Sunday, December 18th, 2016
ইলেকটররা ট্রাম্পের পক্ষে না থাকলে যা ঘটবে 
December 18th, 2016 at 11:05 pm
ইলেকটররা ট্রাম্পের পক্ষে না থাকলে যা ঘটবে 

ওয়াশিংটন: নবনির্বাচিত মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বর্তমানে তার মন্ত্রিসভার মনোনয়ন দিতে এবং বিভিন্ন এজেন্ডার পরিকল্পনায় ব্যস্ত সময় পার করছেন। যদিও ৮ নভেম্বরে অনুষ্ঠিত প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে তিনি ৩০৬ টি ইলেকটোরাল কলেজ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন কিন্তু আনুষ্ঠানিকভাবে এখনো তিনি মার্কিন প্রেসিডেন্ট নন। এক্ষেত্রে মার্কিন গণতন্ত্রের অদ্ভুত এক বৈশিষ্ট্যের কারণে ইলেক্টোরাল কলেজের ৫৩৮ জন ইলেকটরের একটি গ্রুপ ৩১৮ মিলিয়ন জনগণের প্রেসিডেণ্ট নির্বাচিত করেন।

১৯ ডিসেম্বর নিজ নিজ রাজ্যে এসব ইলেকটররা মহান এই দায়িত্বটি পালন করবেন। সাধারণত তারা জনগণের রায়ের বিরুদ্ধে যান না। কিন্তু রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প অপ্রত্যাশিতভাবে ৪৫তম মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পরে অনেকেই আশা করছেন, এবার অন্তত ইলেকটররা অন্যান্যবারের মতো জনগণের রায় অনুযায়ী প্রেসিডেন্ট বেছে নিবেন না। ফলে এবারে হয়তো বেশ কিছু ‘ফেইথলেস ইলেকটর’ অর্থাৎ অবিশ্বস্ত ইলেকটরের দেখা মিলতে পারে।

অবশ্য জনগণের নির্বাচিত প্রতিনিধিকেই প্রেসিডেন্ট হিসেবে মনোনীত করার জন্য ইলেকটরদের সাংবিধানিক কোনো বাধ্যবাধকতা নেই। নির্বাচন পরবর্তী সময়ে ইলেকটরদের দ্বারা এই অদ্ভুত নির্বাচনের পদ্ধতিটি ১৭৮৭ সালে সাংবিধানিক কনভেনশনে প্রতিষ্ঠিত হয়। এক্ষেত্রে মার্কিন সংবিধান প্রণেতারা চেয়েছিলেন, জনগণের প্রত্যক্ষ ভোটে যদি অযোগ্য কেউ নির্বাচিত হয় তাহলে ইলেকটররা যেন তাকে প্রত্যাখ্যান করতে পারে। সুতরাং ১৯ ডিসেম্বর হবু প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে প্রত্যাখ্যান করার সুযোগ রয়েছে ইলেক্টোরাল কলেজ সদস্যদের।

১৯ ডিসেম্বর ইলেকটররা কি করতে পারেন তা ধারণা করা যেতে পারে। হয়তো অন্যান্যবারের মতোই স্বাভাবিকভাবেই তারা জনগণের মতামতকে  সম্মান জানিয়ে ট্রাম্পকেই জয়ী করবেন। নতুবা ফেইথলেস ভোটাররা হিলারির পক্ষে ঝুঁকতে পারেন। ফলে ডেমোক্রেটিক প্রার্থী হিলারি ক্লিনটন প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হতে পারেন। এছাড়া ট্রাম্পের ইলেকটররা দল ত্যাগ করতে পারেন এবং কোনো প্রার্থীই প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার জন্য ২৭০ টি ভোট নাও পেতে পারেন। ফলে আবারো ভোট হতে পারে। জানুয়ারির ২০ তারিখ পর্যন্ত কেউ প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত না হলে নতুন নির্বাচিত ভাইস প্রেসিডেন্ট ভারপ্রাপ্ত প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পেতে পারেন।

উল্লেখ্য ২০১৬ সালের মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ৩০৬টি ইলেকটোরাল কলেজ ভোট পেয়ে ধনকুবের ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন কিন্তু পপুলার ভোটের হিসেবে ট্রাম্পকে ছাড়িয়ে গেছেন হিলারি ক্লিনটন। তিনি ট্রাম্পের চেয়ে প্রায় ৩ মিলিয়ন ভোট বেশি পান। কিন্তু ব্যাটেলগ্রাউন্ড হিসেবে পরিচিত রাজ্যগুলোতে পরাজিত হয়ে ইলেক্টোরাল কলেজ ভোট পান মাত্র ২৩২টি।সূত্র: সিএনএন

গ্রন্থনা: ফারহানা করিম, সম্পাদনা: জাহিদ


সর্বশেষ

আরও খবর

গুলিবিদ্ধ সাংবাদিক মারা যাওয়ার ৬০ ঘন্টা পরে পরিবারের মামলা

গুলিবিদ্ধ সাংবাদিক মারা যাওয়ার ৬০ ঘন্টা পরে পরিবারের মামলা


করোনায় ২৪ ঘণ্টায় আরও ৭ মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৩২৭

করোনায় ২৪ ঘণ্টায় আরও ৭ মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৩২৭


নামাজ পড়ানোর সময় সিজদারত অবস্থায় ইমামের মৃত্যু

নামাজ পড়ানোর সময় সিজদারত অবস্থায় ইমামের মৃত্যু


ভাষার বৈচিত্র্য ধরে রাখার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

ভাষার বৈচিত্র্য ধরে রাখার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর


করোনায় আরও জনের ১৫ মৃত্যু, শনাক্ত ৩৯১

করোনায় আরও জনের ১৫ মৃত্যু, শনাক্ত ৩৯১


৩ কোটি ২০ লাখ রুপিতে কেকেআরে সাকিব

৩ কোটি ২০ লাখ রুপিতে কেকেআরে সাকিব


খাদ্যে ভেজাল রোধে কঠোর আইন প্রয়োগের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

খাদ্যে ভেজাল রোধে কঠোর আইন প্রয়োগের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর


করোনায় আরও ১৩ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৩৯৬

করোনায় আরও ১৩ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৩৯৬


অভিজিৎ রায় হত্যায় ৫ জনের মৃত্যুদণ্ড, যাবজ্জীবন ১ জন

অভিজিৎ রায় হত্যায় ৫ জনের মৃত্যুদণ্ড, যাবজ্জীবন ১ জন


সব মহাসড়কে টোল আদায়ের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

সব মহাসড়কে টোল আদায়ের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর