Wednesday, July 27th, 2016
বন্যা পরিস্থিতির ভয়াবহ অবনতি: দুর্ভোগে মানুষ
July 27th, 2016 at 12:16 pm
বন্যা পরিস্থিতির ভয়াবহ অবনতি: দুর্ভোগে মানুষ

ডেস্ক: উজানের পাহাড়ি ঢল ও অবিরাম বর্ষণে নদ-নদীর পানিবৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় সার্বিক বন্যা পরিস্থিতির আরো চরম অবনতি হয়েছে।  ভেঙে গেছে বাঁধ। প্লাবিত হয়েছে নতুন নতুন এলাকা। সড়ক ডুবে যাওয়ায় ব্যাহত হচ্ছে যোগাযোগ ব্যবস্থা ও চরম দুর্ভোগে পড়েছে বানভাসী মানুষ।

কুড়িগ্রামে বুধবার সকাল থেকে ব্রহ্মপুত্রের পানি চিলমারী পয়েণ্টে বিপৎসীমার ৮৮ সেন্টিমিটার ও ধরলা নদীর পানি সেতু পয়েন্টে বিপৎসীমার ১০৬ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক আকতার হোসেন আজাদ জানান, জেলা প্রশাসনের হিসাবে জেলার ৯টি উপজেলার ৫৫টি ইউনিয়নের ৭১২টি গ্রাম এখন পানির নিচে।

এক লাখ ৩৫ হাজার পরিবারের প্রায় সাড়ে চার লাখ মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন। নদীভাঙনের শিকার হয়েছে পাঁচ হাজার ৯৬৫ পরিবার। ৩২টি আশ্রয়কেন্দ্রে দুই হাজার ৬০০ জন বন্যার্ত আশ্রয় নিয়েছেন। সাড়ে ৪শ কিলোমিটার কাঁচা সড়ক ও ৫০ কিলোমিটার পাকা রাস্তার ক্ষতি হয়েছে।

কুড়িগ্রাম পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মাহফুজার রহমান জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ব্রহ্মপুত্রে ১০, ধরলায় ছয় এবং দুধকুমারে ১২ সেন্টমিটার পানি বেড়েছে। উলিপুর উপজেলার গুনাইগাছ ইউপি চেয়ারম্যান আকবর আলী জানান, কাজিরচরে তিস্তার নদীর একটি বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধের ৬০ মিটার অংশ ভেঙে যাওয়ায় ছয়টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে আমন ও বীজতলার।

নাগেশ্বরীর নুন খাওয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. শাহজামাল জানান, সারিসুরি গ্রামে একটি বেড়িবাঁধ ভেঙে সংলগ্ন ৫-৬টি গ্রামে পানি ঢুকেছে। ধরলার পানির প্রবল চাপে রামপ্রসাদ গ্রামে একটি রাস্তা ভেঙে ৭-৮টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। ডুবে গেছে রোপা আমন ও বীজতলা। কুড়িগ্রাম-যাত্রাপুর সড়কে চার দিন ধরে গরু ও পণ্যবাহী ট্রাকসহ সব  ধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে।

গাইবান্ধা: বৃষ্টি ও উজানের ঢলে ঘাঘট, ব্রহ্মপুত্র ও যমুনা নদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় গাইবান্ধার সার্বিক বন্যা পরিস্থিতি আরও অবনতি হয়েছে। আজ বুধবার সকাল পর্যন্ত ঘাঘট নদীর পানি বিপদসীমার ৫৬ সেন্টিমিটার ও ফুলছড়ি উপজেলা বালাসীঘাট পয়েন্টে ব্রহ্মপুত্র নদের পানি ৫০ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এ ছাড়া তিস্তা ও করতোয়ার পানি বিপদসীমা ছঁই ছুঁই করছে।

এদিকে বন্যা কবলিত জেলার সাঘাটা, ফুলছড়ি, সদর ও সুন্দরগঞ্জ উপজেলার ২২ ইউনিয়নের ৮০টি গ্রামের প্রায় ৩ লাখ মানুষ পানিবন্দি হয়ে চরম দুর্ভোগে পড়েছেন। এ সব মানুষের মধ্যে বিশুদ্ধ পানি, শুকনা খাবার, গবাদি পশু সংরক্ষণ, পশু খাদ্য সংকট ও পয়ঃনিষ্কাশনের তীব্র সংকট দেখা দিয়েছে।

জামালপুর: সার্বিক বন্যা পরিস্থিতির আরো অবনতি হয়েছে। এতে করে বন্যা কবলিত জেলার ৪ উপজেলার দেড়লক্ষাধিক মানুষ বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় বাহাদুরাবাদঘাট পয়েন্টে যমুনা নদীর পানি বিপদসীমার ৯৭ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। টানা ৬ দিনে ইসলাপুর, দেওয়ানগঞ্জ, মেলান্দহ এবং মাদারগঞ্জ উপজেলার বন্যা কবলিত এলাকার মানুষের খাদ্য, বিশুদ্ধ পানি এবং গবাদি পশুর খাদ্য সংকট চরম আকার ধারণ করেছে।

বন্যা কবলিতরা বলছেন, সরকারিভাবে এখনো পুরোদমে ত্রাণ সহায়তা শুরু করা হয়নি। বন্যা কবলিত মানুষ বাড়িঘর ছেড়ে উচু রাস্তা এবং বিভিন্ন স্কুলে গবাদি পশু নিয়ে আশ্রয় নিয়েছে। ইসলামপুরে পানির নিচে ইসলামপুর গোঠাইল পাকা সড়ক তলিয়ে যাওয়ায় ৫ টি ইউনিয়নের সাথে সদরের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। পানি ঢুকে পড়েছে দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা পরিষদে। পানিতে নষ্ট হচ্ছে গুরুত্বপূর্ণ ফাইলপত্র। এই উপজেলার অধিকাংশ জমির আখ ও পাট পানিতে তলিয়ে গেছে।

মুন্সীগঞ্জ: উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে মুন্সীগঞ্জের বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে। গত ৪৮ ঘণ্টায় জেলায় পদ্মার পানি আকস্মিক বেড়েছে। পদ্মার ভাগ্যকুল পয়েন্টে পানি বিপৎসীমার ২১ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, পদ্মা নদীর তীরবর্তী নিম্নাঞ্চলের ২০টি গ্রাম প্লাবিত হয়ে পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন কয়েক হাজার মানুষ।

তলিয়ে গেছে নদীতীরবর্তী জমির ফসল। নদীতে তীব্র স্রোতের কারণে ভাঙনের শঙ্কা দেখা দিয়েছে। এদিকে জেলার মেঘনা, ধলেশ্বরী ও ইছামতী নদীর পানি বৃদ্ধিও অব্যাহত রয়েছে।

নিউজনেক্সটবিডি ডটকম/প্রতিনিধি/এমএস/এসআই


সর্বশেষ

আরও খবর

করোনায় আরও ৩০ জনের মৃত্যু, ৭৮ দিনের মধ্যে সর্বোচ্চ শনাক্ত

করোনায় আরও ৩০ জনের মৃত্যু, ৭৮ দিনের মধ্যে সর্বোচ্চ শনাক্ত


মানুষের জন্য কিছু করতে পারাই আমাদের রাজনীতির লক্ষ্য: প্রধানমন্ত্রী

মানুষের জন্য কিছু করতে পারাই আমাদের রাজনীতির লক্ষ্য: প্রধানমন্ত্রী


আনিসুল হত্যা: মানসিক স্বাস্থ্য ইন্সটিটিউটের রেজিস্ট্রার গ্রেপ্তার

আনিসুল হত্যা: মানসিক স্বাস্থ্য ইন্সটিটিউটের রেজিস্ট্রার গ্রেপ্তার


পাওয়ার গ্রিডের আগুনে বিদ্যুৎ-বিচ্ছিন্ন পুরো সিলেট, ব্যাপক ক্ষতি

পাওয়ার গ্রিডের আগুনে বিদ্যুৎ-বিচ্ছিন্ন পুরো সিলেট, ব্যাপক ক্ষতি


বাস পোড়ানোর মামলায় বিএনপির ২৮ নেতাকর্মী রিমান্ডে

বাস পোড়ানোর মামলায় বিএনপির ২৮ নেতাকর্মী রিমান্ডে


অবশেষে পাঁচ বছর পর নেপালকে হারালো বাংলাদেশ

অবশেষে পাঁচ বছর পর নেপালকে হারালো বাংলাদেশ


মাইন্ড এইড হাসপাতালে তালা, মালিক গ্রেপ্তার

মাইন্ড এইড হাসপাতালে তালা, মালিক গ্রেপ্তার


অবশেষে গ্রেফতার হলো এসআই আকবর

অবশেষে গ্রেফতার হলো এসআই আকবর


বিরোধী নেতাদের কটাক্ষ করতেন না বঙ্গবন্ধু: রাষ্ট্রপতি

বিরোধী নেতাদের কটাক্ষ করতেন না বঙ্গবন্ধু: রাষ্ট্রপতি


মসজিদ-মন্দিরে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করলো সরকার

মসজিদ-মন্দিরে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করলো সরকার