Monday, June 10th, 2019
ঘুষকাণ্ডে দুদক পরিচালক এনামুল বাছির সাময়িক বরখাস্ত
June 10th, 2019 at 7:19 pm
ঘুষকাণ্ডে দুদক পরিচালক এনামুল বাছির সাময়িক বরখাস্ত

ঢাকা: অবৈধভাবে কমিশনের তথ্য পাচার এবং শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে দুদক পরিচালক খন্দকার এনামুল বাছিরকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন-দুদক। যদিও তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগে দুদক বিব্রত নয় বলে জানিয়েছেন দুদকের চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ।

গতকাল বেসরকারি একটি টেলিভিশনে প্রচারিত এক প্রতিবেদনে বলা হয়, কমিশনের পরিচালক খন্দকার এনামুল বাছির পুলিশের ডিআইজি মিজানুর রহমানের বিরুদ্ধে পরিচালিত অনুসন্ধান থেকে দায়মুক্তি দিতে তার কাছ থেকে ৪০ লাখ টাকা ঘুষ গ্রহণে সমঝোতা করেন। তিনি ৪০ লাখ টাকার মধ্যে ২৫ লাখ টাকা রমনা পার্কে, বাজারের ব্যাগে করে ডিআইজি মিজানুর রহমানের কাছ থেকে গ্রহণ করেন এবং অবশিষ্ট ১৫ লাখ টাকা পরবর্তী এক সপ্তাহের মধ্যে পাওয়ার অভিপ্রায় ব্যক্ত করেন। ছেলেকে স্কুলে আনা-নেয়ার জন্য তিনি গ্যাসচালিত একটি গাড়ি দাবি করেন। এ ছাড়া তিনি কমিশনের গুরুত্বপূর্ণ তথ্য অবৈধভাবে পাচার করেন।

বেসরকারি টেলিভিশনের ওই প্রতিবেদনটি কমিশন আমলে নিয়ে গতকাল দুদক সচিব মুহাম্মদ দিলোয়ার বখতের নেতৃত্বে তিন সদস্যের একটি উচ্চপর্যায়ের তদন্ত কমিটি গঠন করে। কমিশন এ কমিটিকে সোমবার বিকেল ৩টার মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন। কমিশনের নির্দেশনা মোতাবেক এ কমিটি আজ কমিশনে প্রতিবেদন দাখিল করে। প্রতিবেদনটি পর্যালোচনা করে কমিশন, দুদকের তথ্য অবৈধভাবে পাচার, চাকরির শৃঙ্খলা ভঙ্গ সর্বোপরি অসদাচরণের অভিযোগে পরিচালক খন্দকার এনামুল বাছিরকে দুদকের চাকরি থেকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, ডিআইজি মিজানুর ঢাকা মহানগর পুলিশে অতিরিক্ত কমিশনার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। গত জানুয়ারির শুরুর দিকে তাঁকে প্রত্যাহার করে পুলিশ সদর দপ্তরে সংযুক্ত করা হয়। বিয়ে গোপন করতে নিজের ক্ষমতার অপব্যবহার করে দ্বিতীয় স্ত্রী মরিয়ম আক্তারকে গ্রেপ্তার করানোর অভিযোগ উঠেছিল তাঁর বিরুদ্ধে। তখন তাঁর বিরুদ্ধে নারী নির্যাতনের অভিযোগ ওঠে। মিজানুরের বিরুদ্ধে এক সংবাদ পাঠিকাকে প্রাণনাশের হুমকি ও উত্ত্যক্ত করার অভিযোগে বিমানবন্দর থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) রয়েছে। গত বছরের ৩ মে অবৈধ সম্পদসহ বিভিন্ন দুর্নীতির অভিযোগে মিজানুরকে দুদক কার্যালয়ে প্রায় সাত ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। প্রাথমিক অনুসন্ধান প্রতিবেদনে মিজানুর রহমান ও তাঁর প্রথম স্ত্রী সোহেলিয়া আনারের আয়ের সঙ্গে অসংগতিপূর্ণ কোটি টাকারও বেশি সম্পদের খোঁজ পায় দুদক। মিজানুরের নামে ৪৬ লাখ ৩২ হাজার ১৯১ টাকা এবং স্ত্রীর নামে ৭২ লাখ ৯০ হাজার ৯৫২ টাকার অসংগতিপূর্ণ স্থাবর ও অস্থাবর সম্পদের খোঁজ পাওয়ার কথা দুদকের বরাত দিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশ পায়। তদন্ত শুরু হওয়ার এক বছরের মাথায় দুদক পরিচালকের বিরুদ্ধে ঘুষ নেওয়ার এই অভিযোগ পাওয়া গেল।

গ্রন্থনা ও সম্পাদনা: এম কে আর


সর্বশেষ

আরও খবর

লেদারল্যান্ডের ঢোল

লেদারল্যান্ডের ঢোল


১ বছর নিষিদ্ধ হলেন শেহজাদ

১ বছর নিষিদ্ধ হলেন শেহজাদ


আবারো বাড়ল সোনার দাম

আবারো বাড়ল সোনার দাম


নবম ওয়েজ বোর্ডের বিষয়ে আপিলের আদেশ মঙ্গলবার

নবম ওয়েজ বোর্ডের বিষয়ে আপিলের আদেশ মঙ্গলবার


নরসিংদীতে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৪

নরসিংদীতে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৪


বরগুনার মেয়রের ছেলে ইয়াবাসহ ঢাকায় গ্রেপ্তার

বরগুনার মেয়রের ছেলে ইয়াবাসহ ঢাকায় গ্রেপ্তার


মিরপুরের আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত ৩ হাজার পরিবার

মিরপুরের আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত ৩ হাজার পরিবার


মিয়ানমারের সামরিক কলেজে বিদ্রোহীদের হামলায় নিহত ১৫

মিয়ানমারের সামরিক কলেজে বিদ্রোহীদের হামলায় নিহত ১৫


পাক-ভারত সীমান্তে গোলাগুলি, ভারতের ৫ ও পাকিস্তানের ৩ সেনা নিহত

পাক-ভারত সীমান্তে গোলাগুলি, ভারতের ৫ ও পাকিস্তানের ৩ সেনা নিহত


ঈদের চতুর্থ দিনে সড়কে ঝরল ২৫ প্রাণ

ঈদের চতুর্থ দিনে সড়কে ঝরল ২৫ প্রাণ