Sunday, July 3rd, 2016
থান্ডারবোল্টের ১৩ মিনিট (ভিডিও)
July 3rd, 2016 at 6:54 pm
থান্ডারবোল্টের ১৩ মিনিট (ভিডিও)

প্রীতম সাহা সুদীপ, ঢাকা: দীর্ঘ ১২ ঘন্টার জিম্মিদশার অবসান ঘটে মাত্র ১৩ মিনিটের অভিযানে। বজ্রের গতিতে এ অভিযান শুরু এবং শেষ হয় বলেই হয়তো এর নাম দেয়া হয়েছে ‘অপারেশন থান্ডারবোল্ট’। শুক্রবার সন্ধ্যায় ইফতারের পর অন্যদিনের মতোই রাজধানীর গুলশান-২-এর কূটনৈতিকপাড়া সংলগ্ন ৭৯ নম্বর সড়কের হলি আর্টিজান রেস্তোরাঁয় বেশ কয়েকজন বিদেশি নাগরিকের উপস্থিতি ছিল।

হঠাৎ করেই সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা ওই রেস্তোরাঁয় হামলা চালিয়ে সেখানে অবস্থানরতদের জিম্মি করে নেয়। তাদের উদ্ধারে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সব ধরনের চেষ্টা ব্যর্থ হলে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর একমাত্র প্যারা কমান্ডো ব্যাটালিয়নের নেতৃত্বে অভিযানে জিম্মিদশা থেকে মুক্তি পান ভুক্তভোগীরা। সেনা ও নৌ বাহিনীর বিশেষ কমান্ডো দলের সঙ্গে ওই যৌথবাহিনীতে ছিল র‌্যাব, পুলিশ, বিজিবিও। রুদ্ধশ্বাস অভিযানের মধ্য দিয়ে ঘটনাস্থল থেকে দেশী-বিদেশী ১৩ জনকে জীবিত উদ্ধার করা হয়।

সূত্র জানায়, অপারেশন থান্ডারবোল্ট পরিচালিত হয় মূলত দুটি ভাগে। এর প্রথম ভাগে ছিল নিরাপদে জিম্মিদের উদ্ধার পরিকল্পনা কৌশল। এরপর দ্বিতীয় ধাপে বন্দুকধারী জঙ্গিদের পাকড়াও করা। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনক হলো অভিযানটি রক্তপাতহীনভাবে শেষ করা যায়নি। কারণ আততায়ীরা রেস্টুরেন্টে ঢোকার পর রাতেই ১৭ জন বিদেশী নাগরিক ও ৩ বাংলাদেশিকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে জবাই করে হত্যা করে। নিউজনেক্সটবিডি ডটকমের পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো ১৩ মিনিটের অভিযানের বিস্তারিত:

ভোর ৪টায় চল্লিশজন কমান্ডোর প্যারা কমান্ডো ব্যাটালিয়নের একটি দল এএন-৩০ বিমানে করে ঢাকায় এসে নামে। তাদের সহায়তার জন্য কৌশলগত অবস্থান (কাট আউট) নেয় ৪৬ ইন্ডিপেন্ডেন্ট ব্রিগেডের সদস্যরা। সাঁজোয়া যান নিয়ে অগ্রগামী হয় সাভার ৯ম পদাতিক ডিভিশনের একটি দল। নৌবাহিনীর কমান্ডোরা গুলশান লেকে বিশেষ নৌযান নামায়। আক্রান্ত রেস্টুরেন্ট ভবনের আশপাশে স্বয়ংক্রিয় মেশিনগানসহ ভারি অস্ত্র বসানো হয়।

এমন রণসজ্জার একপর্যায়ে সকাল ৭টার দিকে মাঠে আসে সেনাবাহিনীর ১১টি এপিসি (আর্মড পার্সোনাল ক্যারিয়ার), ১৬টি জিপ ও ৩টি পিকআপ ভ্যানসহ বেশ কিছু সাঁজোয়া যান। কিন্তু ভেতরে বেশ কয়েকজন বিদেশী নাগরিক জিম্মি অবস্থায় থাকায় চূড়ান্ত অভিযানের সিদ্ধান্ত বারবার বিলম্বিত করা হয়। সকাল ৭টার দিকে হ্যান্ডমাইকে শেষবারের মতো জঙ্গিদের আত্মসমর্পণের অনুরোধ জানানো হয়। কিন্তু ফাইনাল কলেও জঙ্গিদের তরফ থেকে কোনো সাড়া পাওয়া যায়নি।

সকাল ৭টা ৪০ মিনিটে প্যারা কমান্ডো ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল ইমরুলের নেতৃত্বে অভিযান শুরু হয়। রেস্তোরাঁর বাইরের দিকে থাকা পিৎজা কর্নার ও লাগোয়া লেক ভিউ ক্লিনিকের গাড়ি পার্কিংয়ে রাখা দুটি গাড়ি গুঁড়িয়েই হলি আর্টিজান বেকারি নামের রেস্টুরেন্ট কম্পাউন্ডে ঢুকে যায় সাঁজোয়া যান। মুহূর্তের মধ্যেই দুটি এপিসি সজোরে ধাক্কা দেয় রেস্টুরেন্টের দেয়ালে। সেনাবাহিনীর উপস্থিতি টের পেয়ে রেস্টুরেন্টের ভেতরে থাকা জঙ্গিরা প্রথমে গ্রেনেড ছুড়ে প্রতিরোধের চেষ্টা করে। এপিসি এক ধাক্কায় নিচতলায় ঢুকে এলোপাতাড়ি গুলিবর্ষণ করতে থাকে। জঙ্গিরাও পাল্টা গুলি করে।

স্বয়ংক্রিয় রাইফেল আর টেলিস্কোপ লাগানো স্নাইপার রাইফেল নিয়ে এর আগেই আশপাশের ভবনের ছাদে অবস্থান নেয় কমান্ডোরা। একইসঙ্গে সম্মিলিতভাবে আক্রমণ শুরু করে র‌্যাব-পুলিশসহ যৌথ বাহিনীর সদস্যরা। গুলি ও গ্রেনেডে প্রকম্পিত হতে থাকে পুরো গুলশান এলাকা। জিম্মি হয়ে থাকা লোকজনের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ে আতঙ্ক। সেনা সদস্যরা তাদের ভয় না পেতে বারবার অনুরোধ করেন। রেস্টুরেন্টের নিচতলা ও দোতলা ঘিরে রাখেন ১০-১২ জন সেনা কমান্ডো। আর কয়েকজন সদস্য জিম্মিদের একটি রুমে নিয়ে আশ্রয় দেওয়ার চেষ্টা করেন।

কিছুক্ষণ গোলাগুলির পর সোয়া ৮টার দিকে আস্তে আস্তে গুলির শব্দ থেমে যায়। এক নিস্তব্ধতা নেমে আসে চারদিকে। সবুজ সংকেত পেয়ে এগোতে থাকে ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা। তখন অভিযান সংশ্লিষ্ট সবাই নিশ্চিত হন অপারেশন সাকসেসফুল। ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা জিম্মিদের একজন একজন করে উদ্ধার করে।

নিউজনেক্সটবিডি ডটকম/পিএসএস/জাই


সর্বশেষ

আরও খবর

দ্য ডেইলি হিলারিয়াস বাস্টার্ডস

দ্য ডেইলি হিলারিয়াস বাস্টার্ডস


আসামে বন্দী রোহিঙ্গা কিশোরীকে কক্সবাজারে চায় পরিবার

আসামে বন্দী রোহিঙ্গা কিশোরীকে কক্সবাজারে চায় পরিবার


ছয় দিনে নির্যাতিত অর্ধশত সাংবাদিক: মামলা নেই, কাটেনি আতঙ্ক

ছয় দিনে নির্যাতিত অর্ধশত সাংবাদিক: মামলা নেই, কাটেনি আতঙ্ক


দক্ষ লেখক, রাজনীতিক; ক্ষমতার দাবা খেলোয়াড়ের মৃত্যু

দক্ষ লেখক, রাজনীতিক; ক্ষমতার দাবা খেলোয়াড়ের মৃত্যু


সমাজ ব্যর্থ হয়েছে; নাকি রাষ্ট্র ব্যর্থ হয়েছে?

সমাজ ব্যর্থ হয়েছে; নাকি রাষ্ট্র ব্যর্থ হয়েছে?


বঙ্গবন্ধুর মুক্তির নেপথ্যে

বঙ্গবন্ধুর মুক্তির নেপথ্যে


সামরিক ডাইজেষ্ট: আকাশে উড়ছে কমব্যাট ঘাস ফড়িং

সামরিক ডাইজেষ্ট: আকাশে উড়ছে কমব্যাট ঘাস ফড়িং


যুদ্ধ এবং প্রার্থনায় যে এসেছিলো সেদিন বঙ্গবন্ধুকে নিয়েই আমাদের স্বাধীনতা থাকবে

যুদ্ধ এবং প্রার্থনায় যে এসেছিলো সেদিন বঙ্গবন্ধুকে নিয়েই আমাদের স্বাধীনতা থাকবে


ঢাকার ১৫ মাইলের মধ্যে মিত্রবাহিনী

ঢাকার ১৫ মাইলের মধ্যে মিত্রবাহিনী


যুক্তরাষ্ট্রের হুমকীর মুখেও অটল ভারত

যুক্তরাষ্ট্রের হুমকীর মুখেও অটল ভারত