Tuesday, March 21st, 2017
রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম: পক্ষভুক্ত হতে ৫ ব্যক্তির আবেদন
March 21st, 2017 at 8:26 am
রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম: পক্ষভুক্ত হতে ৫ ব্যক্তির আবেদন

ঢাকা: সংবিধানে ইসলামকে রাষ্ট্রধর্ম ঘোষণার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে দাখিল করা রিট আবেদন খারিজ করে হাইকোর্টের দেয়া আদেশের বিরুদ্ধে করা আপিল আবেদনের ওপর শুনানিতে পক্ষভূক্ত হওয়ার জন্য বিভিন্ন পেশার পাঁচ বিশিষ্ট ব্যক্তি আপিল বিভাগে আবেদন করেছেন। এ আবেদন গ্রহণ করা হবে কী না সেবিষয়ে আপিল বিভাগে শুনানি অনুষ্ঠিত হবে বলে জানা গেছে।

আপিল আবেদনকারীরা হলেন- সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী  ও বিএনপি নেতা অ্যাডভোকেট তৈমুর আলম খন্দকার, অনলাইন নিউজ পোর্টাল বিশ্ববার্তা ২৪ডটকম-এর সম্পাদক আরিফুর রহমান, রিয়েল এস্টেট প্রতিষ্ঠান প্রজেক্ট বিল্ডিং লিমিটেডের পরিচালক ইঞ্জিনিয়ার মো. শওকত হোসেন খান, অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা লে. কর্ণেল (অব:) আবু ইউসুফ জোবায়ের উল্লাহ এবং আল-মুথ মাইরাহ মা ও শিশু হাসপাতালের মহাব্যবস্থাপক ডা. মোহাম্মদ আব্দুল আলী।

১৬ মার্চ বৃহস্পতিবার আপিল বিভাগের সংশ্লিষ্ট শাখায় তারা উক্ত আবেদন করেন দাখিল করেন। আবেদনে ওই সব ব্যক্তি ইসলামের স্ব-পক্ষে দাঁড় করানো যুক্তিতে বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কখনও কোরআন ও সুন্নাহ বিরোধী আইন করেননি। উপরুন্ত এদেশের সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষের ধর্ম ইসলাম। এমতবস্থায় রাষ্ট্রধর্ম নিয়ে চ্যালেঞ্জ করে রিটকারী দেশে অরাজক পরিস্থিতির সৃষ্টি করতে চান। পরে ওই দিন আবেদনের ওপর আপিল বিভাগের বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের চেম্বার জজ আদালতে শুনানি করা হয়। শুনানি শেষে আদালত আবেদনটি রাষ্ট্রধর্ম নিয়ে করা মুল আপিলের সঙ্গে শুনানির জন্য নিয়মিত বেঞ্চে পাঠিয়ে দেন। আবেদনকারীদের পক্ষে শুনানি করেন সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল এজে মোহাম্মদ আলী।

তার পর ১৯ মার্চ ইসলামকে রাষ্ট্রধর্ম ঘোষণার বৈধতা নিয়ে করা রিট খারিজের বিরুদ্ধে আপিল শুনানির জন্য নির্ধারিত থাকলেও কার্যতালিকায় না আসায় তার বিষয়ে শুনানি অনুষ্ঠিত হয়নি। তবে রিটকারী আইনজীবী সমরেন্দ্র নাথ গোস্বামী জানিয়েছেন, ইসলামকে রাষ্ট্রধর্ম ঘোষণার বৈধতা নিয়ে করা রিট খারিজের বিরুদ্ধে আপিল শুনানির জন্য যেকোন দিন আপিল বিভাগের কার্যতালিকায় আসতে পারে।

সংবিধানে ইসলামকে রাষ্ট্রধর্ম ঘোষণার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে অ্যাডভোকেট সমরেন্দ্র নাথ গোস্বামীর করা রিট আবেদন ২০১৫ সালের ৭ সেপ্টেম্বর খারিজ করে দেন হাইকোর্টের একটি। ওই খারিজ আদেশের পূর্ণাঙ্গ রায়ের  অনুলিপি ২০১৬ সালের ৬ নভেম্বর প্রকাশ করেন আদালত। এরপর খারিজ আদেশের বিরুদ্ধে ওই বছরের ১২ নভেম্বর আপিল করেন অ্যাডভোকেট সমরেন্দ্র নাথ গোস্বামী। আবেদনটি এখন সুপ্রিমকোর্টের আপিল বিভাগে শুনানির জন্য অপেক্ষমান। এ অবস্থায় পক্ষভুক্ত হওয়ার জন্য আবেদন করেন ওই ৫ ব্যক্তি।

১৯৮৮ সালের ৫ জুন সংবিধানের অষ্টম সংশোধনীর মাধ্যমে ইসলামকে রাষ্ট্রধর্ম ঘোষণা করা হয়। এই সংশোধনীতে ২ক অনুচ্ছেদ সংযোজন করা হয়। ২ক অনুচ্ছেদে বলা হয়, ‘প্রজাতন্ত্রের রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম, তবে অন্যান্য ধর্মও প্রজাতন্ত্রে শান্তিতে পালন করা যাইবে।’ পরবর্তীতে ২০১১ সালের ২৫ জুন করা পঞ্চদশ সংশোধনীতেও ইসলামকে রাষ্ট্রধর্ম হিসেবে বহাল রাখা হয়। ২০১১ সালে করা সংশোধনীতে সংবিধানে ২ক অনুচ্ছেদ সংশোধন করা হয়। সংশোধিত এ অনুচ্ছেদে বলা হয়, ‘প্রজাতন্ত্রের রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম, তবে হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিষ্টানসহ অন্যান্য ধর্ম পালনে রাষ্ট্র সমমর্যাদা ও সমঅধিকার নিশ্চিত করিবেন।’

১৯৮৮ সালে সংবিধানের অষ্টম সংশোধনীর মাধ্যমে ইসলামকে রাষ্ট্রধর্ম ঘোষণা এবং ২০১১ সালে পঞ্চদশ সংশোধনীতে  রাষ্ট্রধর্ম বহাল রাখা হয়। বিষয়টি চ্যালেঞ্জ করে ২০১৫ সালের ১ আগস্ট সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী সমরেন্দ্র নাথ গোস্বামী এই রিট আবেদনটি করেন। রিটে পঞ্চদশ সংশোধনীতে রাষ্ট্রধর্ম কেন সংবিধানের সঙ্গে সাংঘর্ষিক ঘোষণা করা হবে না’-এই মর্মে রুল জারির নির্দেশনা চাওয়া হয়েছিল।

সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের আমলে ১৯৮৮ সালের ৫ জুন চতুর্থ জাতীয় সংসদে অষ্টম সংশোধনী অনুমোদন হয়। এর মাধ্যমে সংবিধানে অনুচ্ছেদ ২-এর সঙ্গে ২ (ক) দফা যুক্ত হয়। এতে বলা হয়, ‘প্রজাতন্ত্রের রাষ্ট্রধর্ম হবে ইসলাম, তবে অন্যান্য ধর্মও প্রজাতন্ত্রে শান্তিতে পালন করা যাইবে’।

২০১১ সালের ২৫ জুন আনা পঞ্চদশ সংশোধনীতে ওই অনুচ্ছেদ আবারও সংশোধন করা হয়। সেখানে বলা হয়, “ প্রজাতন্ত্রের রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম, তবে হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টানসহ অন্যান্য ধর্ম পালনে রাষ্ট্র সমমর্যাদা ও সমঅধিকার নিশ্চিত করবে।” রিট আবেদনকারীর যুক্তি ছিল, একটি নির্দিষ্ট ধর্মকে রাষ্ট্রধর্ম ঘোষণা করা সংবিধানের মৌলিক কাঠামোর সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়।

উল্লেখ্য, সংবিধানে রাষ্ট্রধর্ম হিসেবে ইসলামকে অন্তর্ভুক্তির বিধানের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে অপর একটি রিট ২০১৬ সালের ২৮ মার্চ খারিজ করে দেন হাইকোর্টের আপর একটি বেঞ্চ। সেই রিটের রায় এখনও প্রকাশ করা হয়নি।

প্রতিবেদক: ফায়েজ, সম্পাদনা: জাবেদ


সর্বশেষ

আরও খবর

আতিয়া মহলে মিলেছে চার জঙ্গির লাশ

আতিয়া মহলে মিলেছে চার জঙ্গির লাশ


জঙ্গি ঠেকাতে পাকিস্তানের বেড়া নির্মাণ

জঙ্গি ঠেকাতে পাকিস্তানের বেড়া নির্মাণ


ঘটনাস্থলে ক্রাইম সিন ইউনিট, শেষের পথে অভিযান

ঘটনাস্থলে ক্রাইম সিন ইউনিট, শেষের পথে অভিযান


কুসিক নির্বাচনে ২৬ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন

কুসিক নির্বাচনে ২৬ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন


চুয়াডাঙ্গায় প্রকাশিত ‘দৈনিক আমাদের সংবাদের’ সম্পাদক কারাগারে

চুয়াডাঙ্গায় প্রকাশিত ‘দৈনিক আমাদের সংবাদের’ সম্পাদক কারাগারে


জঙ্গিবাদের উত্থান হলে বিএনপি অপ্রাসঙ্গিক হবে

জঙ্গিবাদের উত্থান হলে বিএনপি অপ্রাসঙ্গিক হবে


রাবিতে মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক চিত্র প্রদর্শনী

রাবিতে মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক চিত্র প্রদর্শনী


জঙ্গি আস্তানায় সেনা অভিযানের ভিডিও

জঙ্গি আস্তানায় সেনা অভিযানের ভিডিও


অষ্টম শ্রেণি পাস ছাড়া ড্রাইভিং লাইসেন্স নয়

অষ্টম শ্রেণি পাস ছাড়া ড্রাইভিং লাইসেন্স নয়


প্রাণভিক্ষা চাইলেন মুফতি হান্নানের সহযোগী

প্রাণভিক্ষা চাইলেন মুফতি হান্নানের সহযোগী