Wednesday, October 26th, 2016
তাভেলা হত্যা: পুলিশ-র‌্যাব’র বক্তব্য ভিন্ন
October 26th, 2016 at 9:16 pm
তাভেলা হত্যা: পুলিশ-র‌্যাব’র বক্তব্য ভিন্ন

ঢাকা: ইতালির নাগরিক তাভেলা সিজার হত্যা নিয়ে দেশের দুই নিরাপত্তা বাহিনী পুলিশ ও র‌্যাবের মধ্যে মতবিরোধ দেখা দিয়েছে।

পুলিশ বলছে তাভেলা হত্যায় নব্য জেএমবির কোনো সংশ্লিষ্টতা পাওয়া যায়নি। অন্যদিকে র‌্যাবের মহাপরিচালক বলেছেন, আবদুর রহমান ওরফে সারওয়ার জাহানই নব্য জেএমবির প্রধান। তাভেলা সিজার হত্যায় তার সংশ্লিষ্টতা পাওয়া গেছে।

বুধবার ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) মিডিয়া সেন্টারে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন পুলিশের জঙ্গিবিরোধী বিশেষ শাখা কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের প্রধান মনিরুল ইসলাম। তখন সাংবাদিকরা তার কাছে জানতে চান তাভেলা হত্যাকাণ্ড নিয়ে দুই বাহিনীর- কার কথা ঠিক?

জবাবে মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘তাভেলা হত্যা মামলাটি বিচারাধীন। আর বিচারাধীন কোনো বিষয় নিয়ে মন্তব্য করার সুযোগ নেই। ডিবির গোয়েন্দা বিভাগ ডিএমপির একটি পরীক্ষিত তদন্ত সংস্থা। তারা প্রতি মাসেই দুই একটা মামলার তদন্ত শেষ করে। আসামিদের সাজাও হচ্ছে উল্লেখযোগ্য পরিমানে। এসব দেখে যদি তদন্তের মান পরিমাপ করা হয় সেটা ভালো।’

তিনি বলেন, ‘ফৌজদারি মামলা পরিচালিত হয় স্বাক্ষ্যপ্রমাণের ভিত্তিতে। সেখানে কোনো রচনা কাব্য বা ক্রিয়েটিভ ওয়ার্কের সুযোগ নেই। একদল পেশাদার অফিসার ও তদন্ত কর্মকর্তাদের সহায়তায়ই তদন্ত কাজ সম্পন্ন হয়। তাভেলা হত্যার তদন্তে যাদের সম্পৃক্ততা পাওয়া গেছে তাদের বিরুদ্ধেই মঙ্গলবার অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়েছে। বিজ্ঞ আদালত চার্জ গঠন করেছেন এবং মামলাটির আনুষ্ঠানিক বিচার কাজ শুরু হয়েছে।’

র‌্যাব প্রধান বেনজীর আহমেদের বক্তব্যে তাভেলা হত্যা মামলার আসামিরা বাড়তি কোনো সুবিধা পাবে কিনা জানতে চাইলে মনিরুল বলেন, ‘আমি তার (বেনজীর) বক্তব্যটি শুনিনি। আমার ধারণা উনি এটি বলেননি। কারণ কোনো দায়িত্বশীল ব্যক্তি বিচারাধীন বিষয় নিয়ে মন্তব্য করতে পারেন না।’

তাভেলা হত্যার আসামি পলাতক বিএনপি নেতা কাইয়ুম প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘কাইয়ুম বিদেশে থাকায় তাকে আমরা গ্রেফতার করতে পারিনি। তবে এরই মধ্যে তার বিরুদ্ধে ওয়ারেন্ট বের হয়েছে। তাকে দেশে ফিরিয়ে আনার প্রক্রিয়াও চলছে।’

এর আগে নব্য জেএমবি-প্রধানের পরিচয় সম্পর্কে জানাতে গত শুক্রবার রাজধানীর বিএসইসি মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলন করে র‌্যাব। এতে র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ বলেন, ‘৮ অক্টোবর ঢাকার অদূরে আশুলিয়ায় অভিযান চলাকালে পাঁচতলা থেকে পড়ে নিহত ব্যক্তিই ছিলেন নব্য জেএমবির প্রধান আবদুর রহমান ওরফে সারোয়ার জাহান (৩৫)। তার সাংগঠনিক নাম ‘শায়খ আবু ইব্রাহিম আল হানিফ’।

ওই সংবাদ সম্মেলনে আব্দুর রহমানের নেতৃত্বে এ পর্যন্ত ২৫টিরও বেশি হামলা ঘটেছে বলে জানানো হয়। যার মধ্যে তাভেলা সিজার হত্যাকাণ্ডও ছিল।

এদিকে এক বছরেরও বেশি সময় পর মঙ্গলবার ঢাকা মহানগর বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক ও সাবেক ওয়ার্ড কমিশনার এম এ কাইয়ুমসহ সাতজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের মধ্য দিয়ে তাভেলা হত্যা মামলার বিচারকাজ আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হয়েছে।

মামলার পাঁচ আসামির উপস্থিতিতে ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কামরুল হোসেন মোল্লা আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন। পরে আগামী ২৪ নভেম্বর সাক্ষ্য গ্রহণের দিন ধার্য করেন আদালত।

গত বছরের ২৮ সেপ্টেম্বর রাজধানীর গুলশানে দুর্বৃত্তের গুলিতে নিহত হন ইতালির নাগরিক তাভেলা সিজার। ঘটনার প্রায় একমাস পর ২৬ অক্টোবর রাসেল চৌধুরী ওরফে কালা রাসেল ওরফে ভাইগ্না রাসেল, তামজীদ আহমেদ রুবেল ওরফে শুটার রুবেল, মিনহাজুল আরিফিন রাসেল ওরফে চাকতি রাসেল এবং সাখাওয়াত হোসেন শরীফকে গ্রেফতার করে গোয়েন্দা পুলিশ। তবে এখনো ধরা ছোঁয়ার বাইরে রয়েছেন মামলার দুই আসামি বিএনপি নেতা কাইয়ুম কমিশনার ও ভাঙ্গারি সোহেল।

গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে ভাইগ্না রাসেল, চাকতি রাসেল, শরীফ ও রুবেল আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। পরে ঘটনার তদন্ত করে গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক (ডিবি) গোলাম রাব্বানী চলতি বছর ২৮ জুন হাকিম আদালতে সাত জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। পরে মামলাটি বিচারের জন্য জজ আদালতে পাঠানো হয়।

প্রতিবেদন: প্রীতম সাহা সুদীপ, সম্পাদনা: জাহিদ


সর্বশেষ

আরও খবর

আসামে বন্দী রোহিঙ্গা কিশোরীকে কক্সবাজারে চায় পরিবার

আসামে বন্দী রোহিঙ্গা কিশোরীকে কক্সবাজারে চায় পরিবার


ছয় দিনে নির্যাতিত অর্ধশত সাংবাদিক: মামলা নেই, কাটেনি আতঙ্ক

ছয় দিনে নির্যাতিত অর্ধশত সাংবাদিক: মামলা নেই, কাটেনি আতঙ্ক


ঢাকা-দিল্লি ৫ সমঝোতা স্মারক সই

ঢাকা-দিল্লি ৫ সমঝোতা স্মারক সই


করোনায় আরও ৩৯ মৃত্যু

করোনায় আরও ৩৯ মৃত্যু


করোনায় আক্রান্ত শচীন

করোনায় আক্রান্ত শচীন


নাশকতা ঠেকাতে র‍্যাব-পুলিশের কঠোর অবস্থান

নাশকতা ঠেকাতে র‍্যাব-পুলিশের কঠোর অবস্থান


শুক্র ও শনিবার যান চলাচল নিয়ন্ত্রিত থাকবে

শুক্র ও শনিবার যান চলাচল নিয়ন্ত্রিত থাকবে


মতিঝিলে মোদিবিরোধী বিক্ষোভ, শিশুবক্তা রফিকুলসহ অন্তত ১০ জন আটক

মতিঝিলে মোদিবিরোধী বিক্ষোভ, শিশুবক্তা রফিকুলসহ অন্তত ১০ জন আটক


ঈদের পর স্কুল-কলেজ খোলার ইঙ্গিত শিক্ষামন্ত্রীর

ঈদের পর স্কুল-কলেজ খোলার ইঙ্গিত শিক্ষামন্ত্রীর


৮ মাস পর দেশে করোনায় এক দিনে সর্বোচ্চ ৩৫৫৪ শনাক্ত

৮ মাস পর দেশে করোনায় এক দিনে সর্বোচ্চ ৩৫৫৪ শনাক্ত