Wednesday, July 6th, 2022
কে জেড: ‘চুরিতো চুরি আবার সিনাজুরি’
August 12th, 2016 at 8:58 pm
কে জেড: ‘চুরিতো চুরি আবার সিনাজুরি’

ঢাকা: এবার ভ্যাট গোয়েন্দা টিমের হাতে ধরা পড়লো ভ্যাট ফাঁকি দেয়ার অভিনব কায়দা। যাকে ‘চুরিতো চুরি আবার সিনাজুরি’ হিসেবে উল্লেখ করেছে গোয়েন্দারা।

‘কে জেড’ ফ্যাশন এন্ড জুয়েলারি ভ্যাট ফাঁকি দিতে তাদের শোরুমে রেখেছেন প্রশিক্ষিত কর্মচারী ও ম্যানেজার। এছাড়াও তারা আরো বেশ কিছু অনৈতিক কাজও করছে। এমন তথ্যই জানিয়েছে ভ্যাট গোয়েন্দা।

বৃহস্পতিবার রাতে ‘ভ্যাট ইন্টেলিজেন্স’এর ফেসবুক পেইজে অভিযানটি সম্পর্কে বর্ণনা দেয়া হয়েছে। অনলাইনে ভ্যাট ফাঁকির অভিযোগ পেয়ে চকবাজার, নিউমার্কেট ও গ্রিনরোডের শাখায় অভিযান চালানো হয়।

‘ভ্যাট ইন্টেলিজেন্স’এর ফেসবুক পোস্টটি পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো-

‘হুমকি দিয়ে, অপকৌশলে সার্ভার বন্ধ করেও পার পেলো না…KZ Fashion & Jewellery

চুরিতো চুরি আবার সিনাজুরি!

আজকের (বৃহস্পতিবার) KZ Fashion & Jewellery অভিযানে এমন বৈরী অভিজ্ঞতা ভ্যাট গোয়েন্দা টীমের। ওদের ম্যনেজার শাহীন অফিসারদের হুমকি দিয়েছে, দূর্ব্যবহার করেছে।

kzbyvatgoyenda (1)টীমকে নানা কৌশলে উত্যক্ত করেছে। ফাঁদে ফেলতে চেয়েছে। ভুল করাতে চেয়েছে। অনেককে টেলিফোন করেছে, করিয়েছে। পিছু হটেনি গোয়েন্দারা। সকল কুচক্র ভন্ডুল করে মাথা ঠান্ডা রেখে অবশেষে সার্ভারসহ ৭টি কম্পিউটার, ল্যাপটপ ও কাগজপত্র নিয়ে এসেছে।

ইচ্ছে ছিল ২৭টির সবগুলোতে অপারেশন করার। লোকবল কম থাকায় হয়ে ওঠেনি। চকবাজার, নিউমার্কেট ও গ্রীনরোডের অফিসে যুগপৎ অভিযান হয়। ভ্যাট গোয়েন্দার তিনটি টীম এতে অংশ নেয়। প্রথম দুটো জায়গায় মৃদু অসহযোগিতা করেছে। তবু কম্পিউটার, কাগজপত্র নিয়ে এসেছে।

কেজেড ফ্যাশনের বিরুদ্ধে অনলাইনে একাধিক অভিযোগ আসে। ২৭টি শাখার বিরুদ্ধে একই অভিযোগ।  অভিযোগ আসে এনবিআরেও।  চলে কয়েক দফা বৈঠক। ২৭টি শাখায় একযোগে অভিযান করা সম্ভব নয়!

বড় ও গুরুত্বপূর্ণ তিন জায়গা নির্বাচন হয়। অভিযানের আগে তিনটি শাখা ও অফিস ‘প্রাক পরিদর্শন’ করা হয়। তিনজন সহকারী পরিচালকের নেতৃত্বে ৩০জনের দল গঠন ও প্রস্তুতি।

অফিসে প্রাথমিক তল্লাশীতে উল্লেখযোগ্য কিছু পাওয়া গেলনা। প্রতিদিনের ক্যাশ মেমো আর কিছু কাগজ ছাড়া। গোয়েন্দারা সন্তুষ্ট হতে পারলেন না। বলা হলো সার্ভারের তথ্য দিন। প্রথমে তিন মাসের তথ্য প্রিন্ট করে দিল।

হঠাৎ সার্ভার বন্ধ হয়ে গেল। আর কোন তথ্য আসেনা। প্রিন্ট হয় না। নানান টালবাহানা। কার সঙ্গে ম্যানেজার কথা বললো! এরপরই এমন কান্ড শুরু। সাথে চলতে থাকলো গডিমসি। ক্রমেই বাড়ছিল। বাকবিতন্ডা, এবার দুর্ব্যবহার, তারপর হুমকি। অবশেষে কোন রকম বিশৃংখলা ছাড়াই রাত ১০.১৫মি. এ শেষ হলো অভিযান….শুরু হয়েছিল বিকেল পৌনে ৪টায়।

দেখা যায়,

১. ভ্যাট ফাঁকির জন্য তারা প্রশিক্ষিত কর্মচারি, ম্যানেজার রেখেছে,

২. এদের অনেকেরই সরকারী কাজে বাধা দেয়ার মতো দু:সাহসও আছে

৩. দেশের আইন কানুন মানার ধার ধারে না,

৪. তাদের হেড অফিসসহ বেশীরভাগ শাখার ভ্যাট রেজিস্ট্রেশন নেই,

৫. কোনো কোনো শাখায় অল্প পরিমানে ভ্যাট দেয়

৬. অনেক শাখায় ইসিআর মেশিন নেই

৭. মেশিন কোনটিতে থাকলেও ইসিআর চালান ইস্যু করেন না

৮. ইসিআর রেখে নিজেদের রশিদ ব্যবহার করেন

৯. নিজস্ব রশিদে ইচ্ছেমতো ভ্যাট ধরেন, কিন্তু সরকার পায় না

১০. মোট বিক্রয় আলাদা করে রেকর্ড করেন না

১১. প্রতিদিনের বিক্রি লুকিয়ে ফেলে

১২. কখন্ ভ্যাট কতভাগ ( % ) নেন তারও ঠিক নেই

১৩. মূসক নিবন্ধন সনদ (মূসক ৮) দৃশ্যমান স্থানে রাখেনা

কেজেড এর ২৭টি শাখায় মাসে কোটি টাকা এর রাজস্ব দেয়ার সম্ভাবনা থাকলেও দেয় না।

আমরা সচেতনতার জন্য কাজ করছি। কারো ব্যক্তিগত ক্ষতি আমাদের উদ্দেশ্য নয়। এ প্রতিষ্ঠানে অভিযান, মূসক-সংস্কৃতি প্রচার ও তুলে ধরার ক্ষেত্রে ইতিবাচক ভূমিকা রাখবে। বিশেষ করে আমাদের সমাজে কর সচেতনতা বিস্তারে।’

ওই পোস্টে আরো বলা হয়,  ‘আমার বা আমাদের চেনা কারো দেয়া ভ্যাট যাতে কোন ব্যবসায়ী মেরে খেতে না পারে সে জন্যে আঁশে পাশের ছোট বড় সবাইকে সতর্ক করে তুলুন।’

নিউজনেক্সটবিডি ডটকম/এমআই

 


সর্বশেষ

আরও খবর

সংসদে ৬,৭৮,০৬৪ কোটি টাকার বাজেট প্রস্তাব

সংসদে ৬,৭৮,০৬৪ কোটি টাকার বাজেট প্রস্তাব


আ’লীগ নেতা বিএম ডিপোর একক মালিক নন

আ’লীগ নেতা বিএম ডিপোর একক মালিক নন


চীনের সাথে বাণিজ্য ঘাটতি কমাতে চায় বাংলাদেশ

চীনের সাথে বাণিজ্য ঘাটতি কমাতে চায় বাংলাদেশ


ভোজ্যতেল ও খাদ্য নিয়ে যা ভাবছে সরকার

ভোজ্যতেল ও খাদ্য নিয়ে যা ভাবছে সরকার


তৎপর মন্ত্রীগণ, সীতাকুণ্ডে থামেনি দহন

তৎপর মন্ত্রীগণ, সীতাকুণ্ডে থামেনি দহন


অত আগুন, এত মৃত্যু, দায় কার?

অত আগুন, এত মৃত্যু, দায় কার?


যে গল্প এক অদম্য যোদ্ধার

যে গল্প এক অদম্য যোদ্ধার


আফগান ও ভারতীয় অনুপ্রবেশ: মে মাসে আটক ১০

আফগান ও ভারতীয় অনুপ্রবেশ: মে মাসে আটক ১০


সীমান্ত কাঁটাতারে বিদ্যুৎ: আলোচনায় বিজিবি-বিজিপি

সীমান্ত কাঁটাতারে বিদ্যুৎ: আলোচনায় বিজিবি-বিজিপি


চালের বাজার নিয়ন্ত্রণে কঠোর সরকার

চালের বাজার নিয়ন্ত্রণে কঠোর সরকার