Monday, February 27th, 2017
কর্পোরেট কাহিনী
February 27th, 2017 at 9:16 pm
কর্পোরেট কাহিনী

মাসকাওয়াথ আহসান: প্রত্যেক দিন একটা পিঁপড়া সকাল সকাল কাজে চলে আসে এবং মন দিয়ে কাজ করে। সে অনেক কাজ করে আনন্দের সঙ্গে। অফিস প্রধান বাঘ অবাক হয়ে লক্ষ্য করে পিঁপড়া কোনো সুপারভাইজার ছাড়াই কাজ করে; সুপারভাইজার ছাড়াই যদি সে এতো কাজ করে; কোম্পানির উৎপাদন বাড়ে; একজন সুপারভাইজার থাকলে নিশ্চয়ই উৎপাদন আরো বাড়বে।

সুতরাং বাঘ পিঁপড়ার সুপারভাইজার হিসেবে একজন মৌমাছিকে নিয়োগ দেয় যার সুপারভাইজার হিসেবে অভিজ্ঞ আর প্রতিবেদন লেখার ক্ষেত্রে সুনাম আছে। মৌমাছি একটা অফিসে উপস্থিতির নিয়ম তৈরি করতে চায়। মৌমাছির একজন সহকারী প্রয়োজন; তাই সে এক খরগোশকে নিয়োগ দেয় যে ফাইলের আর্কাইভ দেখাশোনা করবে আর নিয়মিত ফোন ধরবে।

বাঘ মৌমাছির প্রথম প্রতিবেদন দেখে মুগ্ধ হয়ে তাকে কিছু গ্রাফ তৈরি করতে বলে যাতে বোর্ড মিটিং-এ দেখানো যায়। মৌমাছি এই কাজে একটি কম্পিউটার ও লেজার প্রিন্টার কেনে এবং আইটি বিভাগ চালু করে সেখানে নিয়োগ করে এক বেড়ালকে।

পিঁপড়া এই নতুন অফিস পরিস্থিতিতে অখুশী হয়; কারণ এইসব কর্পোরেট মিটিং আর ভাবচক্করে তার বেশির ভাগ কাজের সময় নষ্ট হয়। অফিস প্রধান কাজের শ্লথ গতি দেখে একজন ইনচার্জ হিসেবে নিয়ে আসে এক বানরকে।

বানর কাজে যোগদান করেই নিজের অফিস কক্ষের জন্য একটি আরাম কেদারা ও শীতাতপ যন্ত্র কেনে। বানর তার অফিস সহযোগী হিসেবে আরেক বানর নিয়ে আসে যে নিয়মিত ওয়ার্ক এণ্ড বাজেট কন্ট্রোল স্ট্র্যাটেজিক অপটিমাইজেশান প্ল্যান তৈরি করবে।

পিঁপড়া যে বিভাগে কাজ করে সেখানে কেউই আর আগের মতো খুশীমনে কাজ করে না। কর্পোরেট ঝনঝনানিতে তাদের কাজের আগ্রহ কমে যায়। এই পরিস্থিতিতে মৌমাছি তার বস বাঘকে রাজি করায় যে অফিসের কর্মপরিবেশ সমীক্ষা করা জরুরি। কেন কর্মীদের কাজে উৎসাহ নেই তা জানা প্রয়োজন।

পিঁপড়া যে বিভাগটিতে কাজ করতো সেখানে ব্যয় বৃদ্ধি ও উৎপাদন হ্রাসে চিন্তিত হয়ে একজন অভিজ্ঞ কনসালটেন্ট পেঁচাকে নিয়োগ দেয় নিরীক্ষণ ও সংকট সমাধানের জন্য। তিনমাসের নিবিড় সমীক্ষা শেষে পেঁচা তিন ভলিউমের একটি রিপোর্ট উপস্থাপন করে; যেখানে বলা হয় এই বিভাগটিতে প্রয়োজনের চেয়ে কর্মী বেশী।

সুতরাং প্রথমেই চাকরিচ্যুত করা হয় পিঁপড়াকে কারণ সে নেতিবাচক মনোভাব ও মোটিভেশানের অভাব প্রদর্শন করেছে (কেসস্টাডি থেকে সংগৃহীত)

লেখক: প্রবাসী সাংবাদিক ও ব্লগার

 


সর্বশেষ

আরও খবর

সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাস, সংবিধান এবং আশাজাগানিয়া মুরাদ হাসান

সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাস, সংবিধান এবং আশাজাগানিয়া মুরাদ হাসান


গণতন্ত্রের রক্ষাকবজ হিসাবে গণমাধ্যম ধারালো হাতিয়ার

গণতন্ত্রের রক্ষাকবজ হিসাবে গণমাধ্যম ধারালো হাতিয়ার


মহামারী, পাকস্থলির লকডাউন ও সহমতযন্ত্রের নরভোজ

মহামারী, পাকস্থলির লকডাউন ও সহমতযন্ত্রের নরভোজ


ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিল করুন

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিল করুন


নাচ ধারাপাত নাচ!

নাচ ধারাপাত নাচ!


মাতৃভাষা বাংলা’র প্রথম লড়াই ১৮৩৫ সালে হলেও নেই ইতিহাসে!

মাতৃভাষা বাংলা’র প্রথম লড়াই ১৮৩৫ সালে হলেও নেই ইতিহাসে!


তারুণ্যের ইচ্ছার স্বাধীনতা কোথায়!

তারুণ্যের ইচ্ছার স্বাধীনতা কোথায়!


সমাজ ব্যর্থ হয়েছে; নাকি রাষ্ট্র ব্যর্থ হয়েছে?

সমাজ ব্যর্থ হয়েছে; নাকি রাষ্ট্র ব্যর্থ হয়েছে?


যুদ্ধ এবং প্রার্থনায় যে এসেছিলো সেদিন বঙ্গবন্ধুকে নিয়েই আমাদের স্বাধীনতা থাকবে

যুদ্ধ এবং প্রার্থনায় যে এসেছিলো সেদিন বঙ্গবন্ধুকে নিয়েই আমাদের স্বাধীনতা থাকবে


বঙ্গবন্ধু কেন টার্গেট ?

বঙ্গবন্ধু কেন টার্গেট ?