Saturday, October 31st, 2020
দৈনিক চার হাজার মানুষের মৃত্যুর আশংকা আগামী মঙ্গলবার থেকে লকডাউনে যাচ্ছে সমগ্র গ্রেট ব্রিটেনে
October 31st, 2020 at 10:47 pm
দৈনিক চার হাজার মানুষের মৃত্যুর আশংকা আগামী মঙ্গলবার থেকে লকডাউনে যাচ্ছে সমগ্র গ্রেট ব্রিটেনে

লন্ডনঃ করোনার প্রাদুর্ভাব অস্বাভাবিক হারে বাড়তে থাকায় সমগ্র ব্রিটেনে  এক মাসের লকডাউন দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। এই লকডাউন বড়দিনের  আগেই শেষ হবে বলে আশা প্রকাশ করা হয়েছে। আগামী সোমবার নতুন করে ‘স্টে অ্যাট হোম’ ঘোষণা  দেয়া হবে। নতুন বিধি-নিষেধের আওতায় সকল শিক্ষা প্রতিষ্টান  স্কুল, কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয় খোলার রাখার পরামর্শ দেয়া হতে পারে বলে সংবাদ মাধ্যম বিবিসি‘র এক প্রতিবেদনে ইঙ্গিত করা হয়েছে। তবে এই মুহুর্তে যদি সমগ্র ব্রিটেনে লকডাউন আরোপ না করা হয় তবে প্রথম ধাপের চেয়ে এবার আরো বেশি মানুষের মৃত্যু হবে। প্রতিদিন ৪০০০ মানুষের মৃত্যুর আশংকা করছেন বিজ্ঞানীরা। এই মুহুর্তে লকডাউন দিলেও দিনে ২০০০ মৃত্যুর আংশকা করছেন তারা। এর আগে সর্বোচ্চ ১০০০ মৃত্যু দেখেছে ব্রিটেনবাসী। ইউরোপজুড়ে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হয়েছে। ফলে অনেক দেশই ইতোমধ্যেই কড়াকড়ি ও লকডাউন জারি করেছে। সাম্প্রতিক সময়ে ইউরোপের অন্যান্য দেশের তুলনায় গ্রেটব্রিটেনে করোনা সংক্রমণে মৃত্যুর সংখ্যা সবচেয়ে বেশি লক্ষ্য করা গেছে। ব্রিটেন জুড়ে সংক্রমণও দ্রুত গতিতে বাড়তে শুরু করেছে। ফলে নতুন করে কড়াকড়ি আরোপ করতে বাধ্য হচ্ছে প্রশাসন। সাম্প্রতিক সময়ে দেশের স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে বাড় বাড়  সতর্ক করা হচ্ছে  করোনা সংক্রমণে দৈনিক  চার হাজার মানুষের মৃত্যু হবে।  আজ থেকে দু’দিন আগেই বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন যে, ইংল্যান্ডে প্রতিদিন প্রায় এক লাখ মানুষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সাম্প্রতিক এক বিশ্লেষণ থেকে এ তথ্য উঠে এসেছে। লন্ডনের ইম্পেরিয়াল কলেজের এক বিশ্লেষণে বলা হয়েছে, মহামারির গতি ত্বরান্বিত হচ্ছে এবং প্রতি ৯ দিনে সংক্রমিত রোগীর সংখ্যা দ্বিগুণ হচ্ছে গবেষকরা বলছেন, ‘আমরা একটি জটিল অবস্থার মধ্যে আছি।’ বেশ কিছু জিনিস পরিবর্তন করা প্রয়োজন বলেও উল্লেখ করেন তারা। পুরো ইউরোপজুড়েই করোনার দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হয়েছে। বেশিরভাগ দেশেই সংক্রমণ ও মৃত্যু দ্রুত গতিতে বাড়তে দেখা গেছে। তবে ইংল্যান্ডে পরবর্তীতে কি পদক্ষেপ নেওয়া হবে সে বিষয়ে মন্ত্রিপরিষদের  সদস্যদের নিয়ে জুরুরী বৈঠকে বসছেন প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন।  এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্তও  জানানো হবে সোমবার।  তবে করোনা নিয়ন্ত্রণে প্রধানমন্ত্রী জনসন কঠোর পদক্ষেপ নিতে যাচ্ছেন বলেই ধারণা করা হচ্ছে। ব্রিটেনে শীতকালীন সময়ে করোনায় প্রায় ৮৫ হাজার মানুষের মৃত্যু হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় শুধু ব্রিটেনই নয়, এর মধ্যেই জার্মানি, ফ্রান্স, বেলজিয়ামের মতো দেশগুলোও দ্বিতীয় দফায় লকডাউনে ফিরেছে।  করোনা ভাইরাসে মৃত্যুর  তালিকায় নবম স্থানে রয়েছে ব্রিটেন। ওয়ার্ল্ডোমিটারের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, বিটেনে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৯ লাখ ৮৯ হাজার ৭৪৫। এর মধ্যে মারা গেছে ৪৬ হাজার ২২৯ জন।

মতিয়ার চৌধুরী-লন্ডন


সর্বশেষ

আরও খবর

দেশে ৯৮ শতাংশ করোনা রোগী ডেলটায় সংক্রমিত

দেশে ৯৮ শতাংশ করোনা রোগী ডেলটায় সংক্রমিত


বিধিনিষেধ বাড়ল ১০ আগস্ট পর্যন্ত, চলবে শিল্পকারখানা ও অভ্যন্তরীণ বিমান

বিধিনিষেধ বাড়ল ১০ আগস্ট পর্যন্ত, চলবে শিল্পকারখানা ও অভ্যন্তরীণ বিমান


করোনায় আরও ২৪১ জনের মৃত্যু

করোনায় আরও ২৪১ জনের মৃত্যু


‘টিকা ছাড়া বের হলে ব্যবস্থা’ স্বাস্থ্যের বক্তব্য নয়; জানালো মন্ত্রণালয়

‘টিকা ছাড়া বের হলে ব্যবস্থা’ স্বাস্থ্যের বক্তব্য নয়; জানালো মন্ত্রণালয়


লঞ্চ চলবে সোমবার সকাল ৬টা পর্যন্ত

লঞ্চ চলবে সোমবার সকাল ৬টা পর্যন্ত


সাত দিনে দেয়া হবে ১ কোটি টিকা: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

সাত দিনে দেয়া হবে ১ কোটি টিকা: স্বাস্থ্যমন্ত্রী


করোনায় আরও ২১২ জনের মৃত্যু

করোনায় আরও ২১২ জনের মৃত্যু


সিনোফার্মের ৩০ লাখ টিকা ঢাকায় এলো

সিনোফার্মের ৩০ লাখ টিকা ঢাকায় এলো


টিকা নেয়ার বয়সসীমা ২৫ বছর নির্ধারণ করেছে সরকার

টিকা নেয়ার বয়সসীমা ২৫ বছর নির্ধারণ করেছে সরকার


বিশ্বে একদিনে আরও ১০ হাজার মানুষের মৃত্যু

বিশ্বে একদিনে আরও ১০ হাজার মানুষের মৃত্যু