Sunday, February 26th, 2017
বঞ্চিত দুই বিচারপতির আপিল শুনানি একসঙ্গে
February 26th, 2017 at 4:22 pm
বঞ্চিত দুই বিচারপতির আপিল শুনানি একসঙ্গে

ঢাকা: হাইকোর্ট বিভাগে স্থায়ী নিয়োগ বঞ্চিত দুই অতিরিক্ত বিচারপতির আবেদনের শুনানি একসঙ্গে অনুষ্ঠিত হবে। রোববার নিয়োগ বঞ্চিত ফরিদ আহমদ শিবলীর আবেদন শুনানির জন্য গ্রহণ করে প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার (এসকে)সিনহার নেতৃত্বে চার সদস্যের আপিল বিভাগের বেঞ্চ এই আদেশ দেন। আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট মনজিল মোরসেদ। অপরদিকে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

মনজিল মোরসেদ জানান, নিয়োগ বঞ্চিত আরেক সাবেক বিচারপতি এবিএম আলতাফ হোসেনের আবেদনও আপিল বিভাগে শুনানির জন্য রয়েছে। তার আবেদনটি প্রায়ই আপিল বিভাগের কার্যতালিকায় আসে।

ওই মামলার সঙ্গেই বিচারপতি শিবলীর আবেদনেরও শুনানি হবে বলে আপিল বিভাগ সিদ্ধান্ত দিয়েছেন। এখন ওই বিচারপতি আলতাফ হোসেনের মামলা যেদিন কার্যতালিকায় আসবে সেদিনই এই আবেদনের ওপরও শুনানি হবে।

স্থায়ী নিয়োগ না পাওয়া বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে বিচারপতি ফরিদ আহমদ শিবলীর করা রিট আবেদন সংক্রান্ত হাই কোর্টের আদেশের বিরুদ্ধে করা লিভ টু আপিল রোববার প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার (এসকে) সিনহার নেতৃত্বে চার সদস্যের বেঞ্চে শুনানির জন্য নির্ধারিত ছিল।

এর ১৬ ফেব্রুয়ারি আপিল বিভাগের বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের চেম্বার আদালত ২৬ ফেব্রুয়ারি তারিখ নির্ধারণ করে আবেদনটি আপিলের নিয়মিত বেঞ্চে পাঠিয়ে আদেশ দেন।

মনজিল মোরসেদ বলেন, ‘১৫ ফেব্রুয়ারি লিভ টু আপিল (ফাইল) আবেদন করেছিলাম। আমরা আদালতে আগামী ১৯ ফেব্রুয়ারি রোববার আবেদনটির ওপর শুনানি করার জন্য বলেছিলাম।

অপরদিকে অ্যাটর্নি জেনারেল এ বিষয়ে আপত্তি জানিয়ে তা এপ্রিল মাসে শুনানির তারিখ ঠিক করার জন্য বলেছিলেন। পরে আদালত আগামী ২৬ ফেব্রুয়ারি তারিখ নির্ধারণ করেন।

ফরিদ আহমদ শিবলীসহ ১০ জন ২০১৫ সালের ১২ ফেব্রুয়ারি দুই বছরের জন্য অতিরিক্ত বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ পান। গত ৮ ফেব্রুয়ারি প্রধান বিচারপতির সঙ্গে পরামর্শক্রমে ১০ অতিরিক্ত বিচারপতির মধ্যে ওই ৮ জনকে স্থায়ীভাবে নিয়োগ দেন রাষ্ট্রপতি। বাকি দুজনের মধ্যে বিচারপতি জে এন দেব চৌধুরী গত ১৫ ডিসেম্বর পরলোকগমন করেন। তবে স্থায়ী নিয়োগবঞ্চিত হন ফরিদ আহমদ শিবলী।

স্থায়ী নিয়োগ না দেয়ার সিদ্ধান্তের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে গত ১২ ফেব্রুয়ারি রিট করেন শিবলী। ওইদিনই তার আবেদটি নিস্পত্তি করেন দেন বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি জে বি এম হাসানের হাইকোর্ট বেঞ্চ। হাইকোর্ট রিটের বাদী শিবলীকে আপিল বিভাগে যাওয়ার পরামর্শ দেয়।

এরপর তিনি ‘লিভ টু আপিল’ করলে আপিল বিভাগের চেম্বার জজ বিচারপতি আবেদনটি শুনানির জন্য নিয়মিত বেঞ্চে পাঠিয়ে দেন। সেই অনুযায়ী রোববার আবেদনটি আপিল বিভাগের কার্যতালিকায় আসলে আদালত এ আদেশ দেন।

অপরদিকে ২০১২ সালের ১৩ জুন এ বি এম আলতাফ হোসেনসহ ছয়জনকে অতিরিক্ত বিচারক হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়। দুই বছর মেয়াদ শেষ হওয়ার পর এ বি এম আলতাফ হোসেনকে বাদ দিয়ে অন্য পাঁচজনকে ২০১৪ সালের ৯ জুন স্থায়ী করা হয়।

এরপর স্থায়ী বিচারপতি আলতাফ হোসেনকে নিয়োগ পেতে হাইকোর্টের নির্দেশনা চেয়ে ২০১৪ সালের ১২ আগস্ট রিট করেন এ বি এম আলতাফ হোসেন। একই বছর ২৪ সেপ্টেম্বর বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ ও বিচারপতি মোহাম্মদ উল্লাহর সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের অবকাশকালীন বেঞ্চ তার আবেদন খারিজ করে দেন।

ওই খারিজ আদেশের বিরুদ্ধে আপিল বিভাগে লিভ টু আপিল করেন আলতাফ হোসেন। ২০১৪ সালের ৬ নভেম্বর তার লিভ টু আপিল মঞ্জুর করে (আপিলের অনুমতি দিয়ে) সাতজন অ্যামিকাস কিউরি নিয়োগ দেন আপিল বিভাগ।

সাত অ্যামিকাস কিউরি হলেন- ড. কামাল হোসেন, ব্যারিস্টার রফিক-উল হক, এম আমীর-উল ইসলাম, মাহমদুল ইসলাম, আব্দুল ওয়াদুদ ভূইয়া, আজমালুল হোসেন কিউসি ও এএফ হাসান আরিফ।

প্রতিবেদক: ফায়েজ, সম্পাদনা: জাহিদ


সর্বশেষ

আরও খবর

টানা তৃতীয়বারের মতো নির্বাচিত হলেন আইভী

টানা তৃতীয়বারের মতো নির্বাচিত হলেন আইভী


অর্ধেক আসন ফাঁকা রেখে বাস চলার সিদ্ধান্ত পরিবর্তন

অর্ধেক আসন ফাঁকা রেখে বাস চলার সিদ্ধান্ত পরিবর্তন


আগুনে পুড়ল রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ১২০০ ঘর

আগুনে পুড়ল রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ১২০০ ঘর


কমলো এলপিজির দাম

কমলো এলপিজির দাম


উন্নয়নশীল দেশ নিয়ে খুশি না হয়ে, উন্নত দেশ গড়ার লক্ষ্যে কাজ করার আহ্বান রাষ্ট্রপতির

উন্নয়নশীল দেশ নিয়ে খুশি না হয়ে, উন্নত দেশ গড়ার লক্ষ্যে কাজ করার আহ্বান রাষ্ট্রপতির


জাতীয় অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম মারা গেছেন

জাতীয় অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম মারা গেছেন


ডিআরইউর নতুন সভাপতি মিঠু, সাধারণ সম্পাদক হাসিব

ডিআরইউর নতুন সভাপতি মিঠু, সাধারণ সম্পাদক হাসিব


ওমিক্রন খুবই ঝুঁকিপূর্ণ; সবাইকে প্রস্তুত থাকার আহ্বান বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার

ওমিক্রন খুবই ঝুঁকিপূর্ণ; সবাইকে প্রস্তুত থাকার আহ্বান বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার


আবার রক্তক্ষরণ হলে খালেদা জিয়ার মৃত্যুঝুঁকি বাড়বে

আবার রক্তক্ষরণ হলে খালেদা জিয়ার মৃত্যুঝুঁকি বাড়বে


নটরডেম ছাত্রের মৃত্যু: তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন ডিএসসিসির

নটরডেম ছাত্রের মৃত্যু: তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন ডিএসসিসির