Tuesday, May 15th, 2018
নাকবা দিবসের প্রাক্কালে ৫৮ ফিলিস্তিনির মৃত্যু
May 15th, 2018 at 11:02 pm
নাকবা দিবসের প্রাক্কালে ৫৮ ফিলিস্তিনির মৃত্যু

ডেস্ক: ১৫ মে ফিলিস্তিনিদের কাছে নাকবা দিবস বা বিপর্যয়ের দিন হিসেবে পরিচিত। এই দিনের একদিন আগেই অর্থাৎ গত সোমবার গাজা-ইসরায়েলি সীমান্তে ফিলিস্তিনি বিক্ষোভকারীদের উপর গুলিবর্ষণ করে ৫৮ জনকে হত্যা করেছে ইসরায়েলি সেনারা।

মঙ্গলবার শোকাচ্ছন্ন ফিলিস্তিনিরা নাকবা বা বিপর্যয় দিবসের ৭০তম বার্ষিকী পালন করেছেন। এদিন ইসরায়েলিদের গুলিতে নিহত স্বজনদের দাফন এবং জানাজার কাজে ব্যস্ত ছিলেন তারা।

নাকবা দিবস পালনের একদিন আগেই আরো একটি বিপর্যয়ের সম্মুখীন হন ফিলিস্তিনিবাসীরা। ওইদিন ইসরায়েলে অবস্থিত মার্কিন দূতাবাস তেল আবিব থেকে দখলকৃত জেরুজালেমে স্থানান্তরিত করা হয়। নতুন দূতাবাসের উদ্বোধনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতে গাজা সীমান্তে হাজির হয়েছিলেন হাজার হাজার বিক্ষোভকারী। নিরীহ এসব প্রতিবাদকারীদের লক্ষ্য করে গুলি করে ইসরায়েলি সেনারা। ফলে ৫৮ জন ফিলিস্তিনি প্রাণ হারান এবং শত শত বিক্ষোভকারী আহত হন।

২০১৪ সালের গাজা যুদ্ধের পর গত সোমবার ফিলিস্তিনিদের জন্য ছিল সবচেয়ে রক্তক্ষয়ী দিন। একদিনে এতজন ফিলিস্তিনির মৃত্যুর ঘটনা বিগত কয়েক বছরে আর ঘটেনি। স্বাভাবিকভাবেই ফিলিস্তিনিরা এদিনকে গণহত্যা দিবস বলে অভিহিত করেছেন।

৭০ বছর আগে অর্থাৎ ১৯৪৮ সালে ইসরায়েল রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার কারণে বহু ফিলিস্তিনি পালিয়ে যেতে বাধ্য হন। ধারণা করা হয়, ১৯৪৮ সালের যুদ্ধের ফলে ৭ লাখের মত ফিলিস্তিনিকে নিজেদের ভূমি থেকে বহিষ্কার করা হয় কিংবা তারা পালিয়ে যেতে বাধ্য হন। এরপর থেকে প্রতিবছর ১৫ মে ফিলিস্তিনিরা নাকবা বা বিপর্যয়ের দিন হিসেবে পালন করে আসছেন।  সূত্র: আল জাজিরা

গ্রন্থনা: ফারহানা করিম

 

 

 


সর্বশেষ

আরও খবর

টানা তৃতীয়বারের মতো নির্বাচিত হলেন আইভী

টানা তৃতীয়বারের মতো নির্বাচিত হলেন আইভী


অর্ধেক আসন ফাঁকা রেখে বাস চলার সিদ্ধান্ত পরিবর্তন

অর্ধেক আসন ফাঁকা রেখে বাস চলার সিদ্ধান্ত পরিবর্তন


আগুনে পুড়ল রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ১২০০ ঘর

আগুনে পুড়ল রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ১২০০ ঘর


এবারের বিজয় দিবসে দেশবাসীকে শপথ পড়াবেন প্রধানমন্ত্রী

এবারের বিজয় দিবসে দেশবাসীকে শপথ পড়াবেন প্রধানমন্ত্রী


কমলো এলপিজির দাম

কমলো এলপিজির দাম


উন্নয়নশীল দেশ নিয়ে খুশি না হয়ে, উন্নত দেশ গড়ার লক্ষ্যে কাজ করার আহ্বান রাষ্ট্রপতির

উন্নয়নশীল দেশ নিয়ে খুশি না হয়ে, উন্নত দেশ গড়ার লক্ষ্যে কাজ করার আহ্বান রাষ্ট্রপতির


জাতীয় অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম মারা গেছেন

জাতীয় অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম মারা গেছেন


ডিআরইউর নতুন সভাপতি মিঠু, সাধারণ সম্পাদক হাসিব

ডিআরইউর নতুন সভাপতি মিঠু, সাধারণ সম্পাদক হাসিব


ওমিক্রন খুবই ঝুঁকিপূর্ণ; সবাইকে প্রস্তুত থাকার আহ্বান বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার

ওমিক্রন খুবই ঝুঁকিপূর্ণ; সবাইকে প্রস্তুত থাকার আহ্বান বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার


নির্বাচনী সহিংসতায় ছাত্রলীগ নেতার মৃত্যু

নির্বাচনী সহিংসতায় ছাত্রলীগ নেতার মৃত্যু