Sunday, December 25th, 2016
সাধ ও সাধ্যের নানাবিধ অফারে জমজমাট রিহ্যাব মেলা
December 25th, 2016 at 6:25 pm
সাধ ও সাধ্যের নানাবিধ অফারে জমজমাট রিহ্যাব মেলা

ঢাকা: বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত রিহ্যাব মেলার শেষদিন আজ রোববার। এদিন সকাল থেকেই মেলা প্রাঙ্গন হয়ে ওঠে জমজমাট। বেলা যতই বাড়তে থাকে মেলায় ক্রেতা-দর্শনার্থীদের পদচারণাও বাড়তে থাকে। শেষ বিকেলের দিকে মেলায় আগন্তুকদের ভীড়ে যেন তিল ধারণেরও জায়গা ছিল না। প্রচন্ড ভীড়কে ঠেলে আগন্তুকরা খুঁজে ফিরছিলেন বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের দেয়া নানাবিধ অফার। ফলে এদিন আগন্তুকদের আগ্রহের কেন্দ্রে ছিল মেলা উপলক্ষে ১০ ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের দেয়া বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা ও ছাড়ের প্রতি।

জানা গেছে, রিহ্যাব আয়োজিত এবারের শীতকালীন মেলায় অংশ নেয়া ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো হচ্ছে- ব্যাংক এশিয়া, ব্র্যাক ব্যাংক, স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক, দ্য সিটি ব্যাংক, মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক এবং ডেলটা ব্র্যাক হাউজিং, আইপিডিসি ফাইন্যান্স লিমিটেড, আইডিএলসি, লংকা-বাংলা ফাইন্যান্স ও ন্যাশনাল হাউজিং। শেষ দিন হওয়ায় মেলায় এদিন বেশিরভাগ বুকিং পড়ছে।

মেলায় আয়োজক কর্তৃপক্ষ জানান, সাধ ও সাধ্যের ঘাটতি থাকায় অনেক সময় গ্রাহকরা স্বপ্নের নীড় কিনতে পারেন না। এ জন্য ঋণ সুবিধা দেয় বিভিন্ন ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান। চাকরিজীবী ও ব্যবসায়ী দুই পেশার লোকই ঋণ পাওয়ার যোগ্যতা রাখেন। এক্ষেত্রে গ্রাহক সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের সাথে যোগাযোগ করলে তারা বিবেচনা করে ঋণ সুবিধা দিবেন। এর জন্য প্রয়োজন ব্যাংকের সাথে গ্রাহকের লেনদেনের ও বন্ধকী রাখার সম্পতির তথ্য। আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো গ্রাহকের সামর্থের উপর ভিত্তি করে বিভিন্ন মেয়াদে ঋণ সুবিধা দিয়ে থাকেন।

মেলায় কথা হয় ব্র্যাক ব্যাংকের কর্মকর্তা আরিফুর রহমানের সাথে। তিনি নিউজনেক্সটবিডি ডটকম’কে বলেন, ‘মেলায় সাড়ে ৮ শতাংশ হারে সুদে আমরা গ্রাহকদের ঋণ দিচ্ছি। এছাড়া মেলার বাইরেও আমরা গ্রাহকদের ঋণ সুবিধা দিয়ে থাকি।’ একইভাবে কথা হয় লংকাবাংলা ফাইন্যান্সের কর্মকর্তা শামীম রহমানের সঙ্গে। তিনি বলেন, ‘আমরা গ্রাহকদের সর্বোচ্চ ১০ কোটি টাকা পর্যন্ত ঋণ সুবিধা দিয়ে থাকি। এসব ঋণের সুদ হার ১০ শতাংশ।
দ্য সিটি ব্যাংক ৮ দশমিক ৭৫ শতাংশ সুদে ১ কোটি ২০ লাখ টাকা পর্যন্ত ঋণ দিচ্ছে। তাদের ঋণ পেতে চাকরিজীবীদের ন্যূনতম মাসিক আয় ৩০ হাজার ও ব্যবসায়ীদের ৪০ হাজার টাকা হতে হবে।’

মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক মেলায় ৯ শতাংশ সুদে গৃহঋণ দিচ্ছে। ঋণ প্রক্রিয়াকরণ ফিতে ৫০ শতাংশ ছাড় দিচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি। স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক মেলা উপলক্ষে ৮ দশমিক ৫০ শতাংশ হারে গৃহঋণ দিচ্ছে। মেলায় ঋণ প্রক্রিয়া শুরু করলে এই সুদহারের সুবিধা ২০১৭ সালের ১৫ জানুয়ারি পর্যন্ত দিচ্ছে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক।

অন্যদিকে আইপিডিসি দিচ্ছে জায়গার মূল্যের উপর সর্বোচ্চ ৭০ শতাংশ ঋণ। প্রতিষ্ঠানটির কর্মকর্তা শায়রুল এলিস বলেন, ‘আমরা গ্রাহকদের নির্দিষ্ট কোনো ঋণসীমা বেঁধে দেই না। জায়গার মূল্যের উপর ভিত্তি করে এই ঋণ সুবিধা দেওয়া হয়।’

এছাড়া ক্রেতাদের আকৃষ্ট করতে রিহ্যাব মেলায় অংশগ্রহণকারী বিভিন্ন হাউজিং প্রতিষ্ঠান ফ্ল্যাট বা প্লট বুকিংয়ে দিচ্ছে বিশেষ ছাড়। মেলায় জেনিট লিমিটেড তাদের ফ্ল্যাটে প্রতি বর্গফুটে ৩শ থেকে ৪শ টাকা পর্যন্ত ছাড় দিচ্ছে। এ ছাড়ে ক্রেতাদের বেশ সাড়া পাওয়া যাচ্ছে বলে জানালেন প্রতিষ্ঠানটির সহকারী ম্যানেজার তানজিল আলম। তিনি জানান, রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় জেনিটের প্রকল্প রয়েছে। গুলশানে প্রতি ফ্ল্যাটের বর্গফুট ১৫ থেকে ২২ হাজার টাকায় বিক্রি করা হচ্ছে।

মেলা উপলক্ষে স্বদেশ প্রোপার্টিজ লিমিটেড প্রতি প্লটের ক্ষেত্রে কাঠা প্রতি শতকরা ২০ ভাগ ছাড় দিচ্ছে। শুধু তাই নয়, পেশাজীবীদের জন্য যেমন- শিক্ষক, চিকিৎসক, প্রকৌশলীসহ বিভিন্ন পেশাজীবীদের ক্ষেত্রে প্রতি কাঠায় ২০ হাজার টাকা ছাড় রয়েছে। রিহ্যাব মেলায় একই ছাদের নিচে প্লট, ফ্ল্যাট, নির্মাণসামগ্রী ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান অংশ নিচ্ছে।

এছাড়া ঢাকার আশপাশ ও রাজধানীর বাইরে জমি কিনতে চাইলেও মেলা থেকে কেনার সুযোগ আছে। বেশ কয়েকটি আবাসন কোম্পানি বিশেষ ছাড়ে জমি কেনার সুযোগ দিচ্ছে। মেলায় ঢাকার বিভিন্ন বাণিজ্যিক ও আবাসিক প্রকল্পের ১০ হাজারের বেশি ইউনিট প্রদর্শন করা হচ্ছে। তবে চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, কুয়াকাটাসহ বিভিন্ন এলাকার প্রকল্পও রয়েছে। অভিজাত এলাকায় উচ্চ আয়ের মানুষের জন্য যেমন ফ্ল্যাট আছে, তেমনি মধ্য আয় ও চাকরিজীবীদের জন্য ছোট আকারের কম দামের ফ্ল্যাট রয়েছে।

মেলায় প্রায় প্রতিটি স্টলে কোন না কোন অফার রয়েছে। দরদাম স্বাভাবিকের চেয়ে কিছুটা কম। এর মধ্যে মিরপুর এলাকায় দর প্রতি বর্গফুট সাড়ে ৪ থেকে ৬ হাজার টাকা, উত্তরায় ৭ থেকে ১২ হাজার টাকা, পুরান ঢাকায় ৮ থেকে ১০ হাজার টাকা, মগবাজার ও শান্তিনগর এলাকায় ৭ থেকে ১০ হাজার টাকা, ধানমন্ডিতে ১২ থেকে ১৭ হাজার টাকা। তবে গুলশান ও বাড়িধারায় প্রতি বর্গফুট ২০ হাজার থেকে ২৫ হাজার টাকায় সাধারণত বিক্রি হচ্ছে। রাজধানীতে বাণিজ্যিক স্পেস প্রতি বর্গফুট বিক্রি হচ্ছে ১৫ থেকে ৮০ হাজার টাকায়। চট্টগ্রাম ও কক্সবাজারে স্পেস প্রতি বর্গফুট ১০ থেকে ১৫ হাজার টাকা।

আমিন মোহাম্মদ ফাউন্ডেশনের বিপণন ও বিক্রয় টিম লিডার মোহাম্মদ রবিউল ইসলাম বলেন,  ফ্ল্যাট ও প্লট বিক্রিতে গত দুদিন ধরে ক্রেতাদের ব্যাপক সাড়া পাওয়া গেছে। শামসুল আলামিন রিয়েল এস্টেট মেলায় নিয়ে এসেছে ১৮টি প্রকল্প। এ প্রতিষ্ঠানের বিক্রয় কর্মকর্তা শামসুল আরেফিন জানান, এককালীন মূল্য পরিশোধের ওপর ভিত্তি করে মেলায় ১০ থেকে ১৫ শতাংশ ছাড় দেয়া হচ্ছে।

ডোম-ইনো ডেভেলপমেন্টের সহকারি বিক্রয় ব্যবস্থাপক আবদুল মতিন তালুকদার বলেন, এবার মেলায় প্রকৃৃত ক্রেতা বেশি আসছেন। এ কারণে বিক্রি বাড়বে। তারা এ মেলায় ৮০টি প্রকল্প প্রদর্শন করেছে। মেলায় ক্রেতাদের কেনাকাটার ক্ষেত্রে প্রকল্পভেদে আলাদা মূল্য ছাড় দিয়েছে এ প্রতিষ্ঠান।

কনকর্ডের ব্যবস্থাপক (বিক্রয় ও বিপণন) আশীষ কুমার সরকার বলেন, দীর্ঘ মন্দা পর মেলায় ক্রেতাদের ভালো সাড়া পাওয়া যাচ্ছে। গত দুই দিনে প্রতিষ্ঠানটির ৫টি ইউনিট বিক্রি হয়েছে। এবার মেলায় ৫০টির মতো প্রকল্প প্রদর্শন করেছে কনকর্ড।

প্রতিবেদক: রিজাউল করি, সম্পাদনা: ইয়াসিন


সর্বশেষ

আরও খবর

কিউবার নতুন প্রেসিডেন্ট মিগুয়েল ডিয়াজ ক্যানেল

কিউবার নতুন প্রেসিডেন্ট মিগুয়েল ডিয়াজ ক্যানেল


প্রবাসীদের ভোটাধিকার: দ্বৈত নাগরিকত্ব প্রধান সমস্যা

প্রবাসীদের ভোটাধিকার: দ্বৈত নাগরিকত্ব প্রধান সমস্যা


করের আওতায় আসছে সিএনজি-থ্রি হুইলার্স

করের আওতায় আসছে সিএনজি-থ্রি হুইলার্স


লন্ডনে গুরুত্বপূর্ণ ১৩ ফাইলে প্রধানমন্ত্রীর সই

লন্ডনে গুরুত্বপূর্ণ ১৩ ফাইলে প্রধানমন্ত্রীর সই


বিনামূল্যে চিকিৎসা পাবেন মুক্তিযোদ্ধারা

বিনামূল্যে চিকিৎসা পাবেন মুক্তিযোদ্ধারা


খালেদার সঙ্গে সাক্ষাতের অনুমতি পাননি ফখরুলরা

খালেদার সঙ্গে সাক্ষাতের অনুমতি পাননি ফখরুলরা


তুরস্কে আগাম নির্বাচনের ঘোষণা  

তুরস্কে আগাম নির্বাচনের ঘোষণা  


কিমের সঙ্গে সিআইএ প্রধানের  সাক্ষাত

কিমের সঙ্গে সিআইএ প্রধানের সাক্ষাত


মিয়ানমারের সেনাবাহিনীকে কালো তালিকাভুক্ত করল জাতিসংঘ

মিয়ানমারের সেনাবাহিনীকে কালো তালিকাভুক্ত করল জাতিসংঘ


বরিশালে কালবৈশাখীর তাণ্ডবে একজনের মৃত্যু

বরিশালে কালবৈশাখীর তাণ্ডবে একজনের মৃত্যু