Tuesday, January 7th, 2020
ঢাবি ছাত্রী ধর্ষণের প্রতিবাদ অব্যাহত, কঠোর অবস্থানে পুলিশ
January 7th, 2020 at 3:00 pm
কঠোন অবস্থানে রয়েছে পুলিশ, সিসি টিভি ফুটেজ সংগ্রহ
ঢাবি ছাত্রী ধর্ষণের প্রতিবাদ অব্যাহত, কঠোর অবস্থানে পুলিশ

বিশেষ প্রতিনিধি,

ঢাকাঃ ঢাবি ছাত্রী ধর্ষণের প্রতিবাদে চার দাবি নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে অনশন চালিয়ে যাচ্ছেন চার শিক্ষার্থী।

অন্যদিকে, মঙ্গলবার (০৭ জানুয়ারি, ২০২০ইং) সকাল থেকেই মুখে কালো কাপড় বেঁধে শত শত শিক্ষার্থী ক্যাম্পাসে  মৌন মিছিল করেছেন। প্রতিবাদী এসব শিক্ষার্থী বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের মূর্তিগুলোর চোখেও কালো কাপড় বেঁধে দেন।

ধর্ষণের খবর পাওয়ার পরপরই রোববার রাত সাড়ে তিনটা থেকে অনশনে বসেন দর্শন বিভাগের ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষের ছাত্র মো. সিফাতুল ইসলাম। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের মাস্টারদা সূর্যসেন হলের আবাসিক শিক্ষার্থী। পরদিন ধর্ষণের প্রতিবাদে ক্যাম্পাস উত্তাল হয়ে ওঠার মধ্যে সিফাতের সঙ্গে আরও তিন শিক্ষার্থী অনশনে যোগ দেন; তাদের সেই কর্মসূচি মঙ্গলবারও অব্যাহত রয়েছে।

অনশনে থাকা অন্য তিনজন হলেন মৃত্তিকা-পানি ও পরিবেশ বিজ্ঞানের ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষের ছাত্র  মো. সাইফুল ইসলাম রাসেল, তথ্য ও প্রযুক্তি ইনস্টিউটের একই বর্ষের ছাত্র মোস্তাফিজুর রহমান নাফিজ এবং ইতিহাস বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের ছাত্র মো. আব্দুর রহমান।

সিফাতুল ইসলাম বলেন, “বিচারহীনতার সংস্কৃতি এবং বিচার ব্যবস্থার দীর্ঘসূত্রতাই বারবার ধর্ষণের কারণ। ধর্ষণের যদি উপযুক্ত বিচার হতো তাহলে বারবার এতো ধর্ষণ হতো না। একমাত্র কঠোর শাস্তিই পারে ধর্ষণকে রোধ করতে। এছাড়া ধর্ষকদের সামাজিকভাবে বয়কট করতে না পারাও ধর্ষণের অন্যতম কারণ।”

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে অনশন

অনশনে তারা যেসব দাবির প্ল্যাকার্ড নিয়ে বসেছেন সেগুলো হল- অবিলম্বে ধর্ষককে  গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনা; সংশ্লিষ্ট ঘটনায় সুষ্ঠু বিচার নিশ্চিতে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে অভিভাবকের ভূমিকা পালন করা; ধর্ষণের বিরুদ্ধ সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে সরকারি-বেসরকারি উদ্যোগ এবং দ্রুত ট্রাইব্যুনালের মাধ্যমে ধর্ষকের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদ- কার্যকর করা।

এদিকে রাজু ভাস্কর্যে অনশনরত শিক্ষার্থীদের মঙ্গলবার সকালে দেখে আসেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) মোহাম্মদ সামাদ। তিনি শিক্ষার্থীদের পাশে থাকারও আশ্বাস দেন।

এছাড়া সাধারণ শিক্ষার্থীরা আলাদাভাবে প্ল্যাকার্ড নিয়ে প্রতিবাদে দাঁড়িয়েছেন। সকালে রাজু ভাস্কর্যের পাশে প্রতিবাদ জানান শতাধিক শিক্ষার্থী। পরে রোকেয়া হলের সামনেও সাধারণ শিক্ষার্থীরা জড়ো হন।

প্ল্যাকার্ড নিয়ে প্রতিবাদ
প্ল্যাকার্ড নিয়ে প্রতিবাদ

অন্যদিকে, রাজধানীর কুর্মিটোলায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীর ধর্ষণকারীকে শিগগিরই খুঁজে বের করা হবে বলে জানিয়েছেন আইজিপি জাবেদ পাটোয়ারি।

মঙ্গলবার (০৭ জানুয়ারি, ২০২০ইং) সকালে এক অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

আইজিপি জাবেদ পাটোয়ারি

তিনি বলেন, ঘন্টা হিসেব করে তদন্ত হয় না, তাই আশা করছি খুব শিগগিরই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ধর্ষণের ঘটনায় জড়িতদের খুঁজে বের করা হবে। পুলিশ এ ব্যাপারে কঠোর অবস্থানে রয়েছে।

জানা গেছে, রাজধানীর কুর্মিটোলা গলফ ক্লাবের প্রান্তে সড়কের পাশের জায়গাকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনাস্থল হিসেবে চিহ্নিত করেছে পুলিশ। আসামী ধরতে প্রযুক্তির সহায়তা নেওয়া হচ্ছে। এছাড়াও সিসিটিভির ফুটেজ পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছেন ঢাকা গুলশান জোনের ডিসি সুদীপ চক্রবর্তী। এছাড়াও, ভিকটিমের বাবা ইতোমধ্যে একজনের কথা উল্লেখ করেই মামলা করেছেন বলেও তিনি জানান।

বিচারের দাবিতে আলপনাঃ

বিচারের দাবিতে আলপনা

ছাত্রীর ধর্ষণে জড়িতদের বিচারের দাবিতে প্রতিবাদী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে আলপনা আঁকছেন শিক্ষার্থীরা। চারুকলাসহ বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীরা রঙ-তুলিতে প্রতিবাদের ভাষা তুলে ধরছেন। রাজু ভাস্কর্য থেকে রোকেয়া হলের গেট পর্যন্ত এই প্রতিবাদী আলপনা আঁকা হবে।

বিচারের দাবিতে আলপনা

বিচারের দাবিতে আলপনা

মুখে কালো কাপড় বেধে মৌন মিছিলঃ

ছাত্রী ধর্ষণের প্রতিবাদে মঙ্গলবারও (০৭ জানুয়ারি, ২০২০ইং) প্রতিবাদে শামিল হয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। সকাল থেকে মুখে কালো কাপড় বেঁধে শত শত শিক্ষার্থী ক্যাম্পাসে  মৌন মিছিল করেছেন। প্রতিবাদী এসব শিক্ষার্থী বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের মূর্তিগুলোর চোখেও কালো কাপড় বেঁধে দেন। এ ঘটনার প্রতিবাদে আজ দিনভর নানা কর্মসূচি রয়েছে।

মুখে কালো কাপড় বেধে মৌন মিছিল

প্রসঙ্গত, গত রোববার গভীর রাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রী ক্যাম্পাস থেকে বান্ধবীর বাসায় যাওয়ার পথে ধর্ষণের শিকার হন। ছাত্রীকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। তাঁকে হাসপাতালের ওয়ান-স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় ক্যান্টনমেন্ট থানায় মামলা হয়েছে। ঘটনার প্রতিবাদে রোববার রাত থেকে বিক্ষোভে ফেটে পড়েন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

গতকাল সোমবার সকাল থেকে দিনভর বিশ্ববিদ্যালয় এলাকা, শাহবাগে প্রতিবাদী মিছিল করেন শিক্ষার্থীরা। তাঁরা ধর্ষণকারীকে দ্রুত খুঁজে বের করার ও বিচারের দাবি জানান। বিকেলে শিক্ষার্থীরা রাজধানীর কুর্মিটোলায় ঘটনাস্থলে যান। তারা অপরাধীকে  গ্রেফতারের জন্য ৪৮ ঘণ্টার সময়সীমা বেঁধে দেন। শিক্ষার্থীরা মানববন্ধন করেন এবং সড়ক অবরোধ করে সেখানে অবস্থান  নেন। আধা ঘণ্টা পর তাঁর অবরোধ তুলে নেন। রাতে মোমবাতি জ্বেলে ওই ঘটনার প্রতিবাদ করেন।

এএমএন/


সর্বশেষ

আরও খবর

সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাস, সংবিধান এবং আশাজাগানিয়া মুরাদ হাসান

সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাস, সংবিধান এবং আশাজাগানিয়া মুরাদ হাসান


কুমিল্লার মণ্ডপে কোরআন রাখা ব্যক্তি শনাক্ত

কুমিল্লার মণ্ডপে কোরআন রাখা ব্যক্তি শনাক্ত


কুমিল্লার মূল অভিযুক্ত পালিয়ে বেড়াচ্ছে, দ্রুতই গ্রেপ্তার: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

কুমিল্লার মূল অভিযুক্ত পালিয়ে বেড়াচ্ছে, দ্রুতই গ্রেপ্তার: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী


হামলায় জড়িতদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নিতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ

হামলায় জড়িতদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নিতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ


দেবীগঞ্জের অগ্নিকাণ্ড নিছক দূর্ঘটনা: ইউএনও

দেবীগঞ্জের অগ্নিকাণ্ড নিছক দূর্ঘটনা: ইউএনও


সাম্প্রদায়িক নৈরাজ্যে আক্রান্ত ২৩ জেলা

সাম্প্রদায়িক নৈরাজ্যে আক্রান্ত ২৩ জেলা


ওয়েবসাইট বন্ধ করে দিয়েছে ইভ্যালি কর্তৃপক্ষ

ওয়েবসাইট বন্ধ করে দিয়েছে ইভ্যালি কর্তৃপক্ষ


ময়মনসিংহে সড়ক দুর্ঘটনায় ৭ জনের মৃত্যু

ময়মনসিংহে সড়ক দুর্ঘটনায় ৭ জনের মৃত্যু


পেঁয়াজের আমদানি শুল্ক প্রত্যাহার করলো জাতীয় রাজস্ব বোর্ড

পেঁয়াজের আমদানি শুল্ক প্রত্যাহার করলো জাতীয় রাজস্ব বোর্ড


মিরপুরে খালে পড়ে নিখোঁজ ব্যক্তিকে ৬ ঘণ্টা পর জীবিত উদ্ধার

মিরপুরে খালে পড়ে নিখোঁজ ব্যক্তিকে ৬ ঘণ্টা পর জীবিত উদ্ধার