Friday, January 12th, 2018
শুরু হলো বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব
January 12th, 2018 at 12:33 pm
শুরু হলো বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব

ঢাকা: টঙ্গীর তুরাগ নদীর তীরে বাদ ফজর আম বয়ানের মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে তাবলিগ জামাতের আয়োজনে বৃহত্তম মুসলিম জমায়েত ৫৩তম বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব।

দেশ-বিদেশের লাখ লাখ ধর্মপ্রাণ মুসলমানের উপস্থিতিতে ইবাদত বন্দেগি, জিকির আসকার আর আল্লাহু আকবর ধ্বনিতে মুখর হয়ে উঠেছে কহর দরিয়াখ্যাত টঙ্গীর তুরাগপাড়ের বিশ্ব ইজতেমা ময়দান।

বাদ জোহর বয়ান করবেন বাংলাদেশের মাওলানা মোহাম্মদ হোসেন, বাদ আছর বয়ান করবেন বাংলাদেশের মাওলানা আব্দুল বার ও বাদ মাগরিব বয়ান করবেন বাংলাদেশের মাওলান মোহাম্মদ রবিউর হক।

শুক্রবার থাকায় আজ ইজতেমা মাঠে বৃহত্তম জুমার জামাত অনুষ্ঠিত হবে। প্রথম পর্বে রাজধানী ঢাকাসহ ১৪ জেলার মুসল্লি ইজেতেমায় অংশ নিচ্ছেন। সকাল থেকেই সড়ক পথ, রেলপথ ও নৌপথসহ সব পথেই টঙ্গীর তুরাগ তীরে ঢল নামে মুসুল্লিদের। যদিও বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই আসতে শুরু করে মুসল্লিরা।

এবারে প্রথম দফায় বিভিন্ন জেলার মুসল্লিদের জন্য পুরো ময়দানকে ২৭টি খিত্তায় (ভাগে) ভাগ করা হয়েছে। নির্দিষ্ট খিত্তায় নির্দিষ্ট জেলার মুসল্লির জন্য নির্ধারণ করা হয়েছে।

 

বিশ্ব ইজতেমা উপলক্ষে প্রথম ধাপে অংশগ্রহণ করেছেন ঢাকার একাংশসহ নারায়ণগঞ্জ, শেরপুর, নীলফামারী, সিরাজগঞ্জ, নাটোর, গাইবান্ধা, লক্ষীপুর, সিলেট,চট্টগ্রাম, নড়াইল, মাদারীপুর, ভোলা, মাগুরা, পটুয়াখালী, ঝালকাঠিী, পঞ্চগড়, নেত্রকোনা, নরসিংদী এবং বগুড়া জেলার বাসিন্দরা। প্রতিটি জেলার জন্য রয়েছে নির্ধারিত স্থান। প্রত্যেকেই স্ব-স্ব খিত্তায় অবস্থান নেবেন।

জানা গেছে এবারও যাতে কোনো রকম অসুবিধা না হয় সে বিবেচনা মাথায় রেখে দেশের ৬৪টি জেলাকে দুই ভাগে ভাগ করা হয়েছে। এদের মধ্যে এবছর নির্দিষ্ট ৩২ জেলার মুসল্লিরা বিশ্ব ইজতেমায় অংশ নিবেন।

এ বছর ১৬০ একর এলাকা জুড়ে তৈরি করা হয়েছে বিশাল প্যান্ডেল। বিদেশি মেহমানদের জন্য তৈরি করা হয়েছে ৪ কামরা বিশিষ্ট আন্তর্জাতিক নিবাস।

এবারের ইজতেমা ময়দানের রয়েছে ১৭টি প্রবেশ পথ। ইজতেমা ময়দানের চারদিকে ১৫টি সুউচ্চ ওয়াচ টাওয়ার বসানো হয়েছে। মাঠ জুড়ে রয়েছে সাদা পোশাকে গোয়েন্দা পুলিশের কড়া নজরদারি।

ইজতেমা ময়দানে হামদর্দ, ইবনে সিনা, টঙ্গী ওষুধ ব্যবসায়ী সমিতি, আবেদা মেমোরিয়াল প্রাইভেট হাসপাতাল লিমিটেড, সি কে ডি অ্যান্ড ইউরোলজিস্ট হসপিটাল, যমুনা ব্যাংক ফাউন্ডেশন, ইসলামিক ফাউন্ডেশন, নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, স্বাস্থ্য অধিদফতর, গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনসহ ৫৪ ফ্রি মেডিকেল বিশ্ব ইজতেমায় আগত মুসল্লিদের বিনামূল্যে চিকিৎসাসেবার জন্য ক্যাম্প খুলেছে।

এবারের ইজতেমায় বিশ্বের শতাধিক দেশের প্রায় ২৫ হাজার বিদেশি মেহমান আখেরি মোনাজাতে অংশগ্রহণ করবেন বলে আশা করা হচ্ছে। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকাল পর্যন্ত ৫০টি দেশের প্রায় ১২ হাজার বিদেশি মেহমান ময়দানের তাদের জন্য নির্ধারিত বিদেশি নিবাসে অবস্থান নিয়েছেন বলে জানা গেছে।

ইজতেমার মুরুব্বিদের দেয়া তথ্যমতে, ১৯৪৬ সালে প্রথম কাকরাইল মসজিদে ইজতেমার আয়োজন শুরু করা হয়। তারপর ১৯৪৮ সালে চট্টগ্রামের হাজী ক্যাম্পে ও ১৯৫৮সালে নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে ইজতেমা অনুষ্ঠিত হয়। এরপর লোকসংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় ১৯৬৬ সালে গাজীপুরের টঙ্গীর তুরাগ নদীর তীরে বর্তমানস্থলে ইজতেমার স্থানান্তর করা হয়েছে। পরে সরকারিভাবে তুরাগ তীরের ১৬০ একর জমি স্থায়ীভাবে ইজতেমার জন্য বরাদ্দ দেয়া হয়।

দুইপর্বে খিত্তাওয়ারি মুসল্লিদের অবস্থান

এ বছর প্রথম পর্বের বিশ্ব ইজতেমায় আগত ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা যেসমস্ত খিত্তায় অবস্থান করবেন তা হলো- ঢাকা-৮,৯,১০,১১,১২,১৩,১৬,১৭ (খিত্তা নং-১-৮), পঞ্চগড় (খিত্তা নং-৯), নীলফামারী (খিত্তা নং-১০), শেরপুর (খিত্তা নং-১১), নারায়ণগঞ্জ (খিত্তা নং-১২ ও ১৯), গাইবান্ধা (খিত্তা নং-১৩), নাটোর (খিত্তা নং-১৪), মাদারীপুর (খিত্তা নং-১৫), ঢাকা-২৪ (খিত্তা নং-১৬) নড়াইল (খিত্তা নং-১৭), ঢাকা-১৫ (খিত্তা নং-১৮)  লক্ষ্মীপুর (খিত্তা নং-২২ ও ২৩), ঝালকাঠী (খিত্তা নং-২৪), ভোলা (খিত্তা নং-২৫ ও ২৬), মাগুরা (খিত্তা নং-২৭) ও পটুয়াখালীর মুসল্লিরা ২৮নং খিত্তায় অবস্থান করে তাদের ইবাদত বন্দেগীতে মশগুল থাকবেন।

দ্বিতীয় পর্বে ঢাকা জেলা (খিত্তা নং-১-১০), ১৮ ও ১৯), জামালপুর (খিত্তা নং-১১ ও ১২), ফরিদপুর (খিত্তা নং-১৩), ফরিদপুর (খিত্তা নং-১৪), ঝিনাইদহ (খিত্তা নং-১৫), ফেনী (খিত্তা নং-১৬), সুনামগঞ্জ (খিত্তা নং-১৭), চুয়াডাঙ্গা (খিত্তা নং-২০), কুমিল্লা (খিত্তা নং-২১ ও ২২), রাজশাহী (খিত্তা নং-২৩ ও ২৪), খুলনা (খিত্তা নং-২৫ ও ২৭), ঠাকুরগাঁও (খিত্তা নং-২৬) ও পিরোজপুর (খিত্তা নং-২৮) অংশ নিবেন।

ইজতেমায় ২৪টি বিশেষ ট্রেন সার্ভিস

টঙ্গী রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার মো. হালিমুজ্জামান বলেন, এবারের বিশ্ব ইজতেমায় মুসল্লিদের সুষ্ঠু যাতায়াতের জন্য ২৪টি বিশেষ ট্রেন পরিচালনা করবে বাংলাদেশ রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। আগামী ১২ জানুয়ারি বাদ জুমা ঢাকা-টঙ্গী, টঙ্গী-ঢাকা এবং ১৩ জানুয়ারি লাকসাম-টঙ্গী বিশেষ ট্রেন চলবে। ১৪ জানুয়ারি প্রথম পর্বের আখেরি মোনাজাতের দিন ভোর পাঁচটা থেকে রাত সাড়ে নয়টা পর্যন্ত বিশেষ চার জোড়া এবং টঙ্গী-ময়মনসিংহ বিশেষ দুই জোড়া, ঢাকা-টঙ্গী চার জোড়া বিশেষ ট্রেন চলাচল করবে। ১২ জানুয়ারি থেকে শুরু করে ১৫ জানুয়ারি পর্যন্ত ঢাকা অভিমুখী সব ট্রেন প্রায় চার মিনিট পর্যন্ত টঙ্গী স্টেশনে দাঁড়াবে। সাপ্তাহিক বন্ধের সকল ট্রেনও ওই সময়ে চলাচল করবে।

নিজস্ব প্রতিবেদক, সম্পাদনা: এম কে রায়হান


সর্বশেষ

আরও খবর

খালেদা জিয়াকে কারাগারে রেখে নির্বাচন হবে না: ফখরুল

খালেদা জিয়াকে কারাগারে রেখে নির্বাচন হবে না: ফখরুল


ইমাম-ফাখরের উদ্বোধনী জুটিতে বিশ্বরেকর্ডসহ পাকিস্তানের রেকর্ড সংগ্রহ

ইমাম-ফাখরের উদ্বোধনী জুটিতে বিশ্বরেকর্ডসহ পাকিস্তানের রেকর্ড সংগ্রহ


পুলিশের ২৩ শর্তে নয়াপল্টনে বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশ চলছে

পুলিশের ২৩ শর্তে নয়াপল্টনে বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশ চলছে


মাদকবিরোধী অভিযানে নিহত ৩

মাদকবিরোধী অভিযানে নিহত ৩


পুতিনকে ট্রাম্পের আমন্ত্রণ

পুতিনকে ট্রাম্পের আমন্ত্রণ


ট্রাক খাদে পড়ে জামালপুরে নিহত ৩

ট্রাক খাদে পড়ে জামালপুরে নিহত ৩


ফের কমলো স্বর্ণের দাম

ফের কমলো স্বর্ণের দাম


বছরের উষ্ণতম তাপমাত্রার রেকর্ড ঢাকায়

বছরের উষ্ণতম তাপমাত্রার রেকর্ড ঢাকায়


এইচএসসিতে পাশের হার ৬৬.৬৪%, গতবছর থেকে কমেছে ২.৭%

এইচএসসিতে পাশের হার ৬৬.৬৪%, গতবছর থেকে কমেছে ২.৭%


হুমায়ূন আহমেদের ষষ্ঠ মৃত্যুবার্ষিকী আজ

হুমায়ূন আহমেদের ষষ্ঠ মৃত্যুবার্ষিকী আজ