Friday, June 24th, 2016
আলীর খেলাফত নেয়ার দিন আজ
June 24th, 2016 at 4:49 am
আলীর খেলাফত নেয়ার দিন আজ

ডেস্কঃ ২৩ জুন ৬৫৬ খ্রিস্টাব্দ। ইসলামের তৃতীয় খলিফা হযরত উসমান (রাঃ) শহীদ হওয়ার ঠিক পাঁচ দিন পেরিয়েছে। রাজনৈতিক উত্তেজনায় মদিনার সর্বত্র তখন তুমুল নৈরাজ্য আর বিশৃংখলা। এমন ডামাডোলের মাঝেই মিসরীয় বিদ্রোহীদের নেতা ইবনে সাবা রায় দেন, হযরত আলী (রাঃ) একমাত্র খলিফা হওয়ার অধিকারী। কারণ হযরত মোহাম্মদ (সাঃ) তার সপক্ষে একটি ওসিয়্যত করেছিলেন।

অতঃপর ওসমান (রাঃ) এর মৃত্যুর ষষ্ঠ দিনে, অর্থাৎ আজ থেকে ঠিক এক হাজার তিনশ ৬০ বছর আগের এই দিনে (২৪ জুন) আলী (রাঃ) কে চতুর্থ খলিফা নির্বাচিত করা হয়। মদিনার জনতা তাঁর হাতে বায়াত গ্রহণ করেন। 

হযরত আলী (রাঃ), হযরত মোহাম্মদ (সাঃ) এর চাচা আবু তালিবের ছেলে ছিলেন। তিনি ৬০১ খ্রিস্টাব্দের ১৫ সেপ্টেম্বর জন্ম নেন। আলী (রাঃ) যখন জন্মগ্রহণ করেন তখন তার পিতার আর্থিক অবস্থা তখন বেশ দুর্বল ছিলো। যে কারণে খোদ হযরত মোহাম্মদ (সাঃ) আলীর অভিভাবক হন।

হযরত আলী (রাঃ) সেই রাতে হযরত মোহাম্মদ (সাঃ) এর বিছানায় শায়িত ছিলেন, যখন তিনি (সাঃ) মক্কা ছেড়ে মদিনায় হিজরত করেন। মক্কার কুরাইশ নেতারা মহানবী (সাঃ) কে গ্রেফতার এবং হত্যা করতে চেয়েছিলো। পরবর্তী সকালে তারা মহানবী (সাঃ) এর বিছানায় তার পরিবর্তে হযরত আলী (রাঃ) কে দেখে ক্রোধান্বিত হয়।

হযরত আলী(রাঃ) একজন দুঃসাহসী এবং দক্ষ কৌশলী যোদ্ধা ছিলেন। তিনি হযরত মোহাম্মদ (সাঃ) এর সাথে প্রায় সকল যুদ্ধে অংশ নেন। তিনি মহানবী(সাঃ)’র কন্যা হযরত ফাতিমা (রাঃ)’র সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন।

খলিফা হওয়া পর তিনি ইসলামী রাষ্ট্রের রাজধানী মদিনা থেকে ইরাকের কুফায় সরিয়ে নেন। এ সময় তার মাথার ওপরে ছিলো হযরত উসমান(রাঃ)’র হত্যাকারীদের দ্রুত শাস্তি দেয়ার দাবি। হযরত আলী (রাঃ) ঘোষণা করেন, তার সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার রাষ্ট্রে শান্তি-শৃংখলা পুনঃপ্রতিষ্ঠা। এরপর তিনি হযরত উসমান (রাঃ)’র হত্যাকারীদের বিচারের সম্মুখিন করতে পারবেন।

আলী (রাঃ)’র এমন ঘোষণা মানতে নারাজ ছিলেন মহানবীর ঘনিষ্ট সাহাবি হযরত তালহা (রাঃ), হযরত যুবাইর (রাঃ)’সহ আরো অনেকে। তারা সৈন্যবাহিনী প্রস্তুত করা শুরু করেন। হযরত আয়েশা (রাঃ), যিনি আলীর প্রকৃত মনোভাব সম্পর্কে অবগত ছিলেন না, তিনিও হযরত উসমানের হত্যাকারীদের শাস্তি দেয়ার উদ্দেশ্যে তালহা (রাঃ) ও যুবাইর (রাঃ)’র সাথে যোগ দেন। তিনজনে মিলে বসরার উদ্দেশ্যে সেনাবাহিনী নিয়ে রওনা হন।

খবর পেয়ে আলী হযরত আলী (রাঃ) যুদ্ধ এবং রক্তপাত এড়াতে যারপরনাই চেষ্টা করেন। কিন্তু তার সমস্ত প্রচেষ্টা ব্যর্থ হয়। এক দুর্ভাগ্যজনক যুদ্ধ হয়। যদিও তালহা (রাঃ) ও যুবায়ের (রাঃ) যুদ্ধের পূর্বেই সেনাবাহিনী ত্যাগ করেন। হযরত আয়েশার (রাঃ) সৈন্যরা পরাজিত হয়।তবুও আলী (রাঃ) তাকে যথাযথ শ্রদ্ধা প্রদর্শন করেন এবং তার নিরাপত্তার খেয়াল রাখেন। তিনি তার ভাই মোহাম্মদ বিন আবু বকর (রাঃ)’র রক্ষাবেষ্টনীতে তাকে মদিনায় পাঠিয়ে দেন। এটি ‘উটের যুদ্ধ’ নামে খ্যাত। কারণ হযরত আয়েশা(রাঃ) যুদ্ধের সময় উটের উপর বসে সৈন্য পরিচালনা করেছেন। পরবর্তীতে হযরত আয়েশা (রাঃ) জীবনভর হযরত আলী (রাঃ)’র বিরুদ্ধে যুদ্ধ করার জন্য অনুতপ্তা ছিলেন।

শিয়া মতে ‘মাওলা’ খ্যাত আলী (রাঃ)’কেএরপর আরো বহু যুদ্ধ, নানা ঘটনার মধ্যে জীবন কাটাতে হয়। ৬৬১ খ্রিষ্টাব্দের ২৭ জানুয়রি ফযরের নামাজের জন্য মসজিদে যাবার সময় গুপ্ত আক্রমণের শিকার হন তিনি। দু’দিন পর ২৯ জানুয়ারি (৪০ হিজরির ২০ রমজান)তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগে করেন। বিভিন্ন সাহাবির বর্ণিত হাদিস মতে তিনিও সেই দশজন সৌভাগ্যশালীদের একজন মহানবী (সাঃ) নিজে যাদের বেহেস্‌তের সুসংবাদ প্রদান করেছিলেন।

নিউজনেক্সটবিডি ডটকম/এসকে/টিএস


সর্বশেষ

আরও খবর

বীর উত্তম সি আর দত্ত আর নেই, রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শোক

বীর উত্তম সি আর দত্ত আর নেই, রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শোক


সংগীতের ভিনসেন্ট নার্গিস পারভীন

সংগীতের ভিনসেন্ট নার্গিস পারভীন


সিরাজগঞ্জে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে কামাল লোহানীকে

সিরাজগঞ্জে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে কামাল লোহানীকে


জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামান আর নেই

জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামান আর নেই


ওয়াজেদ মিয়ার ১১তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ

ওয়াজেদ মিয়ার ১১তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ


একুশে পদকপ্রাপ্তদের হাতে পুরষ্কার তুলে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী

একুশে পদকপ্রাপ্তদের হাতে পুরষ্কার তুলে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী


প্রধানমন্ত্রীর হাতে রান্না করা খাবার সাকিবের বাসায়

প্রধানমন্ত্রীর হাতে রান্না করা খাবার সাকিবের বাসায়


জাতীয় কবির মৃত্যুবার্ষিকী আজ

জাতীয় কবির মৃত্যুবার্ষিকী আজ


জাপানে হেইসেই যুগের অবসান হচ্ছে আজ

জাপানে হেইসেই যুগের অবসান হচ্ছে আজ


হাঁটাহাঁটি করছেন ওবায়দুল কাদের

হাঁটাহাঁটি করছেন ওবায়দুল কাদের