Monday, January 28th, 2019
পাইলটের সাথে নেপালের এটিসিরও ভুল ছিল: এএআইজি-বিডি
January 28th, 2019 at 9:13 pm
পাইলটের সাথে নেপালের এটিসিরও ভুল ছিল: এএআইজি-বিডি

ঢাকা: নেপালের ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ইউএস-বাংলার বিমান দুর্ঘটনার চূড়ান্ত তদন্ত প্রতিবেদনে নেপালি তদন্ত কমিশন একপেশেভাবে পাইলটকে দোষারোপ করেছে বলে অভিযোগ তুলেছে এয়ারক্রাফট অ্যাপিডেন্ট ইনভেসটিগেশন গ্রুপ অব বাংলাদেশ।

সোমবার বিকেলে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের সদর দফতরে এক সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ তুলেন এয়ারক্রাফট অ্যাপিডেন্ট ইনভেসটিগেশন গ্রুপ অব বাংলাদেশ (এএআইজি-বিডি)-এর প্রধান ক্যাপ্টেন সালাহ্‌উদ্দিন এম রহমতউল্লাহ।

তিনি বলেন, প্রতিবেদনে পাইলট সংক্রান্ত যে বিষয়গুলো উঠে এসেছে সেগুলো ঠিক আছে, তবে নেপালের এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোল-এটিসির ভুল সংক্রান্ত বিষয়গুলো উঠে আসেনি।

তিনি বলেন, নেপালের তদন্ত প্রতিবেদনে যা উঠে এসেছে তা ঠিক আছে। তবে পাইলটকে একপেশেভাবে দায়ি করা হয়েছে। কিন্তু এটিসির যে ত্রুটি  ছিল সেগুলো উঠে আসেনি। পাইলট ল্যান্ড করতে অ্যাপ্রোচ মিস করেছিল। কিন্তু এটিসি পাইলটকে সহায়তা করতে পারতো, কিন্তু তারা তা করতে পারেনি। বরং বিমানটি যখন এটিসি টাওয়ায়েরর কাছ দিয়ে যেয়ে বিধ্বস্ত হয় তখন এসিটি টাওয়ারের কর্মকর্তারা টেবিলের নিচে আশ্রয় নেন।

এয়ারক্রাফট অ্যাক্সিডেন্ট ইনভেস্টিগেশন গ্রুপ অব বাংলাদেশ- এর সংবাদ সম্মেলনসংবাদ সম্মেলনে বেবিচকের চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল  এম নাঈম হাসান বলেন, অনেক সময় পাইলটরা দিক হারিয়ে ফেলেন। এটা প্রায়ই ঘটে। নেপালে পাহাড়ঘেরা বিমানবন্দর হওয়ায় এ ঝুঁকি বেশি। সেদিন পাইলট দিক হারিয়ে ফেলেছিলেন। পাইলট কোনও কারণে অ্যাপ্রোচ মিস করেছেন। তবে তাকে সহায়তার করার দায়িত্ব ছিল এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোলারের। নেপালের এটিসি সেটি করেনি।

নেপালের তদন্ত প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, পাইলট আবিদ ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্সের এক নারী সহকর্মীর ব্যবহারে মানসিকভাবে বির্পযস্ত ছিলেন এবং রাতে তার ঠিকভাবে ঘুম হয়নি। অন্যদিকে, কো-পাইলট প্রথমবারের মতো নেপালের ওই ফ্লাইটে ছিলেন।

তবে উড়োজাহাজের কোনও ত্রুটি পায়নি তদন্ত কমিটি। এছাড়া, তদন্ত প্রতিবেদন বেবিচকের জন্য দুটি, ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্সের ১১টি  এবং নেপালের সিভিল এভিয়েশনের জন্য দুটি  সেফটি সংক্রান্ত পরামর্শ দিয়েছে।

প্রসঙ্গত, ২০১৮ সালের ১২ মার্চ ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের বোমবার্ডিয়ার ড্যাশ ৮কিউ৪০০ উড়োজাহাজটি নেপালে কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন বিমানবন্দরে অবতরণের সময় দুর্ঘটনার শিকার হয়। উড়োজাহাজটি বিধ্বস্তের ঘটনায় নিহত হন ৫১ জন। নিহতদের মধ্যে ২৮ জন বাংলাদেশি, ২২ জন নেপালি ও একজন চীনা নাগরিক ছিলেন। নিহত হন ফ্লাইটের সহকারী পাইলট পৃথুলা রশিদ। আহত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করানোর পর মারা যান পাইলট ক্যাপ্টেন আবিদ।

গ্রন্থনা ও সম্পাদনা: এম কে রায়হান


সর্বশেষ

আরও খবর

সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়স ৩০ই থাকছে

সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়স ৩০ই থাকছে


নুসরাত হত্যা মামলার আরেক আসামি শাকিল গ্রেপ্তার

নুসরাত হত্যা মামলার আরেক আসামি শাকিল গ্রেপ্তার


রাত ১২টা থেকে বন্ধ হচ্ছে ২০ লাখ সিম

রাত ১২টা থেকে বন্ধ হচ্ছে ২০ লাখ সিম


হিমু ভাই, দেখা হবেই – ‘মিস’ নাই ..

হিমু ভাই, দেখা হবেই – ‘মিস’ নাই ..


গায়ে আগুন দিয়ে আত্মহত্যা করলেন রানা প্লাজার ‘হিরো’ হিমু

গায়ে আগুন দিয়ে আত্মহত্যা করলেন রানা প্লাজার ‘হিরো’ হিমু


বনলতা এক্সপ্রেসের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

বনলতা এক্সপ্রেসের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী


শপথ নিলেন বিএনপির জাহিদুর রহমান

শপথ নিলেন বিএনপির জাহিদুর রহমান


ঢাকা-চট্টগ্রামসহ ৮৭ রুটে চলছে পরিবহন ধর্মঘট

ঢাকা-চট্টগ্রামসহ ৮৭ রুটে চলছে পরিবহন ধর্মঘট


বিরতিহীন ‘বনলতা এক্সপ্রস’

বিরতিহীন ‘বনলতা এক্সপ্রস’


সম্পদের নিরাপত্তাহীনতায় জিডি করলেন এরশাদ

সম্পদের নিরাপত্তাহীনতায় জিডি করলেন এরশাদ