Wednesday, February 15th, 2017
পদ্মা সেতু নিয়ে ষড়যন্ত্রকারীদের বিচার দাবি
February 15th, 2017 at 10:02 pm
পদ্মা সেতু নিয়ে ষড়যন্ত্রকারীদের বিচার দাবি

ঢাকা: পদ্মা সেতু নিয়ে ষড়যন্ত্রকারীদের দেশদ্রোহী উল্লেখ করে তাদের বিচারের আওতায় আনার দাবি জানানো হয়েছে।

বুধবার রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর আনীত ধন্যবাদ প্রস্তাবের আলোচনায় অংশ নিয়ে সরকারি দলের সদস্যরা এ দাবি জানান।

তারা এ প্রক্রিয়ার সঙ্গে ড. মুহম্মদ ইউনূসের সরাসরি সম্পৃক্তার কথা উল্লেখ করে বলেন, কেউ আইনের উর্ধ্বে নয়, তাকেও আইনের আওতায় আনতে হবে।

গত ২৪ জানুয়ারি চিফ হুইপ আ স ম ফিরোজ রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর ধন্যবাদ প্রস্তাব উত্থাপন করলে হুইপ মাহাবুব আরা বেগম গিনি তা সমর্থন করেন।

গত ২২ জানুয়ারি দশম জাতীয় সংসদের চতুর্দশ অধিবেশন শুরুর দিন সংবিধান অনুযায়ী রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ সংসদে ভাষণ দেন।

রাষ্ট্রপতির ভাষণে আনীত ধন্যবাদ প্রস্তাবের ওপর আজ ১৬তম দিনে সরকারি দলের আবুল কালাম আজাদ, মাহবুব-উল আলম হানিফ, এ কে এম শাহজাহান কামাল, এ কে এম এ আউয়াল (সাইদুর রহমান), মনিরুল ইসলাম, হাবিবে মিল্লাত, তালুকদার মো. ইউনুস, বেগম ফজিলাতুন নেসা বাপ্পি, জাতীয় পার্টির সেলিম উদ্দিন ও পীর ফজলুর রহমান আলোচনায় অংশ নেন।

আলোচনায় অংশ নিয়ে সরকারি দলের মাহবুব-উল আলম হানিফ রাষ্ট্রপতির ভাষণকে বর্তমান সরকার আমলের গত ৮ বছরের সাফল্যের দলিল উল্লেখ করে বলেন, বাংলাদেশ উন্নয়নে অনেক দূর এগিয়েছে। প্রতি ক্ষেত্রেই যুগান্তকারী অগ্রগতি বিশ্বের বিভিন্ন দেশের প্রশংসা ও স্বীকৃতি পেয়েছে।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার ক্ষমতা গ্রহণের সময় দেশে বিদ্যুৎ ছিল ৩ হাজার ৬০০ মেগাওয়াট, বর্তমানে তা ১৫ হাজার ৬০০ মেগাওয়াটে উন্নীত হয়েছে। বিদেশী মুদ্রার রিজার্ভ ৮ বিলিয়ন থেকে বেড়ে ৩২ বিলিয়ন, রফতানি আয় ১১ থেকে বেড়ে ৩৪ বিলিয়ন, মাথাপিছু আয় ৬০০ ডলার থেকে বেড়ে ১ হাজার ৪৬৬ ডলারে উন্নীত হয়েছে। এছাড়া শিক্ষা, স্বাস্থ্যসহ সর্বক্ষেত্রে সাফল্য অর্জনের ফলে বাংলাদেশ আজ নিম্ন মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত হয়েছে। ’২১ সালের আগেই মধ্যম আয় এবং ’৪১ সালের মধ্যে উন্নত দেশে পরিণত হবে।

হানিফ বলেন, পদ্মা সেতুর নির্মাণ নিয়ে কাল্পনিক দুর্নীতির মামলা করে যারা দেশ বিরোধী ষড়যন্ত্র করেছে, তারা দেশ ও জনগণের শত্রু। তাদের জাতির কাছে ক্ষমা চাওয়া উচিত। এখনও একটি গোষ্ঠী দেশের অগ্রগতি ধ্বংস করে ব্যর্থ রাষ্ট্র বানাতে ষড়যন্ত্র করে চলছে।

তিনি এর সঙ্গে ড. ইউনূসের সম্পৃক্ততার কথা উল্লেখ করে বলেন, তার নোবেল পুরস্কার প্রাপ্তি নিয়ে বিতর্ক রয়েছে। তার ক্ষুদ্র ঋণ কর্মসূচি দেশে শান্তি নয়, অশান্তি সৃষ্টি করেছে। অনেকে সর্বস্ব হারিয়ে আত্মহত্যা পর্যন্ত করেছে।

তিনি গ্রামীণ ফোনের আয়ের টাকা কোথায় যাচ্ছে, কোথায় ব্যয় হচ্ছে, তার সুষ্ঠু তদন্ত করার দাবি জানান।

সরকারি দলের একেএমএ আউয়াল বলেন, মানুষ হত্যা করে মানুষের সম্পদ চুরি করে মানুষের পক্ষে কথা বলার অধিকার কারো নেই। বিএনপি আন্দোলনের নামে আগুণে পুড়িয়ে মানুষ হত্যা করেছে। লুটপাট ও চুরি করে নিজেদের আখের ঘুচিয়েছে। অতএব তাদের মানুষের পক্ষে কথা বলার কোনো অধিকার নেই।

তিনি বলেন, নারী ও শিশুদের পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সকল সাধারণ মানুষের অধিকার নিশ্চিত করেছেন।

সরকারি দলের সদস্য ফজিলাতুন নেসা বাপ্পি বলেন, বিএনপি-জামায়াতের দুর্নীতিতে ক্যান্সারে আক্রান্ত। দেশ শেখ হাসিনার যোগ্য নেতৃত্বে উন্নয়নের পথে এগিয়ে যাচ্ছে। বাংলাদেশ এখন অর্থনৈতিকভাবে পাকিস্তানকেও ছাড়িয়ে গেছে। অর্থনীতির প্রতিটি সূচকে বাংলাদেশ পাকিস্তানের চেয়ে এগিয়ে রয়েছে। বাংলাদেশ ২০৩০ সালে বিশ্বের ২৯তম এবং ২০৫০ সালে ২৩তম অর্থনৈতিক শক্তিতে পরিনত হবে।

সরকারি দলের সদস্য ডা. হাবিবে মিল্লাত বলেন, যারা এদেশের মুক্তিযুদ্ধে বিশ্বাস করে না, পতাকা ও দেশের মানচিত্রে বিশ্বাস করে না তাদের এই দেশে থাকার কোনো অধিকার নেই।

গ্রন্থনা ও সম্পাদনা: জাহিদ


সর্বশেষ

আরও খবর

টানা তৃতীয়বারের মতো নির্বাচিত হলেন আইভী

টানা তৃতীয়বারের মতো নির্বাচিত হলেন আইভী


অর্ধেক আসন ফাঁকা রেখে বাস চলার সিদ্ধান্ত পরিবর্তন

অর্ধেক আসন ফাঁকা রেখে বাস চলার সিদ্ধান্ত পরিবর্তন


আগুনে পুড়ল রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ১২০০ ঘর

আগুনে পুড়ল রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ১২০০ ঘর


এবারের বিজয় দিবসে দেশবাসীকে শপথ পড়াবেন প্রধানমন্ত্রী

এবারের বিজয় দিবসে দেশবাসীকে শপথ পড়াবেন প্রধানমন্ত্রী


কমলো এলপিজির দাম

কমলো এলপিজির দাম


উন্নয়নশীল দেশ নিয়ে খুশি না হয়ে, উন্নত দেশ গড়ার লক্ষ্যে কাজ করার আহ্বান রাষ্ট্রপতির

উন্নয়নশীল দেশ নিয়ে খুশি না হয়ে, উন্নত দেশ গড়ার লক্ষ্যে কাজ করার আহ্বান রাষ্ট্রপতির


জাতীয় অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম মারা গেছেন

জাতীয় অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম মারা গেছেন


ডিআরইউর নতুন সভাপতি মিঠু, সাধারণ সম্পাদক হাসিব

ডিআরইউর নতুন সভাপতি মিঠু, সাধারণ সম্পাদক হাসিব


ওমিক্রন খুবই ঝুঁকিপূর্ণ; সবাইকে প্রস্তুত থাকার আহ্বান বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার

ওমিক্রন খুবই ঝুঁকিপূর্ণ; সবাইকে প্রস্তুত থাকার আহ্বান বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার


নির্বাচনী সহিংসতায় ছাত্রলীগ নেতার মৃত্যু

নির্বাচনী সহিংসতায় ছাত্রলীগ নেতার মৃত্যু