Monday, June 26th, 2017
ঈদের নৈশভোজ রীতি বাতিল ট্রাম্পের
June 26th, 2017 at 7:54 pm
ঈদের নৈশভোজ রীতি বাতিল ট্রাম্পের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ক্ষমতা নেয়ার প্রথম বছরেই দীর্ঘ ২০ বছরের রীতি বাতিল করে দিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। মুসলিম ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম প্রধান উৎসব ঈদ-উল-ফিতরের দিনে হোয়াইট হাউজে নৈশ ভোজের নিয়ম তিনি বাতিল করেছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটনের সময় থেকে প্রতি বছরই হোয়াইট হাউজে ঈদের দিন এই নৈশভোজের আয়োজন করা হচ্ছিল। সেখানে যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসরত নানা শ্রেণীপেশার মুসলিম নাগরিক আমন্ত্রণ পেতেন। প্রেসিডেন্টের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতেন এবং নৈশভোজে অংশ নিতেন।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প এক বিবৃতিতে বলেছেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রের জনগণের পক্ষ থেকে মেলানিয়া এবং আমি মুসলিমদের প্রতি ঈদুল ফিতর উপলক্ষে আমাদের উষ্ণ শুভেচ্ছা জানিয়েছি।’

‘এই ছুটির সময় আমাদের করুণা, দয়া এবং শুভেচ্ছার গুরুত্ব মনে করিয়ে দেয়া হয়। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বিশ্বের মুসলিমদের সঙ্গে এসব মূল্যবোধকে সম্মান করার অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করছে। ঈদ মুবারক।’

উল্লেখ্য, হোয়াইট হাউসে প্রথম ইফতার ডিনার দেয়া হয়েছিল ১৮০৫ সালে – প্রেসিডেন্ট টমাস জেফারসনের সময়, একজন তিউনিসিয়ান রাষ্ট্রদূতের সম্মানে। পরে মার্কিন ফার্স্ট লেডি হিলারি ক্লিনটন এই প্রথা পুনরুজ্জীবিত করেন ১৯৯৬ সালে।

১৯৯৯ সাল থেকে এটা হোয়াইট হাউসের নিয়মিত অনুষ্ঠানে পরিণত হয় – যাতে মার্কিন মুসলিম সমাজের নেতৃবৃন্দ, কূটনীতিক এবং আইনপ্রণেতারা যোগ দিতেন।

নিয়মটি পরবর্তীতে যুক্তরাষ্ট্রে নির্বাচিত প্রতিটি প্রেসিডেন্ট চালু রাখেন। কিন্তু ট্রাম্প এই নিয়মের কোন প্রয়োজনীয়তা দেখছেন না। ১ মাস সিয়াম সাধনার এই দিনটি মুসলিম সম্প্রদায়ের জন্য এক আনন্দঘন দিন হিসেবে গণ্য হয়।

ডোনাল্ড ট্রাম্প অবশ্য প্রেসিডেন্ট হিসেবে নির্বাচিত হওয়ার আগে থেকেই মুসলিম বিদ্বেষী মনোভাব দেখিয়ে আসছেন। নির্বাচনে বিজয়ের পরও বিশেষ ক্ষমতাবলে নানা মুসলিম বিরোধী সিদ্ধান্ত নিতে তাকে দেখা গেছে। ঈদ-উল-ফিতরে মুসলিম সম্প্রদায়কে সস্ত্রীক শুভেচ্ছা জানালেও তা শুধুই নিয়মরক্ষা বলে বিশ্লেষকদের অভিমত।

ঈদের দিন শুধু নৈশভোজই নয়, রোজার মাসে হোয়াইট হাউজে প্রেসিডেন্টের পক্ষ থেকে কোনো ইফতার পার্টির আয়োজনও করা হয়নি। কিন্তু বিল ক্লিনটন প্রেসিডেন্ট থাকাকালে কোনো বছরই এমন অনুষ্ঠান বন্ধ থাকতে দেখা যায়নি। সূত্র: বিবিসি

প্রকাশ: ওয়াইএ


সর্বশেষ

আরও খবর

রাখাইনে ৬ লাখ রোহিঙ্গা গণহত্যার চরম ঝুঁকিতে: জাতিসংঘ

রাখাইনে ৬ লাখ রোহিঙ্গা গণহত্যার চরম ঝুঁকিতে: জাতিসংঘ


আফগানিস্তানে আত্মঘাতী হামলায় নিহত ২৪, তালেবানের দায় স্বীকার

আফগানিস্তানে আত্মঘাতী হামলায় নিহত ২৪, তালেবানের দায় স্বীকার


নাইন ইলেভেন: টুইন টাওয়ার হামলার ১৮ বছর

নাইন ইলেভেন: টুইন টাওয়ার হামলার ১৮ বছর


ইরাকে তাজিয়া মিছিলে পদদলিত হয়ে নিহত ৩১

ইরাকে তাজিয়া মিছিলে পদদলিত হয়ে নিহত ৩১


শেষ মুহূর্তে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন ভারতের চন্দ্রযান ২

শেষ মুহূর্তে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন ভারতের চন্দ্রযান ২


জিম্বাবুয়ের সাবেক প্রেসিডেন্ট মুগাবে মারা গেছেন

জিম্বাবুয়ের সাবেক প্রেসিডেন্ট মুগাবে মারা গেছেন


সৌদি ও আমিরাতের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে ইমরান খানের বৈঠক

সৌদি ও আমিরাতের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে ইমরান খানের বৈঠক


চীনে স্কুলে হামলায় ৮ শিশু নিহত

চীনে স্কুলে হামলায় ৮ শিশু নিহত


মিয়ানমারের সামরিক কলেজে বিদ্রোহীদের হামলায় নিহত ১৫

মিয়ানমারের সামরিক কলেজে বিদ্রোহীদের হামলায় নিহত ১৫


পাক-ভারত সীমান্তে গোলাগুলি, ভারতের ৫ ও পাকিস্তানের ৩ সেনা নিহত

পাক-ভারত সীমান্তে গোলাগুলি, ভারতের ৫ ও পাকিস্তানের ৩ সেনা নিহত