবং সাউন্ড ডিজাইন  করা সুতরাং আমার এখনকার প্রফেশনটা ওই স্বপ্নটাকে অ্যাচিভ করবার জন্য। আমি তো ওই ৪০ সেকেন্ড বা ১ মিনিটের একটা গল্পের ওপরেই কাজ করছি। আমার কাছে গোটা বিষয়টা এমন। আর গানের কম্পোজার তো আমি এখনো হয়ে উঠিনি সেই অর্থে। এই বছরের শেষে আমার প্রথম কম্পোজ করা অ্যালবাম আসবে। সেটা কফিল আহমেদের অ্যালবাম।

IMG_8114

কফিল ভাইয়ের অ্যালবাম তো আপনি কম্পোজ করছেন? সেটা নিয়ে বলুন। আপনার আর কফিল ভাইয়ের জার্নিটা নিয়ে?

আসলে, এটা অদ্ভুত। ইটস লাইক, আঠারোশ শতাব্দীতে যদি আমি লালন’কে মিট করতে পারতাম, তাহলে যে অনুভূতি হতো  এই ২০১৬ তে কফিল ভাইকে মিট করাটাও সে রকমই! এটা আসলে এক ধরনের প্রচণ্ড আবেগীয় সাইকোলজিক্যাল মেডিটেশোনাল এবং স্প্রিরিচুয়াল জার্নি! প্ল্যান ছিলো এই সেপ্টেম্বরের এক তারিখ কফিল ভাইয়ের জন্মদিনে অ্যালবাম রিলিজ করার। কিন্তু এখনো কিছু কম্পোজ বাকি থাকায় সেটা বোধহয় হচ্ছে না। আরো কিছুদিন সময় লেগে যাবে। আর ভীষণ ব্যক্তিগত উন্মাদনার জায়গা থেকেই চাওয়াটা আমার ছিলো। ঠিক সময়ে সবাইকে জানানো হবে।

দেশের বিশ্ববিদ্যালয় গুলোর সাংস্কৃতিক পরিবেশ নিয়ে কিছু বলুন? 

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সেই পরিবেশ বলতে গেলে নাই’ই। ভালো লাগে জাহাঙ্গীরনগর আর শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে শো করতে। ওখানে গান করে শান্তি পাওয়া যায়।

নতুন মিউজিশিয়ান দের কথা বলুন। কাদের গান ভালো লাগে?

নতুনদের মধ্যে, আহমেদ হাসান সানী, আরাফাত মহসিন, সায়েম জয়দের কথা বলবো। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে বলতে গেলে, সৈয়দ ফরহাদ, নাঈম মাহমুদ। এদের কথা বলবো। এদের কাজ ভালো লাগছে।

রাজনীতি নিয়ে কিছু বলতে চাইবেন? চারপাশে যা কিছু অশুভ ঘটছে তা নিয়ে? 

আসলে আমাদের এখানকার রাজনীতি নিয়ে আমার তেমন কোনো ইন্টারেস্ট নেই। তবুও আন্তর্জাতিক সম্পর্ক নিয়ে যেহেতু আমার পড়াশুনা সেই থ্রুতেই বলছি, বাংলাদেশ তো আসলে বাফার স্টেট। যার জন্য এটাকে টার্গেটেড করা হয়েছে। খারাপ সময় যাচ্ছে হয়তো। কিন্তু আমি বিশ্বাস করি, বাংলাদেশ কখনোই আফগানিস্তান হবে না।সর্বোপরি যেটা বলতে চাইবো, গান করছি আসলে একদম ভবিষ্যতের কথা ভেবেই। ভরসার জায়গাটা হচ্ছে, এমন অস্থির সময়েও এমন কিছু মানুষ আছেন, যারা ভালোবেসে মেঘদলের গান শুনছে। তাদের জন্যই কাজ করে যাব। ভালোবেসে যারা মেঘদলকে শুনতে চাইবেন। তাদেরকেই শোনাবো। মানুষের ভালোবাসায় বেঁচে থাকতেই চাইবো। সাথে নিজের কিছু সৃষ্টি, এই  তো !

ছবি: জীবন আহমেদ 

নিউজনেক্সটবিডি ডটকম/এনডি/জাই/টিএস


সর্বশেষ

আরও খবর

হুমায়ূন আহমেদের ষষ্ঠ মৃত্যুবার্ষিকী আজ

হুমায়ূন আহমেদের ষষ্ঠ মৃত্যুবার্ষিকী আজ


মাইকেল জ্যাকসনের বাবার মৃত্যু

মাইকেল জ্যাকসনের বাবার মৃত্যু


বিশ্ব সংগীত দিবসে শিল্পকলা একাডেমির বর্ণাঢ্য আয়োজন

বিশ্ব সংগীত দিবসে শিল্পকলা একাডেমির বর্ণাঢ্য আয়োজন


না ফেরার দেশে অভিনেত্রী তাজিন

না ফেরার দেশে অভিনেত্রী তাজিন


‘লাইফ টাইম অ্যাওয়ার্ড’ পাচ্ছেন আলমগীর

‘লাইফ টাইম অ্যাওয়ার্ড’ পাচ্ছেন আলমগীর


মুক্তি পাচ্ছে শাকিব খান অভিনীত ছবি ‘চালবাজ’

মুক্তি পাচ্ছে শাকিব খান অভিনীত ছবি ‘চালবাজ’


বড় পর্দায় অভিষেক হলো রাকা বিশ্বাসের

বড় পর্দায় অভিষেক হলো রাকা বিশ্বাসের


জামিন পেলেন বলিউডের ‘ভাইজান’ সালমান খান

জামিন পেলেন বলিউডের ‘ভাইজান’ সালমান খান


জেলে সালমানের সঙ্গে সাক্ষাত করলেন প্রীতি  

জেলে সালমানের সঙ্গে সাক্ষাত করলেন প্রীতি  


আজ মহানায়িকা সুচিত্রা সেনের জন্মদিন

আজ মহানায়িকা সুচিত্রা সেনের জন্মদিন