Tuesday, November 1st, 2016
আত্মহত্যা নয়, খুন হয়েছে মনিরা
November 1st, 2016 at 10:17 pm
আত্মহত্যা নয়, খুন হয়েছে মনিরা

তুহিন সাইফুল: নরসিংদী ইম্পেরিয়াল কলেজের মানবিক শাখার দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী মনিরা আক্তার (১৮)। অক্টোবরের ২৪ তারিখে শিবপুর থানার শেরপুর গ্রামে প্রচার হয় তার নিখোঁজ হওয়ার খবর। কোথাও নেই মনিরা! দুপুরের সামান্য পর যে পথ দিয়ে  সে এতদিন বাড়ি ফিরতো সেই পথের পাশে মনিরার অপেক্ষায় বাড়ির শিশুরা বসে থাকে। মনিরা কই? এই ঘর ওই ঘর খোঁজা হয়, মাঝে পরিবারের কাছ থেকে উত্তর আসে স্টেশনে অপেক্ষারত প্রেমিকের হাত ধরে সে পালিয়েছে। বাড়ির ছোট মেয়েটির এই আকস্মিক অন্তর্ধানে তবুও কারো টনক নড়ে না! দিন যায়, থানা পুলিশেও ডাক পড়ে না! পরিবারের লোকজনের প্রতি সন্দেহ হয় গ্রামবাসীর। কেউ একজন খুব দরদ মাখা কন্ঠে মনিরা বাড়ি ফিরবে কি না জানতে চাইলে, বড় বোন নাদিরা বেগম ডুকরে কেঁদে উঠে, সে জানায়, মনিরা আর ফিরবে না। প্রশ্ন আসে, কেন? কারণ, মনিরা মরে গেছে, গলায় ফাঁস দিয়ে সে আত্মহত্যা করেছে।

মনিরা আত্মহত্যা করেছে? তাহলে তার আত্মহত্যার খবর এতোদিন লুকিয়ে রাখা হলো কেন? কেনইবা প্রচার করা হলো তার নিখোঁজ সংবাদ, কলঙ্ক লেপন করা হলো মনিরা আর তার প্রেমিকের চরিত্রে! সন্দেহ বাড়ে গ্রামের সাধারণ মানুষের। মনিরাদের বাড়ির আঙ্গিনায় নারকেল পাতা দিয়ে ঢাকা একটি জায়গায় চোখ পড়ে জড়ো হওয়া লোকজনের। তাদের সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় ও পুলিশের উপস্থিতিতে ৩০ অক্টোবর মাটির অনেক গভীর পর্যন্ত খুঁড়ে পাওয়া যায় মনিরার অর্ধ গলিত লাশ। আর মনিরার লাশ বের করে আনার সময়ই জানা যায় আত্মহত্যা নয়, বরং সুপরিকল্পিত হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছেন সদ্য কৈশোরোত্তীর্ণ এই মেয়েটি।

আসলে কি ঘটেছিল মনিরার ভাগ্যে? সরেজমিনে অনুসন্ধান করতে গিয়ে জানা যায় ভিন্ন এক গল্প। একই গ্রামের নোবেলের সাথে ছিল মনিরার প্রেম। এই প্রেমের ঘটনা জানাজানি হয়ে গেলে বিষয়টি কোনভাবেই মেনে নিতে পারেনি মনিরাদের পরিবার। ফলে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থী এই মেয়ের উপর নেমে আসে বাবা খোরশেদ ও ভাই সোহেলের খড়্গহস্ত। মনিরাকে প্রথমে নজরবন্দী করা হয়, তারপর থেকেই বাড়তে থাকে বাবা ও ভাইয়ের সম্মিলিত অত্যাচার। সর্বশেষ গত ২৪ অক্টোবর বাবার সঙ্গে মেয়ের বাকবিতণ্ডা হলে, ওই দিনই মনিরাকে প্রচণ্ড মারধর করেন তিনি। এতে মনিরার মৃত্যু হয়।

তার মৃত্যুর পর প্রথমে পরিবারের সদস্যরা কি করবে বুঝে উঠতে পারে না। লাশ নিয়ে যাওয়া হয় মামাবাড়ীতে। সেখানে মনিরার লাশ রাখতে অস্বীকৃতি জানানো হলে, একটি ড্রামের ভিতরে করে মেয়েটির লাশ রাখা হয় পরিত্যক্ত একটি ঘরে। তারও কয়েকদিন পর লাশে পচন ধরলে রাতের অন্ধকারে লাশটি পুঁতে ফেলা হয় বাড়ির আঙ্গিনায়। সেই সাথে প্রচার করা হয় মনিরার অন্তর্ধানের কল্পিত গল্প।

এই ঘটনায় সত্যতা নিশ্চিত করেছেন শিবপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ সৈয়দুজ্জামান। নিউজনেক্সটবিডি ডটকম’কে তিনি জানান, মনিরা হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে এখন পর্যন্ত মনিরার বাবা খোরশেদ আলম ও ভাই সোহেল মিয়াকে আটক করেছে পুলিশ। বাকীদেরও গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, বাড়ির পাশে বিল্লাল মিয়ার টেক্সটাইল মিলের ম্যানেজার নোবেলের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কের কারণেই এই পরিণতি বরণ করতে হয়েছে মনিরাকে। তাদের প্রেমে বাধা হয়ে দাঁড়ানো বাবা ও ভাইয়ের নির্যাতনের কারণেই এই হত্যারকাণ্ডের ঘটনা ঘটে থাকতে পারে বলে ধারণা করছেন তারা।

এলাকাবাসী সূত্রে আরো জানা যায়, গত রোববার মনিরার বড় বোন নাদিরা বেগম স্থানীয় ইউপি মেম্বার আমির হোসেনকে জানান, তার বোন মনিরা আক্তার সাতদিন আগে সিলিং ফ্যানে ঝুলে আত্মহত্যা করেছে। পরে তার বাবা ও ভাই গোপনে বাড়ির পাশে মনিরা আক্তারের মরদেহ মাটিচাপা দিয়ে রাখে।

মনিরা হত্যাকান্ডের ঘটনায় আরো বিস্তারিত জানতে তার বোন নাদিরার সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তার মুঠোফোন সংযোগটি বন্ধ পাওয়া যায়। আর শিবপুর থানার পুঠিয়া বাজার ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সালাহউদ্দীন গাজী জিনু জানান, পোস্টমর্টেম রিপোর্ট না পাওয়া পর্যন্ত এই ব্যপারে কোন মন্তব্যই করবেন না তিনি।

তবে মনিরার বোন কিংবা এলাকার চেয়ারম্যান এই ব্যপারে মন্তব্য না করলেও, মনিরার জন্য রাস্তায় নেমেছে তার সহপাঠীরা। মঙ্গলবার হত্যাকাণ্ডের বিচার দাবীতে মানববন্ধনও করেছে তারা। এদিন নরসিংদী ইম্পেরিয়াল কলেজের বেশ কয়েকজন শিক্ষক জানান, মনিরা আত্মহত্যার করার মতো মেয়ে নয়। তাই তারাও ধারণা করছেন মনিরা হয়তো খুন হয়েছে। তবে মনিরা হত্যাকাণ্ডের পেছনে কারা জড়িত থাকতে পারে, এই ব্যপারে মন্তব্য করতে রাজি হয়নি কেউই।


সর্বশেষ

আরও খবর

বাঁশখালীতে বিদ্যুৎকেন্দ্রে শ্রমিক-পুলিশ সংঘর্ষে ৪ জন নিহত

বাঁশখালীতে বিদ্যুৎকেন্দ্রে শ্রমিক-পুলিশ সংঘর্ষে ৪ জন নিহত


হাসপাতালের বেডে সুইসাইড নোট রেখে করোনা রোগীর আত্মহত্যা

হাসপাতালের বেডে সুইসাইড নোট রেখে করোনা রোগীর আত্মহত্যা


করোনা নিয়ে ওবায়দুল কাদেরের কবিতা

করোনা নিয়ে ওবায়দুল কাদেরের কবিতা


আলেমদের ওপর জুলুম আল্লাহ বরদাশত করবেন না: বাবুনগরী

আলেমদের ওপর জুলুম আল্লাহ বরদাশত করবেন না: বাবুনগরী


সকালে কন্যা সন্তানের জন্ম, বিকালেই করোনায় মায়ের মৃত্যু

সকালে কন্যা সন্তানের জন্ম, বিকালেই করোনায় মায়ের মৃত্যু


করোনায় দেশে একদিনে শতাধিক মৃত্যুর রেকর্ড

করোনায় দেশে একদিনে শতাধিক মৃত্যুর রেকর্ড


করোনায় মৃতের সংখ্যা ছাড়াল ১০ হাজার

করোনায় মৃতের সংখ্যা ছাড়াল ১০ হাজার


জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বের হলেই জরিমানা

জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বের হলেই জরিমানা


লকডাউনের নামে সরকার ক্র্যাকডাউন চালাচ্ছে: ফখরুল

লকডাউনের নামে সরকার ক্র্যাকডাউন চালাচ্ছে: ফখরুল


আসামে বন্দী রোহিঙ্গা কিশোরীকে কক্সবাজারে চায় পরিবার

আসামে বন্দী রোহিঙ্গা কিশোরীকে কক্সবাজারে চায় পরিবার