Wednesday, July 29th, 2020
নিউ নরমাল: শহরজুড়ে শ্রাবণ ধারা
July 29th, 2020 at 3:11 pm
নিউ নরমাল: শহরজুড়ে শ্রাবণ ধারা

ফজলুর রহমান;

হাত নেই, পা নেই। এখনো মানুষের নাগালে ’অস্তিত্বহীন’। অতীত হয়তো আছে, ভবিষ্যত কেউ জানে না। তবে বর্তমান, তছনছ করে দিচ্ছে। দূর প্রাচ্য থেকে সুদূর প্রাশ্চাত্য, বালুগিজগিজ মধ্যপ্রাচ্য, কেউ বাদ যাচ্ছে না অদৃশ্য ছোবল থেকে।

সো, অভিবাদন নিউ নর্মাল দুনিয়া। ‘সভ্য’ মানুষ লড়ছে, লড়াই করছে, লড়ে যাচ্ছে নিরবোধ এক ‘ভাইরাস’-এর সঙ্গে। চীন থেকে শুরু; তারপর এক ইতিহাস।

ঘুম ভাঙার পর এই শহরে, আমাদের, যাদের মন খারাপ করা অনেক অনেক দৃশ্য দেখতে হয়, পদে পদে সয়ে যেতে হয়, তারা প্রথম প্রথম ভাবলাম এবার সত্যি সত্যি দুনিয়া বদলে যাবে। মানুষ মানুষকে আরো ভালোবসতে শিখবে। প্রকাশ্য পথে পুলিশ আর ঘুষ ‘গ্রহণ’ করবে না। মানুষ ঠকাবে না মানুষকে। খাদ্যে ভেজাল দেবে না। যে প্রকৃতিকে বিপণ্ন করেছে মানুষ তাকে বুকে জড়িয়ে নিয়ে বলবে, ক্ষমা করো, আমার ভুল হয়ে গেছে বড্ড। কিন্তু চিত্র উল্টো। বাকি দুনিয়ার কথা পাশে সরিয়ে দিয়েই বলতে পারি, মার্চ মাসের ৮ তারিখ দেশে প্রথম যখন ‘সর্ব শক্তিধর’-এর অস্তিত্ব শনাক্ত হলো আমাদের ভূ-সীমানায়, আমরা কিঞ্চিত আতঙ্কিত হলাম।

তখনো ভবিষ্যৎ-পরিণতি আমাদের অধরা। তারপর, একের পর এক ঘটতে থাকলো। পয়সাদার, টাকাশূন্য কেউ শক্তিধরের কৃপা থেকে রেহাই পাচ্ছে না।  মার্চ থেকে জুলাই অন্তে প্রায়, শনাক্ত আর মৃত্যুর নামতার বিরতি নেই।

তো আমরা ভেবেছিলাম, এমন আগামীকালহীন জীবন, এমন বিপদে বাংলাদেশের মানুষ, বাঙালি মুসলমান ভালো হয়ে যাবে। অন্তত জেনে-বুঝে তারা আর অন্যায় করবে না। আর দুই নম্বরিতে নামবে না। সোজা হয়ে যাবে, তেমন সোজা যেমন সাপ গাতায় ঢুকার আগে হয়। হলো কই?

উল্টো, এটাইতো দেখতে হলো আমাদের; যে সেই অদৃশ্য, মহাশক্তিধরকে নিয়েও বাণিজ্য করা যায়! করলো অনেকে, ধরা গেলো। এখনো অনেকে করে চলেছে। ধরা খাচ্ছে না। ‘বিবেক’ এখন কেবলি আভিধানিক শব্দ! বাঙালি মুসলমানে মন থেকে ভয়, শঙ্কা, নীতি-নৈতিকতা নির্বাসনে গেছে। সংক্রমণের ভয় তুচ্ছ করে, শুক্রবার দল বেধে নামাজে যায়, মসজিদে জায়গা হয় না, রাস্তায় জায়নামাজ পেতে নামাজ আদায় করে।

অন্যকে দেখানোর জন্য ধার-দেনা করে হলেও পশু কোরবানি দেয়। এমন যখন ধর্মপালন-সেখানে এতো অনিয়ম, দুই নম্বরি কেনো? ভাবা যায়, লাজ ফার্মা’র নামকরা, সুনাম অর্জনকারী, অভিজাত ওষুধের দোকানভরা দুই নম্বর মাল!

তাহলে কিছুই হলো না! তাই তো? কেবল মুখে একটা জামা, নানা রঙের, আকৃতির, ঠুলির মতো পরে আছি, কতোদিন পরে থাকতে হয় জানা নেই কারো!  বাড়িয়ে বাড়িয়ে কয়েক দফার সরকারি ছুটি, এদিক, ওদিক লকডাউন রাজধানী ঢাকাসহ পুরো দেশের বহিরচিত্র বদলে দিয়েছিলো। মানুষ এবং তাদের যান্ত্রিক অত্যাচার থেকে মুক্তি পেয়ে গাছেরা সবুজ হয়ে উঠেছিলো। দূষণের নিত্যরাজ্য রাজধানী ঢাকার বাতাস প্রাণ ফিরে পেয়েছিলে। বুড়িগঙ্গা-তুরাগের জল পেয়েছিলো অতীত জীবন। কিন্তু, কিন্তু একটু একটু করে আবার চিত্র বদলাতে শুরু করেছে। সব ভয়, আতঙ্ক হটিয়ে দিয়ে মানুষ আবার নিজরূপে দৃশ্যমান। আবার ওপরে যাওয়ার মারকাট প্রতিযোগিতা। টাকার জন্য হন্যেপনা। আবার যাচ্ছে তাই!

এতএব, নিউ নরমাল আমাদের, বাংলাদেশের বাঙালি মুসলমানকে কিছু শেখাতে পেরেছে, পারছে বলে অন্তত আমি মনে করি না। এতো এতো কর্মহীনতা, এতো এতো বেকারত্ব, শহর ছেড়ে অনিশ্চিত জীবন নিয়ে দলে দলে মানুষ ফিরে যাচ্ছে গ্রামে। বন্যায় ভাসছে লাখ লাখ মানুষ। বানের জল ঢুকেছে রাজধানীর চারদিকে। নোংরা জলের সঙ্গে নিত্য বসবাস কত কত মানুষের।

এতো কিছুর মধ্যেও ‘স্বাস্থ্যবিধি’ মেনে বসেছে পশুর হাট। পাশের বাড়ির মানুষ এই বন্যা-মহামারিতে অসুস্থ হবে, না খেতে পেয়ে মরে যাবে। তারপরও অনেক অনেক টাকায় পশু কেটে ‘দায়িত্ব আদায়’ করতে হবে! ইহকাল থেকেও বড্ড জরুরি ‘পরকাল’! ভয়াবহতা বিবেচনায় হজ সীমিত হলেও বাঙালি মুসলমানের ধর্মাচার সীমিত হবে না।

সো, নিউ নরমাল। আসুন, শহরজুড়ে শ্রাবণের ধারা বইছে। সড়ক ডুবছে। নোংরা বেরিয়ে আসছে। পানিতে ভীষণ গন্ধ।

ফজলুর রহমান


সর্বশেষ

আরও খবর

করোনায় আরও ৩০ জনের মৃত্যু, ৭৮ দিনের মধ্যে সর্বোচ্চ শনাক্ত

করোনায় আরও ৩০ জনের মৃত্যু, ৭৮ দিনের মধ্যে সর্বোচ্চ শনাক্ত


ঢাবি ছাত্রী ধর্ষণ মামলায় মজনুর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

ঢাবি ছাত্রী ধর্ষণ মামলায় মজনুর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড


আনিসুল হত্যা: মানসিক স্বাস্থ্য ইন্সটিটিউটের রেজিস্ট্রার গ্রেপ্তার

আনিসুল হত্যা: মানসিক স্বাস্থ্য ইন্সটিটিউটের রেজিস্ট্রার গ্রেপ্তার


পাওয়ার গ্রিডের আগুনে বিদ্যুৎ-বিচ্ছিন্ন পুরো সিলেট, ব্যাপক ক্ষতি

পাওয়ার গ্রিডের আগুনে বিদ্যুৎ-বিচ্ছিন্ন পুরো সিলেট, ব্যাপক ক্ষতি


দুইদিনের বিক্ষোভের ডাক বিএনপির

দুইদিনের বিক্ষোভের ডাক বিএনপির


অবশেষে পাঁচ বছর পর নেপালকে হারালো বাংলাদেশ

অবশেষে পাঁচ বছর পর নেপালকে হারালো বাংলাদেশ


অবশেষে গ্রেফতার হলো এসআই আকবর

অবশেষে গ্রেফতার হলো এসআই আকবর


থাইল্যান্ডে সেলিম প্রধানের ৭টি কোম্পানির খোঁজ পেয়েছে দুদক

থাইল্যান্ডে সেলিম প্রধানের ৭টি কোম্পানির খোঁজ পেয়েছে দুদক


মসজিদ-মন্দিরে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করলো সরকার

মসজিদ-মন্দিরে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করলো সরকার


করোনায় একদিনে আরও ১৮ প্রাণহানি

করোনায় একদিনে আরও ১৮ প্রাণহানি