Saturday, December 24th, 2016
এক নজরে ‘রিপল ২৪’
December 24th, 2016 at 7:10 pm
এক নজরে ‘রিপল ২৪’

ঢাকা: দক্ষিণখানের আশকোনার সূর্যভিলা নামের বাড়িটিতে প্রায় ১২ ঘন্টার জঙ্গি বিরোধী অভিযান শেষ হয়েছে। এই অভিযানের নাম দেয়া হয়েছে ‘রিপল ২৪’। এতে চারজন আত্মসমর্পণ করেছেন, নিহত হয়েছেন দুজন। শনিবার বিকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে অভিযানের সমাপ্তি ঘোষণা করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন পুলিশের মহাপরিদর্শক এ কে এম শহীদুল হক এবং ঢাকার পুলিশ কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া।

এর আগে শুক্রবার রাতে সূর্যভিলা নামের ওই বাড়িটিতে জঙ্গি আস্তানার খোঁজ পায় পুলিশ। পরে রাত দুইটার দিকে বাড়িটি ঘিরে ফেলা হয়। জঙ্গিদের আত্মসমর্পনের আহ্বান জানায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা।

যেভাবে ওই আস্তানার খোঁজ পায় পুলিশ:

দক্ষিণখানের আশকোনার সূর্যভিলা নামের বাড়িটিতে মহিলা ও শিশুসহ একদল জঙ্গি অবস্থান করছিল। এমন তথ্য পেয়ে শুক্রবার রাতে পুলিশ বাড়িটি ঘেরাও করে। ভোরে এখানে অভিযান চালায় পুলিশ। এসময় দুই আত্মঘাতী নিহত হয়। ছবি: নিউজনেক্সটবিডি ডটকম।

সূর্যভিলা ভবনে জঙ্গিরা যে অবস্থান করছে, সেই তথ্য পুলিশকে দেন রূপনগরে নিহত জঙ্গি প্রাক্তন মেজর জাহিদুল ইসলামের শাশুড়ি জহুরা আক্তার। তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতেই শুক্রবার গভীর রাতে বাড়িটি ঘিরে ফেলে পুলিশ।

বাড়ির অন্যান্য বাসিন্দাদের বের করে আনা হয়:

বাড়িটির নিচতলায় জঙ্গিদের অবস্থান সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়ার পরই পুলিশ পুরো বাড়ি ঘিরে ফেলে। এরপরে বাড়ির অন্যান্য বাসিন্দাদের পুলিশি হেফাজতে নিরাপদে সরিয়ে নেয়া হয়।

আত্মসমর্পণের জন্য মাইকিং:

বাড়ির সব বাসিন্দাদের নিরাপদে সরিয়ে আনার পর পুরো বাড়ি ঘিরে শক্ত অবস্থান নেয় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। এরপর জঙ্গি সদস্যদের উদ্দেশ্যে মাইকিং শুরু করে পুলিশ। তাদের আত্মসমর্পণের আহ্বান জানানো হয়।

চারজনের আত্মসমর্পণ:

দক্ষিণখানের আশকোনার সূর্যভিলা নামের বাড়িটিতে মহিলা ও শিশুসহ একদল জঙ্গি অবস্থান করছিল। এমন তথ্য পেয়ে শুক্রবার রাতে পুলিশ বাড়িটি ঘেরাও করে। ভোরে এখানে অভিযান চালায় পুলিশ। এসময় দুই আত্মঘাতী নিহত হয়। ছবি: নিউজনেক্সটবিডি ডটকম।

সকাল সাড়ে ৯টার ওই বাসা থেকে বেরিয়ে আসে রূপনগরে নিহত জঙ্গি জাহিদের স্ত্রী জেবুন্নাহার শিলা ও তার মেয়ে এবং পলাতক জঙ্গি মুসার স্ত্রী তৃষা ও তার সন্তান। তারা আত্মসমর্পণ করলে তাদের গোয়েন্দা পুলিশের কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হয়।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনারের ব্রিফিং:

বেলা সাড়ে ১২টার দিকে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া ব্রিফিং করে সাংবাদিকদের জানান, দুই নারী জঙ্গিসহ চারজন আত্মসমর্পণ করেছেন। বাসাটির ভেতরে এখনো তিনজন রয়েছে। তাদের একজন আজিমপুরে নিহত জঙ্গি তানভীর কাদেরীর ছেলে। বাকি দুজনের পরিচয় আমরা জানিনা, তবে তাদের মধ্যে মহিলা রয়েছেন।

সুইসাইডাল ভেস্টের বিস্ফোরণ ঘটান নারী জঙ্গি:

দুপুর একটার দিকে বাড়ির ভেতরে অবস্থানরত তিনজনকে আত্মসমর্পণ করতে বারবার আহবান করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। এক পর্যায়ে দরজা খুলে ওই নারী জঙ্গি সাত বছরের মেয়েটিকে নিয়ে বের হয়। তারা পার্কিংয়ের দিকে এগিয়ে আসে। এ সময় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা তাকে আবারো আত্মসমর্পণ করতে বলেন। কিন্তু তিনি বাম হাতে শিশুটিকে এগিয়ে ধরে, ডান হাত উপরে তোলার ভঙ্গি করে হাত নামিয়ে কোমরে রাখা বিস্ফোরকে চাপ দেন। সঙ্গে সঙ্গে বিস্ফোরণ ঘটে।

ওই নারী জঙ্গি আত্মঘাতী হওয়ার পর পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের কর্মকর্তা অতিরিক্ত উপ-কমিশনার মো. ছানোয়ার হোসেন সাংবাদিকদের জানান, জঙ্গি ইকবালের সাত বছরের মেয়েকে নিয়ে দরজা খুলে বেরিয়ে আসেন জঙ্গি সুমনের স্ত্রী। এরপরই তিনি সুইসাইড ভেস্টের বিস্ফোরণ ঘটান। এতে ওই নারী, শিশুসহ কয়েকজন পুলিশ কর্মকর্তা আহত হন। আহতদের হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আর রক্তাক্ত অবস্থায় ওই নারী পার্কিং গ্রাউন্ডে পড়ে আছে।

জঙ্গি তানভীর কাদেরীর ছেলের মৃত্যু:

বাড়ির ভেতরে সুইসাইডাল ভেস্ট ও প্রচুর বিস্ফোরক থাকায় জঙ্গি তানভীর কাদেরীর ছেলে আফিফ কাদেরীকে নিস্তেজ করতে ভেতরে টিয়ারসেল ছোঁড়ে পুলিশ। একপর্যায়ে সে ভেতর থেকে গুলি করে ও গ্রেনেড ছোঁড়ে। পুলিশও পাল্টা গুলি ছোঁড়ে। এ সময় ওই কিশোরের মৃত্যু হয়।

পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম ও ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের প্রধান মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘১৫ মিনিট ধরে আমরা কিশোর ছেলেটির কোনো সাড়া শব্দ পাচ্ছিলাম না। সর্বশেষ ১৫ মিনিট আগে সে ভেতর থেকে পুলিশের উপর গ্রেনেড ও গুলি ছোঁড়ে। এ সময় আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়।’

যেভাবে বাড়িটি ভাড়া নেয় জঙ্গিরা:

দক্ষিণখানের আশকোনার ওই বাড়িটি ইমতিয়াজ আহমেদ নামের এক ব্যক্তি ভাড়া নিয়েছিলেন। ওই ব্যক্তি জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি জমা দিয়ে ভাড়াটিয়া তথ্য ফরম পূরণ করেছিলেন।

দুপুরে সূর্যভিলা নামের ওই তিনতলা বাড়ির মালিক কুয়েত প্রবাসী জামাল হোসেনের মেয়ে জোনাকি রাসেল সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানান।

জোনাকি জানান, সেপ্টেম্বর মাসের ১ তারিখে ১০ হাজার টাকায় বাড়ির নিচতলা ভাড়া নেন ইমতিয়াজ আহমেদ। ভাড়াটিয়া ফরম পূরণ করে জাতীয় পরিচয়পত্রের কপিও জমা দেন তিনি। বাসা ভাড়া নেয়ার সময় ইমতিয়াজ জানান তিনি অনলাইনে পণ্য ব্যবসায়ী, স্ত্রী ও নবজাতককে নিয়ে থাকবেন। মাঝে মাঝে তার বোন এবং বাসায় আসা যাওয়া করবে।

তিনি আরো জানান, সেপ্টেম্বরের ৩ তারিখে ওই পরিবার বাসায় ওঠেন। তারা বাসা থেকে খুব কমই বের হতেন। জিজ্ঞেস করলে বলতেন ছোট বাচ্চাকে রেখে তারা বের হতে পারেন না। পরিবারটি খুবই শান্ত-শিষ্ট ছিল বলে কখনো সন্দেহ হয়নি। অধিকাংশ সময়ই ওই বাসা ভেতর থেকে বন্ধ থাকতো। তাদের পরিচয়পত্র পুলিশকে দেয়া হয়েছে।

বন্ধুদের অস্ত্র চালানো শিখতে বলতো আফিফ:

দক্ষিণখানের আশকোনার সূর্যভিলা নামের বাড়িটিতে নিহত ১৪ বছরের কিশোর আফিফ কাদেরী সম্পর্কে পুলিশকে বেশ কিছু তথ্য দিয়েছে ওই এলাকার এক কিশোর সবজি বিক্রেতা।

ওই কিশোরকে আরো জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিয়ে গেছে পুলিশ। পুলিশকে সে জানিয়েছে, সবজি বিক্রি করতে প্রতিদিনই ওই বাড়িতে আসতো। এক পর্যায়ে শহীদের (আফিফ কাদেরী) সাথে তার বন্ধুত্ব হয়। সে, শহীদ ও ওবায়দুল্লাহ নামের আরেক কিশোর প্রায়ই ওই বাড়ির ছাদে ব্যাডমিন্টন খেলতো।

সবজি বিক্রেতা কিশোর জানায়, শহীদ তাদের বলতো, জিহাদের পথে আসো, নইলে বেঁচে থাকতে পারবা না। তোমাকে অস্ত্র চালানো শিখতে হবে, বোমা বানানো শিখতে হবে। আমি এসব কিছু করতে পারি।

বাড়িটিতে কারা যাতায়াত করতো জানতে চাইলে পুলিশকে ওই কিশোর বলে, ওই বাড়িতে দুইজন ব্যক্তি নিয়মিত আসা যাওয়া করতো। তাদের বয়স ৩০ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে। তারা আমাকে শহীদের সঙ্গে মিশতে দিতো না। বাড়ির মহিলাদের বলতো আমাকে যেন বাড়ি থেকে বের করে দেয়া হয়। কিন্তু শহীদ তাদের সবার কাছে আমাকে বন্ধু বলে পরিচয় করিয়ে দিত।

প্রতিবেদন: প্রীতম সাহা সুদীপ, সম্পাদনা: জাহিদ


সর্বশেষ

আরও খবর

বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা


ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ৫০ বছর

ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ৫০ বছর


ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিল করুন

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিল করুন


কার্টুনিস্ট আহমেদ কবির কিশোরের জামিন মঞ্জুর

কার্টুনিস্ট আহমেদ কবির কিশোরের জামিন মঞ্জুর


একদিনেই সড়কে ঝড়ল ১৯ প্রাণ

একদিনেই সড়কে ঝড়ল ১৯ প্রাণ


শাহবাগে মশাল মিছিলে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ, আটক ৩

শাহবাগে মশাল মিছিলে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ, আটক ৩


গুলিবিদ্ধ সাংবাদিক মারা যাওয়ার ৬০ ঘন্টা পরে পরিবারের মামলা

গুলিবিদ্ধ সাংবাদিক মারা যাওয়ার ৬০ ঘন্টা পরে পরিবারের মামলা


করোনায় ২৪ ঘণ্টায় আরও ৭ মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৩২৭

করোনায় ২৪ ঘণ্টায় আরও ৭ মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৩২৭


নামাজ পড়ানোর সময় সিজদারত অবস্থায় ইমামের মৃত্যু

নামাজ পড়ানোর সময় সিজদারত অবস্থায় ইমামের মৃত্যু


ভাষার বৈচিত্র্য ধরে রাখার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

ভাষার বৈচিত্র্য ধরে রাখার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর