Friday, August 12th, 2016
‘প্রেমিকা তোমার উদার জমিনে আমার জন্ম’
August 12th, 2016 at 2:39 pm
‘প্রেমিকা তোমার উদার জমিনে আমার জন্ম’

বিধুনন জাঁ সিপাই: ত্রয়োদশ শতকের পার্সিয়ান সুফি মওলানা জালাল উদ্দিন রুমী’র কবিতা আওড়াতে আওড়াতে কবিতার নির্মলতা আর শুভ্রতার বয়ানে চলছে তার পথচলা। রুমী সাবেরী, আলখেল্লার আস্তিন গুটাতে গুটাতে আলাউদ্দিন সাবের কালীয়ারি এবং মওলানা রুমী কে আসন দেবেন তার দুই স্কন্ধে। একাধারে অনুষ্ঠানবাদী রুমী এবং একই সময়ে ভাববাদী সাবেরী। তবে কোনটির প্রকোপ বেশি, তা সাক্ষাতকারী নিজ অভিজ্ঞতা, পরিধি এবং ভাবতাত্ত্বিক আলোচনার মাধ্যমেই জেনে নেবেন।

রাজনীতি সচেতন রুমী সাবেরী, সক্রিয় রাজনৈতিক ইশতেহারে এখনও নিজেকে সামিল করতে পারেন নাই। এই অবস্থাকে সম্পূর্ণরূপে তার ভীতিও বলা চলে না; আবার এটাও বলা যাবে না যে তিনি অসচেতন। মূলত কিছুটা পর্দাবাদী আচরণে নিজেকে আবৃত করেই এগোতে চান রুমী সাবেরী।

পোষাকের একটা রাজনৈতিক ক্রিয়াকান্ড আছে, জ্ঞানীমাত্রই সে বিষয়ে অবগত। কারন বস্তুগত রাজনৈতিক কার্যকলাপে বস্তু এবং ভাব দুই অর্থেই আচরণ এবং আধার উভয় মাধ্যমের মধ্যে দিয়ে যেতে হয়। উপনিবেশিক প্রভুগন আমাদের ভাষা ব্যবহার থেকে শুরু করে চিন্তার কুঠি পর্যন্ত বিস্তারিত অনাবাদ ভূমিকে মরুভূমি করে দিয়েছে। উপনিবেশিক রাজনৈতিক লড়াইয়ে সামিল হওয়ার প্রশ্নে রুমী সাবেরী যেমন মেকলের শিক্ষানীতির মধ্য দিয়ে এগিয়েছেন, তেমনি আবার নিজের বিশ্বাস এবং ভাবতাত্ত্বিক লড়াই প্রশ্নে ইসলামের আরবীয় পোষাকও গায়ে জড়িয়েছেন স্বেচ্ছায়; তাতে তাকে বেশ মনোরমও লাগে!

রুমী সাবেরী’র প্রথম কাব্যগ্রন্থ ‘পঞ্চালোকে পদাবলী’ প্রকাশিত হয় ২০১৫ সালে। রুমী সাবেরী সহ মোট পাঁচ জনের এক মলাটে এই কাব্যগ্রন্থ প্রকাশ করে ‘র‍্যামন পাবলিশার্স’। ‘দ্বিতীয় জন্মের গান’ শিরোনামে রুমী সাবেরী’র কবিতা যেন পারস্যের আতরের ঘ্রান আর বংগের জমিনের সোঁদা গন্ধ মিশে এক মোহনীয় মাদকতায় বিভোর করে দেয় আমাদের।

এখানে প্রকাশিত রুমী সাবেরী’র তিনটি কবিতার নামকরণ করা হয়নি এখনো।

এক.

এমন তৃষ্ণার্ত ঠোঁটে জল চাই

তোমার হাত বাড়ানো জল চাই

ডুবে যাবার ভয় নেই

ভয় নেই ফিরে যাবার

প্রপান খুঁজে আমি ওখানেই যাবো ;

জীবনের মন্ত্র চিনে;

নীবি বন্ধনে তোমার চৈত্রের হাওয়া

কালবৈশাখী সুপ্ত আক্ষেপ,

বেপথু হৃদয় প্রেম জিনে;

শব্দ কল্প বর্ষা আহ্বান

সত্য ধ্রুব উতরোল তৃষ্ণা,

জীবন, জল চাই।

এমন তৃষ্ণার্ত ঠোঁটে জল চাই।

দুই.

বাতাসে শীতের ঘ্রাণ

প্রেমিকা তোমার উদার জমিনে

ভিজে যাওয়া শিশিরে আমার জন্ম;

আবারও শীত আসে

কাঁপুনি দেয় শরীরে

আলসে জ্বরের মত বেহুড়া রোদে

প্রেমিকা তোমার উদার জমিনে

আমার জন্ম;

মৃত্যুর মত নিবিড়তায়, তোমার ওমে

গলে যাই মোমের মত

আদুরে প্রেম; প্রেমেই জন্ম।

তিন.

চলো রাস্তায়, কাটাই জীবন

চলো খুনসুটি, ঠোটের কাঁপন

নাটাই তোমার সুতো

ঘাসফুল মহুয়ার প্রেমে।

চলো জলের স্বপন দেখি

চলো নোঙর পাতাল মাপি

দূর্বা নিঝুম গীতের মায়ায়

বধূ মেঘ আকাশ থেকে নেমে

চলো নীলিমা বিস্ময় শিখি।

ভুল ভেঙে ফেলে অসাড় চৌকাঠ

চলো জীবন পুড়তে শিখি।

নিউজনেক্সটবিডি ডটকম/বিজাঁসি/এসকেএস


সর্বশেষ

আরও খবর

মুক্তিযুদ্ধে যোগদান

মুক্তিযুদ্ধে যোগদান


স্বাধীনতার ঘোষণা ও অস্থায়ী সরকার গঠন

স্বাধীনতার ঘোষণা ও অস্থায়ী সরকার গঠন


শিশু ধর্ষণ নিয়ে লেখা উপন্যাস ‘বিষফোঁড়া’ নিষিদ্ধ!

শিশু ধর্ষণ নিয়ে লেখা উপন্যাস ‘বিষফোঁড়া’ নিষিদ্ধ!


১৯৭১ ভেতরে বাইরে সত্যের সন্ধানে

১৯৭১ ভেতরে বাইরে সত্যের সন্ধানে


সাংবাদিকতা প্রশিক্ষণে এলেন বেলারুশের সাংবাদিকেরা!

সাংবাদিকতা প্রশিক্ষণে এলেন বেলারুশের সাংবাদিকেরা!


লুণ্ঠন ঢাকতে বারো মাসে তেরো পার্বণ

লুণ্ঠন ঢাকতে বারো মাসে তেরো পার্বণ


দ্য লাস্ট খন্দকার

দ্য লাস্ট খন্দকার


১৯৭১ ভেতরে বাইরে সত্যের সন্ধানে

১৯৭১ ভেতরে বাইরে সত্যের সন্ধানে


নিউ নরমাল: শহরজুড়ে শ্রাবণ ধারা

নিউ নরমাল: শহরজুড়ে শ্রাবণ ধারা


তূর্ণা নিশীথা

তূর্ণা নিশীথা