Tuesday, January 10th, 2017
গরম কাপড়ের বাজার ‘ঠান্ডা’
January 10th, 2017 at 9:05 am
গরম কাপড়ের বাজার ‘ঠান্ডা’

ঢাকা: সকালে খানিকটা শীতের আভাস, বড়জোর ৯টা। তার পর আকাশে রৌদ্রের ঝলকানি। নেই শীতের প্রকোপ। আসবে আসবে করেও এখনো সেভাবে শীত আসেনি রাজধানীতে। যেটুকু ঠাণ্ডা আবহাওয়ার তীব্রতা রাজধানীবাসী টের পেয়েছেন তাতে যেন শীতবস্ত্র কেনার তেমন আগ্রহ জাগেনি তাদের। তবে রাজধানীর মার্কেটগুলোতে শীতবস্ত্রের বিপুল মজুত লক্ষ্য করা গেছে।

রাজধানীর নিউ মার্কেট, এলিফ্যান্ট রোড, ফার্মগেইট দোকানগুলো ঘুরে দেখা মেলেনি শীত বস্ত্রের ক্রেতা সমাগম। আর গুলিস্তান, বঙ্গবাজার, পল্টন,  পাইকারি ও খুচরা কাপড়ের বাজারেও নেই তেমন ভিড়।

বিক্রেতারা বলছেন অনেকে যেন শুধুমাত্র সময় কাটানোর জন্যই এখন মার্কেটে শীতের পোশাক দেখতে আসছেন। কেনার তাগাদা নেই। আর বাণিজ্যমেলা শুরু হওয়ায় অনেক ছুটছেন সেদিকেই। যার প্রভাব পড়েছে মার্কেটগুলোতেও। সরবরাহের চেয়ে বিক্রি কম হওয়ায় এবার বাজারে দামও কিছুটা কম।

নিউমার্কেটের ব্যবসায়ী মো: রাসেল সাধারণ পোশাক গোডাউনে রেখে দোকান সাজিয়েছেন শীতবস্ত্রে। কিন্তু তাকে দেখা গেলো অলস সময় কাটাতে। তিনি নিউজনেক্সটবিডি ডটকম’কে বলেন, “সব শীতের পোশাক তুললাম, কিন্তু এখনো শীত আসলো না। গরম কাপরের বাজার ঠান্ডা হয়ে আছে।”

আরেক ব্যবসায়ী জাহিদুল ইসলাম বলেন, “বেচাকেনা খুব কম। যারা আসছেন তারা কম দামে কেনার কথা ভাবছেন। ঠান্ডা নেই, তাই কাপড় কেনার ইচ্ছাও নেই ক্রেতাদের।”


এদিকে মৌসুমি ব্যবসায়ীরা বিপাকে পরেছেন। অনেকেই শুধু মূলধন তুলতেই আশার চেয়ে অনেক কম দামের বিক্রি করছেন পণ্য। এমন একজন সানোয়ার আলি জানান, সাভার থেকে একটু বেশি লাভের আশায় তিনি ঢাকায় শীতের কাপড়, টুপি, মোজা, মাফলার বিক্রি করতে এসেছেন, কিন্তু বাজারের অবস্থা দেখে আবার ফিরে যাওয়ার কথা ভাবছেন।

ফার্মগেটের একটি মার্কেটের ব্যবসায়ী মোহাম্মদ শাহীন বলেন, ঢাকার বাইরে যারা যাচ্ছেন এমন ক্রেতারা শীতের কাপড় কিনে নিয়ে যাচ্ছেন। কিন্তু যারা ঢাকায় থাকছেন তারা সেভাবে শীতের কাপড় কিনছেন না।

ক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, শীতের তীব্রতা না থাকায় গরম কাপড় কেনার প্রতি তাদের তেমন আগ্রহ নেই। এখন দেখছেন, কম দামে পছন্দমত কিছু পেলে কিনছেন। মোসাম্মত নুসরাত আরা বলেন, ‘ঠান্ডা নেই, তাই ভাড়ি কাপড় কিমছি না। যদি ঠান্ডা পরে তাহলে কিনবো।’

আবহাওয়া অফিস সুত্রে জানা যায়, উর্ধ্ব আকাশে পশ্চিমা জেডপ্রবাহ সক্রিয় না থাকায় শীত পড়ছিল না। এটি এখনও পুরোপুরি সক্রিয় হয়নি। সক্রিয় হতে হতে আরও পাঁচ থেকে ছয় দিন লেগে যাবে। এই হিসাবে আগামী ১১ বা ১২ জানুয়ারি থেকে মাঝারি শৈত্য প্রবাহ বয়ে যেতে পারে।

প্রতিবেদন: ময়ূখ ইসলাম, সম্পাদনা: জাবেদ


সর্বশেষ

আরও খবর

খ্রিস্ট ধর্মীয় অনুভূতি: কবি ও সাংবাদিক হেনরী স্বপন গ্রেপ্তার

খ্রিস্ট ধর্মীয় অনুভূতি: কবি ও সাংবাদিক হেনরী স্বপন গ্রেপ্তার


কক্সবাজারে বন্দুকযুদ্ধে নিহত ৩

কক্সবাজারে বন্দুকযুদ্ধে নিহত ৩


ভূমধ্যসাগরে নিহত ২৭ বাংলাদেশির পরিচয় মিলেছে

ভূমধ্যসাগরে নিহত ২৭ বাংলাদেশির পরিচয় মিলেছে


ফুট ওভার ব্রীজ ব্যবহারে অনীহা

ফুট ওভার ব্রীজ ব্যবহারে অনীহা


দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী

দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী


আগামী তিনদিনের মধ্যে বৃষ্টির সম্ভাবনা

আগামী তিনদিনের মধ্যে বৃষ্টির সম্ভাবনা


বাগদাদে আত্মঘাতী বোমা হামলায় নিহত ৮

বাগদাদে আত্মঘাতী বোমা হামলায় নিহত ৮


সঙ্কটে বাংলাদেশ বিমান: শিডিউল বিপর্যয়

সঙ্কটে বাংলাদেশ বিমান: শিডিউল বিপর্যয়


প্রধানমন্ত্রীর অপেক্ষায় এটিএম শামসুজ্জামানের পরিবার

প্রধানমন্ত্রীর অপেক্ষায় এটিএম শামসুজ্জামানের পরিবার


আমাদের সময় শেষ হয়ে আসছে: ফখরুল

আমাদের সময় শেষ হয়ে আসছে: ফখরুল