Sunday, July 3rd, 2016
নিহত জঙ্গিদের সবাই ধনাঢ্য ও শিক্ষিত
July 3rd, 2016 at 9:35 pm
নিহত জঙ্গিদের সবাই ধনাঢ্য ও শিক্ষিত

প্রীতম সাহা সুদীপ, ঢাকা: গুলশানের হলি আর্টিজান রেস্টুরেন্টে অপারেশন থান্ডারবোল্টে নিহত জঙ্গিদের সবাই ছিলেন ধনাঢ্য পরিবারের শিক্ষিত তরুণ। তাদের মধ্যে চারজনই দীর্ঘদিন ধরে নিখোঁজ ছিলেন। নিহতদের ৫ জনের ছবি প্রকাশ করেছে পুলিশ সদর দফতর। পুলিশ ও সাইট ইন্টেলিজেন্স গ্রুপের পক্ষ থেকে ওই জঙ্গিদের ছবি প্রকাশ করা হলেও তাদের বিস্তারিত পরিচয় জানানো হয়নি। তবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাদের ৪ জনের পরিচয় পাওয়া গেছে।

ফেসবুকে তাদের বন্ধুরা দাবি করেছেন যে তারা প্রত্যেকেই নিখোঁজ ছিলেন। সবাই গত ফেব্রুয়ারি ও মার্চ মাসে পরিবার থেকে বিচ্ছিন্ন হন। এদের মধ্যে নিবরাস ইসলাম, রোহান ইমতিয়াজ, মীর সামিহ মোবাশ্বির রাজধানীর নামী-দামি স্কুল-কলেজে পড়াশোনা করেছেন। তবে তাসিন রওনকের বিষয়ে খুব বেশি তথ্য মেলেনি।

নিবরাস ইসলাম

হলি আর্টিজানে হামলাকারী নিরবাসের পরিচয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করেছে তার সাবেক সহপাঠীরা। তারা জানায়, নিরবাস ইসলাম নর্থ-সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্র। সে ফুটবল খেলতে পছন্দ করতো, নিজের আচরণের জন্য বেশ জনপ্রিয় ছিল। বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে চেক-ইন দিতে পছন্দ করতো। গত ফেব্রুয়ারি থেকে তাকে পাওয়া যাচ্ছিল না।

মীর সামিহ মোবাশ্বির

গত ২৯ ফেব্রুয়ারি বাসা থেকে কোচিং এ যাওয়ার পথে মোবাশ্বির নিঁখোজ হন। এ ঘটনায় তার বাবা মীর এ হায়াত কবীর ওই দিনই গুলশান থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (নম্বর ১৮৪৮) করেন।  মোবাশ্বিরের ব্যাপারে ফেসবুকে নিঝুম মজুমদার লিখেছেন, আমার ফেসবুকের বন্ধু/ছোটভাই (নাম বলছি না) আমাকে কনফার্ম হয়ে জানাল, এই ছেলেটির নাম মীর সামিহ মোবাশ্বির। আমার সেই বন্ধুর ছোট বোন, তারই(মোবাশ্বির) বন্ধু। সুতরাং তিনিই এই দাবি করেছেন যেহেতু দীর্ঘদিন একজন আরেকজনকে চেনেন। এই ছেলেটি চলতি বছরের মার্চ মাস থেকে মিসিং। তাকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। এ লেভেল পরীক্ষার আগ থেকেই মিসিং ছিলো। ঢাকায় নিহত হামলাকারীদের যে ছবি প্রকাশিত হয়েছে তা দেখেই তারা শনাক্ত করেছেন। ছবিটি আইডেন্টিফাই করা ব্যক্তি এও বলেছেন, ছেলেটাকে একটু মোটা লাগছে কিন্তু প্রচুর মিল আছে তা বলা বাহুল্য। তিন মাস যদি মিসিং থাকে তাহলে এই সময়ের ট্রেনিংয়ে শারীরিক এই অবয়ব হয়তো সম্ভব।

রোহান ইমতিয়াজ

রোহান ইমতিয়াজ ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক ইমতিয়াজ খান বাবুলের ছেলে। ফেসবুক দেখে বোঝা যায় তার ছেলে দীর্ঘদিন নিখোঁজ ছিলেন। তিনি ফেসবুকে ছেলের উদ্দেশ্যে লিখেছেন,‘প্লিজ কাম ব্যাক’।

এদিকে খোদ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামালও বার্তা সংস্থা এপিকে জানিয়েছেন, হামলাকারীরা সবাই বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া উচ্চ শিক্ষিত তরুণ। তারা ধনী পরিবারের সন্তান। এরা কেউই কখনোই মাদ্রাসায় পড়তে যায়নি। ইসলামিক স্টেট বা আইএসের সঙ্গে তাদের কোনো যোগাযোগ নেই দাবি করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, তারা সবাই একটি স্থানীয় জঙ্গি সংগঠনের সদস্য।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্রিমিনোলজি বিভাগের প্রধান (চেয়ারম্যান) ড. জিয়া রহমান নিউজনেক্সটবিডি ডটকমকে বলেন, কিছু কারণে ধনাঢ্য ও মেধাবী তরুণরা জঙ্গি কার্যক্রমে জড়িয়ে যাচ্ছে। সারা বিশ্বের রাজনৈতিক ভারসাম্যহীনতা এর একটি কারণ। আন্তর্জাতিক রাজনীতি ও দেশের ট্রেডিশনাল অস্থিতিশীল রাজনীতির ওপর থেকে তরুণদের আস্থা কমে যাচ্ছে। তারা হতাশায় ভোগে। এছাড়া তরুণ বয়সের হিরোইজম, ফ্যান্টাসি ও রোমান্টিসিজম থেকেও অনেক তরুণ ভিড়ছে জঙ্গি সংগঠনে।

তিনি বলেন, অলিতে গলিতে ব্যাঙের ছাতার মতো গড়ে ওঠা বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়া উচ্চ শিক্ষিত তরুণদের দেশীয় সংস্কৃতির সঙ্গে পরিচয় না থাকায় কিছু কিছু তরুণকে সহজেই মোটিভেট করে তাদের দলে ভিড়াচ্ছে জঙ্গি সংগঠনগুলো।

কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইমের (সিটিটিসি) বোম্ব ডিস্পোজাল টিমের প্রধান ও অতিরিক্ত উপকমিশনার (এডিসি) মো. ছানোয়ার হোসেন নিউজনেক্সটবিডি ডটকমকে বলেন, জঙ্গিরা সাধারণত শিক্ষিত ও ধনাঢ্য পরিবারের ছেলেদেরই টার্গেট করে থাকে তারা। জেএমবি ও আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের মতো জঙ্গি সংগঠনগুলো সাধারণত আল কায়েদার মতো আন্তর্জাতিক জঙ্গি সংগঠনগুলোকে কপি করে বা অনুকরণ করে থাকে। এজন্য তাদের প্রয়োজন হয় তথ্য-প্রযুক্তিগত জ্ঞান ও এ ধরনের প্রযুক্তির (টেকনোলজির) ব্যয় বহন করতে পারে এমন তরুণদের। তবে জঙ্গি সংগঠনগুলো একেবারে জিরো (শূন্য) থেকে শুরু করে না। অর্থাৎ ধর্ম নিয়ে যাদের দুর্বলতা রয়েছে এবং কৌতূহল আছে শুধু ওইসব শিক্ষিত তরুণদের মধ্য থেকেই এরা টার্গেট নির্দিষ্ট করে থাকে।

ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের যুগ্ম কমিশনার আব্দুল বাতেন বলেন, ‘তরুনদের আগে ধর্মীয় কথা-বার্তা বলে রিক্রুট করা হয়। তারপর তাদের অপারেশনের মানসিক প্রস্তুতি ও মোটিভেশন (প্রণোদনা) দেয়া হয়। এরপর ফিজিকাল (শারীরিক) ট্রেনিং। সর্বশেষে তাদের চাপাতি ও অস্ত্র চালানোর ট্রেনিং দেয়া হয়।’

নিউজনেক্সটবিডি ডটকম/পিএসএস/জাই


সর্বশেষ

আরও খবর

৪২ ও ৪৩তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ

৪২ ও ৪৩তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ


করোনায় আরও ৩০ জনের মৃত্যু, ৭৮ দিনের মধ্যে সর্বোচ্চ শনাক্ত

করোনায় আরও ৩০ জনের মৃত্যু, ৭৮ দিনের মধ্যে সর্বোচ্চ শনাক্ত


মানুষের জন্য কিছু করতে পারাই আমাদের রাজনীতির লক্ষ্য: প্রধানমন্ত্রী

মানুষের জন্য কিছু করতে পারাই আমাদের রাজনীতির লক্ষ্য: প্রধানমন্ত্রী


আনিসুল হত্যা: মানসিক স্বাস্থ্য ইন্সটিটিউটের রেজিস্ট্রার গ্রেপ্তার

আনিসুল হত্যা: মানসিক স্বাস্থ্য ইন্সটিটিউটের রেজিস্ট্রার গ্রেপ্তার


পাওয়ার গ্রিডের আগুনে বিদ্যুৎ-বিচ্ছিন্ন পুরো সিলেট, ব্যাপক ক্ষতি

পাওয়ার গ্রিডের আগুনে বিদ্যুৎ-বিচ্ছিন্ন পুরো সিলেট, ব্যাপক ক্ষতি


বাস পোড়ানোর মামলায় বিএনপির ২৮ নেতাকর্মী রিমান্ডে

বাস পোড়ানোর মামলায় বিএনপির ২৮ নেতাকর্মী রিমান্ডে


অবশেষে পাঁচ বছর পর নেপালকে হারালো বাংলাদেশ

অবশেষে পাঁচ বছর পর নেপালকে হারালো বাংলাদেশ


মাইন্ড এইড হাসপাতালে তালা, মালিক গ্রেপ্তার

মাইন্ড এইড হাসপাতালে তালা, মালিক গ্রেপ্তার


বিরোধী নেতাদের কটাক্ষ করতেন না বঙ্গবন্ধু: রাষ্ট্রপতি

বিরোধী নেতাদের কটাক্ষ করতেন না বঙ্গবন্ধু: রাষ্ট্রপতি


মসজিদ-মন্দিরে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করলো সরকার

মসজিদ-মন্দিরে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করলো সরকার