Friday, August 26th, 2016
উৎসবের আগে দুর্ভোগের ধর্মঘট
August 26th, 2016 at 8:58 pm
উৎসবের আগে দুর্ভোগের ধর্মঘট

দেলোয়ার মহিন, ঢাকা: প্রতিবার ঈদ আসলেই বাস কিংবা নৌযান ধর্মঘটের ডাক দেয়া হয়। আর এই ধর্মঘটের কারণে ভোগান্তিতে পড়েন সাধারণ যাত্রী ও ব্যবসায়ীরা। এবারও তার ব্যতিক্রম হয়নি। বেতন-ভাতা বৃদ্ধিসহ ১৫ দফা দাবিতে নৌ ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে নৌযান শ্রমিকরা। নৌযান চলাচল বন্ধ থাকায় সড়কের ওপর চাপ বেড়েছে। হচ্ছে না নৌবন্দরের পণ্য খালাস।

নৌ-পরিবহন শ্রমিকদের ডাকা ধর্মঘটের চতুর্থ দিন পার হলেও এর কোনো সুরাহা নেই। মালিক ও শ্রমিক পক্ষ একে অপরকে দোষারপ করছেন।

জানা গেছে, ধর্মঘটের প্রভাবে চট্টগ্রাম ও মংলা সমুদ্র বন্দর এবং আশুগঞ্জ নৌবন্দরে পণ্য খালাস বন্ধ রয়েছে। ঢাকার সদরঘাট থেকে অধিকাংশ যাত্রীবাহী লঞ্চ ছাড়েনি। এতে ভোগান্তিতে পড়েছেন যাত্রী ও ব্যবসায়ীরা। নৌযান বন্ধ থাকায় সড়কের ওপর চাপ বেড়েছে।

lanch-thumbnail

বেতন-ভাতা বৃদ্ধি, নদীর নাব্যতা রক্ষা ও নৌপথে ডাকাতি বন্ধসহ ১৫ দফা দাবিতে ‘নৌ শ্রমিক সংগ্রাম পরিষদ’ এর লাগাতার ধর্মঘটের ফলে সারা দেশে নৌযান চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। ফলে নৌপথে যাত্রী ও পণ্য পরিবহন হচ্ছে না। ন্যূনতম ১০ হাজার টাকা মজুরি নির্ধারণ করে নতুন বেতন কাঠামো ঘোষণাসহ ১৫ দফা দাবিতে নৌযান শ্রমিকরা এ কর্মসূচি পালন করছেন।

সোমবার রাত ১২টার পর থেকে নৌযান ধর্মঘট শুরু হয়। শুক্রবার এই ধর্মঘটের চতুর্থদিন। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে বলে জানান নৌযান শ্রমিক নেতারা।

ধর্মঘট আহ্বানকারী নৌ-শ্রমিক সংগ্রাম পরিষদের নেতারা বলেন, দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত লাগাতার কর্মসূচি চলবে।  আর এই কর্মবিরতির সমর্থনে দেশের বিভিন্ন স্থানে মিছিল-সমাবেশ করেছে এই সংগঠনের নেতারা।

তবে মঙ্গলবার সাংবাদিকদের নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান বলেছেন, শ্রমিকদের দাবি-দাওয়ার বিষয়ে শ্রম অধিদফতর কাজ করছে। আশা করছি, খুব শিগগিরই সমস্যার সুষ্ঠু সমাধান হবে।

তিনি বলেন, ‘নৌ-ধর্মঘটে সৃষ্ট অচলাবস্থা নিরসনে মালিক ও শ্রমিকরা নিজেরাই সমঝোতা করবেন। তারা ব্যর্থ হলে, সমঝোতার জন্য সরকার মধ্যস্থতায় রাজি আছে।’

নৌযান শ্রমিক সংগ্রাম পরিষদের আহ্বায়ক অয়েজুল ইসলাম বুলবুল মাস্টার নিউজনেক্সটবিডি ডটকমকে বলেন, ‘সারা দেশে নৌ-শ্রমিকদের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণে কর্মবিরতি পালন হচ্ছে। শ্রমিকদের সমস্যা সমাধানে সরকার কিংবা মালিকপক্ষ থেকে সমঝোতার কোনো প্রস্তাব পাইনি। সমঝোতা না হওয়া পর্যন্ত কর্মবিরতি চলবে।’

এদিকে নৌযান ধর্মঘটের বিষয়টি না জানায় ভোগান্তির শিকার হয়েছেন অনেক যাত্রী। শুক্রবার সকাল থেকেই সদরঘাটে প্রচুর সংখ্যক যাত্রী ভিড় জমান। লঞ্চ ছেড়ে না যাওয়ায় তারা ভোগান্তির শিকার হন।

সদরঘাটের কর্মকর্তারা বলেন, ধর্মঘট ডাক দেয়ার পর থেকে মঙ্গলবার বিকাল ৫টা পর্যন্ত ৩টি লঞ্চ ছেড়ে গেছে। সাধারণ এই সময়ে ৩৫-৪০টির মতো লঞ্চ ছেড়ে যায়। একই সময়ে বিভিন্ন গন্তব্য থেকে ৩৭টি লঞ্চ বন্দরে এসেছে।

তিনি বলেন, নৌযান শ্রমিকরা কাজ বন্ধ রাখায় বন্দরের বহির্নোঙরে পণ্য খালাস বন্ধ রয়েছে। তবে অয়েল ট্যাংকার শ্রমিকদের কাজ চলছে।

নৌযান শ্রমিক ফেডারেশন সভাপতি শাহ-আলম নিউজনেক্সটবিডি ডটকমকে বলেন, ‘নৌযান মালিক ও সরকার পদক্ষেপ নিলেই ধর্মঘট বন্ধ হতে পারে।’ ‘সবার সকল চাহিদা পূরন হতে পারে তবে আমাদের কেন নয়?’

তিনি আরো বলেন, সরকার ২০১৩ ও ২০১৪ সালে নৌযান শ্রমিকদের যে আশ্বাস দিয়েছেন তা পূরণ করেননি। ওটা কারো চোখে পড়ে না চোখে পড়ে শুধু শ্রমিকদের ধর্মঘট। শনি ও রোববারের মধ্যে একটা সমাধানে আসবে হবে বলে আশা করেন তিনি।

অন্য দাবিগুলো হলো, কর্মস্থলে দুর্ঘটনায় নিহত শ্রমিকদের ক্ষতিপূরণ পুনর্নির্ধারণ, নৌপথে সন্ত্রাস, ডাকাতি, চাঁদাবাজি বন্ধ ও নদীর নাব্যতা রক্ষায় পদক্ষেপ গ্রহণ করা।

বরিশালে মালিকদের হস্তক্ষেপে চলছে লঞ্চ

সম্পাদনা- জাহিদুল ইসলাম

 


সর্বশেষ

আরও খবর

করোনায় সারাদেশে আরও ২৪ জনের মৃত্যু

করোনায় সারাদেশে আরও ২৪ জনের মৃত্যু


দাখিল পরীক্ষা শুরু ১৪ নভেম্বর

দাখিল পরীক্ষা শুরু ১৪ নভেম্বর


এ বছরই দেশে ফাইভ জি চালু হবে: জয়

এ বছরই দেশে ফাইভ জি চালু হবে: জয়


বিমানবন্দরে শুরু হলো করোনার পরীক্ষামূলক পরীক্ষা

বিমানবন্দরে শুরু হলো করোনার পরীক্ষামূলক পরীক্ষা


ই-কমার্স বন্ধ না করে প্রতারণা ঠেকাতে আইন করার মতামত ৪ মন্ত্রীর

ই-কমার্স বন্ধ না করে প্রতারণা ঠেকাতে আইন করার মতামত ৪ মন্ত্রীর


করোনায় আরও ২৬ জনের মৃত্যু, চার মসে সর্বনিম্ন

করোনায় আরও ২৬ জনের মৃত্যু, চার মসে সর্বনিম্ন


ভারতে দুই হাজার টন ইলিশ রফতানির অনুমতি

ভারতে দুই হাজার টন ইলিশ রফতানির অনুমতি


করোনায় আরও ৪৩ জনের মৃত্যু

করোনায় আরও ৪৩ জনের মৃত্যু


রবিবার থেকে প্রতিদিন ৪ ঘণ্টা বন্ধ থাকবে সিএনজি স্টেশন

রবিবার থেকে প্রতিদিন ৪ ঘণ্টা বন্ধ থাকবে সিএনজি স্টেশন


প্রতি মাসে ২ কোটি টিকা দেয়ার পরিকল্পনা করছে সরকার

প্রতি মাসে ২ কোটি টিকা দেয়ার পরিকল্পনা করছে সরকার