Tuesday, May 31st, 2016
বনদস্যুদের আত্মসমর্পণ করতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর আহ্বান
May 31st, 2016 at 11:14 pm
বনদস্যুদের আত্মসমর্পণ করতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর আহ্বান

বাগেরহাট: ‘মাস্টার বাহিনীর’ মতো সুন্দরবনের অন্য দস্যুদেরও আত্মসমর্পণ করে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসার আহ্বান জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

সুন্দরবনের কুখ্যাত বনদস্যু মাস্টার বাহিনীর প্রধানসহ এ বাহিনীর মোট দশ জন দস্যুর আত্মসমর্পণ করেছে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলছে, ‘দস্যুবৃত্তি যে ভুল ছিল তা মাস্টার বাহিনী বুঝতে পেরেছে। তাই তারা স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে আত্মসমর্পণ করে।’

মঙ্গলবার বিকেলে মংলায় সুন্দরবনের কুখ্যাত বনদস্যু মাস্টার বাহিনীর প্রধানসহ এ বাহিনীর মোট দশ জন দস্যুর আত্মসমর্পণ অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি।

মংলা বন্দরের বিএফডিসি জেটিতে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর উপস্থিতিতে ৫২টি অত্যাধুনিক আগ্নেয়াস্ত্র ও ৫ হাজার রাউন্ড গুলিসহ দস্যুরা আত্মসমর্পণ করে। আত্মসমর্পণের পর তাদেরকে মংলা থানায় সোপর্দ করা হয়।

দস্যুদের উদ্দেশে আসাদুজ্জামান খান বলেন, ‘বনদস্যুরা আত্মপোলব্ধি থেকেই আত্মসমর্পণ করেছে। বনে দস্যুবৃত্তি যে ভুল ছিল তা মাস্টার বাহিনী বুঝতে পেরেছে। তাই তারা স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে আত্মসমর্পণ করে।’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘সুন্দরবনের ওপর নির্ভরশীল জেলে, বাওয়ালী ও মৌয়ালরা যাতে নির্বিঘ্নে তাদের কাজ করতে পারে সেজন্য কোস্টগার্ডের সক্ষমতা বাড়ানো হচ্ছে। এ জন্য তাদের বহরে চারটি আধুনিক জাহাজ আনা হয়েছে, জনবলও বাড়ানো হচ্ছে।’

অন্যান্যের মধ্যে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়নের (র‌্যাব) অতিরিক্ত মহাপরিচালক (গোয়েন্দা) কর্নেল আনোয়ার হোসেন, খুলনা রেঞ্জের পুলিশের উপ-মহাপরিদর্শক মো. মনিরুজ্জামান, র‌্যাব-৮-এর অধিনায়ক লে. কর্নেল ফরিদুল আলম, র‌্যাব-৬ এর অধিনায়ক মো. রফিকুল ইসলাম, বাগেরহাটের জেলা প্রশাসক মো. জাহাংগীর আলম, পুলিশ সুপার মো. নিজামুল হক মোল্যা ও স্থানীয় প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা আত্মসমর্পণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

দস্যুদের জমাকৃত অস্ত্রের মধ্যে রয়েছে ১৮টি একনলা বন্দুক, ৮টি দোনলা বন্দুক, ৬টি পয়েন্ট টুটু বোর রাইফেল, ১টি থ্রিনাট থ্রি রাইফেল, ৩টি ওয়ান শুটারগান, ৫টি রাইফেল, ২টি সিঙ্গেল রাইফেল, ৫টি সর্টগান, ২টি এয়ার গান, ২টি সার্টার গান এবং বিভিন্ন ধরনের প্রায় পাঁচ হাজার গুলি।

আত্মসমর্পণকারী দস্যুরা হলেন- বাহিনী প্রধান বাগেরহাট জেলার মংলা উপজেলার মিঠাখালী গ্রামের মো. মোস্তফা শেখ ওরফে কাদের মাস্টার (৪৬), মো. সুলতান খান (৫৮), জেলার রামপাল উপজেলার বড় কাটাখালী গ্রামের মো. সোহাগ আকন (৩৭), আড়–য়াডাঙ্গা গ্রামের মো. ফজলু শেখ (৩৫), শ্রীফলতলা গ্রামের মো. সোলাইমান শেখ (২৮), খুলনা জেলার দাকোপ উপজেলার কুনাকাটা গ্রামের মো. শাহিন শেখ (২৮), খুলনা জেলার কয়রা উপজেলার মো. হারুন (২৪), একই উপজেলার মহেশ্বরী গ্রামের মো. আসাদুল ইসলাম কোকিল (২৭), সাতক্ষীরা জেলার তালা উপজেলার মুরাগাছা গ্রামের মো. সুমন সরকার (৩৪) এবং আশাশুনি উপজেলার মির্জাপুর গ্রামের মো. আরিফ সরদার (২২)।

নিউজনেক্সটবিডি ডটকম/এসজি


সর্বশেষ

আরও খবর

দেশে করোনায় আরও ২১ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৫৭৮

দেশে করোনায় আরও ২১ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৫৭৮


ভোট শান্তিপূর্ণ হয়েছে: ইসি সচিব; অংশগ্রহণমূলক হয়নি: নির্বাচন কমিশনার

ভোট শান্তিপূর্ণ হয়েছে: ইসি সচিব; অংশগ্রহণমূলক হয়নি: নির্বাচন কমিশনার


স্বর্ণের দাম কমল ভরিতে ১৯৮৩ টাকা, অপরিবর্তিত রুপার দাম

স্বর্ণের দাম কমল ভরিতে ১৯৮৩ টাকা, অপরিবর্তিত রুপার দাম


জাতির জনকের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস আজ

জাতির জনকের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস আজ


সিইসিসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে দুদকে ১০ আইনজীবীর অভিযোগ

সিইসিসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে দুদকে ১০ আইনজীবীর অভিযোগ


অন্ধের মতো বিদেশে না যাওয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

অন্ধের মতো বিদেশে না যাওয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর


পানি নিষ্কাশনের দায়িত্ব ভুলে ওয়াসাকে দেওয়া হয়েছিল, দাবি ওয়াসার এমডির

পানি নিষ্কাশনের দায়িত্ব ভুলে ওয়াসাকে দেওয়া হয়েছিল, দাবি ওয়াসার এমডির


সেরামের সঙ্গে চুক্তি জি-টু-জি না, বাণিজ্যিক: বেক্সিমকো এমডি

সেরামের সঙ্গে চুক্তি জি-টু-জি না, বাণিজ্যিক: বেক্সিমকো এমডি


ছাত্রলীগকে জনসেবায় মন দেয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

ছাত্রলীগকে জনসেবায় মন দেয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর


ছাত্রলীগের প্রেসিডেন্ট-সেক্রেটারিরা কেন আওয়ামী লীগ করতে পারেন না!

ছাত্রলীগের প্রেসিডেন্ট-সেক্রেটারিরা কেন আওয়ামী লীগ করতে পারেন না!