Thursday, June 30th, 2016
ডাক জাদুঘরে একদিন
June 30th, 2016 at 10:11 pm
ডাক জাদুঘরে একদিন

ময়ূখ ইসলাম, ঢাকা: সে দিন শুধুই কল্পনা- যখন রানার চলেছে খবরের বোঝা হাতে, মাঝ রাতে ঘণ্টা বাজছে ঝন ঝন শব্দে। এখন মুঠোফোনের স্ক্রিনে এক ক্লিক করলেই মুহূর্তেই একের পর এক খবর আসে। তাও আবার যখনই ঘটনা তখনই খবর- এমন একটা ব্যাপার। আর ডাক হতে বসেছে ইতিহাস।

অবস্থা যখন এই তখন যন্ত্রসভ্যতার তীব্রতায় ডাক তো ধুকবেই। তবে তার পরও টিকে আছে চিঠির আদান-প্রদান। ব্যস্ত জীবনে যেন ডাক হারিয়ে না যায় তাই ডাকটিকিট সংরক্ষণের জন্য বাংলাদেশ ডাক বিভাগ ১৯৮৫ সালে ডাক জাদুঘর স্থাপন করে।

ষাটের দশকের মাঝামাঝি ঢাকার জিপিওতে ক্ষুদ্র পরিসরে এ জাদুঘরটি যাত্রা শুরু করে। পরবর্তী সময়ে ডাক বিভাগের মহাপরিচালক ফরিদ উদ্দিন আহমেদের চেষ্টায় জাদুঘরটি পূর্ণাঙ্গ রূপ পায়। তিনিই এই পূর্নাঙ্গ যাদুঘরের উদ্বোধন করেন। ঢাকার জিপিও-সংলগ্ন ডাক অধিদফতরের তৃতীয় তলায় পশ্চিম পাশে দুই হাজার ১৬০ বর্গফুট আয়তনের জায়গা নিয়ে জাদুঘরটি তৈরি করা হয়েছে।

সরেজমিনে ওই যাদু ঘর ঘুরে দেখা যায় ছিমছাম পরিবেশ। ডাক জাদুঘরের ডাকটিকিট কক্ষটি সম্পূর্ণ ডাকটিকিটে মোড়ানো। বাংলাদেশসহ বিশ্বের ১৯১টি দেশের প্রায় তিন হাজার ডাকটিকিট একনজরে দেখা যাবে এখানে। ইংরেজি বর্ণের ক্রমানুসারে সাজানো বিভিন্ন দেশের ডাকটিকিটগুলো দেশগুলোর ইতিহাস-ঐতিহ্য, শিল্প-সংস্কৃতি, প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের পরিচয় বহন করছে।

তবে ডাক জাদুঘরে বাংলাদেশের সর্বপ্রথম ডাকটিকিটটি সংরক্ষণে থাকলেও ভারতবর্ষের প্রথম ডাকটিকিটটি সেখানে নেই বলে জানিয়েছেন কর্মকর্তারা। ১৮৭৯ সালে ৩০ জুন সর্বপ্রথম এক পয়সা মূল্যের পোস্টকার্ড চালু করা হয় এবং তৎকালীন বিশ্বে এটাই ছিল ডাক বহনের ন্যূনতম হার। ১৮৭৩ সালের ১ জুলাই থেকে এক আনা মূল্যের এমবসড খাম চালু করা হয়।

এদিকে যাদুঘরটিতে রয়েছে দর্শনার্থীর অভাব। মাঝে মাঝে শিক্ষার্থীরা আসেন আর কিছু মানুষ  গবেষণার কাজে আসেন। অনেকেই মতামতের খাতায় এ যাদুঘরটিকে আন্তর্জাতিক মানের করার মত দিয়েছেন বলে জানালেন, যাদু ঘরের রক্ষণাবেক্ষণে থাকা মোহাম্মদ আব্দুল মালেক।

13563189_1217740688260740_1019756007_n copy

ডাকটিকিটের যাদু ঘরের পাশেই রয়েছে পোস্টমাস্টার জেনারেলের কার্যালয়ের মডেল। এই কক্ষে ঢোকার সঙ্গে সঙ্গেই চোখে পড়বে গ্রামীণ ডাক ব্যবস্থাপনায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালনকারী ‘রানার’র বড়সড় একটি মূর্তি। দেয়ালগুলো দেশ-বিদেশের বিখ্যাত ব্যক্তিদের তেলচিত্র, যাদের ডাক ব্যবস্থাপনায় বড় ভূমিকা ছিলো। এই ছবিগুলোর মধ্যে নাট্যকার দীনবন্ধু মিত্র, মহাকবি কায়কোবাদ, ডাকটিকিটের জনক স্যার রোল্যান্ড হিল, মন্টেগোমারি, সিভি রমণ, হেনরি ভন স্টিফেনসহ আরো অনেকের ছবি।

ডাক জাদুঘরে মহারানি ভিক্টোরিয়ার সময় থেকে এখনকার সময় পর্যন্ত প্রচলিত বিভিন্ন চিঠির বাক্স রয়েছে। রয়েছে ১৮৭০ সালের দিকে ডাকপ্রহরীদের ব্যবহৃত বর্শা, ইংরেজ আমলের ধাতব স্ট্যাম্প প্যাড, চামড়ার ব্যাগ, ঘড়ি, ফ্রাংকিং মেশিন।

এছাড়া অনেক দিন আগের রানার কিংবা পিয়নের ইউনিফর্ম সংরক্ষিত আছে এখানে। রয়েছে পোস্টম্যান, হেড পোস্টম্যান ও অন্য ব্যক্তিদের ব্যবহৃত ব্যাগ, মানিব্যাগ, চামড়ার ব্যাগ, লণ্ঠন, বিউগল, তলোয়ার, বন্দুক, ডিমলাইট, ছুরি প্রভৃতির দুর্লভ সব সংগ্রহ। যা ব্রিটিশ আমলের ডাক ব্যবস্থার চিত্র তুলে ধরে।

13551179_1217740894927386_2013245548_n copy

পোস্টাল জাদুঘরে আছে পুরনো দিনের নানা রকম বিভিন্ন আকৃতির তালাচাবি, সিলমোহর, স্ট্যাম্প বক্স, পোস্টকার্ড, খাম, অফিশিয়াল সার্কুলার এবং অন্যান্য দেশ থেকে পাওয়া ডাক বিষয়ক প্রকাশনা।

প্রথম সমুদ্র ডাক ১৯৩৩ সালে, প্রথম ডাক সার্ভিস ১৭৭৪ সালে, প্রথম ডাকটিকিট প্রকাশ ১৮৪০ সালে এবং ১৯১১ সালে প্রথম বিমান ডাকের প্রচলন হয়। জাদুঘরটি পরিদর্শন করে পাওয়া যায় এ রকম আরো অসংখ্য তথ্য।

ডাক জাদুঘরটি সরকারি ছুটির দিন (শুক্রবার ও শনিবার) ছাড়া সপ্তাহের অন্য সব দিন সকাল সাড়ে নয়টা থেকে বিকেল চারটা পর্যন্ত খোলা থাকে। এখানে প্রয়োজন হয় না কোনো প্রবেশমূল্যের।

নিউজনেক্সটবিডি ডটকম/এমআই/এসজি


সর্বশেষ

আরও খবর

চীন-ভারত বৈরিতা নতুন করে জঙ্গিবাদ  উত্থানের সম্ভাবনা তৈরী করেছে

চীন-ভারত বৈরিতা নতুন করে জঙ্গিবাদ উত্থানের সম্ভাবনা তৈরী করেছে


শেখ হাসিনার ৭৪ তম জন্মদিন: ‘পুতুল’ খেলার আঙিনায় বেজে উঠুক ‘জয়’র বাঁশি

শেখ হাসিনার ৭৪ তম জন্মদিন: ‘পুতুল’ খেলার আঙিনায় বেজে উঠুক ‘জয়’র বাঁশি


২৫ সেপ্টেম্বর ১৯৭৪, জাতিসংঘে বঙ্গবন্ধু

২৫ সেপ্টেম্বর ১৯৭৪, জাতিসংঘে বঙ্গবন্ধু


ভাইরাসের সাথে বসবাস

ভাইরাসের সাথে বসবাস


লন্ডন ফিরছেন আইএস বধু ব্রিটিশ-বাংলাদেশী শামীমা বেগম!

লন্ডন ফিরছেন আইএস বধু ব্রিটিশ-বাংলাদেশী শামীমা বেগম!


তাসের ঘর : দুর্দান্ত স্বস্তিকায় নারীমুক্তি?

তাসের ঘর : দুর্দান্ত স্বস্তিকায় নারীমুক্তি?


সৌন্দর্যসেবায় আয় কমেছে সবার: বেকার ৪০ শতাংশ উদ্যোক্তা-কর্মী

সৌন্দর্যসেবায় আয় কমেছে সবার: বেকার ৪০ শতাংশ উদ্যোক্তা-কর্মী


১৯৭১ ভেতরে বাইরে সত্যের সন্ধানে

১৯৭১ ভেতরে বাইরে সত্যের সন্ধানে


বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডঃ জিয়া-এরশাদ-খালেদা কর্তৃক খুনিচক্রের স্বার্থরক্ষা

বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডঃ জিয়া-এরশাদ-খালেদা কর্তৃক খুনিচক্রের স্বার্থরক্ষা


বঙ্গবন্ধুকে হত্যা, কথা বলছে ইতিহাস!

বঙ্গবন্ধুকে হত্যা, কথা বলছে ইতিহাস!