Tuesday, June 21st, 2016
আইএস’এ ব্যর্থ সিআইএ
June 21st, 2016 at 6:44 am
আইএস’এ ব্যর্থ সিআইএ

ডেস্ক: মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা সিআইএ’র প্রধান জন ব্রেনান স্বীকার করেছেন, তার দেশ উগ্র সন্ত্রাসী গোষ্ঠী আইএসআইএল বা দায়েশকে মোকাবেলায় কার্যত ব্যর্থ হয়েছে। খবর রেডিও তেহরান’র।

কংগ্রেসে প্রশ্নোত্তর বৈঠকে ব্রেনান আরো বলেন, ‘দায়েশ নেতাদের ওপর হামলা এবং তাদের অর্থ আয়ের উৎস ধ্বংস করা হলেও দায়েশ সন্ত্রাসীদের শক্তি নির্মূল করার জন্য আমেরিকা ও তার মিত্রদের প্রচেষ্টা সফল হয়নি।’ সিআইএ’র প্রধান আমেরিকার অরলান্ডো শহরে গুলিবর্ষণের কথা উল্লেখ করে বলেন, ‘এ ঘটনা থেকেই বোঝা যায় দায়েশের সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগ না করেও তাদের ভ্রান্ত আদর্শ বা চিন্তাচেতনায় প্রভাবিত হয়ে কেউ কেউ পাশ্চাত্যের বিভিন্ন দেশে হামলা চালাচ্ছে।’

রেডিও তেহরান’র সংবাদে বলা হয়, ‘সিআইএ’র প্রধান এমন সময় দায়েশসহ অন্যান্য সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর হামলা মোকাবেলায় ব্যর্থতার কথা স্বীকার করলেন যখন মার্কিন সরকার গত ১৫ বছর ধরে সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করার দাবি করে আসছে। ২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বর সন্ত্রাসী হামলার পর পাশ্চাত্য দেশগুলোতে অনুরূপ হামলা ঠেকানোর লক্ষ্য নিয়ে আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসী চক্রকে দমনের জন্য আর্থ-রাজনৈতিক ও সামরিক দিক দিয়ে ব্যাপক চেষ্টা চালিয়েও আমেরিকা ব্যর্থ হয়েছে। এ লক্ষ্যে আমেরিকা সন্ত্রাস বিরোধী বিশেষ আইন প্রণয়ন, অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা মন্ত্রণালয় প্রতিষ্ঠা, কোটি কোটি ডলার বাজেট বরাদ্দ করেছে। এমনকি আফগানিস্তান ও ইরাকে ব্যাপক সেনা সমাবেশ ঘটিয়েছে। নিরাপত্তা হুমকি এবং সন্ত্রাসীদের মোকাবেলা করতে গিয়ে মার্কিন সরকার নিজ দেশের জনগণের ব্যক্তি স্বাধীনতা ও সামাজিক অধিকার পদদলিত করেছে। এছাড়া, বহু গোপন জেলখানা নির্মাণ ও সেখানে বন্দীদের ওপর অকথ্য নির্যাতন চালানোর পাশাপাশি আমেরিকার ভেতরে ও সারা বিশ্বে ইন্টারনেট ও যোগাযোগ কেন্দ্রের ওপর কঠোর নজরদারি করার পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।’

ইরানি সংবাদমাধ্যমটি আরো বলছে, ‘এতো কিছুর পরও ১১ সেপ্টেম্বর সন্ত্রাসী হামলার ১৫ বছর পর দায়েশের আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে মাত্র একজন ব্যক্তি অরলান্ডোতে ৫০ ব্যক্তিকে হত্যা করেছে। বলা হচ্ছে এটা মার্কিন ইতিহাসে সর্ববৃহৎ গুলিবর্ষণ ও হত্যাকাণ্ডের ঘটনা। অবশ্য মার্কিন কর্মকর্তারা দাবি করেছেন, ওমর মতিন নামে যে ব্যক্তি এ হত্যাকাণ্ড চালিয়েছে তার সঙ্গে বাইরের কোনো সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর যোগসূত্র পাওয়া যায়নি।’

রেডিও তেহরান’র দাবি, আমেরিকা দায়েশের বিরুদ্ধে যুদ্ধের কথা বললেও দায়েশ নামক দানবকে তারাই তৈরি করেছে। দায়েশকে অস্ত্র ও অর্থ দিয়ে আমেরিকাই সহযোগিতা করে আসছে দীর্ঘ দিন ধরে। মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র বাস্তবায়নের জন্য তারা দায়েশকে ব্যবহার করছে।

নিউজনেক্সটবিডি ডটকম/এসকে/এসকেএস


সর্বশেষ

আরও খবর

ব্রিটেনে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ ঠেকাতে  কঠোর বিধিনিষেধ

ব্রিটেনে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ ঠেকাতে কঠোর বিধিনিষেধ


দ্বিতীয় দফা করোনা সংক্রমণে ব্রিটেনব্যাপী প্রতিদিন বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা

দ্বিতীয় দফা করোনা সংক্রমণে ব্রিটেনব্যাপী প্রতিদিন বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা


‘সুপারম্যান‘ ট্রাম্প করোনাভাইরাসের ‘সুপারপাওয়ার‘ বুঝতে ভুল করেছেন

‘সুপারম্যান‘ ট্রাম্প করোনাভাইরাসের ‘সুপারপাওয়ার‘ বুঝতে ভুল করেছেন


সৌদি আরবের আমন্ত্রণ প্রত্যাখান করলেন লন্ডন মেয়র সাদিক খান

সৌদি আরবের আমন্ত্রণ প্রত্যাখান করলেন লন্ডন মেয়র সাদিক খান


করোনায় আক্রান্ত ট্রাম্প–মেলানিয়া

করোনায় আক্রান্ত ট্রাম্প–মেলানিয়া


আটক হলেন রাহুল গান্ধী

আটক হলেন রাহুল গান্ধী


লন্ডনে টাওয়ার হ্যামলেটস এর স্পীকার হিসেবে দায়িত্ব নিলেন ব্রিটিশ বাঙ্গালী আহবাব হোসেন

লন্ডনে টাওয়ার হ্যামলেটস এর স্পীকার হিসেবে দায়িত্ব নিলেন ব্রিটিশ বাঙ্গালী আহবাব হোসেন


কুয়েতের আমির শেখ সাবাহ’র মৃত্যু

কুয়েতের আমির শেখ সাবাহ’র মৃত্যু


‘অক্টোবরের মাঝামাঝি থেকে ব্রিটেনে প্রতিদিন ৫০হাজারেরও বেশী মানুষ করোনা আক্রান্ত হবে’

‘অক্টোবরের মাঝামাঝি থেকে ব্রিটেনে প্রতিদিন ৫০হাজারেরও বেশী মানুষ করোনা আক্রান্ত হবে’


করোনা সংক্রমন ঠেকাতে ব্রিটিশ সরকারের নতুন আইন লঙ্ঘন করলে সর্বোচ্চ  ১০ হাজার পাউন্ড জরমিানা

করোনা সংক্রমন ঠেকাতে ব্রিটিশ সরকারের নতুন আইন লঙ্ঘন করলে সর্বোচ্চ ১০ হাজার পাউন্ড জরমিানা