Saturday, August 6th, 2016
পাহাড়-মেঘের দার্জিলিং
August 6th, 2016 at 9:00 pm
পাহাড়-মেঘের দার্জিলিং

ডেস্ক: মেঘের আর পাহাড়ের মিলনমেলা দেখে আসতে চাইলে চলে যেতে পারেন দার্জিলিং। প্রকৃতির সান্নিধ্যে কাটিয়ে আসুন কিছু সময়, জীবনের নতুন মোড়ে একটি উদ্যমপূর্ণ  পূনর্জন্ম স্বাগত জানাবে আপনাকে।

চলুন জেনে নেই দার্জিলিং যাবার যাবতীয় খোঁজ খবর। আর দার্জিলিং ঘুরে এসে আপনাদের জন্য লিখছেন নিউজনেক্সটবিডিডটকম প্রতিনিধি সৈয়দ নীলিমা দোলা।

যাতায়াত
বাংলাদেশ থেকে দার্জিলিং যাওয়ার পথ তিনটি- রেলপথ, সড়কপথ এবং আকাশপথ। আকাশপথে যেতে চাইলে ঢাকা বা চট্টগ্রাম থেকে জেট এয়ার, রিজেন্ট এয়ারওয়েজ অথবা বাংলাদেশ বিমানে করে সরাসরি কলকাতা। খরচ হবে প্রায় ১১,০০০ টাকা থেকে ১৫,০০০ টাকা। সেখান থেকে এয়ার ইন্ডিয়ায় চেপে কম খরচে শিলিগুড়ি। এবার চান্দের গাড়ি চেপে যেতে হবে দার্জিলিং। চান্দের গাড়ির ভাড়া পড়বে ১৪০ রুপি বা ১৬০ টাকা।

আকাশপথের ঝামেলা এড়াতে চাইলে সরাসরি বাংলাদেশ থেকে বাস সার্ভিসের সেবা নিতে পারেন। এরমধ্যে শ্যামলী পরিবহন সরাসরি শিলিগুড়ি পর্যন্ত যাতায়াত করে। ঢাকা থেকে শিলিগুড়ি যাওয়ার ভাড়া হবে ১,৬০০ টাকা। বর্ডার পার হওয়ার সময় ভ্রমণকর হিসেবে দিতে হবে অতিরিক্ত ৩০০ টাকা।

রেলপথে যেতে হলে ঢাকা থেকে টিকেট করতে হবে। এখন অবশ্য চট্টগ্রাম থেকেও মৈত্রী ট্রেনের টিকেট করা যায় কিন্তু যাত্রা শুরু করতে হবে ঢাকা থেকেই।

থাকা

দার্জিলিং যেহেতু পর্যটন এলাকা তাই থাকার জায়গার সমস্যা নেই। এখানে মাঝারি মূল্যের থেকে একদম অল্প ভাড়ার হোটেলও পাবেন আপনি। তবে ভ্রমণপ্রেমীদের কাছে বেলভিউ, সাগরিকা, সোনার বাংলা, মহাকাল হোটেল বেশি জনপ্রিয়। প্রতিটি সিঙ্গেল রুমের ভাড়া পড়বে ১০০০ রুপি, ডাবল রুমের ভাড়া ১২০০ রুপি এবং তিনবেডের রুমের ভাড়া ১৫০০ রুপি।

খাওয়া

ভোজনরসিকদের জন্য খুব জনপ্রিয় স্থান দার্জিলিং। পুরো ভারতের বিভিন্ন অঞ্চলের খাবার আপনি এখানে পাবেন। তবে রেস্তোরাঁর খাবারের দাম বেশি। এইক্ষেত্রে আপনি বেছে নিতে পারেন স্ট্রিটফুড। এখানের স্ট্রিটফুডগুলো বেশ উপাদেয় ও স্বাস্থ্যকর। নুডলস পাওয়া যায় সব রেস্তোরাঁয় কিন্তু পেটপুরে খেতে চাইলে যেতে হবে ম্যালয়ে। ভালো দার্জিলিং এর চা পাতা কিনতে চাইলেও ম্যালয়ের কোন বিকল্প নেই।

দর্শনীয় স্থানসমূহ

দার্জিলিং এ বেড়ানোর জায়গার অভাব নেই। প্রত্যেক হোটেলের সামনেই পাবেন গাড়িসহ ট্যুর গাইড। যেকোনো ধরনের তথ্যর জন্য আপনি সর্বাত্ত্বক সহযোগিতা পাবেন পর্যটন অফিস থেকে। কাছাকাছি দেখার মতো উল্লেখযোগ্য জায়গা হলো ম্যালয়, টাইগার হিল, চা বাগান, জাপানিজ টেম্পল, চিড়িয়াখানা। এরপর আছে নর্থ পয়েন্ট থেকে সিঙ্ঘা পর্যন্ত কেবলকার।

সমুদ্র-পৃষ্ঠ থেকে প্রায় ১০,০০০ ফুট উঁচু পাহাড়ের চূড়া থেকে অপূর্ব সুন্দর সূর্যোদয়ের দৃশ্য। পৃথিবীর বিখ্যাত প্রার্থনা-স্থান ঘুম মোনাস্ট্রি। এছাড়াও আছে ছবির মতো অপূর্ব সুন্দর স্মৃতিসৌধ, বিলুপ্ত-প্রায় পাহাড়ি বাঘ Snow Lepard খ্যাত দার্জিলিং চিড়িয়াখানা। পাহাড়ে অভিযান শিক্ষাকেন্দ্র হিমালয়ান মাউন্টেনিয়ারিং ইন্সটিটিউট।

কেনাকাটা
১০০ থেকে ৫০০ রুপির মধ্যে পেয়ে যাবেন অসাধারণ কাজ করা নেপালি শাল এবং শাড়ি যা আপনার পছন্দ হতে বাধ্য। প্রিয়জনকে উপহার দিতে সর্বনিম্ন ২০ রুপি থেকে ২৫০ রুপির মধ্যে পেয়ে যাবেন বিভিন্ন অ্যান্টিক্স ও নানাবিধ গিফট আইটেম, যা আপনার প্রিয়জনের ভালোবাসা কেড়ে নিতে সক্ষম। তাছাড়া আকর্ষণীয় লেদার সু আর বাহারি সানগ্লাস তো আছেই। কেনাকাটা করতে গিয়ে প্রতারিত হওয়ার আশংকা একেবারেই নেই। তবে হোটেলগুলোতে কিছু নেপালি তরুণ-তরুণী ভ্রাম্যমাণ ফেরি করে শাল, শাড়ি বিক্রয় করে থাকে। তাদের কাছ থেকে না কেনাটাই উত্তম।

ঝুঁকি

দার্জিলিং ভ্রমণেও ছোটখাটো কিছু ঝুঁকি রয়েছে। মাঝে-মাঝেই পাহাড়ি অঞ্চলে  ছোটখাটো ধস নামে। তবে সেটা বেশি হয় বর্ষা মৌসুমে। শীত বা গরমে সে ঝুঁকিটা একেবারেই নেই। আর গরম জামাকাপড় ব্যবহারে অবহেলা না করলে ঠাণ্ডা লাগার ঝুঁকিটাও কমে যায় একেবারেই। তাছাড়া হোটেল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে সবরকম বিষয়ে পরামর্শ করে চলাফেরা করলে স্থানীয় দালাল বা হারিয়ে যাওয়ার আশংকা থেকেও আপনি পেয়ে যাবেন পুরোপুরি।

তথ্য তো হাতের নাগালেই, তাহলে আর দেরি না করে প্রিয়জনকে সাথে নিয়ে ঘুরে আসুন দার্জিলিং!

নিউজনেক্সটবিডিডটকম/এসএনডি/এসকেএস


সর্বশেষ

আরও খবর

কতদিনে পাওয়া যাবে ই-পাসপোর্ট?

কতদিনে পাওয়া যাবে ই-পাসপোর্ট?


ই-পাসপোর্টে দক্ষিণ এশিয়ার প্রথম দেশ বাংলাদেশ

ই-পাসপোর্টে দক্ষিণ এশিয়ার প্রথম দেশ বাংলাদেশ


২২ জানুয়ারি থেকে ই-পাসপোর্ট

২২ জানুয়ারি থেকে ই-পাসপোর্ট


“হাল্ট্রিপ” দক্ষিণ চীন এয়ারলাইন্সের শীর্ষ ট্র্যাভেল এজেন্সি

“হাল্ট্রিপ” দক্ষিণ চীন এয়ারলাইন্সের শীর্ষ ট্র্যাভেল এজেন্সি


বট-খেজুরের সখ্য এবং ‘রক্ত-রস’ রহস্য

বট-খেজুরের সখ্য এবং ‘রক্ত-রস’ রহস্য


ঘুরে আসুন টাঙ্গাইলের ঐতিহ্যবাহী ৪ জমিদার বাড়ি থেকে

ঘুরে আসুন টাঙ্গাইলের ঐতিহ্যবাহী ৪ জমিদার বাড়ি থেকে


ঢাকা হবে ট্যুরিজম সিটি

ঢাকা হবে ট্যুরিজম সিটি


পর্যটনের উন্নয়নে বেসরকারি উদ্যোক্তাদের এগিয়ে আসতে হবে

পর্যটনের উন্নয়নে বেসরকারি উদ্যোক্তাদের এগিয়ে আসতে হবে


ঢাকা-গৌহাটি বিমান ফ্লাইট চালুর সিদ্ধান্ত

ঢাকা-গৌহাটি বিমান ফ্লাইট চালুর সিদ্ধান্ত


সস্তায় কাপ্তাই হ্রদ ভ্রমণের সুযোগ

সস্তায় কাপ্তাই হ্রদ ভ্রমণের সুযোগ