Monday, June 13th, 2016
আমার কথা…আমাদের কথা
June 13th, 2016 at 8:31 pm
আমার কথা…আমাদের কথা

পৌলোমী চ্যাটার্জ্জী: কলকাতায় ফেরা প্রায় বছর পাঁচেক পরে| স্কুল, কলেজের গন্ডি পেরিয়ে পেশার প্রয়োজনে দূরে সরে থাকা আমার প্রিয় শহর থেকে – সেই শহর থেকে যে শহর ‘জানে আমার প্রথম সব কিছু’| আমাদের মানে যাদের শৈশব আর কৈশোর কেটেছে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, জীবনানন্দ দাশ, সত্যজিৎ রায়, বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায় বা মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়ের লেখার মধ্যে দিয়ে, প্রবাসকালে তাদের কাছে নস্টালজিয়া এক বিষম বস্তু| যে কোনো বাঙালি আড্ডায় তাই অনায়াসেই উঠে আসত আমাদের সেই ফেলে আসা দিনগুলোর কথা|

রবীন্দ্রনাথ পড়ে প্রথমবারের মুগ্ধতা জড়ানো স্মৃতি বিহ্বল করে দিত মাঝে মাঝে| আবার ভয় ও করত – মনে হত Milan  Kundera, O’Henry  বা Leonard Cohen পড়তে পড়তে জীবনদর্শন বা জীবনবোধে এমন কোনো পরিবর্তন আসবে না তো – যা আমার রাবীন্দ্রিক চেতনায় কোনো ধূসর আস্তরণ ফেলে দেয়-কোথাও যেন পাল্টে যাই আমি| কিন্তু এই অজানা ভয় কে আশকারা দিইনি কখনো – কারণ কবি ই তো বলেছেন – ‘সম্ভব পরের জন্য সবসময় প্রস্তুত থাকাটাই সভ্যতা| বর্বরতা পৃথিবীতে সকল বিষয়েই অপ্রস্তুত|’ তাই আধুনিক জীবনে চলতে চলতে পাশ্চাত্য সাহিত্য জগতে প্রবেশ করতেও দ্বিধাগ্রস্ত হইনি কখনো|

robi (1)

গত বছরের শেষের দিকে কলকাতায় ফিরলাম অবশেষে| পারিবারিক ও কর্মজীবনে পরিবর্তন হলো বেশ কিছু| বিছিন্ন হওয়া কিছু যোগাযোগ পুনঃস্থাপন করার সুযোগ হলো|আলাপ হলো কিছু নতুন মানুষের সাথে যাদের থেকে শিখলাম অনেক কিছু – পারিবারিক ক্ষেত্রে পরিচয় হলো শ্রীযুক্ত বরুণ কান্তি চট্টপাধ্যায় এর সাথে|

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ছোটগল্প, উপন্যাস থেকে শুরু করে চিঠিপত্র, প্রবন্ধ বা নাটক- সবকিছুই আমার বড় পছন্দের, হৃদয়ের বড় কাছাকাছি| আর সব মুগ্ধতাকে ছাপিয়ে যায় যা-তা হলো রবীন্দ্রসঙ্গীত| রবীন্দ্রসঙ্গীত বলতেই যার বা যাদের কথা প্রথম মনে আসে দেবব্রত বিশ্বাস তাদের মধ্যে অন্যতম| সেই কিংবদন্তি শিল্পীকে নিয়েই দৈনন্দিন চর্চা বরুণ চট্টোপাধ্যায়ের| পেশায় ইঞ্জিনিয়ার হয়েও সঙ্গীতচর্চা যার জীবনের সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে জড়িত, দেবব্রত বিশ্বাস এবং তার অপ্রকাশিত গানগুলো মানুষের কাছে আরো বেশি করে পৌছে দেয়ার সফল প্রয়াস তাই  তাকে ব্যতিক্রমী চরিত্র করে দেয়|  মুগ্ধ বিস্ময়ে তার কাছে শোনার সুযোগ হলো দেবব্রত বিশ্বাসকে নিয়ে অনেক অজানা তথ্য | তারই অক্লান্ত পরিশ্রমে গড়ে তোলা ‘দেবব্রত বিশ্বাস স্মরণ কমিটি’ হঠাৎ করেই যেন আমাদের সুযোগ করে দিল এক ব্যতিক্রমী আনন্দসন্ধ্যায় উপস্থিত থাকবার |

আমরা বাঙালিরা যারা রবীন্দ্রনাথকে ছাড়া একটা দিনও অতিবাহিত করতে পারিনা- তাদের কাছে রাবীন্দ্রিক সন্ধ্যা এক বড় আনন্দের উপহার | তাই দৈনন্দিন জীবনের একঘেয়েমিকে দূরে সরিয়ে রেখে, কিছুটা সময় চুরি করে নেওয়ার লোভ সামলাতে পারলাম না |

গত ২০ শে মে শিশির মঞ্চে ‘দেবব্রত বিশ্বাস স্মরণ কমিটি’ আয়োজিত “কবি প্রণাম” অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকতে পেরে এক আনন্দের তৃপ্তিতে ভরে উঠলো মন |

না, শুধু রবীন্দ্রসঙ্গীত শোনার সুযোগের জন্য নয়, বা পারিবারিক একত্রীকরণের দুর্লভ মুহূর্তকে কামেরাবন্দী করার সক্ষমতায় নয় – বরং এটা ভেবে যে আমি এখনো একইরকম উদ্বেল হই যখন রবীন্দ্রসঙ্গীত শুনি | এক অজানা আনন্দ আর দুঃখের সমন্বয়ে রবীন্দ্রসঙ্গীত আজও আমাকে ভাবায় – অন্তত খাতা কলম বের করে আবার লিখতে বসার অনুপ্রেরণা তো জোগায় বটেই | এখানেই বোধহয় কবিগুরুর সার্থকতা – আর শ্রেষ্ঠত্বের প্রমাণ সেই শিল্পীর যাঁর স্বরে ‘আকাশ ভরা সূর্য তারা বিশ্ব ভরা প্রাণ’ আমাকে কোন স্বপ্নের রাজ্যে নিয়ে চলে যায় – শিহরণ জাগে সমস্ত শরীর ও মন জুড়ে |

অবাক করে দেন আমাকে বাংলাদেশের কোন সুদূরপ্রান্ত থেকে আসা বাচিক শিল্পী শ্রী বিধান চন্দ্র পাল – আমাদের এ রাজ্যের শঙ্খ ঘোষ বা পঙ্কজ সাহার লেখা পড়তে পড়তে কিভাবে যেন তিনি মিলিয়ে দেন দুই দেশের মানুষকে – তাদের ভাবনাকে, মননকে, চেতনাকে | হ্যাঁ পারেন দেবব্রত বিশ্বাস – তিনিই পারেন এই কঠিন সম্ভবকে বাস্তবায়িত করতে তাঁর গানের মধ্যে দিয়ে |

তাই যখন দেখি প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার শ্রীযুক্ত তুষার তালুকদার তাঁর স্বভাবসুলভ শান্ত বাচনভঙ্গিতে তুলে ধরেন দেবব্রত বিশ্বাস ও হেমন্ত মুখোপাধ্যায়ের দ্বৈত গানের কাহিনী – তখন মনে হয়  এখনো ‘জীবন আছে / জীবনের স্বাদ রহিয়াছে’|

একালের শিল্পী রাজশ্রী ভট্টাচার্যের গান মন্ত্রমুগ্ধ করে দেয় ‘আমায়’- না, বরং বলা ভালো ‘আমাদের’| নতুন, পুরনো সব প্রজন্মকে একসূত্রে বাঁধতে পারেন তিনি, তাঁর গান – সেই তো তাঁর সাফল্য |

এক সশ্রদ্ধ নমস্কারে মাথা নত হয়ে যায় যার প্রতি – তিনি উল্লিখিত হন ‘সকল কাজের কাজী’ হিসাবে – পর্দার আড়াল থেকে সম্পূর্ণ অনুষ্ঠানকে এত সুন্দরভাবে সাজানোর পাশাপাশি যাঁর অক্লান্ত পরিশ্রমে আর আধুনিক বিজ্ঞানের অগ্রগতির সৌজন্যে পুরো অনুষ্ঠানটা কামেরাবন্দী হয়ে থাকলো আমাদের সকলের ভবিষ্যতের জন্য , আগামী প্রজন্মের জন্য | প্রতিমা মুখোপাধ্যায় বা শ্রীনন্দা মুখোপাধ্যায়ের মুখে দেবব্রত বিশ্বাসের স্মৃতিচারণা শুনতে শুনতে এক ভালোলাগার আবেশ ছড়িয়ে পড়ে মনে – তবু সব ভালোলাগার মাঝেই যেমন অপূর্ণতার অস্বস্তি থেকে যায় তেমনই কখনো কখনো কষ্ট দেয় আমাদের পারিপার্শ্বিকতা |

শিশির মঞ্চের ওই অডিটোরিয়াম এ  বেশ কিছু আসন শূন্যতা মনে করিয়ে দিছিল সেই গান টা ‘প্রাণে গান নাই মিছে তাই রবি ঠাকুর মূর্তি গড়া’ | স্তম্ভিত হয়ে গেলাম দেখে কিছু শ্রোতা যখন আসন ছেড়ে উঠে যাচ্ছেন সেই মায়াময়

সঙ্গীতের মাঝপথে – যেসব গান একদিন রবীন্দ্রসদন বা নন্দনে জনপ্লাবন ঘটাত, আজ সেই গান অধরাই থেকে যাচ্ছে আমাদের মনে | মনে পড়ছিল আমাদের ছেলেবেলার কথা – তখনো বোধহয় আমরা এতটা যান্ত্রিক হয়ে পরিনি | নন্দন, রবীন্দ্রসদন বা শিশির মঞ্চের কোনো অনুষ্ঠানকে ঘিরে বাবা, মায়েদের সে কি উৎসাহ, উদ্দীপনা – উপস্থিত থাকবার সুযোগ না পাওয়ার আশঙ্কায় মানসিক চঞ্চলতা |

অবাক হয়ে ভাবছিলাম কোথায় আমাদের বর্তমান প্রজন্ম – আমার সমসাময়িক বন্ধুরা! এই কি তবে একবিংশ শতাব্দীর পরিহাস! বাঙালির সাহিত্যপ্রীতি, সঙ্গীতপ্রীতির এ কি পরিণাম আজ! তবে কি যান্ত্রিকতা গ্রাস করলো আমাদের|

যে সাহিত্য, সঙ্গীত এককালে ছিল আমাদের গর্ব , যাকে বাঁচিয়ে রাখা আমাদের জীবনের সবচেয়ে বড় সাফল্য – তাকে কোথায় ঠেলে দিচ্ছি আমরা! বিজ্ঞান মনস্কতার অর্থ তো সাহিত্য থেকে দূরে থাকা নয় – সাহিত্য, শিল্প আর সঙ্গীত হলো চিরন্তন – একে বাঁচিয়ে রাখতেই হবে আমাদের জন্য, পরবর্তী প্রজন্মের জন্য | তবেই তো হবে আমাদের আত্মিক অগ্রগতি – বিজ্ঞানকে দূরে রেখে নয় – বিজ্ঞান ও সাহিত্যের সমন্বয়ে বাঙালি এগোবেই- আর তাই কবির কথায় শেষ করি -‘শতবর্ষ কেটে যাবে , হয়ত বা ছিঁড়ে যাবে স্বপ্নের জাল/ তবুও কবিতা , তবু কবি এই পৃথিবীতে বেঁচে রবে চিরকাল’|

লেখক: পৌলোমী চ্যাটার্জ্জী,  দমদম, কলকাতা

 


সর্বশেষ

আরও খবর

রাজনৈতিক কড়চায় শফী’র মৃত্যু!

রাজনৈতিক কড়চায় শফী’র মৃত্যু!


গণমাধ্যম, স্বাধীনতা এবং মিডিয়া মালিকানা

গণমাধ্যম, স্বাধীনতা এবং মিডিয়া মালিকানা


ওসি প্রদীপের বিচার ! রাষ্ট্রের দায়!!

ওসি প্রদীপের বিচার ! রাষ্ট্রের দায়!!


সীমান্ত জটিলতায় চীন-ভারত  বন্ধুত্ব

সীমান্ত জটিলতায় চীন-ভারত বন্ধুত্ব


প্রসঙ্গ:করোনা কালে ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলের অমানবিক আচরণ

প্রসঙ্গ:করোনা কালে ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলের অমানবিক আচরণ


ভোটের ঈমান বনাম করোনার ঈমান

ভোটের ঈমান বনাম করোনার ঈমান


কালের হিরো খন্দকার খোরশেদ

কালের হিরো খন্দকার খোরশেদ


করোনাকালের খোলা চিঠি

করোনাকালের খোলা চিঠি


সিগেরেট স্মৃতি!

সিগেরেট স্মৃতি!


পাঠকের-জনতার ‘মিটেকড়া-ভীমরুল’ এবং একটি পর্ট্রেট

পাঠকের-জনতার ‘মিটেকড়া-ভীমরুল’ এবং একটি পর্ট্রেট