Tuesday, November 8th, 2016
আবারও সমাবেশের অনুমতি চাইবে বিএনপি
November 8th, 2016 at 1:38 pm
আবারও সমাবেশের অনুমতি চাইবে বিএনপি

নিজস্ব প্রতিবেদক: আগামী রবিবার (১৩ নভেম্বর) সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশের জন্য ফের অনুমতি চাওয়া হবে বলে জানিয়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

মঙ্গলবার দুপুরে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক জরুরী সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি।

প্রথমে ১১ তারিখের কথা উল্লেখ করলেও তা সংশোধন করে ১৩ তারিখ সমাবেশের অনুমতি চাইবে বলে জানান।

মির্জা ফখরুল বলেন, সরকার গণতন্ত্র বিশ্বাস করে না, জনগনকে সরকার ভয় পায়। এর জন্যই বিএনপিকে সমাবেশের অনুমতি দিচ্ছে না।

তিনি বলেন, বিপ্লব ও সংহতি দিবস উপলক্ষে পূর্ব থেকেই আমাদের একটি কর্মসূচি করা কথা ছিল। এ সম্পর্কে আমরা বারবার জানিয়েও আসছি, কিন্তু আমাদের অনুমতি তো দেয়ইনি বরং আজকে নয়াপল্টনে বিএনপির কার্যালয়ের সামনে এতো পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে দেখে মনে হবে কোনো যুদ্ধক্ষেত্র তৈরি হয়েছে।

শুধু সোহরাওয়ার্দী উদ্যান নয়, সারা দেশেই বিপ্লব ও সংহতি দিবস উপলক্ষে বিএনপি যেন কোনো সমাবেশ না করতে পারে সে জন্য জেলা প্রশাসকদের বলে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেন বিএনপির এ নেতা।

তিনি বলেন, আমরা উদ্যানের পরিবর্তে রাস্তায় সমাবেশ করতে চাইলাম কিন্তু গতকাল সিটি কর্পোরেশন থেকেও বলে দেওয়া হয়েছে রাস্তায় কোনো প্রকার সমাবেশ করা যাবে না। অথচ আওয়ামী লীগ প্রতিদিনই বিভিন্ন স্থানে সমাবেশ করছে। রাস্তায় মিছিল মিটিং করছে। তাতে কোনো সমস্যা নেই। এতে করেই বোঝা যায় তারা আবারও বাকশাল কায়েম করতে চায়।

বর্তমান পরিস্থিতিকে ফ্যাসিবাদি উল্লেখ করে তিনি বলেন, বর্তমান সময়কে ফ্যাসিবাদি ছাড়া আর কিছু বলা যায় না। সারাক্ষণ ভয়ভীতি দেখিয়ে বিরোধী দলের মতকে দাবিয়ে রাখার চেষ্টা করছে সরকার। আমাদের নেতাকর্মীদের উপর মিথ্যা মামলা দিয়ে গণহারে গ্রেফতার করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের এমন আচরন সংবিধান পরিপন্থী। সংবিধানে বিরোধী দলের মত প্রকাশের স্বাধীনতা আছে। কিন্তু আমাদের কোনো মত প্রকাশ করতে দেয়া হচ্ছে না। এতে করে দেশে কখনই গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক পরিবেশ সৃষ্টি হবে না বলেও জানান তিনি।

আবারও অনুমতি না দিলে কী করবেন সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমরা অনুমতির জন্য চাইতেই থাকবো তবে না দিলে পরবর্তীতে আমাদের কর্মসূচি ঘোষণা করবো।

মির্জা ফখরুল হুশিয়ারি দিয়ে বলেন, জনগণের ধৈর্যের বাঁধ ভেঙ্গে গেলে কী হবে তা কেউ জানে না।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন, আব্দুস সালাম, রুহুল কবির রিজভী, সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল প্রমুখ।

প্রতিবেদক: শেখ রিয়াল, সম্পাদনা: প্রণব


সর্বশেষ

আরও খবর

আসামে বন্দী রোহিঙ্গা কিশোরীকে কক্সবাজারে চায় পরিবার

আসামে বন্দী রোহিঙ্গা কিশোরীকে কক্সবাজারে চায় পরিবার


ছয় দিনে নির্যাতিত অর্ধশত সাংবাদিক: মামলা নেই, কাটেনি আতঙ্ক

ছয় দিনে নির্যাতিত অর্ধশত সাংবাদিক: মামলা নেই, কাটেনি আতঙ্ক


ঢাকা-দিল্লি ৫ সমঝোতা স্মারক সই

ঢাকা-দিল্লি ৫ সমঝোতা স্মারক সই


করোনায় আরও ৩৯ মৃত্যু

করোনায় আরও ৩৯ মৃত্যু


করোনায় আক্রান্ত শচীন

করোনায় আক্রান্ত শচীন


নাশকতা ঠেকাতে র‍্যাব-পুলিশের কঠোর অবস্থান

নাশকতা ঠেকাতে র‍্যাব-পুলিশের কঠোর অবস্থান


শুক্র ও শনিবার যান চলাচল নিয়ন্ত্রিত থাকবে

শুক্র ও শনিবার যান চলাচল নিয়ন্ত্রিত থাকবে


মতিঝিলে মোদিবিরোধী বিক্ষোভ, শিশুবক্তা রফিকুলসহ অন্তত ১০ জন আটক

মতিঝিলে মোদিবিরোধী বিক্ষোভ, শিশুবক্তা রফিকুলসহ অন্তত ১০ জন আটক


ঈদের পর স্কুল-কলেজ খোলার ইঙ্গিত শিক্ষামন্ত্রীর

ঈদের পর স্কুল-কলেজ খোলার ইঙ্গিত শিক্ষামন্ত্রীর


৮ মাস পর দেশে করোনায় এক দিনে সর্বোচ্চ ৩৫৫৪ শনাক্ত

৮ মাস পর দেশে করোনায় এক দিনে সর্বোচ্চ ৩৫৫৪ শনাক্ত