Tuesday, April 30th, 2019
নুসরাতের ‘আপত্তিকর’ ভিডিও ধারণ, ওসি মোয়াজ্জেমের বিরুদ্ধে প্রতিবেদন আসেনি
April 30th, 2019 at 10:06 pm
নুসরাতের ‘আপত্তিকর’ ভিডিও ধারণ, ওসি মোয়াজ্জেমের বিরুদ্ধে প্রতিবেদন আসেনি

ফেনী- ফেনীর মাদ্রাসার ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফিকে যৌনহয়রানির প্রসঙ্গে থানায় ‘আপত্তিকর’ প্রশ্ন করা এবং তা ভিডিও ধারণ করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার মামলায় সোনাগাজী থানার তৎকালীন ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোয়াজ্জেম হোসেনের বিরুদ্ধে প্রতিবেদন দাখিল করেনি পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

মঙ্গলবার এ প্রতিবেদন দাখিলের দিন ধার্য ছিল। কিন্তু এদিন মামলার তদন্ত সংস্থা পিবিআই তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য সময় আবেদন করেন।

সাইবার ক্রাইম ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোহাম্মদ আসসামছ জগলুল হোসেন সময়ের আবেদন মঞ্জুর করে ২৭ মে প্রতিবেদন দাখিলের পরবর্তী দিন ধার্য করেন।

এর আগে গত ১৫ এপ্রিল সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন এ মামলা করলে পিবিআইকে ট্রাইব্যুনাল ৩০ এপ্রিল প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন।

ওসি মোয়াজ্জেম বর্তমানে ফেনী জেলা পুলিশের অস্ত্র শাখায় কর্মরত আছেন। নুসরাতকে পুড়িয়ে হত্যার পর এ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে দায়িত্ব অবহেলার অভিযোগ উঠলে তাকে সোনাগাজী থানা থেকে প্রত্যাহার করা হয়।

মামলার এজাহারে বলা হয়, নুসরাত জাহান রাফি আমাদের মধ্যে নেই। কিন্তু তার হত্যাকাণ্ড এখন সারা দেশের আলোচিত ঘটনা। আগুনে পুড়িয়ে হত্যার আগে গত ২৭ মার্চ নুসরাত যৌন হয়রানির অভিযোগ করলে পুলিশ নুসরাত ও আসামি অধ্যক্ষ সিরাজ উদদ্দৌলাকে এক সঙ্গে থানায় নিয়ে যায়। সেই সময় ওসি মোয়াজ্জেম হোসেন তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন, যার ভিডিও ধারণ করা হয়। প্রকাশিত ভিডিওতে দেখা যায়, ওসি অত্যন্ত অপমানজনক এবং আপত্তিকর ভাষায় নুসরাতকে একের পর এক প্রশ্ন করে যাচ্ছেন। এমনকি ভিডিওর একপর্যায়ে দেখা যায়, অধ্যক্ষ রাফির বুকে হাত দিয়ে শ্লীলতাহানি করেছিলেন কি না, জিজ্ঞেস করেন ওসি, যা অত্যন্ত মানহানিকর। নুসরাতের মৃত্যুর পরের দিন গত ১১ এপ্রিল ফেসবুক ও ইউটিউবসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ওই ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে।

এজাহারে আরও বলা হয়, ওসি সাহেবের রুমে এমন ধরনের ঘটনার উদাহরণ দেশে আর কি হতে পারে। মেয়েটা মরে গিয়ে বেঁচে গেছে। বেঁচে থাকলে এ ভিডিওর কারণে তার বাঁচা কঠিন হয়ে যেত। একটি মেয়ের অনুমতি ছাড়া জিজ্ঞাসাবাদের নামে যৌন হয়রানিমূলক আপত্তিকর মানহানিকর প্রশ্ন করা এবং ভিডিও করে তা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়া ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ২৬ ধারার মানহানিকর তথ্য প্রকাশ। একই আইনের ২৯ ধারার এবং উপরোক্ত কার্যের মাধ্যমে সমাজে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করা ওই আইনের ৩১ ধারার অপরাধ।

উল্লেখ্য অধ্যক্ষ সিরাজ উদদ্দৌলার বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির মামলা তুলে নেওয়ার জন্য গত ৬ এপ্রিল রাফিকে মুখোশ পরা চার থেকে পাঁচ জন চাপ প্রয়োগ করলে সে অস্বীকৃতি জানালে তার গায়ে আগুন দিয়ে পালিয়ে যান। টানা পাঁচদিন মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে গত ১০ এপ্রিল রাত সাড়ে ৯ টায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে সে মারা যায়।


সর্বশেষ

আরও খবর

লেদারল্যান্ডের ঢোল

লেদারল্যান্ডের ঢোল


১ বছর নিষিদ্ধ হলেন শেহজাদ

১ বছর নিষিদ্ধ হলেন শেহজাদ


আবারো বাড়ল সোনার দাম

আবারো বাড়ল সোনার দাম


নবম ওয়েজ বোর্ডের বিষয়ে আপিলের আদেশ মঙ্গলবার

নবম ওয়েজ বোর্ডের বিষয়ে আপিলের আদেশ মঙ্গলবার


নরসিংদীতে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৪

নরসিংদীতে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৪


বরগুনার মেয়রের ছেলে ইয়াবাসহ ঢাকায় গ্রেপ্তার

বরগুনার মেয়রের ছেলে ইয়াবাসহ ঢাকায় গ্রেপ্তার


মিরপুরের আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত ৩ হাজার পরিবার

মিরপুরের আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত ৩ হাজার পরিবার


মিয়ানমারের সামরিক কলেজে বিদ্রোহীদের হামলায় নিহত ১৫

মিয়ানমারের সামরিক কলেজে বিদ্রোহীদের হামলায় নিহত ১৫


পাক-ভারত সীমান্তে গোলাগুলি, ভারতের ৫ ও পাকিস্তানের ৩ সেনা নিহত

পাক-ভারত সীমান্তে গোলাগুলি, ভারতের ৫ ও পাকিস্তানের ৩ সেনা নিহত


ঈদের চতুর্থ দিনে সড়কে ঝরল ২৫ প্রাণ

ঈদের চতুর্থ দিনে সড়কে ঝরল ২৫ প্রাণ