Wednesday, October 26th, 2016
ঠক ঠক শব্দে এগুচ্ছে ট্যানারি পল্লী
October 26th, 2016 at 6:02 pm
ঠক ঠক শব্দে এগুচ্ছে ট্যানারি পল্লী

রিজাউল করিম, সাভার থেকে ফিরে: হাজারীবাগের চামড়া শিল্প সাভারে স্থানান্তরে সরকারের বেঁধে দেয়া সময়ের শেষ ধাপে কানে পানি ঢুকেছে কারখানা মালিকদের। এতোদিন বিভিন্ন টালবাহানা করলেও এখন বেশ তোড়জোড় শুরু করে দিয়েছেন তারা। ক্রেতা ও ব্যবসা ঠিক রাখতে যেমন চলছে চামড়ার কাজ, সরকারের নির্দেশ পালনে তেমন চলছে প্লট প্রস্তুতির কাজ। একদিকে হাতুড় বাটালের ঠক ঠক শব্দ অন্যদিকে মেশিন ও চামড়া নিয়ে পল্লীতে ঢোকা ট্রাকের ঘ্যা ঘ্যা শব্দ। এভাবে এগিয়ে যাচ্ছে শিল্পনগরীর স্থানান্তরের প্রস্তুতি কাজ।

সাভারের হেমায়েত পুর সরেজমিন পরিদর্শনে দেখা যায়, পল্লীতে সাইনবোর্ড আর সীমানা ঘেরা প্লটই বেশি, কোথাও টিন দিয়ে ঘেরা প্লট, কোথাও ঈটের দেয়াল ঘেরা প্লট, এর ভিতরে পিলার সমৃদ্ধ প্লটও রয়েছে। প্লটের নির্দিষ্ট জায়গায় ইট, বালু ও সিমেন্টের বস্তাও ফেলে রাখা হয়েছে। কয়েকটি প্লটে আবার এক তলা বা দুইতলার নির্মাণ কাজ চলছে। যেখানে পুরুষ শ্রমিকের পাশাপাশি নারী শ্রমিকরা কাজ করছে। কেউবা হাতুর পিটিয়ে ছাঁদ ঢালাইয়ের কাঠ খুুঁলছে। কেউবা ঢালাইয়ের কাঠ জোড়া দিচ্ছে। কারও মাথায় সিমেন্টের কড়াই। কারো হাতে ইট, খোঁয়া, পাথর বা বালুর ঝুঁড়ি। শ্রমিকের সাথে প্লট প্রস্তুতের এই নির্মাণ কাজে ব্যবহৃত হচ্ছে বড় বড় ম্যাশিনও। ম্যাশিনে ইট, বালু আর সিমেন্ট মিশিয়ে চলছে নির্মাণ কাজ। নির্মাণ জনিত এ কর্মজজ্ঞের চারিদিকে শুধু টুং টাং, ঠক ঠক আর শা শা শব্দে কান ভারী হয়ে আসে।

tanaree-1

নির্মাণ কাজের সাথে সাথে আগে থেকে অর্ধ স্থানান্তরিত ১৬ টি কারখানায় চামড়ার কাজও চলছে। চামড়াগুলো দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে ট্রাকে করে আনা হচ্ছে। ফলে দূর থেকে যেমন শোনা যাচ্ছে ট্রাকের শব্দ। কারখানার কাছে গেলেও তেমন শোনা যাচ্ছে গাড়ী পার্কিংয়ের শব্দ। ট্রাকের শব্দ আর নির্মাণ জনিত ঠক ঠক শব্দে শিল্প নগরটিতে এক প্রকার শব্দ দূষণ হচ্ছে বলে জানালেন কর্মরত শ্রমিকরা।

ঢাকায় ইন্ডাস্ট্রির সামনে গিয়ে দেখা গেল চামড়া ভর্তী ৬টি ট্রাক। ট্রাক চালক রফিকুলের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, ঢাকায় ইন্ডাস্ট্রিতে প্রতি ৪ থেকে ৫ দিন অন্তর ৫ থেকে ৬টি ট্রাক করে চামড়া আনা হয়। দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে এ চামড়া আনা হয়। প্রতিদিনের মতো সেদিনও তাদের ৪টি ট্রাক চামড়া নিয়ে নগরীতে এসেছে বলে জানালেন তিনি।

ঢাকায় ইন্ডাস্ট্রির শ্রমিক জব্বার বলেন, ‘আমি এখানে কাজ শুরু করেছি দুই মাস। আগে হাজারিবাগে ছিলাম। হাজারিবাগের কারখানাগুলো কাছাকাছি হওয়ায় সব কারখানার খবর খুব সহজেই বলা যেত। এখন এতো বড় শিল্পনগরীতে কাজের বাস্তব চিত্র বলা মুশকিল। তবে এতোটুকু বলা যায় যে, কাজের ছয় ভাগের একভাগ হয়েছে। বড় বড় কোম্পানিগুলোর কিছু অংশ আসতে পেরেছে। আর ছোট কোম্পানিগুলো এখনও আসতে পারেনি। কারণ ছোট কোম্পানিগুলো সরকারের দেয়া ক্ষতিপূরণ সম্পূর্ণ পায়নি। তাদের অর্থের অভাব রয়েছে।’

চামড়া শিল্প নগরীতে কর্মরত শ্রমিকদের প্রয়োজনে এর ভিতরের দিকে কয়েকটি ছোটখাট দোকানও গড়ে উঠেছে। যেখানে চা,পান, সিগারেট ও বিস্কুট জাতীয় কিছু খাবারের ব্যবস্থা আছে। কাজের ফাঁকে শ্রমিকরা দোকানগুলোতে সময় কাটায়। এমনি একটি দোকানে বসে থাকতে দেখা যায় ৫ থেকে ৭ জন শ্রমিককে। যাদের একজনের নাম মো. বসির। তিনি এপেক্স ট্যানারী ইন্ডস্ট্রিতে কাজ করেন। বরিশাল থেকে আসা এ শ্রমিক এপেক্স ইন্ডাস্ট্রিতে ৪ বছর ধরে কাজ করছেন।

জানতে চাইলে বসির বলেন, ‘বড় বড় ২০টির মতো শিল্পকারখানা এখানে এসেছে। তাদের কেউই পুরো কাজ শুরু করতে পারেনি। অর্ধেক কাজ এখানে হচ্ছে আর অর্ধেক কাজ হাজারিবাগে হচ্ছে। একদিকে চামড়ার কাজ চলছে অন্যদিকে নির্মাণ কাজ চলছে। নির্মাণ কাজ শেষ হলে বড় বড় ম্যাশিন হাজারিবাগ থেকে আনা হবে। তখন চামড়ার পুরো কাজ এখানে করা সম্ভব হবে। তিনি আরও বলেন, যারা এরই মধ্যে কিছু কাজ শুরু করেছে। তারা ডিসেম্বরের মধ্যে কারখানা স্থানান্তর করতে পারবে। আর যারা এখনও কাজই শুরু করেনি, তারা ইচ্ছা করলেও আসতে পারবে না। শিল্পনগরীর পুরো কাজ সমাপ্ত করতে ২ বছরের বেশি সময় লাগবে বলেও মনে করেন তিনি। সরকারের চাপে এখন অনেক শিল্প প্রতিষ্ঠান জোড়াতালি দিয়ে কারখানা স্থানান্তরের চেষ্টা করছে বলে জানান তিনি।’

অবকাঠামোগত নির্মাণ কাজের এ অগ্রগতি বিষয়ে প্রকল্প পরিচালক সূত্রে জানা গেছে, সাভারে বরাদ্দকৃত ১৫৫ শিল্প ইউনিটে এরই মধ্যে ট্যানারি মালিকরা তাদের বরাদ্দ পাওয়া জমিতে অবকাঠামো নির্মাণে হাত দিয়েছেন। সম্পূর্ণ ও আংশিকভাবে প্রথম তলার ছাদ ঢালাই করেছে ৪৩ ট্যানারি। দ্বিতীয় তলার ছাদ ঢালাই করেছে ১৩ ট্যানারি। আর অবকাঠামো নির্মাণের প্রাথমিক পর্যায়ে আছে ২৬টি ট্যানারি। এর মধ্যে পল্লীবিদ্যুৎ সমিতির নিয়ন্ত্রণাধীন ১৬ হাজার মিটার বিদ্যুৎ লাইন স্থাপনের কাজ শেষ হয়েছে। গ্যাস লাইন স্থাপনের কাজও শেষ হয়েছে।

tanaree-2

এ ছাড়া আরডিএ (রুরাল ডেভেলপমেন্ট একাডেমি) বগুড়ার ডিপোজিট ওয়ার্ক পদ্ধতিতে সাড়ে ৬ হাজার ফুট গভীর নলকূপ স্থাপনের কাজ শতভাগ সম্পন্ন হয়েছে। এসব নলকূপ থেকে দৈনিক প্রায় ২৫ মিলিয়ন লিটার পানি সরবরাহ সম্ভব। এতে করে ট্যানারি চালু করতে গ্যাস, বিদ্যুৎ ও পানি সংযোগের কোন সমস্যা আর নেই।

সাভারে স্থানান্তরিত হওয়ার প্রক্রিয়ায় থাকা নিউ কাজল ট্যানারির চেয়ারম্যান সালাউদ্দিন বলেন, হাজারীবাগ থেকে সাভারে ট্যানারি স্থানান্তরে সব ধরনের প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। এজন্য শ্রমিকরা কাজ করছেন। হাজারীবাগ থেকে ডোল নিয়ে আসা হয়েছে। প্রথম পর্যায়ে এগুলো সংযোজন করতে হবে।

চূড়ান্ত উৎপাদনে যাওয়ার প্রক্রিয়া সম্পর্কে মেসার্স প্রগতি লেদার কমপ্লেক্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হাজী নুরুল আমিন বলেন, ‘ট্যানারিগুলো স্থানান্তরের কার্যক্রম শুরু করেছে। কোনো ট্যানারিই এখন পর্যন্ত তাদের অবকাঠামোর শতভাগ শেষ করতে পারেনি। অনেকে একতলা, অনেকে দোতলার কাজ করছেন। তবে সরকারের জোর তাগিদে হাজারীবাগ থেকে যন্ত্রাংশ সাভারে স্থানান্তর শুরু হয়েছে। কিন্তু হাজারীবাগ থেকে ট্যানারি স্থানান্তর করে সাভারে শতভাগ উৎপাদনে যেতে আরও সময় প্রয়োজন হতে পারে। অর্থাৎ গ্যাস, বিদ্যুৎ ও পানির সংযোগ অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পাওয়া গেলে; কেন্দ্রীয় বর্জ্য শোধনাগার চালু হলে আগামী জুলাই থেকে সাভারে ওয়েট ব্লু চামড়া উৎপাদন করা সম্ভব হবে। আর ক্রাস্ট ও ফিনিশড চামড়া উৎপাদনে যেতে হলে ভারি মেশিনারিজ যন্ত্রপাতি সংযোজন করতে হবে। যার প্রতিটির ওজন হবে ৭ থেকে ৯ টন। কোনোটির ওজন আরও বেশি। এসব মেশিন সাভারের ট্যানারিতে স্থাপন করতে একটু সময় তো লাগবেই।


সর্বশেষ

আরও খবর

আসামে বন্দী রোহিঙ্গা কিশোরীকে কক্সবাজারে চায় পরিবার

আসামে বন্দী রোহিঙ্গা কিশোরীকে কক্সবাজারে চায় পরিবার


ছয় দিনে নির্যাতিত অর্ধশত সাংবাদিক: মামলা নেই, কাটেনি আতঙ্ক

ছয় দিনে নির্যাতিত অর্ধশত সাংবাদিক: মামলা নেই, কাটেনি আতঙ্ক


ঢাকা-দিল্লি ৫ সমঝোতা স্মারক সই

ঢাকা-দিল্লি ৫ সমঝোতা স্মারক সই


করোনায় আরও ৩৯ মৃত্যু

করোনায় আরও ৩৯ মৃত্যু


করোনায় আক্রান্ত শচীন

করোনায় আক্রান্ত শচীন


নাশকতা ঠেকাতে র‍্যাব-পুলিশের কঠোর অবস্থান

নাশকতা ঠেকাতে র‍্যাব-পুলিশের কঠোর অবস্থান


শুক্র ও শনিবার যান চলাচল নিয়ন্ত্রিত থাকবে

শুক্র ও শনিবার যান চলাচল নিয়ন্ত্রিত থাকবে


মতিঝিলে মোদিবিরোধী বিক্ষোভ, শিশুবক্তা রফিকুলসহ অন্তত ১০ জন আটক

মতিঝিলে মোদিবিরোধী বিক্ষোভ, শিশুবক্তা রফিকুলসহ অন্তত ১০ জন আটক


ঈদের পর স্কুল-কলেজ খোলার ইঙ্গিত শিক্ষামন্ত্রীর

ঈদের পর স্কুল-কলেজ খোলার ইঙ্গিত শিক্ষামন্ত্রীর


৮ মাস পর দেশে করোনায় এক দিনে সর্বোচ্চ ৩৫৫৪ শনাক্ত

৮ মাস পর দেশে করোনায় এক দিনে সর্বোচ্চ ৩৫৫৪ শনাক্ত