Wednesday, August 31st, 2016
প্রাণভিক্ষার জন্য সর্বোচ্চ ৭ দিন সময়
August 31st, 2016 at 5:39 pm
প্রাণভিক্ষার জন্য সর্বোচ্চ ৭ দিন সময়

ঢাকা: মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত জামায়াত নেতা মীর কাসেম আলীকে রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষার জন্য সর্বোচ্চ সাতদিন সময় দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন আইজি প্রিজন ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সৈয়দ ইফতেখার উদ্দিন।

তিনি বলেন, ‘প্রাণভিক্ষার জন্য মীর কাসেম আলী সর্বোচ্চ সাত দিন সময় পাবেন। কোন কারাগারে তার ফাঁসি কার্যকর করা হবে তা এখনো ঠিক করা হয়নি।’

বুধবার বিকালে কারা অধিদফতরে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে তিনি এ কথা জানান।

আইজি প্রিজন বলেন, ‘মীর কাসেম আলীকে বুধবার সকাল সাড়ে ৭টায় রায়ের কপি পড়ে শোনানো হয়েছে। তারপর তার কাছে প্রাণভিক্ষার বিষয়টি জানতে চাওয়া হয়েছে। তিনি কিছু সময় চেয়েছেন, বলেছেন চিন্তা-ভাবনা করে জানাবেন।’

মীর কাসেমের মৃত্যুদণ্ড কোথায় কার্যকর করা হবে-এমন প্রশ্নের জবাবে আইজি প্রিজন জানান, ‘কোন কারাগারে তার ফাঁসি কার্যকর করা হবে তা এখনো ঠিক করা হয়নি। আলোচনাসাপেক্ষে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত হবে।’

এদিকে বিকালে কারাগারে মীর কাসেম আলীর সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে তার স্ত্রী খন্দকার আয়েশা খাতুন জানান,  তাদের নিখোঁজ ছেলেকে না পাওয়া পর্যন্ত প্রাণভিক্ষার বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত তারা দিতে পারবেন না।

তিনি বলেন, ‘আমার ছেলে ও মীর কাসেম আলীর আইনজীবী আহমেদ বিন কাসেমকে সাদা পোশাকের পুলিশ ধরে নিয়ে গেছে। তাকে না পাওয়া পর্যন্ত আমরা প্রাণভিক্ষা বা অন‌্য কোনো বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত দিতে পারছি না।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমার ছেলে এই মামলার লয়ার (আইনজীবি), তাই তাকে ছাড়া আমরা কোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারবো না। তার সঙ্গে কথা হলে আমরা এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানিয়ে দেবো। এরপর আর কোনো কথা না বলে অ‌্যাম্বুলেন্সে চড়ে চলে যান জামায়াত নেতা মীর কাসেমের পরিবারের ছয় সদস‌্য।

আইনজীবি ছাড়া প্রাণভিক্ষার বিষয়ে মীর কাসেমের পরিবার সিদ্ধান্ত দেবেন না এ বিষয়ে আইজি প্রিজন বলেন,  ‘এখন আর আইনজীবির সঙ্গে সাক্ষাতের কোনো প্রয়োজন নেই।’

কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২’র জেলসুপার প্রশান্ত কুমার বনিক জানান,  সকাল সাড়ে ৭টার দিকে মীর কাসেম আলীকে তার রিভিউ আবেদন খারিজের রায় পড়ে শোনানো হয়। কারা সূত্রে জানা গেছে, রায় শোনার পর তিনি কিছুটা চিন্তিত ও তার চোখে মুখে উদ্বেগ লক্ষ্য করা গেছে।

৬৩ বছর বয়সী মীর কাসেম আলী কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগারের ফাঁসির কনডেম সেলে বন্দি রয়েছেন। গ্রেফতারের পর ২০১২ সাল থেকে তিনি এ কারাগারে রয়েছেন। ২০১৪ সালের আগে তিনি এ কারাগারে হাজতবাসকালে ডিভিশনপ্রাপ্ত বন্দির মর্যাদায় ছিলেন। পরে ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্তির পর তাকে ফাঁসির কনডেম সেলে পাঠানো হয়।

প্রতিবেদন: ময়ূখ ইসলাম, সম্পাদনা: প্রীতম সাহা সুদীপ

 


সর্বশেষ

আরও খবর

করোনায় প্রাণ গেল আরও ২১ জনের

করোনায় প্রাণ গেল আরও ২১ জনের


শিশু ধর্ষণের মামলায় দ্রুততম রায়ে আসামির যাবজ্জীবন

শিশু ধর্ষণের মামলায় দ্রুততম রায়ে আসামির যাবজ্জীবন


মাস্ক পরা নিশ্চিত করতে নির্দেশ মন্ত্রিসভার

মাস্ক পরা নিশ্চিত করতে নির্দেশ মন্ত্রিসভার


দেশে করোনায় আরও ২৩ জনের মৃত্যু

দেশে করোনায় আরও ২৩ জনের মৃত্যু


ভোট সুষ্ঠু হয়েছে; দাবি প্রধান নির্বাচন কমিশনারের

ভোট সুষ্ঠু হয়েছে; দাবি প্রধান নির্বাচন কমিশনারের


বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার খসড়া তালিকায় গ্লোব বায়োটেকের ভ্যাকসিন

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার খসড়া তালিকায় গ্লোব বায়োটেকের ভ্যাকসিন


আপাতত বন্ধ হচ্ছে না ইন্টারনেট-ক্যাবল টিভি

আপাতত বন্ধ হচ্ছে না ইন্টারনেট-ক্যাবল টিভি


জাতীয় পার্টির ‘ধর্ষণ ও নারী নির্যাতন’ বিরোধী সমাবেশ

জাতীয় পার্টির ‘ধর্ষণ ও নারী নির্যাতন’ বিরোধী সমাবেশ


চোরের চিরকুট!

চোরের চিরকুট!


বাংলাদেশ থেকে ষ্টুডেন্ট ভিসা এবং ওয়ার্ক পারমি‌ট নিয়ে ৭০টি পেশার মানুষের ব্রিটেনে প্রবেশের পথ উম্মোক্ত হল

বাংলাদেশ থেকে ষ্টুডেন্ট ভিসা এবং ওয়ার্ক পারমি‌ট নিয়ে ৭০টি পেশার মানুষের ব্রিটেনে প্রবেশের পথ উম্মোক্ত হল