Tuesday, December 27th, 2016
ক্রিকেটে ভালো-মন্দের একটি বছর
December 27th, 2016 at 9:06 am
ক্রিকেটে ভালো-মন্দের একটি বছর

স্পোর্টস রিপোর্টার: চলতি বছরটা (২০১৬) বাংলাদেশ ক্রিকেটের জন্য খুব একটা মন্দ ছিল না। ভালো-মন্দ মিলিয়েই বছরটা পার করেছে টাইগাররা। এ বছর টাইগাররা টি-টোয়েন্টি দিয়ে শুরু করেছিল। শেষ করবে ওয়ানডে ক্রিকেটের মধ্য দিয়ে (নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে সিরিজ দিয়ে)। ২০১৬ সালে বাংলাদেশ আর মাত্র কয়েকদিন পরই ক্যালেন্ডারের পাতা উল্টে আসবে নতুন বছর।

ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ওয়াডে ম্যাচ জয়

সফরকারী ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ২-১ ব্যবধানে হারতে হয়। সিরিজের প্রথম ম্যাচে ২৭৭ রান করেও ৬ উইকেটে হারতে হয়েছিল। তবে দ্বিতীয় ম্যাচেই ঘুরে দাঁড়ায় স্বাগতিকরা। ৩৪ রানের জয় তুলে নিয়ে সিরিজে সমতা ফিরিয়ে এনে জাতিকে ইংলিশদের বিরুদ্ধে সিরিজ জয়ের স্বপ্ন দেখাতে শুরু করেছিল টাইগাররা। কিন্তু শেষ ম্যাচে সেটা আর হয়নি। চার উইকেটে জয় তুলে নিয়ে সিরিজ নিজেদের করে নেয় সফরকারীরা। সিরিজ জিততে না পারলেও ইংলিশদের বিরুদ্ধে বিশ্বকাপে পাওয়া জয়ের ধারা বজায় রেখেছিল হাতুরুসিংহের শিষ্যরা, সেটাই বা কম কিসের?

ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজ ড্র

টেস্টে প্রথমবারের মতো ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে জয়। শুধু কি জয়, তিন দিনেই ক্রিকেটের জনক দেশটিকে কুপোকাত করে স্বাগতিকরা। দেশের ক্রিকেটকে নিয়ে যায় অনন্য উচ্চতায়। প্রথমবারের মতো ইংলিশদের বিরুদ্ধে লঙ্গার ভার্সনের ক্রিকেটে জয়ের স্বাদ পায় মুশফিকবাহিনী। দুই ম্যাচের এ সিরিজটি ২-০ ব্যবধানেই জিততে পারতো লাল-সবুজ জার্সীধারীরা। কিন্তু অভিজ্ঞতার কাছে হারতে হয়। প্রথম ম্যাচে জিততে জিততে মাত্র ২২ রানে হেরে যায় স্বাগতিকরা। আর সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ ম্যাচে টাইগাররা ঠিকই নিজেদের সামর্থের প্রমাণ দেয় মাঠে। বাংলাদেশের টেস্ট মর্যাদার নিয়ে প্রশ্ন ছুঁড়ে দেয়া ক্রিকেটবোদ্ধাদের (!)  দেখিয়ে দেয় ‘আমরাও পারি।’ মাত্র তিন দিনেই জয় নিশ্চিত করে বাংলার দামাল ছেলেরা।

আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে ওয়ানডে সিরিজ জয়

ইংলিশদের আগে অবশ্য আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে তিন ম্যাচের একটি ওয়ানডে সিরিজ খেলে ২-১ ব্যবধানে সিরিজ জয় করে মাশরাফিবাহিনী। সিরিজের প্রথম ম্যাচেই ৭ রানের জয় তুলে নিয়ে সিরিজ জয়ের ইঙ্গিত দিয়েছিল ম্যাশবাহিনী। দ্বিতীয় ম্যাচে যুদ্ধ বিধ্বস্ত দেশটির ক্রিকেটাররা চমক দেখায় স্বাগতিকদের। ২ উইকেটের জয় তুলে নিয়ে সিরিজে সমতা ফিরিয়ে আনে। শেষ ম্যাচটি স্বভাবতই অঘোষিত ফাইনালে পরিণত হয়েছিল। ‘ডু অর ডাই ম্যাচে’ কোনো ভুল করেনি তামিম-সাকিবরা। ১৪১ রানের বিশাল ব্যবধানে প্রতিপক্ষ দলকে পরাস্ত করে সিরিজ ২-১ ব্যবধানে নিশ্চিত করে।

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট

বছরটা শুরু হয়েছিল টি-টোয়েন্টি সিরিজ দিয়ে। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ঘরের মাটিতে চার ম্যাচের এ সিরিজটি ড্র হয়েছিল। প্রথম দুই ম্যাচে টাইগাররা জয় পেলেও পরের দুই ম্যাচে স্বাগতিকদের হারিয়ে সিরিজে ভাগ বসায় জিম্বাবুইয়ানরা। এরপর এশিয়াকাপে ভারতের কাছে হারলেও শ্রীলঙ্কা, পাকিস্তানের মতো দেশের পাশাপাশি সংযুক্ত আরর আমিরাতকে পরাজিত করে ফাইনালে জায়গা করে নিয়েছিল মাশরাফি-মুশফিকরা। শিরোপা নির্ধারনী ম্যাচে আবারো ভারতের কাছে হারতে হয়। এরপরই শুরু হয় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। সেখানে অবশ্য নিজেদের সেভাবে মেলে ধরতে পারেননি লাল-সবুজ জার্সীধারীরা।

দেশবাসীকে আনন্দে ভাসালেন মুস্তাফিজ

২০১৬ সালটা ভালো-মন্দেই কেটেছে কাটার মাস্টার মুস্তাফিজের। বল হাতে দূর্দান্ত পারফর্ম করলেও বছরের মাঝামাঝি এসে ইনজুরিতে পড়ায় বাকী সময়টা ছিলেন মাঠের বাইরে। ইনজুরি তার জন্য হতাশার কারণ হলেও বছরের শেষে এসে বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসির সেরা উদীয়মান ক্রিকেটার নির্বাচিত হওয়ায় সব কষ্ট দূর হয়েছে তার। সাতক্ষীরা এক্সপ্রেসের এ পুরস্কার জয় আনন্দে মাতিয়েছে পুরো জাতিকে। বাংলাদেশের প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে আইসিসির কোনো বার্ষিক পুরস্কার পেলেন বাঁহাতি এই পেসার। ২১ বছর বয়সী মুস্তাফিজের কাছে এটা বছরের সেরা উপহার। আইসিসিকে দেওয়া প্রতিক্রিয়ায় তিনি বলেন, ‘এটা আমাকে আসছে বছরগুলোতে আরও ভালো খেলতে অনুপ্রাণিত করবে। বাংলাদেশের প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে আইসিসির কোনো বার্ষিক পুরস্কার জিতে আমি ভীষণ খুশি।’

মেহেদী হাসান মিরাজের আবির্ভাব

গত বছর দেশের ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় প্রাপ্তি ছিল মুস্তাফিজের মতো ক্রিকেটারের সন্ধান পাওয়া। আর এ বছর শেষ দিকে এসে মেহেদী হাসান মিরাজের মতো অলরাউন্ডারকে পাওয়া বাংলাদেশের ক্রিকেটের জন্য বড় একটি প্রাপ্তি বলেই মনে করে ক্রিকেট বিশ্ব। ওয়ানডে ক্রিকেটে অভিষেক হওয়ার আগে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক হয় ১৯ বছর বয়সী এ ক্রিকেটারের।

চট্টগ্রামে অভিষেক ম্যাচে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথম ইনিংসে রেকর্ড ৬ উইকেট, আর দ্বিতীয় ইনিংসে নেন ১ উইকেট। অভিষেক ম্যাচেই স্বপ্নের সীমানাকেও ছাড়িয়ে গিয়েছিলেন। সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টেও নিজের প্রতিভার সাক্ষর রাখেন মিরাজ। ঢাকা টেস্টে পর পর দুই ইনিংসেই ৬টি করে উইকেট নিয়ে ১২৯ বছরের রেকর্ড ভেঙে দেন এ বিস্ময় বালক। এর আগে ১৮৮৭ সালে অস্ট্রেলিয়ার বাঁহাতি পেসার জন জেমস ফেরিস অভিষেকে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজে সর্বোচ্চ ১৮ উইকেট নিয়েছিলেন। প্রথম আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলতে নেমে পঞ্চম ওভারেই উইকেটের দেখা পেয়েছিলেন মিরাজ। চট্টগ্রামে অভিষেক ম্যাচে ইংলিশ ওপেনার বেন ডাকেটকে বোল্ড করে যাত্রা শুরু ডানহাতি এ অফস্পিনারের।

মুস্তাফিজের ইনজুরি

চলতি বছর কাউন্টি টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে সাসেক্সের হয়ে অনুশীলনের সময় ইনজুরিতে পড়েন কাটার মাস্টার মুস্তাফিজুর রহমান। ভারতের জনপ্রিয় টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট লিগ আইপিএলে সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের হয়ে শিরোপা জয়ী মুস্তাফিজ দেশে ফিরেই উড়াল দিয়েছিলেন কাউন্টি খেলতে। সাসেক্সের হয়ে গত ২২ জুলাই শেষ ম্যাচটি খেলেছিলেন। তৃতীয় ম্যাচের আগে অনুশীলনের সময় হঠাৎ করেই ইনজুরিতে পড়েন তিনি। এরপর আর মাঠে নামা হয়নি। মুস্তাফিজকে ছাড়াই ঘরের মাটিতে আফগানিস্তান ও ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে সিরিজ খেলে টাইগাররা। তবে বর্তমানে সে চোট অনেকটাই সেরে উঠেছে। দলের সাথে আছেন নিউজিল্যান্ড সফরে। সেখানে একটি প্রস্তুতি ম্যাচও খেলেছেন।

আসেনি অস্ট্রেলিয়া

পূর্ব নির্ধারিত দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলতে ঢাকায় আসার কথা ছিল অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের। কিন্তু নিরাপত্তার অজুহাত তুলে পূর্ব নির্ধারিত সিরিজটি বাতিল করে তারা। অজিদের পথে পা বাড়িয়েছিল ইংল্যান্ডও। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তারা বাংলাদেশের নিরাপত্তা নিয়ে সন্তুষ্টি প্রকাশ করে সফরে আসে। তবে দলটির অধিনায়ক ইয়ন মরগ্যান ঢাকা সফরে আসেননি।

আশরাফুলের মাঠে ফেরা

নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ঘরোয়া ক্রিকেটে ফেরা জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক মোহাম্মদ আশরাফুলের মাঠে ফেরা অনেক বড় একটা সুখবর ছিল তার ভক্তদের জন্য। ঘরোয়া ক্রিকেটে ফিরলেও আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরতে আরো দুই বছর অপেক্ষা করতে হবে তাকে। ঘরোয়া ক্রিকেটে ফিরেই প্রথম সাফল্য পেয়েছেন। তবে নিজের জাত চেনানো ব্যাটিং দিয়ে নয়, ঘূর্ণিবলে দুটি উইকেটে নিয়ে ফিরলেন তিনি। ঢাকা মেট্রোর হয়ে জাতীয় ক্রিকেট লিগে বরিশালের বিপক্ষে উইকেট পান তিনি।

উল্লেখ্য, বিপিএলে ম্যাচ গড়াপেটায় জড়িয়ে আট বছরের নিষেধাজ্ঞার শাস্তি পেয়েছিলেন আশরাফুল। শাস্তির বিরুদ্ধে আপিল করলে নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ কমে দাঁড়ায় পাঁচ বছর। এর মধ্যে দুই বছর নিষেধাজ্ঞা স্থগিত হওয়ায় শাস্তিটা আসলে তিন বছরের (ঘরোয়া ক্রিকেটে)। তবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরতে আরও দুই বছর লাগবে আশরাফুলের।

সম্পাদনা: প্রণব


সর্বশেষ

আরও খবর

প্রধানমন্ত্রীর হাতে থাকছে যে ৬ মন্ত্রণালয়

প্রধানমন্ত্রীর হাতে থাকছে যে ৬ মন্ত্রণালয়


বিকালে বঙ্গভবনে শপথ

বিকালে বঙ্গভবনে শপথ


সংসদ সদস্যদের প্রায় ৬২ শতাংশ পেশায় ব্যবসায়ী

সংসদ সদস্যদের প্রায় ৬২ শতাংশ পেশায় ব্যবসায়ী


চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন সৈয়দ আশরাফ

চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন সৈয়দ আশরাফ


যেসব হেভিওয়েট মন্ত্রী বাদ পড়লেন

যেসব হেভিওয়েট মন্ত্রী বাদ পড়লেন


গঠিত হচ্ছে ৪৬ সদস্যের মন্ত্রিসভা

গঠিত হচ্ছে ৪৬ সদস্যের মন্ত্রিসভা


সৈয়দ আশরাফের প্রথম জানাজা সম্পন্ন, দাফন বিকালে

সৈয়দ আশরাফের প্রথম জানাজা সম্পন্ন, দাফন বিকালে


আ.লীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষে নিহত ১

আ.লীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষে নিহত ১


গণফোরামের দুই এমপির শপথ নেওয়ার ইঙ্গিত ড. কামালের

গণফোরামের দুই এমপির শপথ নেওয়ার ইঙ্গিত ড. কামালের


দেশে পৌঁছেছে সৈয়দ আশরাফের মরদেহ

দেশে পৌঁছেছে সৈয়দ আশরাফের মরদেহ