Wednesday, July 20th, 2016
জঙ্গিবাদ ও ব্লগার হত্যার অপ্রাসঙ্গিকতাসমূহ
July 20th, 2016 at 12:34 pm
জঙ্গিবাদ ও ব্লগার হত্যার অপ্রাসঙ্গিকতাসমূহ

নির্ঝর মজুমদার: ফর দা রেকর্ড কিছু কথা বলে যাই।  নতুন কিছু লজিক এসেছে বাঙ্গালী মধ্যবিত্ত সমাজে। এটাই ট্রেন্ড এখন। এই ট্রেন্ডের উৎস হইলো নিচের লজিকটা।

– ” সন্ত্রাসীর কোন ধর্ম নাই”।

সন্ত্রাসীর ধর্ম যদি থেকে না’ই থাকে, তাহলে তারা নিশ্চিত নাস্তিক (পড়েন “ব্লগার”)। আজকের লেখাটা এই লজিকের থেকেই উৎপত্তি।

ahmed_rajib_haider_thaba_baba_nastik

আহমেদ রাজীব হায়দার

***
থাবা ( আহমেদ রাজীব হায়দার), বাংলাদেশের জন্য একটা এসিড টেস্ট। যত দিন বাংলাদেশ (অর্থাৎ আমাদের সমাজটা) বলবে, “সে যা লিখেছিলো (পড়েন নাস্তিকরা যা লিখেছে বা বলেছে), সেটা তার খুনিদের থেকেও জঘন্য”, ততদিন বাংলাদেশে এই অশান্তির আগুনটা জ্বলবে। দেশ থেকে শেষ অমুসলিমটা মরে যাওয়ার পরেও, শেষ নাস্তিকটা বোবা হয়ে যাওয়ার পরেও, শেষ মন্দির-প্যগোডা-চার্চটা পুড়ে যাওয়ার পরেও, শেষ মানুষটা আইসিসে যোগ দেওয়ার পরেও এই অশান্তির শেষ হবে না, এই মারামারি-কাটাকাটি, গলা ফেলে দেওয়া, এইগুলো চলতেই থাকবে।

বন্ধু ঈশা করিমের ফেসবুক ওয়ালে আজকে একটা মেয়ের লেখা দেখলাম। ভালো মেয়ে,শাড়ী পড়ে, টীপ দেয়, মেকাপ করে, ছবি তোলে, সবই করে। কিন্তু তার কাছে “মুক্তমনারা হচ্ছে সব থেকে বড় টেরোরিস্ট”। সে থাবার কিলিং কে সমর্থন করে। খেয়াল করে দেখলাম, এই মেয়ের মতো করেই চিন্তা করেছিলো জনসংখ্যার সংখ্যাগরিষ্ঠ অংশটা। এখনো করছে।

এদের কাছে, নাস্তিকেরা, ব্লগাররা, মুক্তমনারা হলো নিবরাসদের চেয়েও বড় জঙ্গি। নিজের হাতে একটা ইঁদুর না মারা এই গোষ্ঠীটা দুনিয়ার সব থেকে বড় জঙ্গি হয়ে যাচ্ছে, এবং এটাই মূল ও প্রধান সমস্যা তাদের কাছে।

***
কয়েকদিন আগে আল কায়েদার বাংলা ফোরামে ঠিক এই বিষয়টা কিভাবে তারা চেয়েছিলো, কিভাবে/কেন তারা অপারেশন করার জন্য এবং পজিটিভ জনমত তৈরি করার জন্য প্রথমে নাস্তিকদের বেছে নিয়ে জনসমর্থন আদায় করার ফন্দি করেছিলো, সেটার বিস্তারিত লেখা হয়েছিলো।

solakia

শোলাকিয়ার হামলা। (ফাইল ফটো)

খেয়াল করুন, সেই কাজটা তারা নাস্তিকতা দমনের উদ্দেশ্য নিয়ে করেনি। তাদের প্রচুর লক্ষ্যের শুধু মাত্র এটা লক্ষ্য ছিলো সেটা। একই লাইনে অমুসলিম, সংখ্যালঘু, অন্য ঘরানার মুসলিম, ধর্ম একটু কম পালন করা মুসলিম, মায় টিপ পরা শাড়ী পরা মুসলিমরাও এই কতলের তালিকা থেকে বাদ যাবেন না। কেউ একদিন আগে, কেউ একদিন পরে- এই হল পার্থক্য। তাই আজকে শোলাকিয়ার ঈদের জামাতেও আপনি হামলার শিকার হন।

এই ধারনার প্রবক্তা হইলো আনওয়ার আল আওলাকি। লেখালেখি এবং চাপাতি যে সমান, সেটার ধারনা এই জঙ্গি গুরুর সৃষ্টি। আজকে কোটি কোটি “মুসলিম” এই ধারনা কে সমর্থন করে গর্বিত হয়। খেয়াল রাখা দরকার, সারা দুনিয়া বিরুদ্ধে থাকার পরেও গ্যালিলিও বলেছিলো “তবুও পৃথিবী ঘোরে”। সুতরাং, ভুল ধারনাকে জনমতের চাপে আকাশে উঠিয়ে দিলেও সূর্য পশ্চিম দিকে উঠবে না, পৃথিবীর চারপাশেও ঘুরবে না।

roushan ershad

রওশন এরশাদ (ফাইল ফটো)

***
আজকে (মঙ্গলবার) বেগম রওশন এরশাদ বলছেন, ব্লগার হত্যা গুরুত্বের সাথে নেওয়া উচিত ছিলো। নিজের নিরাপত্তা ব্যপারে শংকিত হওয়ার পরেই উনার মুখ থেকে এই রকম কথা বের হলো।

বাংলাদেশ নিয়ে স্বপ্ন দেখার সুযোগ সীমিত। প্রথমে জঙ্গিদেরকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসার আহবান, এবং পরে দশ লাখ টাকা দেবার ঘোষণা দিয়ে রাষ্ট্রযন্ত্র প্রকারান্তরে স্বীকার করে নিয়েছে যে জঙ্গিদের সাথে টক্কর দেওয়ার ক্ষমতা আর নেই। তাই “মাথায় হাত বুলিয়ে” ফাদারলি এপ্রোচে জঙ্গি প্রকোপ কমানোর চেষ্টা। কিছুদিন আগেই বলা হয়েছিলো জঙ্গিবাদ দমনে জিরো টলারেন্স এর কথা। জিরো টলারেন্স এর মানে দাঁড়াচ্ছে, জঙ্গিদের পুরস্কৃত করার ব্যপারে জিরো টলারেন্স, তাদের কাজের পুরস্কার তাদের দিতেই হবে।

***
যে কোনো ধরণের জঙ্গি দর্শন একটা নির্দিষ্ট মতবাদকে কেন্দ্র করে গড়ে ওঠে। সেই মতবাদের ১০০ ভাগের এক ভাগও যদি কেউ গ্রহণ করে, সেটাই জঙ্গিদের বিজয়। উপরের উদাহরনের মেয়েট (ঈশা করিমে) সেই একশভাগের বেশ বড় একটা অংশগ্রহন করে ফেলেছে। অথচ প্রচলিত নিয়ম অনুসারে তাকে জঙ্গি বলার সুযোগ নাই।

প্রথম প্যরাতেই বলেছি, যেহেতু জনপ্রিয় একটা রেটোরিক হল সন্ত্রাসীর কোন ধর্ম নাই, এবং সেটার অনুসিদ্ধান্ত হল সন্ত্রাসীরা নাস্তিক, তাই নাস্তিকেরাই হল সব থেকে জঘন্য অপরাধী। যদিও নাস্তিকতা প্রচারের দায়ে আজ পর্যন্ত কাউকে একটা ইঁদুর পর্যন্ত মারতে হয়নি।

এইখানে আপনাকে বাইনারি লজিক দিতে হবে, ঠিক যেমনটি জঙ্গিরা দেয়। তারা যা বলবে, সেটা শতভাগ ভালো হলেও সেটার বিপক্ষেই আপনাকে দাঁড়াতে হবে, যদি আপনি নিজের জীবন বাঁচাতে চান। তাদের পক্ষে যোগ দেওয়ার কথা চিন্তা করলে ভিন্ন বিষয়। এরা এমন এক প্রতিপক্ষ, যার সাথে কোনোভাবেই নুন্নতম কম্প্রোমাইজের সুযোগ নাই।

বটম লাইন হল, যতদিন বাংলাদেশ এই ধারনাতে বিশ্বাস না করবে যে “রাজীব যা লিখত, সেটা লেখার অধিকার তার ছিলো এবং সেটা কোন শাস্তিযোগ্য অপরাধ নয়”, ততদিন এই ঘটনাগুলো বন্ধ করবার কোন উপায় নাই।

533407_10200578373573375_2094231959_n
লেখক:
জঙ্গিবাদ বিষয়ক গবেষক
নিউজনেক্টবিডি ডটকম/এসকে


সর্বশেষ

আরও খবর

আমি বাংলার, বাংলা আমার, ওতপ্রোত মেশামেশি…

আমি বাংলার, বাংলা আমার, ওতপ্রোত মেশামেশি…


শেখ হাসিনার ৭৪ তম জন্মদিন: ‘পুতুল’ খেলার আঙিনায় বেজে উঠুক ‘জয়’র বাঁশি

শেখ হাসিনার ৭৪ তম জন্মদিন: ‘পুতুল’ খেলার আঙিনায় বেজে উঠুক ‘জয়’র বাঁশি


বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীর আগেই পাকিস্তান ক্ষমা চাইবে ?

বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীর আগেই পাকিস্তান ক্ষমা চাইবে ?


শেখ হাসিনা কতোখানি চ্যালেঞ্জিং এখনো?

শেখ হাসিনা কতোখানি চ্যালেঞ্জিং এখনো?


প্রণব মুখোপাধ্যায় : বিশ্ব-রাজনীতির মহাপ্রাণ

প্রণব মুখোপাধ্যায় : বিশ্ব-রাজনীতির মহাপ্রাণ


দয়া করে ক্রসফায়ারের স্ক্রিপ্টটি ছিঁড়ে ফেলুন

দয়া করে ক্রসফায়ারের স্ক্রিপ্টটি ছিঁড়ে ফেলুন


দক্ষিণ এশিয়াঃ সীমান্তবিহীন এক অবিভাজিত অচলায়তন

দক্ষিণ এশিয়াঃ সীমান্তবিহীন এক অবিভাজিত অচলায়তন


লুণ্ঠন ঢাকতে বারো মাসে তেরো পার্বণ

লুণ্ঠন ঢাকতে বারো মাসে তেরো পার্বণ


লেটস্ কল অ্যা স্পেড অ্যা স্পেড!

লেটস্ কল অ্যা স্পেড অ্যা স্পেড!


পররাষ্ট্রনীতিতে, ম্যারেজ ইজ দ্য এন্ড অফ লাভ

পররাষ্ট্রনীতিতে, ম্যারেজ ইজ দ্য এন্ড অফ লাভ