Friday, July 1st, 2016
অনলাইন অ্যাপস টেলিগ্রামে রিপন হত্যার পরিকল্পনা
July 1st, 2016 at 1:40 pm
অনলাইন অ্যাপস টেলিগ্রামে রিপন হত্যার পরিকল্পনা

ঢাকা: মাদারীপুর নাজিমুদ্দীন কলেজের গণিতের প্রভাষক রিপন চক্রবর্তীকে অনলাইন অ্যাপস ‘টেলিগ্রাম’ এর মাধ্যমে হত্যার পরিকল্পনা করে খালেদ সাইফুল্লাহ (২৬)। সাইফুল্লাহ ওই কলেজের গণিত বিভাগের প্রধান কাজী বেলায়েত হোসেনের ছেলে। রিপন তাকে চিনতো বলেই সে ঘটনার দিন ঘটনাস্থল থেকে একটু দূরে দাঁড়িয়ে ছিল।

শুক্রবার দুপুরে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) মিডিয়া সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার ও কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ইউনিটের প্রধান মনিরুল ইসলাম।

এর আগে বৃহস্পতিবার রাতে রাজধানীর ডেমরায় মাতুয়াইলের বাদশামিয়া রোড থেকে খালেদ সাইফুল্লাহ ওরফে জামিল ওরফে আফিফ কাইফি ওরফে পথভোলা পথিককে গ্রেফতার করে ডিএমপির কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট।

মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে খালেদ জানায় সে জেএমবির একজন সক্রিয় সদস্য, রিপন হত্যা প্রচেষ্টার মূল পরিকল্পনাকারী ও অর্থের যোগানদাতা। সে তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় বিভিন্ন গ্রুপ তৈরি করে উগ্রধর্মীয় মতবাদ প্রচার করতো এবং দেশের বিভিন্ন স্থানে হত্যাকাণ্ড ঘটিয়ে অরাজক পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে সদস্যদের উদ্বুদ্ধ করতো।’

তিনি বলেন, ‘রিপন চক্রবর্তীকে হত্যার জন্য ১২ জুন খালেদ অনলাইন অ্যাপস ‘টেলিগ্রাম’ এর মাধ্যমে  তাদের গ্রুপের দলনেতা কথিত আমীরের অনুমতি গ্রহন করে। পরে সে মাদারীপুরের পুরান বাজার কামার পট্টি থেকে ২ হাজার ৭০০ টাকা দিয়ে ২টি চাপাতি, ১টি চাইনিজ কুড়াল ও ১টি চাকু কিনে যারা হত্যা প্রচেষ্টায় অংশ নেয় তাদের সরবরাহ করে।’

ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার বলেন, ‘১৫ জুন কথিত দলনেতার পাঠানো প্রিন্স ফাইজুল্লাহ ফাহিমসহ আরো ৩-৪জন সহযোগী শিক্ষক রিপনের বাড়িতে হামলা করে। খালেদের পিতা কাজী বেলায়েত হোসেন সরকারী নাজিম উদ্দিন কলেজ মাদারীপুর এর গণিত বিভাগের বিভাগীয় প্রধান। এ কারণে শিক্ষক রিপনও খালেদকে চিনতেন। তাই ঘটনার দিন খালেদ সাইফুল্লাহ ঘটনাস্থল থেকে একটু দূরে দাঁড়িয়ে ছিল। অপারেশনে অংশগ্রহণকারী ফাহিম তার মোবাইল সেটটি খালেদের কাছে রাখতে দিয়েছিল। ঘটনার পরপরই ফাহিম ঘটনাস্থলে স্থানীয় লোকজনের হাতে ধরা পড়ে। অবস্থা বেগতিক দেখে মোবাইল সেটটি  নিয়ে খালেদ ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়।’

তিনি জানান, খালেদ সাইফুল্লার কাছ থেকে জব্দ করা মোবাইল ফোনে ডাউনলোডকৃত ‘টেলিগ্রাম’ অ্যাপসে কথিত আমীরের সঙ্গে মেসেজ ও ভয়েজ আদান প্রদান ও ঘটনার পরিকল্পনার তথ্য পাওয়া গেছে।

মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘এরা আসলে ভ্রান্ত মতবাদে বিশ্বাসী বাচ্চা ছেলে। একেবারে তরুণ বয়সের। তাদেরকে এমনভাবে ব্রেইন ওয়াস করা হয়েছে যে কারণে তারা পথভ্রষ্ট হয়েছে। আমরা আশা করবো সোসাইটির যারা আছেন পিতা-মাতা, শিক্ষক, সিভিল সোসাইটিজ সবাই এগিয়ে আসবে। তরুণ সমাজ যাতে এভাবে পথভ্রষ্ট না হয় সেজন্য আমরাও কাজ করবো, তারাও কাজ করবেন। মানুষের মধ্যে একটা সচেতনতা সৃষ্টি করতে পারলে সমন্বিত প্রচেষ্টায় জঙ্গিদেরকে উৎখাত করা সম্ভব হবে।’

নিউজনেক্সটবিডি ডটকম/পিএসএস/এমএস/এসজি


সর্বশেষ

আরও খবর

করোনায় আরও ৩০ জনের মৃত্যু, ৭৮ দিনের মধ্যে সর্বোচ্চ শনাক্ত

করোনায় আরও ৩০ জনের মৃত্যু, ৭৮ দিনের মধ্যে সর্বোচ্চ শনাক্ত


মানুষের জন্য কিছু করতে পারাই আমাদের রাজনীতির লক্ষ্য: প্রধানমন্ত্রী

মানুষের জন্য কিছু করতে পারাই আমাদের রাজনীতির লক্ষ্য: প্রধানমন্ত্রী


আনিসুল হত্যা: মানসিক স্বাস্থ্য ইন্সটিটিউটের রেজিস্ট্রার গ্রেপ্তার

আনিসুল হত্যা: মানসিক স্বাস্থ্য ইন্সটিটিউটের রেজিস্ট্রার গ্রেপ্তার


পাওয়ার গ্রিডের আগুনে বিদ্যুৎ-বিচ্ছিন্ন পুরো সিলেট, ব্যাপক ক্ষতি

পাওয়ার গ্রিডের আগুনে বিদ্যুৎ-বিচ্ছিন্ন পুরো সিলেট, ব্যাপক ক্ষতি


বাস পোড়ানোর মামলায় বিএনপির ২৮ নেতাকর্মী রিমান্ডে

বাস পোড়ানোর মামলায় বিএনপির ২৮ নেতাকর্মী রিমান্ডে


অবশেষে পাঁচ বছর পর নেপালকে হারালো বাংলাদেশ

অবশেষে পাঁচ বছর পর নেপালকে হারালো বাংলাদেশ


মাইন্ড এইড হাসপাতালে তালা, মালিক গ্রেপ্তার

মাইন্ড এইড হাসপাতালে তালা, মালিক গ্রেপ্তার


বিরোধী নেতাদের কটাক্ষ করতেন না বঙ্গবন্ধু: রাষ্ট্রপতি

বিরোধী নেতাদের কটাক্ষ করতেন না বঙ্গবন্ধু: রাষ্ট্রপতি


মসজিদ-মন্দিরে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করলো সরকার

মসজিদ-মন্দিরে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করলো সরকার


করোনায় একদিনে আরও ১৮ প্রাণহানি

করোনায় একদিনে আরও ১৮ প্রাণহানি