Tuesday, September 20th, 2016
ফেসবুকে স্ট্যাটাসে বালকের দণ্ড: ইউএনও ও ওসিকে হাইকোর্টে তলব
September 20th, 2016 at 2:19 pm
ফেসবুকে স্ট্যাটাসে বালকের দণ্ড: ইউএনও ও ওসিকে হাইকোর্টে তলব

টাঙ্গাইল: ভ্রাম্যমাণ আদালতে এক স্কুল ছাত্রকে দুই বছরের কারাদণ্ড দেয়ায় টাঙ্গাইল জেলার সখিপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম এবং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মাকসুদুল আলমকে তলব করেছেন হাইকোর্ট। আগামী ২৭ সেপ্টেম্বর তাদের স্ব-শরীরে আদালতে হাজির হয়ে ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়েছে। একই সঙ্গে দণ্ডপ্রাপ্ত স্কুল শিক্ষার্থী সাব্বির শিকদারের জামিনও মঞ্জুর করেছেন আদালত।

মঙ্গলবার হাই কোর্টের বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি আশীষ রঞ্জন দাসের সমন্বয়ে গঠিত অবকাশকালীন বেঞ্চ স্বঃপ্রণোদিত হয়ে এই আদেশ দেন। এমপি সম্পর্কে ফেইসবুকে একটি মন্তব্য করায় বালককে কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে বলে একটি ইংরেজি পত্রিকায় প্রকাশিত প্রতিবেদন আদালতের নজরে আসলে আদালত এই আদেশ দেন।

আজ একটি ইংরেজি দৈনিকে এই সংক্রান্ত প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। প্রতিবেদনে বলা হয়, টাঙ্গাইল-৪ আসনের সংসদ সদস্য অনুপম শাজাহানকে নিয়ে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেয়ার অভিযোগে ওই স্কুল ছাত্রকে দুই বছর কারাদণ্ড দেয় একটি ভ্রাম্যমাণ আদালত। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ওই ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন। শনিবার এ দণ্ড দেয়া হয়। এর আগে গত শুক্রবার ওই শিক্ষার্থীকে আটক করা হয়।

পরে ওই বালকের আইনজীবী খুরশীদ আলম খান সাংবাদিকদের জানান, তাদের ২৭ সেপ্টেম্বর বেলা সাড়ে ১১টায় স্বশরীরে উপস্থিত হয়ে এ বিষয়ে ব্যাখ্যা দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। এছাড়া কারাদণ্ডপ্রাপ্ত বালককে আদালত জামিনও দিয়েছেন।

তিনি বলেন, ‘আমি আদালতকে বলেছি, যেখানে ওই ঘটনায় একটি জিডি হয়েছে। সেক্ষেত্রে বিষয়টি তদন্তের পর্যায়ে রয়েছে। তদন্তের পর্যায়ে থাকা কোনো বিষয়ে এভাবে মোবাইল কোর্টে দণ্ড দেয়া যায় না। আর আসামি যদি শিশু হয়, তাকে শিশু আইনে বিচার করতে হতো, সেটাও দেখতে হবে। এরপর আদালত তলবের আদেশ দেয়ার সিদ্ধান্ত নেন।’

পত্রিকার প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, টাঙ্গাইলের সখিপুরে প্রতীমা পাবলিক হাই স্কুলের শিক্ষার্থী সাব্বির শিকদারকে গত শনিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) ইউএনও রফিকুল ইসলাম ভ্রাম্যমাণ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে দুই বছরের কারাদণ্ড দেন। সাব্বির প্রতিমা বঙ্কি গ্রামের বাসিন্দা শাহিনুর আলমের ছেলে।

এর আগের দিন টাঙ্গাইল-৮ বাসাইল-সখিপুর আসনের সংসদ সদস্য অনুপম শাজাহান জয় ওই বালকের বিরুদ্ধে সাধারণ ডায়েরি করেন। দণ্ডের পর সোমবার (১৯ সেপ্টেম্বর) ওই বালককে জেলা কারাগারে পাঠিয়ে দেয়া হয়। নবম শ্রেণি পড়ুয়া ওই ছেলেটি ফেসবুকে সংসদ সদস্যের ব্যক্তিগত অ্যাকাউন্টে হুমকি দিয়েছেন বলে ওই ম্যাজিস্ট্রেট জানান। ওই বালকের বয়স ১৯ বছর বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

প্রতিবেদনে ওসি জিডির বরাত দিয়ে বলেন, ওই ছেলে সংসদ সদস্য অনুপম শাহজাহানকে মেসেঞ্জারে হুমকি দেয় যে, ‘আপনার সময় ফুরিয়ে আসছে’। আর ম্যাজিস্ট্রেট সূত্রে উল্লেখ করা হয়, তাকে তথ্য প্রযুক্তি আইনে এই দণ্ড দেয়া হয়েছে। তবে আইনের কোন ধারায় দণ্ড দেয়া হয়েছে তা তিনি উল্লেখ করেননি।

প্রতিবেদক: ফজলুল হক, সম্পাদনা: এস. কে. সিদ্দিকী


সর্বশেষ

আরও খবর

করোনায় আরও ৩০ জনের মৃত্যু, ৭৮ দিনের মধ্যে সর্বোচ্চ শনাক্ত

করোনায় আরও ৩০ জনের মৃত্যু, ৭৮ দিনের মধ্যে সর্বোচ্চ শনাক্ত


ঢাবি ছাত্রী ধর্ষণ মামলায় মজনুর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

ঢাবি ছাত্রী ধর্ষণ মামলায় মজনুর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড


মানুষের জন্য কিছু করতে পারাই আমাদের রাজনীতির লক্ষ্য: প্রধানমন্ত্রী

মানুষের জন্য কিছু করতে পারাই আমাদের রাজনীতির লক্ষ্য: প্রধানমন্ত্রী


আনিসুল হত্যা: মানসিক স্বাস্থ্য ইন্সটিটিউটের রেজিস্ট্রার গ্রেপ্তার

আনিসুল হত্যা: মানসিক স্বাস্থ্য ইন্সটিটিউটের রেজিস্ট্রার গ্রেপ্তার


পাওয়ার গ্রিডের আগুনে বিদ্যুৎ-বিচ্ছিন্ন পুরো সিলেট, ব্যাপক ক্ষতি

পাওয়ার গ্রিডের আগুনে বিদ্যুৎ-বিচ্ছিন্ন পুরো সিলেট, ব্যাপক ক্ষতি


দুইদিনের বিক্ষোভের ডাক বিএনপির

দুইদিনের বিক্ষোভের ডাক বিএনপির


বাস পোড়ানোর মামলায় বিএনপির ২৮ নেতাকর্মী রিমান্ডে

বাস পোড়ানোর মামলায় বিএনপির ২৮ নেতাকর্মী রিমান্ডে


অবশেষে পাঁচ বছর পর নেপালকে হারালো বাংলাদেশ

অবশেষে পাঁচ বছর পর নেপালকে হারালো বাংলাদেশ


মাইন্ড এইড হাসপাতালে তালা, মালিক গ্রেপ্তার

মাইন্ড এইড হাসপাতালে তালা, মালিক গ্রেপ্তার


অবশেষে গ্রেফতার হলো এসআই আকবর

অবশেষে গ্রেফতার হলো এসআই আকবর