Sunday, April 19th, 2020
করোনার দিনলিপি ২০২০
April 19th, 2020 at 12:27 pm
করোনার দিনলিপি ২০২০

কাজি ফৌজিয়া:

আজকাল অনেকে দেখি ফেইসবুকে লেখেন “বিশ্বের সবচেয়ে করোনা আক্রান্ত দেশ হল আমেরিকা, আমেরিকার সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত রাজ্য হল নিউ ইয়র্ক, আর নিউ ইয়র্কের সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত শহর হল কুইন্স, আর কুইন্স এর বেশি আক্রান্ত এলাকা হল জামাইকা ওহ আল্লাহ আমি সেই জামাইকার থাকি রক্ষা কর” – এ রকম লেখা পড়তে অনেক হাস্যকর লাগে কারণ কথাটি সত্যি হলেও বেশ নাটকীয়। আমার সত্যিটা ও হল আমিও সেই জামাইকায় থাকি। শেষ অব্দি রক্ষা হবে কি না জানি না, তবে দিনটা কোন রকমে পার হয়ে রাত্রি হলে মনে হয় আলহামদুলিল্লাহ্ এখনো বেঁচে আছি।

সকাল শুরু করলাম বিভিন্ন কল রিসিভ করে যার বেশীর ভাগই নিউ ইয়কেকের বাংলাদেশী পরিবারের কেউ না কেউ যাদের খাবার নেই অথবা খুব অসুস্হ রান্না করা খাবার লাগবে। কিছু মানুষ আছে যারা অসুস্থ কিছু গ্রোসারি পাঠানোর অনুরোধ করে,তারা শুরু করেন খুব দরকারী কিছু পাঠানোর অনুরোধ করে – যখন লিস্ট পাঠায় তা দেখে মনে হয় বিলাপ করে কাঁদি।

কাঁচা-বাজার এমন কিছু নাই যা বাদ দিয়েছেন ওই লিস্টে। কষ্ট লাগে এই ভেবে যে করোনার মত মহামারিতে আক্রান্ত হয়েও কি করে মানুষ এত জিনিসের নাম চাহিদায় রেখেছেন। আমাদের সেচ্ছাসেবকদের মানসিক স্বাস্থ্য বিবেচনায় রেখে আমি কাটছাঁট করে লিস্ট পাঠাই ।


করোনা মহামারিতে নিউ ইয়র্ক শহর লকডাউন হওয়ার পুর্বেই আমাদের অফিস আমাদের ঘরে পাঠিয়ে দিয়েছে। ঘর বসে কাজ করতে। তখন মনে হয়েছিল বেশ ভাল হল করোনা ঝুঁকিও কমে গেল আর কিছু রেস্ট ও করা হবে; কিন্তু তখনকার বাস্তবতা আর এখনকার ভয়াবহতা চিন্তা করলে যে কারো শরীর হীম হয়ে যাবে। এখন প্রতিদিন, প্রতি মুর্হুর্তেই মৃত্যু সংবাদ এখানে।


শনিবার আমার ছুটির দিন – ভাবলাম কিছু রান্না করি রোজার আগের সপ্তাহ টা রান্না করা খাবার থাকলে একটু নিশ্চিন্ত থাকা যায় ! সকাল থেকে কলের পর কল, দায়সারা রান্না শেষ করে বসলাম আগামিকালের ফুড ডেলিভারি কিভাবে ম্যানেজ করা যাবে। রাত সাত টায় খেলাম দুপুরের খাবার! কাজ শেষ করে ফেসবুকে উকি দিলাম শহরের কি অবস্হা জানতে ! কত যে মৃত্যু সংবাদ,- বাংলাদেশী ভাই বোনেরা তাদের স্বজনদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে দোয়া চেয়ে পোষ্ট দেখে আমাদের হৃদয় কাঁদে, না পারি যেতে – না পারি সান্তনা দিতে। আজ আমাদের সবার প্রিয় মাহতাব ভাই এর ছোট ছেলেটা ও মারা গেল ।ছেলেটি সদ্য বিয়ে করে বাংলাদেশ থেকে এসেছিল, ঘরে সবাই আক্রান্ত, ভাই-ভাবী সুস্থ হয়ে উঠেছেন – কিন্তু ছেলেটি ঢলে পড়লো মৃত্যুর কোলে । আজ বাংলাদেশে আমার বান্ধবী রিমার চাচাতো বোন লিনা আপাও মারা গেছেন, লিনা আপার বোন সাথী আপা কাছাকাছি ই থাকেন , এই কঠিন সময়ে তাকে দেখতে যেতে পারলাম না। করোনা নামক এক অনুজীবের কাছে আমরা জিম্মি, চাইলেও সামাজিক দুরত্বের বেড়াজাল পেরিয়ে কাছে যেতে পারব না।


আজ যুক্তরাষ্ট্রের সরকারি হিসাবে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৭৩৮,১৯৩ জন ও মারা গেছেন ৩৯,০১৫ জন। আজ পর্যন্ত সেরে উঠেছেন ৬৮,২৮৫ জন। এই ভয়াবহ খারাপ অবস্হায় ট্রাম্প প্রশাসন চেষ্টা করেছে লক-ডাউন উঠিয়ে দিতে বা কত তারাতারি উঠিয়ে দেওয়া যায়।এই লোক কে সাদা রা ভোট দিয়ে ক্ষমতায় বসিয়েছিল আমেরিকা কে পুনরায় মহান বানানোর ওয়াদা করেছিল বলে। মানুষ মরে যাক কিন্তু তবু ও ইকোনমির চাকা সচল থাক এই বুঝি সাদা দের মহানের সংজ্ঞা।


গতকাল গভর্নর এন্ড্রো কুমো পাশের আরো ৪ টি রাজ্য কে সাথে নিয়ে এপ্রিলের ৩০ থেক মে মাসের ১৫ তারিখ পর্যন্ত লকডাউন বাড়িয়ে দিয়েছে। এই ক্ষুদ্র অনুজীব যতক্ষন পুরোপুরি কাবু না হবে ততদিন পর্যন্ত সব শ্রমজীবি মানুষের আয় বন্ধ আর তাদের মধ্যে যারা কোন সরকারি সহায়তা পায় নি তারা কি করে টিকে থাকবে?

লেখক: মানবাধিকার কর্মী


সর্বশেষ

আরও খবর

করোনায় চার মাস পর সর্বনিম্ন ২১ জনের মৃত্যু

করোনায় চার মাস পর সর্বনিম্ন ২১ জনের মৃত্যু


ডিসেম্বরের মধ্যে দেওয়া হবে ১০ কোটি টিকা: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

ডিসেম্বরের মধ্যে দেওয়া হবে ১০ কোটি টিকা: স্বাস্থ্যমন্ত্রী


করোনায় সারাদেশে আরও ২৪ জনের মৃত্যু

করোনায় সারাদেশে আরও ২৪ জনের মৃত্যু


বিমানবন্দরে শুরু হলো করোনার পরীক্ষামূলক পরীক্ষা

বিমানবন্দরে শুরু হলো করোনার পরীক্ষামূলক পরীক্ষা


করোনায় আরও ২৬ জনের মৃত্যু, চার মসে সর্বনিম্ন

করোনায় আরও ২৬ জনের মৃত্যু, চার মসে সর্বনিম্ন


করোনায় আরও ৪৩ জনের মৃত্যু

করোনায় আরও ৪৩ জনের মৃত্যু


প্রতি মাসে ২ কোটি টিকা দেয়ার পরিকল্পনা করছে সরকার

প্রতি মাসে ২ কোটি টিকা দেয়ার পরিকল্পনা করছে সরকার


করোনায় মৃত্যু ও শনাক্ত কমেছে

করোনায় মৃত্যু ও শনাক্ত কমেছে


এপ্রিলের মধ্যে দেশে ২৪ কোটি ডোজ টিকা আসবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

এপ্রিলের মধ্যে দেশে ২৪ কোটি ডোজ টিকা আসবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী


করোনায় আরও ৩৫ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ২০৭৪

করোনায় আরও ৩৫ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ২০৭৪