Thursday, June 30th, 2022
ছাত্রদলের কমিটি নিয়ে নেতাদের দৌড়ঝাপ
November 15th, 2016 at 7:49 pm
ছাত্রদলের কমিটি নিয়ে নেতাদের দৌড়ঝাপ

ঢাকা: বিএনপির অনেক অঙ্গসংগঠনের মেয়াদ শেষ হয়েছে কিন্তু নতুন ভাবে দেয়া হয়নি কমিটি। এতে করে নেতৃত্বহীন ভাবে অঙ্গসংগঠনগুলো অগোছালো হয়ে যাচ্ছে বলে মনে করছেন পদ প্রত্যাশীরা।

রাজনৈতিক দলগুলোর সংগ্রাম আন্দোলনে যে সংগঠনটি সবচেয়ে বেশি ভূমিকা রাখে সেটি হচ্ছে ছাত্র সংগঠন। বিএনপির ছাত্রদলের পুরাতন কমিটি ভেঙ্গে দেয়া হয়েছে অনেক আগেই কিন্তু এখনো নতুন করে দেয়া হয়নি কমিটি। ফলে বিএনপির সংগ্রাম বা আন্দোলনে ছাত্রদলের ভূমিকা অনেকাংশে চোখে না পড়ার মতো।

তবে বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটি থেকে বারবারই বলা হয়েছে অতিদ্রুত দেয়া হবে ছাত্রদলের কমিটি। নতুন এই কমিটির পরিসর কেমন হবে, মাঠের কর্মীরা মুল্যায়িত হবে নাকি পকেট কমিটি হবে, রাজপথের আন্দোলনে ত্যাগী ছাত্রনেতারা স্থান পাবে নাকি ঘরে বসে তদবিরকারীরা জায়গা করে নিবে, কমিটিতে আদৌ ছাত্রনেতারা স্থান পাবে নাকি আবারো ছাত্রের বাবাদের দখলে চলে যাবে ইত্যাদি নানান প্রশ্ন নিয়ে উদ্বিগ্ন ছাত্রদলের পদপ্রত্যাশী শতাধিক নেতাকর্মীরা।

ছাত্রদলের নতুন কমিটিকে নিয়ে নেতাকর্মীদের ব্যস্ততা একটু বেড়ে গেছে। এরইমধ্যে তদবির নিয়ে ছোটাছুটিও শুরু হয়ে গেছে। যে করেই হোক কমিটিতে আসতে এমন মনোভাব নিয়ে নিজেদের জাহির করার জন্য হীন প্রতিযোগিতায় নেমে পড়েছে ছাত্রদলের পদপ্রত্যাশী নেতাকর্মীরা। আন্দোলন সংগ্রামে মাঠে থাকুক বা না থাকুক সেদিকে কারোর নজর নেই। তাদের নজর এখন বিএনপির হাই কমান্ডের দিকে। এই জন্য নেতাদের বাসা পর্যন্ত গিয়েছেন অনেকেই। তবে প্রতিযোগিতার এই দৌড়ে এবারো বিবাহিতরাই এগিয়ে আছে।

জানা গেছে, দুই বছর মেয়াদি ছাত্রদলের বর্তমান কমিটির মেয়াদ শেষ হয়েছে অক্টোবর মাসের ১৪ তারিখ। ২০১৪ সালের ১৪ অক্টোবর রাজীব আহসানকে সভাপতি ও মো. আকরামুল হাসানকে সাধারণ সম্পাদক করে ১৫৩ সদস্যের আংশিক কমিটি ঘোষণা করা হয়। এরপর চলতি বছরের ছয় ফেব্রুয়ারি ৭৩৪ জন সদস্যকে নিয়ে ওই কমিটি পূর্ণাঙ্গ রূপ পায়। কিন্তু ২০১৫ সালের সরকার বিরোধী আন্দোলনে ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কমিটির ১৫৩ সদস্যের মধ্যে মাত্র ২০ থেকে ২৫ জন ছাত্রনেতা সক্রিয় ছিলেন। এর বাইরে পদ-পদবী বিহীন অনেক ছাত্রনেতার ভূমিকাও ছিলো উল্লেখযোগ্য।

নেতাকর্মীরা জানান, বিগত আন্দোলনে সক্রিয় নেতাদের মধ্য থেকেই এবার নতুন কমিটির দায়িত্ব প্রদান করার দাবি জানানো হয়েছে দলের হাইকমান্ডের প্রতি। কোন সিন্ডিকেট এর তল্পিবাহক কিংবা ভাইয়া গ্রুপের আশীর্বাদপুষ্ট নেতাকে পদায়ন দেয়া হলে এর বিরূপ প্রভাব পড়বে পুরো দলের ওপর। তারা জানান, ছাত্রদল কমিটি নিয়ে আলোচনা শুরুর পর থেকেই চিহ্নিত একটি অংশ বিবাহিত, অবিবাহিত, বয়স্ক, তরুণ এরকম নানাবিধ যুক্তি-তর্ক উপস্থাপন শুরু করেছে। মাঠের আন্দোলনে অংশগ্রহণ না থাকলেও বিতর্কিত ইস্যু নিয়ে সরব হয়ে উঠছেন ওই অংশটি।

ছাত্রদল সূত্র জানায়, নতুন কমিটির সভাপতি পদের জন্য বর্তমান কমিটির সাধারণ সম্পাদক আকরামুল হাসান মিন্টু, সিনিয়র সহ-সভাপতি মামুন অর রশিদ মামুন, সাংগঠনিক সম্পাদক ইসহাক, সহ-সভাপতি আলমগীর হাসান সোহান, নাজমুল হাসান, ইখতিয়ার রহমান কবির, আবু আতিক আল হাসান মিন্টু ছাড়াও মনিরুল ইসলাম মনিরসহ আরো অনেক হেভিওয়েট প্রার্থী উল্লেখযোগ্য।

ছাত্রদলের সভাপতি পদের জন্য যোগ্য মনে করছেন ছাত্রনেতা জবির সাবেক সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক খন্দকার আল আশরাফ মামুন। বর্তমানে তিনি কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। পঞ্চাশটির অধিক মামলা নিয়েও তিনি রাজপথে ছিলেন সক্রিয়। গ্রেফতারও হয়েছেন পাঁচ ছয়বার। পুলিশের গুলিতে আহত হয়েছেন বহুবার। আসন্ন ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কমিটিতে তিনি এবার সভাপতি কিংবা সাধারণ সম্পাদক এর মতো সুপার পোষ্টের জন্য ছুটাছুটি করছেন বলে জানা গেছে।

অন্যদিকে থেমে নেই আরেক ছাত্রনেতা কেন্দ্রীয় যুগ্ম সম্পাদক ও জবির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ওমর ফারুক মুন্না। তিনি এবার কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক পদ প্রত্যাশী বলে শোনা যাচ্ছে।

প্রতিবেদন: শেখ রিয়াল, সম্পাদনা: সজিব ঘোষ


সর্বশেষ

আরও খবর

সংসদে ৬,৭৮,০৬৪ কোটি টাকার বাজেট প্রস্তাব

সংসদে ৬,৭৮,০৬৪ কোটি টাকার বাজেট প্রস্তাব


আ’লীগ নেতা বিএম ডিপোর একক মালিক নন

আ’লীগ নেতা বিএম ডিপোর একক মালিক নন


চীনের সাথে বাণিজ্য ঘাটতি কমাতে চায় বাংলাদেশ

চীনের সাথে বাণিজ্য ঘাটতি কমাতে চায় বাংলাদেশ


ভোজ্যতেল ও খাদ্য নিয়ে যা ভাবছে সরকার

ভোজ্যতেল ও খাদ্য নিয়ে যা ভাবছে সরকার


তৎপর মন্ত্রীগণ, সীতাকুণ্ডে থামেনি দহন

তৎপর মন্ত্রীগণ, সীতাকুণ্ডে থামেনি দহন


অত আগুন, এত মৃত্যু, দায় কার?

অত আগুন, এত মৃত্যু, দায় কার?


যে গল্প এক অদম্য যোদ্ধার

যে গল্প এক অদম্য যোদ্ধার


আফগান ও ভারতীয় অনুপ্রবেশ: মে মাসে আটক ১০

আফগান ও ভারতীয় অনুপ্রবেশ: মে মাসে আটক ১০


সীমান্ত কাঁটাতারে বিদ্যুৎ: আলোচনায় বিজিবি-বিজিপি

সীমান্ত কাঁটাতারে বিদ্যুৎ: আলোচনায় বিজিবি-বিজিপি


চালের বাজার নিয়ন্ত্রণে কঠোর সরকার

চালের বাজার নিয়ন্ত্রণে কঠোর সরকার