Friday, February 24th, 2017
জার্মানিতে আশ্রয় চায় তুর্কি কূটনীতিকরা
February 24th, 2017 at 9:20 pm
জার্মানিতে আশ্রয় চায় তুর্কি কূটনীতিকরা

আংকারা: তুরস্কের ১৩৬ জন কূটনীতিক এবং তাদের আত্মীয় স্বজন জার্মানিতে আশ্রয় প্রার্থনা করেছেন বলে জানিয়েছে জার্মান কর্তৃপক্ষ। গত বছরের জুলাইয়ে তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়িপ এরদোয়ানের বিরুদ্ধে ব্যর্থ অভ্যুত্থানের পর থেকেই কূটনৈতিক পাসপোর্টধারীরা জার্মানিতে আশ্রয়ের আবেদন করেন।

জার্মানির বিভিন্ন গণমাধ্যম জানায়, ২০১৬ সালের আগস্ট থেকে ২০১৭ সালের জানুয়ারির মধ্যে মোট ১৩৬ জন কূটনীতিক জার্মানিতে আশ্রয় চান।

এদিকে তুরস্ক দেশটির কোনো সামরিক কর্মকর্তাকে জার্মানি যেন আশ্রয় না দেয় সে বিষয়ে আহ্বান জানিয়েছে। গ্রিসেও দুজন তুর্কি সেনা আশ্রয়ের আবেদন করেছেন। এই সেনাদ্বয় ব্যর্থ অভ্যুত্থানের পর তুরস্ক থেকে গ্রিসে পালিয়ে যান। এরা এরদোয়ানের বিরুদ্ধে অভ্যুত্থানে অংশ নিয়েছিলেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। বর্তমানে তারা গ্রিক পুলিশের হেফাজতে আছেন।

তুরস্ক এই সেনাদের তাদের কাছে হস্তান্তরের দাবি জানিয়েছিল কিন্তু গত মাসে গ্রিসের একটি আদালত তা প্রত্যাখ্যান করে। তবে তুরস্ক এই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

এদিকে জার্মানির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় দেশটিতে আশ্রয় প্রার্থনা করা তুর্কি কূটনীতিকদের সনাক্ত করতে পারেনি বলে জানা গেছে। অবশ্য তাদের মধ্যে কারো আবেদন মঞ্জুর হয়েছে কি না তা এখনো স্পষ্ট নয়। তবে জার্মান কর্তৃপক্ষ যদি এই আবেদনে সাড়া দেয় তাহলে তুরস্ক এবং জার্মানির মধ্যে চলমান উত্তেজনাকর পরিস্থিতি আরো খারাপের দিকে মোড় নিবে বলেই ধারণা করছেন বিশ্লেষকরা।সূত্র: বিবিসি

গ্রন্থনা: ফারহানা করিম, সম্পাদনা: জাহিদ

 


সর্বশেষ

আরও খবর

টানা তৃতীয়বারের মতো নির্বাচিত হলেন আইভী

টানা তৃতীয়বারের মতো নির্বাচিত হলেন আইভী


অর্ধেক আসন ফাঁকা রেখে বাস চলার সিদ্ধান্ত পরিবর্তন

অর্ধেক আসন ফাঁকা রেখে বাস চলার সিদ্ধান্ত পরিবর্তন


আগুনে পুড়ল রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ১২০০ ঘর

আগুনে পুড়ল রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ১২০০ ঘর


এবারের বিজয় দিবসে দেশবাসীকে শপথ পড়াবেন প্রধানমন্ত্রী

এবারের বিজয় দিবসে দেশবাসীকে শপথ পড়াবেন প্রধানমন্ত্রী


কমলো এলপিজির দাম

কমলো এলপিজির দাম


উন্নয়নশীল দেশ নিয়ে খুশি না হয়ে, উন্নত দেশ গড়ার লক্ষ্যে কাজ করার আহ্বান রাষ্ট্রপতির

উন্নয়নশীল দেশ নিয়ে খুশি না হয়ে, উন্নত দেশ গড়ার লক্ষ্যে কাজ করার আহ্বান রাষ্ট্রপতির


ডিআরইউর নতুন সভাপতি মিঠু, সাধারণ সম্পাদক হাসিব

ডিআরইউর নতুন সভাপতি মিঠু, সাধারণ সম্পাদক হাসিব


ওমিক্রন খুবই ঝুঁকিপূর্ণ; সবাইকে প্রস্তুত থাকার আহ্বান বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার

ওমিক্রন খুবই ঝুঁকিপূর্ণ; সবাইকে প্রস্তুত থাকার আহ্বান বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার


নির্বাচনী সহিংসতায় ছাত্রলীগ নেতার মৃত্যু

নির্বাচনী সহিংসতায় ছাত্রলীগ নেতার মৃত্যু


আবার রক্তক্ষরণ হলে খালেদা জিয়ার মৃত্যুঝুঁকি বাড়বে

আবার রক্তক্ষরণ হলে খালেদা জিয়ার মৃত্যুঝুঁকি বাড়বে