Thursday, October 6th, 2022
ফারমার্স ব্যাংকের অনিয়মের অভিযোগ অস্বীকার করলেন মহিউদ্দীন খান আলমগীর
February 12th, 2018 at 8:14 pm
ফারমার্স ব্যাংকের অনিয়মের অভিযোগ অস্বীকার করলেন মহিউদ্দীন খান আলমগীর

ঢাকা: বেসরকারি আর্থিক প্রতিষ্ঠান ফারমার্স ব্যাংকে অনিয়মের দায় অস্বীকার করেছেন ব্যাংকটির সাবেক চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য মহীউদ্দীন খান আলমগীর। তিনি বলেছেন, ঋণ দেয়ার ক্ষেত্রে কোনো অনিয়ম হলে সেটার দায় শাখা ব্যবস্থাপকদের।

‘ফারমার্স ব্যাংকে আমি চেয়ারম্যান থাকাকালীন সময়ে আমরা কোন ঋণ অনুমোদনবিহীন ভাবে প্রক্রিয়াজাত করিনি। বাংলাদেশ ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের একজন পর্যবেক্ষক এটা অবলোকন করেছেন। এ ধরণের অনুমানভিত্তিক প্রচারণা আর্থিক ক্ষেত্রে শৃঙ্খলা রাখার প্রতিকূল।’ আজ সোমবার সন্ধ্যায় জাতীয় সংসদে দেয়া বক্তব্যে এসব সমালোচনার জবাব দেন তিনি।

তিনি আরও বলেন, ‘ফারমার্স ব্যাংক কতিপয় ক্ষেত্রে যা অনুমোদিত হয়েছে, তার চাইতে বেশি ঋণ অননোমোদিতভাবে দেয়া হয়ে বলে তিনটি পত্রিকায় যে প্রতিবেদন দেয়া হয়েছে, সে অভিযোগ আমি অস্বীকার করছি।’

ফারমার্স ব্যাংকের অনিয়ম নিয়ে তাকে জড়িয়ে গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবরের কঠোর সমালোচনাও করেন তিনি। সোমবার জাতীয় সংসদে অনির্ধারিত আলোচনায় সরকার দলের এই এমপি বলেন, ‘তিনটি পত্রিকা আমাকে জড়িয়ে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে অসত্য তথ্য প্রকাশ করেছে।’ তবে তিনি কোনও পত্রিকার নাম উল্লেখ করেননি।

প্রকাশিত খবরের সমালোচনা করে মহিউদ্দীন খান আলমগীর বলেন, ‘পত্রিকাগুলো বলেছে, ফারমার্স ব্যাংকের চেয়ারম্যান হিসেবে আমি ব্যক্তিগতভাবে ঋণ বিতরণের আগে কমিশন নিয়েছি। আমার ৭৭ বছর বয়সে কখনও এত বড় অসত্য কথার সম্মুখীন হইনি। আমি শিল্প ব্যাংকের ব্যবস্থাপনায় ছিলাম, কৃষি ব্যাংকের চেয়ারম্যান ছিলাম। শিল্পঋণ সংস্থার সভাপতি ছিলাম। আমার কাজ সম্পর্কে এ ধরনের কোনো উদাহরণ কেউ দিতে পারেননি।’

একটি পত্রিকার প্রতিবেদনের প্রসঙ্গ উল্লেখ করে সরকারি দলের এই সংসদ সদস্য বলেন, ‘পত্রিকার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আমি চেয়ারম্যান থাকতে ব্যাংক অনুমোদনবিহীন বিল দিয়েছে। কোনও অনুমোদনবহির্ভুত ঋণ ফারমার্স ব্যাংকে আমরা প্রক্রিয়াজাত করিনি। বাংলাদেশ ব্যাংকের একজন পর্যবেক্ষক দুই বছর ধরে ছিলেন। তিনি এটা অবলোকন করেছেন। এ ধরনের অনুমানভিত্তিক প্রতিবেদন আর্থিক ক্ষেত্রে শৃঙ্খলা রাখার প্রতিকূল। একই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ফারমার্স ব্যাংক অনুমোদিত ঋণের চেয়ে বেশি অনুমোদন-বহির্ভূত ঋণ দিয়েছি। এই অভিযোগও অস্বীকার করছি। ঋণ দেওয়ার কর্তব্য ব্যাংকের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের। তারা অনুমোদনের বাইরে কোনও ঋণ দিয়ে থাকলে তার দায়িত্ব তাদের। আমার জানা মতে, যতদিন চেয়ারম্যান ছিলাম এ ধরনের ঘটনা ঘটেনি। ’

এই সংসদ সদস্য বলেন, ‘আমি এই অভিযোগের বিপরীতে বাংলাদেশ ব্যাংকে রক্ষিত আমার ব্যাংক হিসাবের পুরো অংশ নিয়ে এসেছি। এই অংশে কোথাও কেউ প্রমাণ করতে পারবেন না যে, কোনও ঋণ গ্রহীতার কাছ থেকে আমার এখানে কোনও অর্থ ঢুকেছে। এ প্রসঙ্গে বলা প্রয়োজন, পত্রিকার প্রতিবেদন অনুযায়ী আমি ১৭ জুলাই ১৩ কেটি টাকা গ্রহাকের হিসাব থেকে আমার হিসাবে নিয়ে এসেছি। আমি এ হিসাবটি উপস্থাপন করতে চাই। এখানে ১৭ জুলাই থেকে পরবর্তী ৭ বা ১০ দিনের হিসাব আছে।’

ফারমার্স ব্যাংকে নিয়োগে অনিয়মের অভিযোগ অস্বীকার করে ব্যাংকটির এই সাবেক চেয়ারম্যান বলেন, ‘পত্রিকাগুলো বরেছে কর্মচারী নিয়োগ যথাবিধি হয়নি। নিশ্চয়তা দিতে চাই, সব ক্ষেত্রে যথাযোগ্য কর্মকর্তা নিয়োগ দেওয়ার চেষ্টা করেছি এবং করতে সমর্থ হয়েছি। ফারমার্স ব্যাংক যত বেসরকারি ব্যাংক আছে, তার মধ্যে সবচেয়ে বেশি মুক্তিযোদ্ধাদের উত্তরসূরিদের নিয়োগ দিয়েছে। এটা ইচ্ছাকৃতভাবে দিয়েছি।’

অনির্ধারিত আলোচনায় বাংলাদেশ ব্যাংক অর্ডারের ৭৮ অনুচ্ছে উল্লেখ করে ওই অর্ডারটি বাংলাদেশ ব্যাংক যেন মেনে চলে, সে জন্য স্পিকারকে অনুশাসন দেওয়ার অনুরোধ করেন মহিউদ্দীন খান আলমগীর।

নিজস্ব প্রতিবেদক, সম্পাদনা: এম কে রায়হান


সর্বশেষ

আরও খবর

দেশের পথে প্রধানমন্ত্রী

দেশের পথে প্রধানমন্ত্রী


দাম কমলো এলপিজির 

দাম কমলো এলপিজির 


বিমানবন্দর সড়কের পানি সেঁচলো ট্রাফিক পুলিশ


রক আইকনের জন্মদিনে !

রক আইকনের জন্মদিনে !


ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে ২৪ ঘণ্টায়  ৬৩৫ জন দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে !

ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে ২৪ ঘণ্টায়  ৬৩৫ জন দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে !


একুশে পদকপ্রাপ্ত বর্ষীয়ান সাংবাদিক তোয়াব খান আর নেই 

একুশে পদকপ্রাপ্ত বর্ষীয়ান সাংবাদিক তোয়াব খান আর নেই 


রাজনৈতিক সহিংসতায় ৯ মাসে মৃত্যু ৫৮ আসকের প্রতিবেদন

রাজনৈতিক সহিংসতায় ৯ মাসে মৃত্যু ৫৮ আসকের প্রতিবেদন


ইউক্রেন নিয়ন্ত্রিত চার অঞ্চলকে রুশ ফেডারেশনের অংশ ঘোষণা দিয়েছেন ভ্লাদিমির পুতিন।

ইউক্রেন নিয়ন্ত্রিত চার অঞ্চলকে রুশ ফেডারেশনের অংশ ঘোষণা দিয়েছেন ভ্লাদিমির পুতিন।


রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা টেকনাফে পাঁচ কৃষককে অপহরণ করল


বিদায় বেনজীর 

বিদায় বেনজীর