Saturday, July 23rd, 2016
দেড় বছরেও খোঁজ মেলেনি সিলেটের সেই পরিবারের
July 23rd, 2016 at 9:02 pm
দেড় বছরেও খোঁজ মেলেনি সিলেটের সেই পরিবারের

সিলেট: দেড় বছরেও খোঁজ পাওয়া যায়নি বৃটেন প্রবাসী সিলেটের আবুল মোহাম্মদ আবদুল মান্নানের পরিবারের। ২০১৫ সাল থেকে পরিবারটির ১২ সদস্য নিখোঁজ রয়েছেন। পুলিশ বলছে, মান্নান স্বপরিবারে আইএসে যোগ দিয়েছেন।

সিলেট জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুজ্ঞান চাকমা নিউজনেক্সটবিডি ডটকমকে বলেন, ‘২০১৫ সালে মান্নানের পরিবার নিখোঁজ হন। তারা নিখোঁজ হওয়ার পর কোনো জিডি করা হয়নি। তবে শুনেছি তারা আইএসে গেছেন। ওখানে গেলে কেউ আর সহজে ফিরে আসতে পারেনা। তাদের খোঁজ নেয়ার সুযোগ নেই।’

ফেঞ্চুগঞ্জের মাইজগাঁও ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম বলেন, আবদুল মান্নান বয়স্ক লোক। তাদের আদি নিবাস ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার মাইজগাঁও গ্রামে। আবদুল মান্নান সপরিবার লন্ডন যাওয়ার পথে নিখোঁজ হন। লন্ডন ও বাংলাদেশে তাদের প্রচুর সম্পত্তি রয়েছে। তাছাড়া তারা এতো বেশি শিক্ষিতও নন। এ ধরনের মানুষ সপরিবারে সিরিয়া যাবে বলে মনে হয় না।

২০১৫ সালের মে মাসে আবুল মোহাম্মদ আবদুল মান্নান (৭৫) পরিবারের ১২ সদস্যসহ নিখোঁজ হলে সিলেট তথা সারা দেশে বেশ চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। এদের সন্ধানে পুলিশ কিছুদিন অনুসন্ধান চালায়।

পরে জানা যায়, গোটা পরিবার আইএসে যোগ দিয়েছে। শিশু নারীসহ গোটা পরিবারের এরকম একটি জঙ্গি সংগঠনে যোগ দেয়ার বিষয়টি অনেককে ভাবনায় ফেলে। বিষয়টি নিয়ে বেশ কিছু দিন সিলেটে আলোচনা তুঙ্গে ছিল। পরে বিষয়টি অনেকটাই চাপা পড়ে যায়। কিন্তু ইদানিং বেশ কিছু শিক্ষিত,মার্জিত ও বিত্তবৈভের মালিক সপরিবারে নিখোঁজ হওয়ার খবরে অনেকের মধ্যে নতুন করে সিলেটের সেই ১২ সদস্য নিখোঁজের বিষয়টি চলে আসে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, আবদুল মান্নান দীর্ঘদিন ধরে সপরিবারে ব্রিটেনে বসবাস করে আসছিলেন। দেশে ও ব্রিটেনে বিপুল সম্পত্তির মালিক তিনি। ২০১৫ সালের ১০ এপ্রিল পরিবারের সবাইকে নিয়ে ছুটি কাটাতে বাংলাদেশে আসেন। এক মাস দেশে অবস্থানের পর ওই বছরের ১ মে যুক্তরাজ্যে ফেরার জন্য তারা ইস্তাম্বুলে পৌঁছান। সেখান থেকে ১৪ মে লন্ডনের হিথ্রো বিমানবন্দরে পৌঁছার কথা ছিল। কিন্তু ইস্তাম্বুল থেকেই নিখোঁজ হন তারা।

বৃদ্ধ আবুল মোহাম্মদ আবদুল মান্নানের সঙ্গে তার দ্বিতীয় স্ত্রী মিনারা খাতুন (৫৩), মেয়ে রাজিয়া খানম (২১), ছেলে মো. জায়েদ হুসাইন (২৫), মোহাম্মদ তৌফিক হুসাইন (১৯), ভাতিজা ও মেয়ের জামাই মো. আবুল কাশেম সাকের (৩১) এবং তার স্ত্রী সাইদা খানম (২৭), মোহাম্মদ সালেহ হুসাইন (২৬), তার স্ত্রী রোশনারা বেগম (২৪) এবং তাদের ৩ সন্তান (যাদের বয়স ১ থেকে ১১ বছর) নিখোঁজ হন।

সূত্র জানায়, এর আগে দেশে ফেরার পথে ৯ এপ্রিল হিথ্রো বিমানবন্দর পুলিশ সন্দেহভাজন হিসেবে তাদের ব্যাপক তল্লাশি করে। তাদের একদিন আটকও রাখা হয় সেখানে। পরিবারের নারীরা বোরকা ও হাতমোজা, পা-মোজা পরার কারণে সে দেশের পুলিশের সন্দেহ হয় বলে জানিয়েছিলেন ওই পরিবারের এক স্বজন। তাই নির্ধারিত ফ্লাইটে তারা দেশে আসতে পারেননি। পরবর্তী ফ্লাইটে ওই পরিবার বাংলাদেশে আসে।

নিউজনেক্সটবিডি ডটকম/পিএসএস


সর্বশেষ

আরও খবর

ছিনতাইকারীর টানে রিকশা থেকে পড়ে নারীর মৃত্যু

ছিনতাইকারীর টানে রিকশা থেকে পড়ে নারীর মৃত্যু


মামুনুলের বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলা কথিত স্ত্রীর

মামুনুলের বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলা কথিত স্ত্রীর


বসুন্ধরার এমডি সায়েম সোবহানের আগাম জামিনের শুনানি হয়নি

বসুন্ধরার এমডি সায়েম সোবহানের আগাম জামিনের শুনানি হয়নি


সায়েম সোবাহানের দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা, মুনিয়ার ফ্ল্যাটে পাওয়া গেছে ৬টি ডায়েরি

সায়েম সোবাহানের দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা, মুনিয়ার ফ্ল্যাটে পাওয়া গেছে ৬টি ডায়েরি


গুলশানে‌ তরুণীর মৃত্যুর ঘটনায় বসুন্ধরার এমডির বিরুদ্ধে মামলা

গুলশানে‌ তরুণীর মৃত্যুর ঘটনায় বসুন্ধরার এমডির বিরুদ্ধে মামলা


মামুনুক হকের ৭ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর

মামুনুক হকের ৭ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর


গ্রেফতার হলেন মামুনুল হক

গ্রেফতার হলেন মামুনুল হক


বাঁশখালীতে বিদ্যুৎকেন্দ্রে শ্রমিক-পুলিশ সংঘর্ষে ৪ জন নিহত

বাঁশখালীতে বিদ্যুৎকেন্দ্রে শ্রমিক-পুলিশ সংঘর্ষে ৪ জন নিহত


হাসপাতালের বেডে সুইসাইড নোট রেখে করোনা রোগীর আত্মহত্যা

হাসপাতালের বেডে সুইসাইড নোট রেখে করোনা রোগীর আত্মহত্যা


আলেমদের ওপর জুলুম আল্লাহ বরদাশত করবেন না: বাবুনগরী

আলেমদের ওপর জুলুম আল্লাহ বরদাশত করবেন না: বাবুনগরী