Sunday, August 28th, 2016
প্রসিকিউটরদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া উচিত: প্রধান বিচারপতি
August 28th, 2016 at 5:02 pm
প্রসিকিউটরদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া উচিত: প্রধান বিচারপতি

ঢাকা: মীর কাসেম আলীর মামলার সঙ্গে যে সকল প্রসিকিউটর সম্পৃক্ত তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা উচিত বলে জানান প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার(এসকে)সিনহা। পরে রোববার মামলার রিভিউ শুনানি শেষে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম নিজেই। মামলায় আপিলের রায় পুনর্বিবেচনা চেয়ে করা আবেদনের বিষয়ে আগামী ৩০ আগস্ট রায়ের জন্য রাখা হয়েছে।

তিনি বলেন, জামায়াত নেতা মীর কাসেম আলীর মামলা পরিচালনায় অদক্ষতার পরিচয় দেয়া প্রসিকিউটরদের বিরুদ্ধে কেন ব্যবস্থা নেয়া হয়নি, তা আমার কাছে (অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম) জানতে চেয়েছেন আপিল বিভাগ। জবাবে অ্যাটর্নি জেনারেল বলেছেন, বিষয়টি আমি সরকারের গোচরে আনা হবে।

কোন প্রসিকিউটরদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছিল তাদের নাম উল্লেখ না করলেও অ্যাটর্নি জেনারেল বলেছেন, ‘মীর কাসেম আলীর মামলায় যেই যেই প্রসিকিউটর মামলা পরিচালনার ব্যাপারে অংশগ্রহণ করেছেন এবং প্রধান প্রসিকিউটর যিনি তাদের দায়িত্ব প্রদান করেছেন এই কয়জনের ব্যাপারেই আদালতের অভিমত প্রকাশ করেছেন, এদের এখানে থাকা উচিত না।’

মাহবুবে আলম বলেন, ‘আজকে মামলা শুরু করার আগেই আদালত আমাকে বলেছেন, আদালত তার রায়ে কয়েকটা কমেন্টস করেছেন প্রসিকিউশনের কয়েকজন আইনজীবীর বিরুদ্ধে। তাদের এখনো কেন সরানো হয়নি। আমি আদালতকে বলেছি এটা আমি সরকারের গোচরে আনব।’

এই মামলায় ট্রাইব্যুনাল দুটি অভিযোগে (১১ ও ১২ নম্বর) মীর কাসেমকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছিলেন। এর মধ্যে আপিল বিভাগ ১২ নম্বর অভিযোগ থেকে অব্যাহতি দেন। অ্যাটর্নি জেনারেল মনে করেন মামলা পরিচালনায় প্রসিকিউশনের দুর্বলতার কারণেই এই অভিযোগ থেকে তিনি অব্যাহতি পেতেন না। মাহবুবে আলম বলেন, ‘আমি বলেছি ১২ নম্বর চার্জেও মীর কাসেমের মৃত্যুদণ্ড হতো, যদি প্রসিকিউশন ঠিক মতো মামলাটি পরিচালনা করতো।’

তবে আপিল বিভাগ ১১ নম্বর অভিযোগে তার যে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন সেটি তা বহাল থাকবে বলে আশা করেছেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

তিনি বলেন, ‘তাদের রায়ের অংশ বিশেষ পড়িয়ে আমি আদালতকে দেখিয়েছি জসিম যে ডালিম হোটেলে বন্দী অবস্থায় ছিল এটা প্রমাণিত। ডালিম হোটেলের সমস্ত কন্ট্রোল মির কাসেম আলীর ওপরে ছিল, এটাও প্রমাণিত। জসিমকে মুমূর্ষু অবস্থায় ছূঁড়ে ফেলার সময় মীর কাসেমের উপস্থিতির কথা দুই নম্বর সাক্ষী অ্যাডভোকেট শফিউল আলমসহ কয়েকজন সাক্ষী বলেছেন। কাজেই সার্বিক দিক বিবেচনা করে তাকে যে মৃত্যুদণ্ড দেয়া হয়েছে এটা সঠিকই হয়েছে এ বক্তব্য আমার ছিল। তার দণ্ড বহাল থাকবে এই মর্মে আমি আশাবাদী।

প্রতিবেদক- ফজলুল হক, সম্পাদনা- জাহিদুল ইসলাম


সর্বশেষ

আরও খবর

গ্রামীণ ব্যাংকের বিরুদ্ধে ২ মামলা

গ্রামীণ ব্যাংকের বিরুদ্ধে ২ মামলা


করোনায় সারাদেশে আরও ২৪ জনের মৃত্যু

করোনায় সারাদেশে আরও ২৪ জনের মৃত্যু


দাখিল পরীক্ষা শুরু ১৪ নভেম্বর

দাখিল পরীক্ষা শুরু ১৪ নভেম্বর


এ বছরই দেশে ফাইভ জি চালু হবে: জয়

এ বছরই দেশে ফাইভ জি চালু হবে: জয়


বিমানবন্দরে শুরু হলো করোনার পরীক্ষামূলক পরীক্ষা

বিমানবন্দরে শুরু হলো করোনার পরীক্ষামূলক পরীক্ষা


ই-কমার্স বন্ধ না করে প্রতারণা ঠেকাতে আইন করার মতামত ৪ মন্ত্রীর

ই-কমার্স বন্ধ না করে প্রতারণা ঠেকাতে আইন করার মতামত ৪ মন্ত্রীর


করোনায় আরও ২৬ জনের মৃত্যু, চার মসে সর্বনিম্ন

করোনায় আরও ২৬ জনের মৃত্যু, চার মসে সর্বনিম্ন


ভারতে দুই হাজার টন ইলিশ রফতানির অনুমতি

ভারতে দুই হাজার টন ইলিশ রফতানির অনুমতি


করোনায় আরও ৪৩ জনের মৃত্যু

করোনায় আরও ৪৩ জনের মৃত্যু


রবিবার থেকে প্রতিদিন ৪ ঘণ্টা বন্ধ থাকবে সিএনজি স্টেশন

রবিবার থেকে প্রতিদিন ৪ ঘণ্টা বন্ধ থাকবে সিএনজি স্টেশন