Saturday, December 24th, 2016
আজকের সম্পাদকীয়
December 24th, 2016 at 9:24 am
আজকের সম্পাদকীয়

ডেস্ক: একটি সুষ্ঠু নির্বাচন শিরোনামে প্রথম আলো লিখেছে, “বৃহস্পতিবার নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের নির্বাচন সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে শেষ হয়েছে। বিজয়ী প্রার্থী সেলিনা হায়াৎ আইভীকে আমাদের অভিনন্দন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সাখাওয়াত হোসেন খানকেও আমরা ধন্যবাদ জানাই। তাঁরা যথাক্রমে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ও বিরোধী দল বিএনপির দলীয় প্রতীকে নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন, কিন্তু চিরাচরিত বৈরিতা ও উত্তেজনা সৃষ্টির পথে না গিয়ে নির্বাচনী পরিবেশ শান্তিপূর্ণ রাখতে উভয়ে অবদান রেখেছেন।

এই নির্বাচন স্থানীয় সরকারের পর্যায়ের হলেও পুরো জাতির দৃষ্টি এদিকে নিবদ্ধ ছিল। প্রথমত, বর্তমান নির্বাচন কমিশনের অধীনে অনুষ্ঠিত এর আগের নির্বাচনগুলো নানা দিক থেকে প্রশ্নবিদ্ধ হয়েছে; নির্বাচন কমিশনের বিরুদ্ধে পক্ষপাত ও ব্যর্থতার অনেক অভিযোগ উচ্চারিত হয়েছে। সর্বশেষ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন এতটাই বিতর্কিত হয়েছে যে নির্বাচন কমিশনের ভাবমূর্তি কালিমালিপ্ত হয়েছে। এই স্বাধীন সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানের ওপর জনগণের আস্থা ভীষণভাবে হ্রাস পেয়েছে। বিএনপি ও তার মিত্র দলগুলো এই প্রতিষ্ঠানটির ওপর আস্থা পুরোপুরি হারিয়ে ফেলেছিল এবং তারা একাধিকবার বলেছে যে তারা মনে করে এই নির্বাচন কমিশনের অধীনে কোনো নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হওয়া সম্ভব নয়।

কিন্তু নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনের মধ্য দিয়ে প্রমাণিত হলো যে সেটা সম্ভব। এ নির্বাচন নিয়ে বিএনপির পক্ষ থেকে এখনো কেউ প্রশ্ন তোলেননি। সাধারণ মানুষের মধ্যেও কোনো অভিযোগ নেই। যদিও সাখাওয়াত হোসেন খান তাৎক্ষণিকভাবে ‘সূক্ষ্ম কারচুপি’র অভিযোগ তুলেছেন, কিন্তু নারায়ণগঞ্জের স্থানীয় সাধারণ মানুষের মধ্যে উৎসবমুখর পরিবেশ তাঁর এই অভিযোগকে সমর্থন করে না। নির্বাচনের পরদিন বিজয়ী আইভী মিষ্টি নিয়ে সাখাওয়াতের বাসায় গেলে হৃদ্যতাপূর্ণ পরিবেশে সাখাওয়াত বলেছেন, মেয়র আইভী যদি সব দলকে সঙ্গে নিয়ে চলেন, সবার জন্য কাজ করেন, তাহলে তিনি তাঁকে সহযোগিতা করবেন।”

আলোচনার মাধ্যমে সমাধানে পৌঁছানোর আহ্বান জানিয়ে শঙ্কা বাড়াচ্ছে আশুলিয়া শিরোনামে কালের কণ্ঠ লিখেছে, “বেতন বাড়ানোর দাবিতে আশুলিয়ার কিছু গার্মেন্ট কারখানার শ্রমিকরা হঠাৎ করেই কাজ বন্ধ করে দেয়। কিছু শ্রমিকের বিরুদ্ধে কারখানায় ভাঙচুর ও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিরও অভিযোগ ওঠে।

কয়েকটি মামলাও হয়। পুলিশ কয়েক দিনে ১২ জন শ্রমিক ও কয়েকজন শ্রমিক নেতাকে গ্রেপ্তার করেছে। মালিকপক্ষ ৫৯টি কারখানা অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ করে দিয়েছে। সব মিলিয়ে আশুলিয়ার পরিস্থিতি ক্রমেই জটিল হয়ে উঠছে। সঠিকভাবে মোকাবিলা করা না গেলে পরিস্থিতির আরো অবনতি হতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন কেউ কেউ।

গার্মেন্ট বা তৈরি পোশাক বাংলাদেশের প্রধান রপ্তানি খাত। এখানে লক্ষ কোটি টাকার বিনিয়োগ রয়েছে। ৩৫ লাখ শ্রমিক কাজ করে এই খাতে। এর সহযোগী শিল্পগুলোতেও কাজ করে বহু শ্রমিক। এই খাতে কোনো বিপর্যয় সৃষ্টি হলে তা সারা দেশের অর্থনীতিকেই বিপর্যস্ত করে তুলতে পারে। তাই গার্মেন্ট খাতের এই শ্রমিক অসন্তোষকে যৌক্তিকভাবে ও নমনীয়তার সঙ্গেই মোকাবিলা করতে হবে। দমন-পীড়ন বা একগুঁয়ে মনোভাব অসন্তোষকে আরো উসকে দিতে পারে। বহু প্রতিকূলতা সত্ত্বেও গার্মেন্ট খাতে বাংলাদেশের উত্তরোত্তর উন্নতি হচ্ছে। আর তা দেশে ও বিদেশে অনেকেরই ঈর্ষার কারণ হচ্ছে। অতীতে বাংলাদেশের গার্মেন্ট খাতে বিশৃঙ্খলা বা অস্থিতিশীলতা সৃষ্টির নানা অপচেষ্টা দেখা গেছে। তাতে দেশি-বিদেশি অনেকের সংস্রবও পাওয়া গেছে। তাই এই খাতের নিয়ন্ত্রকদের বিষয়টি বিবেচনায় রেখেই পরিস্থিতি মোকাবিলা করতে হবে।”

জয়-পরাজয়ের চেয়ে বেশি শিরোনামে সমকাল লিখেছে, “সারাদেশের মানুষের আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দু হয়ে বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের নির্বাচন বর্তমান জাতীয় রাজনীতির একাধিক দিক থেকে তাৎপর্য বহন করে। রাজধানীর কাছে গুরুত্বপূর্ণ অভ্যন্তরীণ নদীবন্দর, শিল্পাঞ্চল ও অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডের কেন্দ্র হওয়ায় এই শহরে একজন যোগ্য মেয়র পাওয়ার নাগরিক আকাঙ্ক্ষা খুব স্বাভাবিক। তবে নির্বাচনটি তার চেয়েও বড় জাতীয় মাত্রা পেয়েছে সুষ্ঠু, শান্তিপূর্ণ, প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ও গ্রহণযোগ্য ভোটাভুটি অনুষ্ঠানের চ্যালেঞ্জ হিসেবে। কেননা, বিএনপি ২০১৪-এর দশম সংসদ নির্বাচন বর্জন করায় এবং পরবর্তী স্থানীয় সরকার সংস্থার নির্বাচনগুলো, বিশেষত গত মার্চ-এপ্রিলের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন সন্ত্রাস, কারচুপি, ভোটকেন্দ্র দখল, জীবনহানি প্রভৃতিতে কলুষিত হয়ে পড়ায় নির্বাচন সম্পর্কে জনগণের আস্থায় দারুণ চির ধরেছিল। নারায়ণগঞ্জ নির্বাচনটির পুরো প্রক্রিয়া শান্তিপূর্ণ হওয়ায় এ ক্ষেত্রে ইতিবাচক পুনঃযাত্রা সূচিত হওয়ার আশা করা যায়। এই সিটি করপোরেশনে প্রার্থীর জয়-পরাজয়ের চেয়ে বড় তাৎপর্য হলো, একটি সুষ্ঠু নির্বাচনের সব শর্ত এখানে প্রায় শতভাগ পূরণ হয়েছে। সংশ্লিষ্ট সব পক্ষ- নির্বাচন কমিশন, সরকারি প্রশাসন ও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী, প্রতিদ্বন্দ্বী রাজনৈতিক দল ও প্রার্থী, রাজনৈতিক কর্মী, ভোটার জনসাধারণকে আমরা ধন্যবাদ জানাই। দ্বিতীয়বার বিপুল ভোটে জয়ী মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীকে আমাদের অভিনন্দন। তিনি পৌরসভার যুগেই প্রাতিষ্ঠানিক দায়িত্ব পালনে নিজের যোগ্যতার স্বাক্ষর ও জনসমর্থন পাওয়ার প্রমাণ রেখেছেন। সিটি করপোরেশন হওয়ার পর ২০১১ সালে প্রথম মেয়র নির্বাচনে আইভীর প্রতিকূলতা তৈরি করেছিল নিজের দল আওয়ামী লীগ।”

অভিনন্দন মুস্তাফিজুর রহমান শিরোনামে ইত্তেফাক লিখেছে, “বাংলাদেশ ক্রিকেটের বিস্ময় মুস্তাফিজুর রহমান। আমাদের সাড়া জাগানো পেস বোলার। বিশ্বে তিনি এখন পরিচিত কার্টার মাস্টার হিসাবে। কেহ কেহ বলেন ‘সাতক্ষীরা এক্সপ্রেস’। ছোটকাল হইতে ক্রিকেটই তাহার নেশা ও ধ্যান-জ্ঞান। সবেমাত্র ইনজুরি কাটাইয়া তিনি এখন নিউজিল্যান্ড সফরে। ক্রিকেটে তাহার এই প্রত্যাবর্তনে বাংলাদেশি ক্রিকেটপ্রেমীরা যারপরনাই খুশি। তেমনি খুশি আইসিসির একটি খবরেও। খবরটি হইল—স্বল্প সময়ের ক্যারিয়ারে প্রিয় তারকা মুস্তাফিজুর রহমানের মুুকুটে যোগ হইয়াছে আরো একটি পালক। তিনি এখন বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক আইসিসির বর্ষসেরা উদীয়মান ক্রিকেটার। প্রথম বাংলাদেশি ক্রিকেটার হিসাবে ২০১৫ সালের আইসিসি ওডিআই বর্ষসেরা দলের অন্যতম সদস্য মনোনীত হইয়াছিলেন তিনি। এইবারও তিনি বাংলাদেশের প্রথম ক্রিকেটার হিসাবে আইসিসির বর্ষসেরা কোনো পুরস্কার পাইলেন। অভিনন্দন মুস্তাফিজুর রহমান। তাহার এই অর্জনে আমরা আনন্দিত, গর্বিত।”

গ্রন্থনা: প্রণব


সর্বশেষ

আরও খবর

কার্টুনিস্ট আহমেদ কবির কিশোরের জামিন মঞ্জুর

কার্টুনিস্ট আহমেদ কবির কিশোরের জামিন মঞ্জুর


সৈয়দ আবুল মকসুদঃ মৃত জোনাকির থমথমে চোখ

সৈয়দ আবুল মকসুদঃ মৃত জোনাকির থমথমে চোখ


গুলিবিদ্ধ সাংবাদিক মারা যাওয়ার ৬০ ঘন্টা পরে পরিবারের মামলা

গুলিবিদ্ধ সাংবাদিক মারা যাওয়ার ৬০ ঘন্টা পরে পরিবারের মামলা


৯ মাস পর কারামুক্ত হলেন সাংবাদিক কাজল

৯ মাস পর কারামুক্ত হলেন সাংবাদিক কাজল


জাতীয় চলচ্চিত্র পুরষ্কারে ধাপ্পার অভিযোগ ভারতীয় লেখকের!

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরষ্কারে ধাপ্পার অভিযোগ ভারতীয় লেখকের!


বিদায় কিংবদন্তি যুদ্ধ সাংবাদিক রবার্ট ফিস্ক

বিদায় কিংবদন্তি যুদ্ধ সাংবাদিক রবার্ট ফিস্ক


মুজিববর্র্ষে লন্ডনে জয় বাংলা ব্যান্ডের রঙ্গিন ভালবাসা

মুজিববর্র্ষে লন্ডনে জয় বাংলা ব্যান্ডের রঙ্গিন ভালবাসা


গণমাধ্যম, স্বাধীনতা এবং মিডিয়া মালিকানা

গণমাধ্যম, স্বাধীনতা এবং মিডিয়া মালিকানা


তাসের ঘর : দুর্দান্ত স্বস্তিকায় নারীমুক্তি?

তাসের ঘর : দুর্দান্ত স্বস্তিকায় নারীমুক্তি?


অ্যাসাঞ্জকে সতর্ক করল ব্রিটিশ আদালত

অ্যাসাঞ্জকে সতর্ক করল ব্রিটিশ আদালত