Sunday, August 7th, 2016
পরিবারতন্ত্রের প্রাধান্য বিএনপিতে
August 7th, 2016 at 10:36 am
পরিবারতন্ত্রের প্রাধান্য বিএনপিতে

ইয়াসিন আলী, ঢাকা: পরিবারতন্ত্রকে প্রাধান্য দিয়ে জাতীয় কাউন্সিলের প্রায় সাড়ে চারমাস পর বিএনপির পূর্ণাঙ্গ কেন্দ্রীয় কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। আর ঘোষিত এ কমিটিতে বিএনপি নেতাদের স্ত্রী-সন্তানদের মধ্যে এক ডজনেরও বেশি সদস্য স্থান পেয়েছেন। এছাড়াও নতুন এ কমিটিতে পদোন্নতির পাশাপাশি কারো কারো ক্ষেত্রে পদাবনতির ঘটনাও ঘটেছে। বাদ দেয়া হয়েছে অনেককে, নতুন মুখের ছড়াছড়ির পাশাপাশি কয়েকটি পদ শূন্যও রাখা হয়েছে।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর শনিবার দুপুরের দিকে রাজধানীর নয়াপল্টন দলীয় কার্যালয়ে জরুরী এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে দলের বিভিন্নপদে ৫০২ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ এ কমিটি ঘোষণা করেন।

এসময় কয়েকটি পদ শূন্য রয়েছে, সেগুলো পরে পূরণ করা হবে জানিয়ে নতুন কমিটিকে মির্জা ফখরুল ‘ভাইব্রেন্ট, ডায়নামিক কমিটি’ হিসেবে আখ্যায়িত করেন। তিনি বলেন, ‘যে সমস্ত কোয়ালিটি একটি সংগঠনের জন্য প্রয়োজন, প্রত্যেকটি বিষয়ের উপর ভিত্তি করে এই কমিটি গঠন করা হয়েছে।’

এত বড় কমিটি কেন? এমন প্রশ্নের উত্তরে ফখরুল বলেন, ‘বিগত দিনগুলোতে বিএনপি যে বিকাশ লাভ করেছে, বিশেষ করে রাজনীতিতে সক্রিয় অংশগ্রহণকারী নেতা-কর্মীর সংখ্যা বেড়ে গেছে, ছাত্রদল-যুবদল থেকে যারা আসছেন, তাদেরকে তৈরি করার জন্য নতুন কমিটিতে আনতে হয়েছে।’

বিএনপির চেয়ারপারসন পদে খালেদা জিয়ার সঙ্গে জ্যেষ্ঠ ভাইস চেয়ারম্যান পদে তার ছেলে তারেক রহমান গত ১৯ মার্চ অনুষ্ঠিত ষষ্ঠ কাউন্সিলেই নির্বাচিত হন। এর কয়েকদিন পরেই মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে মহাসচিব ঘোষণার পাশাপাশি দলের সাবেক মহাসচিব কে এম ওবায়দুর রহমানের মেয়ে শামা ওবায়েদকে সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবে ঘোষণা করা হয়।

অন্যদিকে শনিবার স্থায়ী কমিটি, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদ, ভাইস চেয়ারম্যান, সম্পাদক মণ্ডলী ও কার্যনির্বাহী পরিষদের সদস্যদের নাম ঘোষণার পর দেখা যায়, দলের পদে থাকা নেতাদের পরিবারের সদস্যদের প্রাধান্য দিয়ে নানা পদ দেয়া হয়েছে।

যেমন খালেদা জিয়ার বোন সেলিমা ইসলামের ছেলে শাহরিন ইসলাম তুহিনকে রাখা হয়েছে কেন্দ্রীয় কমিটিতে। মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের ছোট ভাই মির্জা ফয়সল আমিনও সদস্য হিসেবে কমিটিতে স্থান পেয়েছেন। স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেনের ছেলে ড. খন্দকার মারুফ হোসেন, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়ের মেয়ে অপর্ণা রায়, স্থায়ী কমিটির সাবেক সদস্য মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হওয়া সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর ছেলে হুম্মাম কাদের চৌধুরী, হুম্মামের চাচা গিয়াস কাদের চৌধুরীও নতুন কমিটিতে ভাইস চেয়ারম্যানের পদে রয়েছেন।

নতুন মুখ যারা স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকারের ছেলে নওশাদ জমির, মির্জা আব্বাসের স্ত্রী আফরোজা আব্বাস ও ছোট ভাই মির্জা খোকন, ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল আউয়াল মিন্টুর ছেলে তাবিথ আউয়াল, মীর মোহম্মদ নাছিরউদ্দিনের ছেলে মীর হেলাল, নিতাই রায় চৌধুরীর পুত্রবধূ নিপু রায় চৌধুরী, নিখোঁজ এম ইলিয়াস আলীর স্ত্রী তাহসিনা রুশদীর লুনা, বন্দি অবস্থায় মারা যাওয়া নাসিরউদ্দিন আহমেদ পিন্টুর স্ত্রী নাসিমা আখতার কল্পনা, সাবেক সংসদ সদস্য দুর্ঘটনায় নিহত হেমায়েত হোসেন আওরঙ্গের স্ত্রী তাহমিনা খান আওরঙ্গও কমিটিতে এসেছেন  নতুন মুখ হিসেবে।

পদোন্নতি দেয়া হয়েছে আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী ও সালাউদ্দিন আহমেদকে। বিএনপির সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরাম জাতীয় স্থায়ী কমিটির নতুন সদস্য হওয়ার সৌভাগ্য হয়েছে তাদের। বিদায়ী কমিটিতে খসরু ছিলেন চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আর সালাউদ্দিন আহমেদ যুগ্ম মহাসচিব।

চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা থেকে পদোন্নতি পেয়ে ভাইস চেয়ারম্যান হয়েছেন অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন, মোসাদ্দেক আলী ফালু (তিনি পদত্যাগ করেছেন), ড. ওসমান ফারুক, রুহুল আলম চৌধুরী, মাহমুদুল হাসান, ইনাম আহমেদ চৌধুরী, ব্যারিস্টার আমিনুল হক, আবদুল আউয়াল মিন্টু, এ জেড এম জাহিদ হোসেন, শামসুজ্জামান দুদু, আহমেদ আজম খান, অ্যাডভোকেট জয়নাল আবেদীন, গিয়াস কাদের চৌধুরী, অধ্যাপক আবদুল মান্নান, অধ্যাপক মাজেদুল ইসলাম, আবদুল মান্নান, ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু, ব্যারিস্টার শাহজাহান ওমর ও সাংবাদিক শওকত মাহমুদ।

যুগ্ম মহাসচিব থেকে দলের উপদেষ্টা হয়েছেন সাবেক ছাত্রনেতা ও ডাকসুর ভিপি আমান উল্লাহ আমান ও মিজানুর রহমান মিনু। ভাইস চেয়ারম্যান হয়েছেন বরকতউল্লাহ বুলু, মোহাম্মদ শাহজাহান। সহ-আইনবিষয়ক সম্পাদক থেকে নিতাই রায় চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক থেকে মশিউর রহমানও ভাইস চেয়ারম্যান হয়েছেন।

স্বপদে রয়েছেন ভাইস চেয়ারম্যান বিচারপতি টি এইচ খান, এম মোরশেদ খান, হারুন আল রশীদ, শাহ মোয়াজ্জেম হোসেন, আবদুল্লাহ আল নোমান, সাদেক হোসেন খোকা, রাবেয়া চৌধুরী, মেজর (অব.) হাফিজউদ্দিন আহমেদ, চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ, এয়ার ভাইস মার্শাল (অব.) আলতাফ হোসেন চৌধুরী, সেলিমা রহমান, মীর মো. নাছির উদ্দিন, শাহ মোফাজ্জল হোসেন কায়কোবাদ, আবদুস সালাম পিন্টু, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক এহছানুল হক মিলন, কোষাধ্যক্ষ মিজানুর রহমান সিনহা, সহ-দপ্তর সম্পাদক তাইফুল ইসলাম টিপু।

ছাত্রবিষয়ক সম্পাদক থেকে প্রচার সম্পাদক করা হয়েছে সাবেক ছাত্রনেতা শহীদউদ্দিন চৌধুরী এ্যানিকে। সহ-সম্পাদক করা হয়েছে ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আমীরুল ইসলাম আলীম, বিদায়ী কমিটির সহ-দপ্তর সম্পাদক আসাদুল করীম শাহিন ও শামীমুর রহমান শামীমকে (শামীম ইতোমধ্যে পদত্যাগ করেছেন)।

পদোন্নতি প্রাপ্তরা আজিজুল বারী হেলালকে তথ্য বিষয়ক সম্পাদক, সালাহউদ্দিন আহমেদকে (ডেমরার সাবেক সংসদ সদস্য) বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক, জাকারিয়া তাহের সুমনকে কর্মসংস্থান বিষয়ক এবং আবু সাঈদ খান খোকনকে গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক, নাসির উদ্দিন অসীম, নওশাদ জমির ও মাসুদ আহমেদ তালুকদারকে আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক, অ্যাডভোকেট সানাউল্লাহ মিয়া ও ব্যারিস্টার কায়সার কামালকে আইন বিষয়ক সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

এছাড়া কমিটিতে স্থান পেয়েছেন ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা, কণ্ঠশিল্পী বেবী নাজনীন, শাকিরুল ইসলাম শাকিল, সাবেক ছাত্রনেতা কামরুজ্জামান রতন, জাতীয় ফুটবল দলের সাবেক অধিনায়ক আমিনুল ইসলাম, চিত্রনায়ক আশরাফ হোসেন উজ্জ্বল, অ্যাডভোকেট বদরুজ্জামান খসরু।

স্থায়ী কমিটির ২টি পদসহ যুব ও ছাত্রবিষয়ক সম্পাদক পদে কাউকে নিয়োগ দেয়া হয়নি। এ পদগুলো খালি রয়েছে। এ ব্যাপারে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর জানিয়েছেন, এ পদগুলোতে পরবর্তী সময়ে পদায়ন করা হবে।

অসুস্থতার কারণে নিষ্ক্রিয় এম শামসুল ইসলাম ও সারোয়ারী রহমানকে স্থায়ী কমিটি থেকে বাদ দেয়া হয়েছে। সারোয়ারী রহমানকে উপদেষ্টা পদে রাখা হয়েছে।

চার ধাপের কমিটি ঘোষণা১৯ মার্চ ষষ্ঠ জাতীয় কাউন্সিলে চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে কাউন্সিলররা সর্বসম্মতভাবে কমিটি পুনর্গঠনের দায়িত্ব ও ক্ষমতা দেন। খালেদা জিয়া চেয়ারপারসন ও তারেক রহমান সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পান। তিন ধাপে মহাসচিব, যুগ্ম মহাসচিব, সাংগঠনিক সম্পাদক ও সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক পদে ৪২ নেতার নাম ঘোষণা করা হয়। ৩০ এপিল মহাসচিব, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব ও কোষাধক্ষ্য পদে নাম ঘোষণা করা হয়। এরপর ৯ এপ্রিল সাতজন যুগ্ম মহাসচিব আর নয়জন সাংগঠনিক সম্পাদকের নাম ঘোষণা করা হয়। গত ১৮ এপ্রিল একজন সাংগঠনিক সম্পাদকসহ ২০ জন সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক পদে নাম ঘোষণা করা হয়। এরপর থেকে আটকে ছিল বিএনপির কমিটি ঘোষণার প্রক্রিয়া। সর্বশেষ শনিবার সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে কমিটি গঠন শেষ করলেন মহাসচিব মির্জা ফখরুল।

নিউজনেক্সটবিডি ডটকম/ওয়াইএ/এসআই


সর্বশেষ

আরও খবর

করোনায় আরও ১৯ জনের মৃত্যু

করোনায় আরও ১৯ জনের মৃত্যু


সাগরে ৪ নম্বর সংকেত, বৃষ্টি অব্যাহত থাকবে আরও দুই দিন

সাগরে ৪ নম্বর সংকেত, বৃষ্টি অব্যাহত থাকবে আরও দুই দিন


দু-তিন দিনের মধ্যে আলুর দাম কমবে: বাণিজ্যমন্ত্রী

দু-তিন দিনের মধ্যে আলুর দাম কমবে: বাণিজ্যমন্ত্রী


করোনায় প্রাণ গেল আরও ২১ জনের

করোনায় প্রাণ গেল আরও ২১ জনের


দেশে করোনায় আরও ২৩ জনের মৃত্যু

দেশে করোনায় আরও ২৩ জনের মৃত্যু


ভোট সুষ্ঠু হয়েছে; দাবি প্রধান নির্বাচন কমিশনারের

ভোট সুষ্ঠু হয়েছে; দাবি প্রধান নির্বাচন কমিশনারের


বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার খসড়া তালিকায় গ্লোব বায়োটেকের ভ্যাকসিন

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার খসড়া তালিকায় গ্লোব বায়োটেকের ভ্যাকসিন


জাতীয় পার্টির ‘ধর্ষণ ও নারী নির্যাতন’ বিরোধী সমাবেশ

জাতীয় পার্টির ‘ধর্ষণ ও নারী নির্যাতন’ বিরোধী সমাবেশ


মিরপুর চিড়িয়াখানা খুলছে ১ নভেম্বর

মিরপুর চিড়িয়াখানা খুলছে ১ নভেম্বর


দুর্গাপূজা নিয়ে ডিএমপির ৫ সিদ্ধান্ত

দুর্গাপূজা নিয়ে ডিএমপির ৫ সিদ্ধান্ত