Thursday, July 14th, 2016
কক্সবাজারের ১৪ পালাতক আসামির পক্ষে তিন আইনজীবী নিয়োগ
July 14th, 2016 at 2:57 pm
কক্সবাজারের ১৪ পালাতক আসামির পক্ষে তিন আইনজীবী নিয়োগ

ঢাকা: একাত্তরে সংঘটিত মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় কক্সবাজারের মহেশখালী উপজেলার ছালামতউল্লাহ খানসহ ১৯ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের(চার্জ) শুনানির জন্য আগামী ৩১ আগষ্ট দিন ঠিক করেছেন ট্রাইব্যুনাল।

একই সঙ্গে পলাতক আসামিদের পক্ষে মামলা পরিচালনা করার জন্য রাষ্ট্রীয় খরচে তিনজন আইনজীবী নিয়োগ দিয়েছেন আদালত। নিউজনেক্সটবিডি ডটকমকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন প্রসিকিউটর রানা দাস গুপ্ত। নিয়োগ দেয়া আইনজীবীরা হলেন, আব্দুস সুবহান তরফদার, আব্দুস সাত্তার পালোয়ান ও আবুল হাসান।

ছালামতউল্লাহ খান ছাড়া মামলার অন্যান্য আসামিরা হলেন, মৌলভী জাকারিয়া শিকদার, মো: রশিদ মিয়া বিএ, অলি আহমদ, মো: জালাল উদ্দিন, মৌলভী নুরুল ইসলাম, মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম সাবুল, মমতাজ আহম্মদ, হাবিবুর রহমান, মৌলভী আমজাদ আলী, মৌলভী আব্দুল মজিদ, বাদশা মিয়া, ওসমান গণি, আব্দুল শুক্কুর, মৌলভী সামসুদ্দোহা, মো: জাকারিয়া, মো: জিন্নাহ ওরফে জিন্নাত আলী, মৌলভী জালাল ও আব্দুল আজিজ।

বৃহস্পতিবার ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান বিচারপতি মো. আনোয়ারুল হকের নেতৃত্বে তিন সদস্যের আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল চার্জ গঠনের পর এই আদেশ দেন। আদালতের শুনানিতে ছিলেন রাষ্ট্রপক্ষে প্রসিকিউটর রানাদাস গুপ্ত। অপর দিকে আসামী পক্ষে ছিলেন, আব্দুস সোবহান তরফদার ও আব্দুস সাত্তার পালোয়ান।

এর আগে ট্রাইব্যুনালের পূর্ব আদেশ অনুসারে এ মামলার পলাতকত ১৪ আসামির বিরুদ্ধে পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তির বিষয়ে ট্রাইব্যুনালকে অবহিত করেন প্রসিকিউটর রানা দাশ গুপ্ত।

এসময় ট্রাইব্যুনাল উক্ত পলাতক আসামিদের পক্ষে রাষ্ট্রীয় খরছে আইনজীবী নিয়োগ দিয়ে মামলার অভিযোগ গঠনের শুনানীর জন্য পরবর্তী তারিখ নির্ধারণ করেন। এ মামলার মোট আসামি ২১ জনের মধ্যে ২ জন মৃত্যুবরণ করেছেন।  কারাগারে রয়েছেন ৫ জন। অন্যদিকে ১জন আসামি জামিনে আছেন। মামলায় গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির পর এখনো পলাতক আছেন ১৪ আসামি।

এর আগে ২০১৫ সালের ২২ মে কক্সবাজারের মহেশখালী উপজেলার ১৬ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন ট্রাইব্যুনাল। আসামিদের মধ্যে কক্সবাজারের ছালামতউল্লাহ খান ও রশিদ মিয়াকে গ্রেফতার করে ট্রাইব্যুনালে হাজির করা হলে তাদেরকে কারাগারে পাঠান ট্রাইব্যুনাল। পরে মৌলভী নুরুল ইসলাম, জিন্নাত আলী,  এবং মৌলভী ওসমান গনিকেও গ্রেফতার করা হয়। তারা এখন কারাগারে।

তাদের বিরুদ্ধে একাত্তরে মহেশখালী দ্বীপে হত্যা, ধর্ষণ, অগ্নিসংযোগ, নির্যাতনসহ বিভিন্ন ধরনের মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগ রয়েছে। আসামিরা একাত্তরে স্থানীয় শান্তি কমিটির সভাপতি মৌলভী জাকারিয়া ও সাধারণ সম্পাদক সাবেক এমপি রশিদ মিয়ার সহযোগী ছিলেন। আরো অভিযোগ রয়েছে, একাত্তরে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর একনিষ্ঠ সহযোগী ছিলেন মৌলভী নুরুল ইসলাম ও জিন্নাত আলী।

নিউজনেক্সটবিডি ডটকম/এফএইচ/এসআই

 


সর্বশেষ

আরও খবর

৪২ ও ৪৩তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ

৪২ ও ৪৩তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ


করোনায় আরও ৩০ জনের মৃত্যু, ৭৮ দিনের মধ্যে সর্বোচ্চ শনাক্ত

করোনায় আরও ৩০ জনের মৃত্যু, ৭৮ দিনের মধ্যে সর্বোচ্চ শনাক্ত


মানুষের জন্য কিছু করতে পারাই আমাদের রাজনীতির লক্ষ্য: প্রধানমন্ত্রী

মানুষের জন্য কিছু করতে পারাই আমাদের রাজনীতির লক্ষ্য: প্রধানমন্ত্রী


আনিসুল হত্যা: মানসিক স্বাস্থ্য ইন্সটিটিউটের রেজিস্ট্রার গ্রেপ্তার

আনিসুল হত্যা: মানসিক স্বাস্থ্য ইন্সটিটিউটের রেজিস্ট্রার গ্রেপ্তার


পাওয়ার গ্রিডের আগুনে বিদ্যুৎ-বিচ্ছিন্ন পুরো সিলেট, ব্যাপক ক্ষতি

পাওয়ার গ্রিডের আগুনে বিদ্যুৎ-বিচ্ছিন্ন পুরো সিলেট, ব্যাপক ক্ষতি


বাস পোড়ানোর মামলায় বিএনপির ২৮ নেতাকর্মী রিমান্ডে

বাস পোড়ানোর মামলায় বিএনপির ২৮ নেতাকর্মী রিমান্ডে


অবশেষে পাঁচ বছর পর নেপালকে হারালো বাংলাদেশ

অবশেষে পাঁচ বছর পর নেপালকে হারালো বাংলাদেশ


মাইন্ড এইড হাসপাতালে তালা, মালিক গ্রেপ্তার

মাইন্ড এইড হাসপাতালে তালা, মালিক গ্রেপ্তার


বিরোধী নেতাদের কটাক্ষ করতেন না বঙ্গবন্ধু: রাষ্ট্রপতি

বিরোধী নেতাদের কটাক্ষ করতেন না বঙ্গবন্ধু: রাষ্ট্রপতি


মসজিদ-মন্দিরে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করলো সরকার

মসজিদ-মন্দিরে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করলো সরকার